আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

বছর ঘুরে আবারও এসেছে বড়দিন। বড়দিন মানে বাড়তি আনন্দ, বাড়তি উল্লাস আর সারাদিন জুড়ে মজার মজার সব খাবার আয়োজন। বড় দিনের স্পেশাল রেসিপিতে কি কি রাখা যায় তা নিয়ে জল্পনা কল্পনার শেষ নেই। আপনাদের সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটাতে বেশ কিছু রেসিপি তুলে ধরলাম। চলুন তাহলে দেখে নেওয়া যাক কি কি থাকছে রড়দিনে স্পেশাল রেসিপিতে।

কেকঃ
বড়দিন মানেই কেক। কারন এ দিনটি যে যিশুর জন্মদিন।

রেড ভেলভেট চিজ কেক

উপকরণ
কেকের জন্য যা যা লাগবে : ময়দা আড়াই কাপ, ভ্যানিলা এসেন্স ১ চা চামচ, বেকিং পাউডার ১ চা চামচ, কোকো পাউডার ২ চা চামচ, বাটার ১/২ কাপ, লাল রং(ফুড কালার) ৩ টেবিল চামচ, লবণ ১/২ চা চামচ, চিনি দেড় কাপ, ডিম ২টি, বাটারমিল্ক ১ কাপ।

ফ্রস্টিংয়ের জন্য
ক্রিম চিজ ২ কাপ, বাটার ২ কাপ, চিনি ২ কাপ, ভ্যানিলা এসেন্স ১ টেবিল চামচ।

প্রণালী

প্রথমে একটা পাত্রে ডিম ভালোভাবে ফেটে নিন। অন্য একটা পাত্রে ময়দা, কোকো পাউডার, বেকিং সোডা, চিনি, লবণ একসাথে মেশাতে হবে। তারপর মিশ্রণটি ফাটানো ডিমের মিশ্রণের সাথে মিশিয়ে একটু বাটার মিল্ক দিয়ে ব্লেন্ড করতে হবে। এরপর এতে লাল রং (ফুড কালার), ভ্যানিলা এসেন্স যোগ করতে হবে। ২৯ ইঞ্চি অথবা ৩৮ ইঞ্চি কেক প্যানে কেকের মিশ্রণটি ঢেলে ছড়িয়ে দিতে হবে। ৩৫০ ডিগ্রি প্রি হিটেড ওভেনে ২০-৩০ মিনিট বেক করতে হবে। কেকে মাঝখানে টুথপিক ঢুকিয়ে দেখুন বেক হয়েছে কিনা বেক হয়ে গেলে কেকটি নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন। কেকের উপরের অংশ কেটে সমান করে নিন। এবার ফ্রস্টিংয়ের জন্য একটি বাটিতে ক্রিম চিজ, বাটার, চিনি, ভ্যানিলা দিয়ে বিট করে নিতে হবে। এরপর মিশ্রণটি কেকের উপরে এবং চারপাশে ছুরি দিয়ে বিছিয়ে সমান করে দিতে হবে। হয়ে গেল রেড ভেলভেট চিজ কেক। মনের মতো করে চেরি, জেমস ছড়িয়ে ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করে নিয়ে পরিবেশন করুন।


বাটারফ্লাই কাস্টার্ড চকলেট কেক

উপকরণ
ময়দা ১ কাপ, বেকিং পাউডার ১ চা-চামচ, ঘি বা বাটার ৩ টেবিল চামচ, চিনি ২৫০ গ্রাম, ডিম ৪টা, গুঁড়ো দুধ ২ টেবিল চামচ ও কোকো পাউডার ১ টেবিল চামচ।

কাস্টার্ডের জন্য
গুঁড়ো দুধ দেড় কাপ, কাস্টার্ড পাউডার দেড় টেবিল চামচ, চিনি ১ কাপ, পানি ১ কাপ ও ডিম ১টা।

প্রণালি
কাস্টার্ডের সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে চুলায় জ্বাল দিয়ে কাস্টার্ড তৈরি করে নিতে হবে। ডিম, চিনি ও ঘি বিট করে এর সঙ্গে ময়দা, বেকিং, কোকো পাউডার ও দুধ বিট করে নিন। ডাইসে মাখন বা ঘি ব্রাশ করে কেকের মিশ্রণ ঢেলে দিতে হবে। এরপর প্রি-হিট ওভেনে ১৯০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেট তাপে ২০ মিনিট বেক করতে হবে। ডাইস থেকে কেক বের করে ঠান্ডা হলে মাঝখান থেকে কেক কেটে নিতে হবে। এবার ভেতরে কাস্টার্ড ঢুকিয়ে নিন। ভেতরে কাটা কেক দিয়ে বাটারফ্লাই বানিয়ে কেকের ওপর বসাতে হবে। এবার সুইটবল, বেদানা অথবা অন্য যেকোনো ফল দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন।


চকলেট পুডিং

উপকরণ
ঘন দুধ ১ কাপ, ডিম ৬টা, চিনি আধা কাপ, ক্রিম আধা কাপ, চকলেট ২ টেবিল চামচ, কোকো পাউডার ১ টেবিল চামচ ও মাখন ১ টেবিল চামচ।

প্রণালি
ডিম ভালোভাবে ফেটে এর সঙ্গে সব উপকরণ দিয়ে ভালোভাবে মেশাতে হবে। এবার পুডিং ডাইসে বাটার মেখে মিশ্রণ ঢেলে ফয়েল পেপার অথবা ঢাকনা দিয়ে ঢেকে একটি পাত্রে সামান্য পানি দিয়ে এর ওপর পুডিং ডাইস বসিয়ে ২০ থেকে ২৫ মিনিট ভাপিয়ে দিতে হবে। ডাইস থেকে পুডিং বের করে ঠান্ডা হলে সাজিয়ে পরিবেশন।


সল্টেড অরেঞ্জ জুস

উপকরণ
কমলালেবু ৪টি, পানি এক কাপ, লবণ আধা চা-চামচ, বিট লবণ ও গোলমরিচের গুঁড়া সামান্য।

প্রণালি
কমলার খোসা ছড়িয়ে নিতে হবে। কোয়ার ওপরের স্বচ্ছ পর্দা ও বিচি ফেলে নিতে হবে। এরপর এক কাপ খাওয়ার পানিতে এক ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখতে হবে। এবার এই পানিসহ ব্লেন্ড করে নিতে হবে। রস ছেঁকে নিয়ে আধা চা-চামচ লবণ, সামান্য বিট লবণ ও গোলমরিচের গুঁড়া মিশিয়ে নিতে হবে। এবার গ্লাসে ঢেলে ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে পরিবেশন করতে হবে।


খাসির কোরমা

উপকরণ
খাসির মাংস -এক কেজি, আদাবাটা -এক টেবিল চামচ, দারচিনি বড় -চার টুকরা, তেজপাতা -দুটি, লবণ -দুই চা চামচ, ঘি -আধা কাপ, কাঁচা মরিচ -আটটি, কেওড়া -দুই টেবিল চামচ, তরল দুধ -দুই টেবিল চামচ, পেঁয়াজবাটা -সিকি কাপ, রসুনবাটা -দুই চা চামচ,
এলাচি -চারটি, টক দই -আধা কাপ, চিনি -চার চা চামচ, দেশি পেঁয়াজকুচি -আধ কাপ, লেবুর রস -এক টেবিল চামচ, জাফরান -আধা চা চামচ (দুই টেবিল চামচ তরল দুধে ভিজিয়ে ঢেকে রাখুন)।

প্রণালি
মাংস টুকরো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। সব বাটা মসলা, গরম মসলা, টক দই, সিকি কাপ ঘি ও লবণ দিয়ে মেখে হাত ধোয়া পানি দিয়ে ঢেকে মাঝারি আঁচে চুলায় বসিয়ে দিন। মাংস সেদ্ধ না হলে আরও পানি দিন। পানি অর্ধেক টেনে গেলে কেওড়া ও কাঁচা মরিচ দিয়ে আবার হালকা নেড়ে ঢেকে দিন। ১৫ থেকে ২০ মিনিট পর পাশের চুলায় বাকি ঘি গরম করে পেঁয়াজকুচি সোনালি রং করে ভেজে মাংসের হাঁড়িতে দিয়ে ফোঁড়ন দিন। তারপর চিনি দিয়ে নেড়ে ঢেকে দিন।

পাঁচ মিনিট পর ঢাকনা খুলে দুধে ভেজানো জাফরান ওপর থেকে ছিটিয়ে দিয়ে আরও পাঁচ মিনিট ঢেকে রাখুন। এবার ঢাকনা খুলে লেবুর রস দিয়ে হালকা নেড়ে আঁচ একেবারে কমিয়ে তাওয়ার ওপর ঢেকে প্রায় ২০ মিনিট থেকে আধা ঘণ্টার মতো দমে রাখুন। যখন কোরমা মাখা মাখা হয়ে বাদামি রং হবে এবং মসলা থেকে তেল ছাড়া শুরু করবে, তখন নামিয়ে পরিবেশন।

বন্ধুরা এতো দারুন দারুন সব রেসিপি দিলাম আশাকরি দাওয়াত পাব। সবাইকে বড়দিনের শুভেচ্ছা...

*ক্রিসমাস* *বড়দিন* *রেসিপি* *মজারখাবার*
কমেন্ট

মো:আ:মোতালিব: [বেশবচন-জোশহইছে]

1419413006000 ভালো ০

মো:আ:মোতালিব: সল্টেড অরেঞ্জ জুস আমার খুব প্রিয় একটি খাবার.....................

1419413040000 ভালো ০

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?


অথবা,

এক্ষনি একাউন্ট তৈরী কর

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

বেশতো বিজ্ঞাপন