শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

বাড়িতে অতিথি এলে তাদের অাপ্যায়নে কোনো প্রকার ত্রুটি থাকা মোটেও শোভনীয় নয়, অতিথি আপ্যায়নের একটি গুরত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে অতিথিদের জন্য খাবার পরিবেশন আর এই পরিবেশনে  ট্রের জুড়ি মেলা ভার৷ পরিপাটি ট্রেতে খাবার পরিবেশনে বহিঃপ্রকাশ ঘটে বাড়ির লোকের আন্তরিকতা আর রুচির ৷ আর তাই এখন খাবার নিয়ে শুধু নয়, পরিবেশনটা যাতে নান্দনিক হয়, সেটাও রাখতে হয় মাথায়। চলুন হাল সময়ের কিছু আকর্ষনীয় ট্রে সমন্ধে বিস্তারিত কিছু তথ্য জেনে নেই। আর এগুলোর মধ্যে কোনটা ভালো লাগলে ছবিতে ক্লিক করে সরাসরি অর্ডার করে কিনে নিতে পারেন।

               কিনতে ক্লিক করুন                                              কিনতে ক্লিক করুন

যখন বাজারজুড়ে এত বৈচিত্র্যময় নকশার ট্রের সমাহার ছিল না, তখন কিন্তু পারিবারিক বনেদিয়ানা বোঝাতে ট্রের ওপর হাতের কাজের .কাপড় বিছিয়ে দিতেন অনেকে ৷ আবার কারও বাড়িতে খাবার পাঠানোর সময় খাবারের ওপর দিয়ে দেওয়া হতো রঙিন নকশার কাপড় ৷ এখন অবশ্য তেমনটা না দেখা গেলেও ট্রেতে খাবার পরিবেশনার সময় অনেকেই কিছু নান্দনিক অনুষঙ্গ যোগ করে থাকেন ৷ 

                কিনতে ক্লিক করুন                                          কিনতে ক্লিক করুন


অতীতে খাবার পরিবেশনায় ইস্পাত বা অ্যালুমিনিয়ামের ট্রের ব্যবহারই একসময় বেশ জনপ্রিয় ছিল, আমরা আমাদের মা-দাদিদের দেখেছি এই ধরনের ট্রেতে করে অতিথিদের খাবার পরিবেশন করতে ৷ নানা ধরনের নকশার এসব ট্রেতে প্রকাশ পেত আভিজাত্য ৷ তারপর যুগের পরিবর্তনে মেলামাইন আর প্লাস্টিকও একসময় জায়গা করে নেয় ট্রে বাজারে ৷তবে, বাঁশ আর বেতের ব্যবহার শুধু গ্রাম এলাকায় দেখা যেত। নগরজীবনে এসব উপাদানে তৈরি ট্রে আমাদের মাঝে বলা চলে প্রথম নিয়ে আসে আড়ং ৷কোনো কোনো ট্রে এমনভাবে তৈরি করা হয়, যেখানে আলাদা করে খাবার পরিবেশনের পাত্র লাগে না, নারকেলের মালার প্রাধান্য সেসেব ট্রেতে নিয়ে আসে বৈচিত্র্য। বরং নকশা আর আকারের কারণে ট্রেটাই হয়ে ওঠে পরিবেশনের পাত্র ৷

                   কিনতে ক্লিক করুন                                         কিনতে ক্লিক করুন

রুচিশীল আর পরিবেশনায় ভিন্ন মাত্রার পরিচয় আনতে এখানকার ট্রেতে আঁকা হয় নানা রকম পটচিত্র ৷ শুধু তাই নয় কাঠে খোদাই করে তাতে পিতলের নকশা এঁকে তৈরি করা হয়েছে ট্রে, তবে সেগুলো আসে স্বয়ং কাশ্মির থেকে, কাশ্মীরি কাঠ আর কাশ্মীরি ডিজাইনের ছোঁয়াতে এই সব ট্রে পায় সৌন্দর্য্যের এক নতুন মাত্রা। কাচ, প্লাস্টিক প্রভৃতি ম্যাটেরিয়ালের ট্রেতেও দেখা মেলে নতুনত্বের ছোঁয়া ৷ গোলাকার, ত্রিভুজ, বৃত্ত আবার চতুর্ভুজ আকৃতির ট্রে মিলবে বিভিন্ন ক্রোকারিজের দোকানে, মিলবে অনলাইনেও ৷রাজধানীর চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট, নিউ মার্কেটসহ বিভিন্ন মার্কেটেই খোঁজ করলেই আপনারা পেয়ে যাবেন আকর্ষনীয় সব ট্রে ৷এছাড়া দেশের সব থেকে বড় অনলাইন শপিং মল আজকের ডিলেও পেয়ে যাবেন আপনার পছন্দ ও চাহিদা অনুযায়ী নানা ধরনের ট্রে ৷

                         কিনতে ক্লিক করুন                                      কিনতে ক্লিক করুন
তবে, ট্রেতে শুধু খাবার পরিবেশন করলেই চলবে না, পাশাপাশি কোন খাবারে কি ট্রে ব্যবহার করবেন, সেই বিষয়েও খেয়াল রাখা জরুরি ৷যেমন বিকেলের স্ন্যাকস বা নাশতার পরিবেশনায় বেত বা বাঁশের ট্রে বেশি ভালো লাগবে ৷ ভারী খাবার পরিবেশনায় বেছে নিতে পারেন কাঠের জমকালো নকশার ট্রে ৷খাবার পরিবেশনায় ট্রের আকারটাও একটা বড় বিষয় বলে ৷যেমন যে খাবারটা পরিবেশন করছেন, তা যেন আরও সুন্দর দেখায়, এমনভাবেই ট্রে বেছে নিন।

*ট্রে* *অতিথিআপ্যায়ন*

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?


অথবা,

এক্ষনি একাউন্ট তৈরী কর

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত