খুশি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

প্রায় রোজই বৃষ্টি হচ্ছে। কখনো মুশুল ধারে আবার কখনো টিপটিপ করে নামছে বৃষ্টি। এমন দিনেও যেতে হয় কাজে। আড্ডা, অনুষ্ঠানও বন্ধ নেই। ফ্যাশনে তাই বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারি কি বৃষ্টি! কখনই নয়। এমন দিনে ফ্যাশন সচেতনরাই তাই খানিক বাড়তি সর্তকতা নেয় স্টাইল ঠিক রাখার ক্ষেত্রে। আজ আপনাদের কেউ বর্ষায় ফিটফাট থাকার কিছু কৌশল বাতলে দিতে চাই। নিচের প্রতিবেদনে জেনে নিন এই বর্ষায় ফিটফাট থাকার উপায়।

 


চুলের যত্ন

বৃষ্টি ভিজে সব চেয়ে বেশি ক্ষতি হয় চুলের। তাই যে কোনো ফ্যাশান সচেতন নারীরাই চুলের বাড়তি যত্ন নিয়ে থাকেন। কেননা এই সময় চুল শুষ্ক হয়ে যায়৷ চুল ওঠার প্রবনতাও বেড়ে যায়। প্রতি মাসে একবার করে চুল ট্রিম করিয়ে নিন৷ এতে চুল কম উঠবে।


চুলে হট অয়েল ম্যাসেজ করুন। তাতে চুল রুক্ষ হবে না৷ চুলে প্রোটিন সরবরাহ হবে।


আপনার চুলে বর্ষায় একটু উজ্জ্বল রঙ করতে পরেন। পুরো চুলে না করে এক একটা স্ট্রিপ হাইলাইট করে নিন। তাতে আপনাকে বেশ ফুরফুের লাগবে৷

 
নখের যত্ন

বর্ষায় ভিজে যায় হাত-পা। ভেজা থাকে আপনার নখ। তাই নখে যত্নে প্রয়োজন বাড়তি সর্তকতা। বিশেষ করে পায়ের নখের যত্ন নিন। বর্ষায় পেডিকিওর করাবেন অবশ্যই।
হাতের নখ সুন্দর শেপ করে কাটুন৷ এরপরে উজ্জ্বল রঙের নেল পালিশ লাগিয়ে নিন৷ সুন্দর নেল আর্ট করুন৷

 


মুখের মেকআপ

বর্ষায় মুখে বেশি চড়া মেকআপ নেওয়া উচিত নয়। এই সময় হল্কা মেকআপ করুন। বৃষ্টির সময় বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ বেশি থাকায় ঘামও বেশি হয়। তাতে আপনার মেকআপ নষ্ট হয়ে যেতে পারে।


মুখে অতি অবশ্যই ওয়াটার প্রুফ মেক আপ ব্যবহার করুন৷


ম্যাট ফিনিশের মেক আপ বর্ষায় ভালো লাগে৷

 


বর্ষায় পোশাক

বৃষ্টির সময় ভারি সাজ প্রয়োজন না থাকলে এড়িয়ে চলাই ভালো। এ সময়  ওয়েস্টার্ন কালেকশনকে ব্যবহার করুন। ন্যারো প্যান্ট, আঁটসাট পোশাক পরতে পারেন যাতে প্রয়োজনে সামলানো সহজ। তাতে দেখতেও ভালো লাগে৷
পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে স্টাইলিস্ট ছাতা ব্যবহার করতে পারেন৷

 
বর্ষার জুতো

দামি চমড়ার জুতা না পড়াই ভালো। কেননা এই বর্ষায় সবচেয়ে ক্ষতি করে চামড়ার। একের বেশি জুতো অবশ্যই সঙ্গে রাখুন৷ বর্ষায় প্লাস্টিক বা নন লেদার মেটিরিয়লের জুতো পরুন৷

(সংকলিত)

*বর্ষাকাল* *লাইফস্টাইল*

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?


অথবা,

এক্ষনি একাউন্ট তৈরী কর
বেশতো বিজ্ঞাপন