★ছায়াবতী★: একটি বেশব্লগ লিখেছে

কেউ একজন বলেছিল " জীবন সবচেয়ে জটিল অংক। যেভাবেই তুমি সমাধান করো না কেন? এর ফলাফল মৃত্যু" তাই বারবার মৃত্যু উধাহরন হয়ে অাসে অামদের জীবনে।

ইউটিউবে যখন পিনাক-৬ এর ডুবে যাওয়া দেখি, রানা প্লাজা ধসের সময় মানুষের অার্তনাদ, বাঁচার অাশায় ছাদ থেকে লাফিয়ে রক্তাক্ত হওয়া দৃশ্য, অত:পর স্বজনের প্রিয় হারানোর প্রলাপ শুনি। তখন মনে হয় যখন ঘটনা গুলো ঘটে তখনকার সম্ভাব্য মৃত্যু কিভাবে সহনশীল হয়ে ওঠে? সম্ভাব্য মৃত্যুপথযাত্রীদের?

এমনই একটা ভয়ংকর সত্য ফলাফলের মুখোমুখি হতে দেখেছি। নতুন করে চিন্তার ভিতর, মৃত্যু চিন্তার বীজ বপণ হলো।

এসব মুহুর্তে সবার মধ্যেই বাঁচার এক অব্যর্থ অকুলতা কাজ করে। যতটুকু না নিজের প্রয়োজনে, তারচেয়েও বেশী পরিবারের প্রয়োজনে ( পরোক্ষভাবে)। তবে সমরেশ মুজুমদারে কথায় বলেতেই হয়। অর্জনের খাতাটা ভারি করে কি লাভ? যদি অামাদের মৃত্যুর কাছে এভাবে চুপিচুপি অার্তসমপর্ন করতে হয়?

প্রত্যাশা : প্রাকৃতিক আগুনে দগ্ধ হতে চায় বারবার। কিন্তু ডিজিটাল বাংলাদেশে, ডিজিটাল ভবনে,ডিজিটাল অাগুনে পুড়ে মরতে, মাইরি বলছি খুব লজ্জা করে। অামরা যদি ডিজিটাল বাংলাদেশে সত্যিই বসবাস করি, তাহলে  নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার বলয়ে ডিজিটাল হতে চাই, মৌখিক ডিজিটালতা চাই না, সত্যিই চায় না।
*ডিজিটাল*

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?


অথবা,

এক্ষনি একাউন্ট তৈরী কর

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত