আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

ইয়ো ব্রো, অ্যাডভান্স হ্যাপি ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ ডে। হোয়াট'স আপ, ডুড?

জানোই তো, কালকে টুয়েন্টি ফার্স্ট ফেব্রুয়ারি। সেলিব্রেট না করলে কি হয়? আফটার অল, এই দিনের আলাদা একটা ইম্পরট্যান্স আছে না? আরেহ, ইন দ্য ইয়ার নাইন্টিন সেভেন্টিওয়ান, এই দিনেই তো পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ডার্কনাইটে আর্মস নিয়ে, আমাদের মাম্মি ড্যাডিদের উপর এ্যাটাক করেছিলো। সাতজন বীরশ্রেষ্ঠ রফিক, সালাম, বরকত, জব্বার, শফিউল তাদের লাইফ সেক্রিফাইজ করেছিলো। দেশের জন্য ব্লাড দিয়েছিলো।

হোয়াটএভার, বিশেষ দিন, বিশেষ মানুষকে নিয়ে বিশেষ প্ল্যান তো আছেই। ওয়াইট, কালকের সারাদিনের প্ল্যান তোমাকে ডেসক্রাইব করি।

গতকাল আমার গফ আর আমি সারা মার্কেট খুঁজে একুশে ফেব্রুয়ারির শপিং করেছি। লটস অব কেনাকাটা। কাপলদের জন্য বান্ডেল অফার ছিলো। অনেক সুন্দর ম্যাচিং করা পাঞ্জাবি আর শাড়ি। সাদা আর কালো রঙের। বড় বড় করে "অ আ ক খ" লিখা। খুব কিউট ড্রেস।

ও অবশ্য খুব টেনসনে ছিলো যে ওই শাড়ি পরলে ওকে কেমন লাগবে? স্মার্ট লাগবে কিনা? সুন্দর লাগবে কিনা? কারণ ওর বান্ধবীরা অনেকেই অনেক টাকার শপিং করেছে। দামি শাড়ি পরে সুন্দর করে সেজেগুজে ছবি তুলে ফেসবুকে, ইন্সটাগ্রামে আপলোড দিতে হবে। লাইক, কমেন্ট অন্যদের চেয়ে কম পড়লে আবার মান-সম্মানের ব্যাপার। আমি বলে দিয়েছি, "তোমাকেই সবচেয়ে বেশি সেক্সি লাগবে। পুরাই পাপিং হট।" এতে সে খুব খুশি হয়েছে। আমিও খুব এক্সাইটেড, ম্যান।

তো কাল দুপুরে বের হবো। একসাথে লাঞ্চ করবো। তারপর হাত ধরাধরি করে জার্নি বাই রিকসা; হুড তোলা থাকবে, পাশাপাশি এই কিছুক্ষণের জন্য সে লিপস্টিকও মুছে ফেলবে। আমার গায়ে সাদা পাঞ্জাবি; বুঝোই তো। ডেসটিনেসন; পুরো ঢাকা শহর। কুল ম্যান কুল। ও খুব রোমান্টিক তো। আর আজকাল এসব কে না করে, হুম?

অনেকে অবশ্য এইদিনে সকাল সকাল বের হয়ে শহীদ মিনারের দিকে যায়। আমরা যাবো না। আমি আর আমার গফ আবার ভীড় পছন্দ করি না। শহীদ মিনারে খুব ভীড় হবে। এতো ভীড়ের মাঝে ওদিকে যাবার কোন মানেই নেই।

আমাদের অবশ্য একবার শাহবাগ ফুলের দোকানের দিকে যেতে হবে। ওর আবার খুব শখ শাড়ির সাথে ম্যাচিং করে সাদা-কালো রঙের ফুলের ঝুপড়ি মাথায় পরবে। ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ ডে বলে কথা। সে শহীদ মিনারে যাবে না ঠিকই, তবে নিজেই একটা চলন্ত শহীদ মিনার সেঁজে ঘুরে বেড়াতে চায়।

প্রথমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, সোহরাওয়ার্দ্দী উদ্দ্যান, রমনা-টমনা ঘুরে তারপর কোথাও হ্যাংআউট করবো। ফাস্টফুড বা চাইনিজ রেস্টুরেন্টে বসবো; ঢাকায় আজকাল রুদ্ধদ্বার বৈঠকের অনেক জায়গা হয়েছে। একসাথে ক্যান্ডেল লাইট ডিনার করার প্ল্যান আছে। আমার গাড়ি থাকলে অবশ্য লংড্রাইভে যাওয়া যেতো; জাম্পিং কারের কথা কে বা জানে! হাজার হোক ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ ডে বলে কথা। এছাড়া আজকাল, ভ্যালেন্টাইনস ডে আর একুশে ফেব্রুয়ারি তো একই কথা। একটা রঙ্গিন ভালোবাসা দিবস, আরেকটা সাদাকালো; এইতো পার্থক্য।

ওকে বাসায় পৌছে দিয়ে যাবো আমার বেস্ট বাডিজের কাছে। ফ্রেন্ডরা মিলে পার্টি করবো, অনেক ফান হবে। সবাই মিলে কোনো একজনের বাসার রুফটপে বিরিয়ানী রান্না করে খাবো বা গ্রিল চিকেন উইথ নান। ইয়াম্মি ম্যান ইয়াম্মি।

সাউন্ড বক্স টক্স সব আগে থেকেই রেডি আছে। ডিজে পার্টি থকবে। আর আজকে থেকেই দেশাত্ববোধক গান, একুশে ফেব্রুয়ারির গান "আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি?" পিচ্চি পোলাপান দিয়ে এইসব হাবিজাবি বাজাচ্ছি। এইসব না বাজালে আবার খারাপ দেখা যায়।

ওই মিয়া কই যাও? পার্টি আভি বাকি হে মেরা দোস্ত। আসল জিনিস তো এরপর হবে। দুই বোতল ফরেইন আছে। পুরাই ইন্টারন্যাশনাল জিনিস, ইন্টারন্যাশনাল কোয়ালিটির। ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ ডে বলে কথা।

চিয়ার্স হবে ম্যান, চিয়ার্স।

*ভাষারমাস* *বাংলা* *ইন্টারন্যাশনাল* *বাস্তবতা* *সংগ্রিহীত*

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?


অথবা,

এক্ষনি একাউন্ট তৈরী কর

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত