অনি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

সকাল বেলা বিছানা ছাড়তে পারছিলাম না, রাতে গরম অনুভুত হওয়ার কারণে ফ্যান চালিয়ে ঘুমানোর কারণে! আপাকে বললাম, ফ্যানটা বন্ধ করে দাও তো! তারপর উঠে শাওয়ার নেয়ার সময় বুঝলাম, পানি বেশ ঠান্ডা! যাক পরেরদিন ঘুম ভেঙ্গে দেখি রাতের অন করা ফ্যান বন্ধ হয়ে আছে, অর্থাৎ আপামনি আগের দিনের অবস্থা বিবেচনা করে গভীর রাতে নিশ্চয় ফ্যান বন্ধ করে দিয়েছে! হুম ভাল! অয়াশ রুমে গিয়ে দেখি, পানিতে ঘরম পানি মিক্সড করা হয়েছে! আহারে আরাম! শীতের শুরুতে ব্যস্তময় ঢাকা শহরে ঠান্ডা প্রভাব বিস্তার করতে না পারলে ও বাসা বোটানিক্যাল গার্ডেন এর কাছাকাছি হওয়াতে শীত আমার বাসায় হয়তো একটু আগেই কড়া নেড়েছে! 
ভাবতেই অবাক লাগে এই শীত যখন বাংলার দূর গ্রামে তার ঠান্ডা হাওয়া দিয়ে আচ্ছন্ন করে রাখছে তখন ছেড়াফাটা বা উপরের শরীর কাপড়বিহীন, খোলা আকাশে যারা রাত্রি যাপন করে তাদের কথা ভাবতে গেলেই গা শিউরে উঠে!!!!!!!!
এই গা শিউরে উঠা ভাব থেকে মুক্তি পেতেই মানবিকতার সামান্য সচেতনতা থেকে বেশতো পরিবারের সদস্য এবং বেশতোর সহযোগীতায় শীতার্তদের সাহায্যের আবেদন জানানো হয়! কয়েকজনের না্‌ যারা এ ব্যাপারটিতে নিজেদের মেধা, শ্রম এভং আর্থিক সামর্থ্য দিয়ে এটিকে সম্মানজনক স্থানে নিয়ে এসেছে খুব কষ্ট হলেও তাদের নাম উল্লেখ করলাম না এই ভেবে ভুলে যদি কার ও নাম বাদ পড়ে যায়। 
আমি কিছুই করতে পারিনি শুধু তাদের পোস্ট শেয়ার করা ছাড়া! তবে সেখানে কিছু মজার প্রশ্নের সম্মুখীন হলাম! তুমি কি দিয়েছ? কত টাকা? কম্বল বা কাপড়? যথারীতি আমার ব্যক্তিগত ভাবটাই শুনালাম, আমি যাই দিই পরিমান বা কত সেটা তো কাউকে বলিনা, অনেকটা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বলে, নাম প্রকাশ করলে কি হয়? হতে পারে সেটা তুলনায় নগন্য বলে অথবা দান না জানিয়ে করতে পারলে ভালো বলে। ঠিক আছে, তা তোমার গ্রামেই তো অনেক লোক আছে, যাদের এই শীতে কষ্ট হচ্ছে, এখানে না দিয়ে সেখানে ও দিতে পারতে! তোমাদের বেশতো পরিবারের সদস্য সখ্যা কত? লাখের কাছাকাছি! ও! তা তোমরাই তো ১০ টাকা করে দিলে ১০ লক্ষ টাকা হয়ে যায়, সবার সাথে শেয়ার করার দরকার কি? তাকে কি বোঝাব সবাই যদি একসাথে থাকতো, তাহলে ১০ টাকা করে নিতে সমস্যা নয়, কিন্তু দূর প্রান্তে যে আছে সে হয়তো ১০০ টাকা দিতে চাইলে ও দিতে পারছেনা!
যাহোক এতো গেলো প্রশ্নের সমাহার!
আমি নিজেই অসন্তুষ্ট সব ঠিক করে রেখে ও কিছুই করতে পারিনি বলে! তবে আমাদের এক ইউজার (যিনি বাহিরে থাকেন) এর স্ট্যাটাস পড়ে জানলাম শীত বস্ত্র বিতরণ করবেন, টার্গেট ১০ লক্ষ টাকা যার অধিকাংশ বিদেশীরাই সাহায্য হিসাবে দিয়েছে! আমাদের বাংলাদেশে এ রকম লোকের কি না অভাব! অথচ আমরা মোবাইলের বিল বা ইন্টারনেট বা সিগারেট কত কিছুর ব্যাপারে অপ্রয়োজনীয় কত ব্যয় করছি, তার কিছু মাত্র শেয়ার করলে কত জন এই মানবেতর জীবন থেকে রক্ষা পেতে পারতো!
কাকে কি বলবো আমি নিজেই কিছুই পারি না! তাই নিজেরই সমালোচনা করছি। নির্দিষ্ট কাউকে উদ্দেশ্য করে লিখিনি, তাই কার ও সাথে মিলে গেলে কষ্ট পাবেন না।
তবে যাদের উদ্যেগে এই কাজ সফলতা পাচ্ছে তাদেরকে জানাই শ্রদ্ধা এবং সালাম!  
*শীতার্ত* *সাহায্য* *আত্মসমালোচনা*
কমেন্ট

নিপু: ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বালুকণা বিন্দু বিন্দু জল গড়ে তোলে মহাদেশ সাগর অতল (খুকখুকহাসি)

1449040257000 ভালো ২

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?


অথবা,

এক্ষনি একাউন্ট তৈরী কর

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত