আদনান অমিন

@Omin32

আনন্দিত
business_center ছাত্র
school নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
location_on ঢাকা
1419233288000  থেকে আমাদের সাথে আছে

আদনান অমিন: কোথাও কেও নেই !!!!(চাখাই)

আদনান অমিন: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আমি অনেক কিছুই *হতেচেয়েছিলাম*। ক্লাস ফোরে ভেবেছিলাম আর্টিস্ট হবো। ক্লাস টেনে উঠে ভাবলাম জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ার হবো। জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এবং বায়োটেকনোলজির এপ্লিকেশন গুলো ভালো লাগতো।

ইউনিভার্সিটি ভর্তির আগে পর্যন্ত তাই ছিল। ভর্তি হয়েছিলাম ও কাছাকাছি একটি বিষয়ে। ইউনিভার্সিটিতে থাকা সময় মনে হলে Applied Mathmatics পড়লে চমৎকার হতো । কালের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস বইটা পড়লাম যদিও তেমন কিছু বুঝি নি। ধীরে ধীরে নিজের সাবজেক্টের উপর আগ্রহ হারাতে শুরু করলাম। তারপর ও ভর্তি হলাম  স্নাতকোত্তরে বায়োটেকনোলজি বিভাগে। তখন মনে হলো আবার আনন্দ খুঁজে পাবো। কয়দিন পেলাম ও । ভেবেছিলাম বিদেশে পিএইচডি করতে যাবো, বেশ কিছু  GRE ওয়ার্ড পড়েছিলাম ও । তারপর থিসিস সুপারভিসরের দুর্ব্যবহার খারাপ লাগলো, আগ্রহ হারিয়ে ফেললাম। মনে হতো কি করবো এইগুলো পড়ে। থিসিস সুপারভিসর পাস করাবে মনে হলো না।  অনেক দোটানায় ছিলাম। বন্ধুরা BCS এর পড়া পড়তো। সারাক্ষন মাথায় ঘুরতো কি করা উচিৎ।  ছেড়ে দিলাম ইউনিভার্সিটি যাওয়া।

এখন বন্ধুরা যা করে তাই করি,  BCS এর পড়া পড়ি। এখন আবার মাঝে মাঝে MBA করতেও ইচ্ছা করে IBA অথবা BUP থেকে।সমস্যাটা আমারই ঠিক করে কোনকিছুতে মনোনিবেশ করতে পারি না। এই যে বেশ কয়দিন ছোটদের মতো ১-১.৫ ঘন্টা পড়ি। যত সময় গিয়েছে passion কমে  গেছে। যে মানুষ সমস্যা জানে তাকে সমাধান দেওয়া কঠিন।

ঘুড়িটা উড়ছেই একবার এদিক  তো আরেকবার ওদিক। যত সময় গিয়েছে passion কমে  গেছে। সুতা ঠিক আছে কিনা বলতে পারিনা। নিজের মনের কথা গুলো বললাম।

 

*হতেচেয়েছিলাম*

আদনান অমিন: আমার *প্রিয়লেখক* জাহির রায়হান। হাজার বছর ধরে উপন্যাসটি পাঠ্য ছিল । এরপর অনেক পরে পড়েছিলাম "বরফ গলা যদি"। তারপর একে একে আরেক ফাল্গুন, শেষ বিকেলের মেয়ে, তৃষ্ণা, কয়েকটি মৃত্যুর গল্প, আর কতদিন পড়ে ফেললাম। উনার উপস্থাপন চমৎকার। আফসোস বেশিদিন ছিলেন না।

আদনান অমিন: *আত্মহত্যা* কখনোই কোন সমাধান হতে পারে না। পৃথিবীতে খারাপ সময় প্রতিটি মানুষই পার করে। ব্যার্থতা হতাশা কে উৎরিয়ে বেঁচে থাকুন । জীবনের সাথে পাল্লায় আপনি অন্তত যাই হোক এভাবে হারতে পারেন না । নিজের আবেগ কে নিয়ন্ত্রণ করুন । বাঁচো বাঁচো প্রাণ খুলে বাঁচো।

আদনান অমিন: ভালোই আছি মন্দ না চালুই আছি বন্ধ না (চাখাই)

আদনান অমিন: দীপ্তি: এর একটি উত্তর শেয়ার করেছে

 দৈনন্দিন যে রুটিন টা বানিয়েছি সেটা সঠিকভাবে কিভাবে পালন করব? বুঝাতে চাচ্ছি রুটিন মেনে চলার ইচ্ছাটাকে কিভাবে ধরে রাখব?
দীপ্তি: প্রত্যেকটা মানুষই অগাধ সহজাত প্রতিভা নিয়ে জন্মগ্রহণ করে। সেই মানুষটি তার চেনা পরিবেশ, পারিপার্শ্বিকতা, পারিবারিক প্রকৃতি, সামাজিক, আর্থিক ভেদাভেদ দেখে শেখে এবং এইভাবে শারীরিক ও মানসিকভাবে বড় হতে থাকে।...বিস্তারিত

১ টি উত্তর আছে

আদনান অমিন পোস্টটি শেয়ার করেছে

Mahbubul Alam: সংগৃহিত

আদনান অমিন: খেলা রাম খেলে যা ..........

আদনান অমিন: কোথাও কেও নেই (ব্যাপকটেনশনেআসি)

আদনান অমিন: প্রকট কপট (মানিনা)

আদনান অমিন: একটি বেশব্লগ লিখেছে

মাছের খাবারে প্রাকৃতিকভাবে তৈরী হয় বিভিন্ন বিষ।এ ধরনের বিষ মাছের স্বাস্থ্য ও বৃদ্ধিজনিত সমস্যাসহ হয়ে উঠতে পারে মৃত্যুর কারন।মাছ মানুষের খাদ্য হিসেবে ছাড়াও এর বাই-প্রোডাক্টের বহুবিধ ব্যবহার রয়েছে।মাছের বৃ্দ্ধির জন্য খাওয়ানো হয় আবার মাছই যাকে বলে Fish In - Fish Out, মাছের উচ্ছিটাংশ থেকে তৈরী হয় গবাদি পুশুর খাবার।এ ধরনের খাবার খেয়ে মাছসহ চাষের প্রাণীরা ক্ষতিগ্রস্থ হয়। সমানভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয় মানুষ ও।৩টি ক্ষতিকর টক্সিন নিয়ে নিচে সংক্ষেপে লিখা হয়েছে :

  •  টেটরোডোটক্সিন: “পটকা” মাছের নাম নিশ্চয়ই শুনেছেন।পটকা মাছসহ আর ও ৮০ টি প্রজাতিতে এ টক্সিন পাওয়া যায়।টেটরোডোটক্সিন প্রতিটি মেরুদন্ডী প্রাণীর জন্য প্রানঘাতি।এ টক্সিনের প্রভাবে ঠোট, জিহ্বা এবং পেশীসমুহে অকার্যকারিতা দেখা দেয়।
  •  ডিনোফ্লাজেলেট টক্সিন: জলজ পরিবেশে কিছু নীলাভ-সবুজ শৈবাল যখন অতিমাত্রা জন্মায় তখন এ টক্সিন তৈরী হয়।পানির রংয়ের ও পরিবর্তন আসে।যদিও কিছু মলাস্ক (ঝিনুক) এদের খেয়ে থাকে, মলাস্কের জন্য এটি ক্ষতিকর না হলে ও, মলাস্কটি যখন মেরুদন্ডী প্রাণীর খাবার হয় তখন ডিনোফ্লাজেলেট টক্সিন মৃত্যুর কারন হয়ে দাঁড়ায়।
  • আফলা টক্সিন: খাবারে আফলা টক্সিন ঝুকিপূর্ণ সেটি যে প্রাণীর খাবারই হোকনা কেন।এ টক্সিন মানুষ ও অন্যান্য অনেক প্রাণীর মৃত্যুসহ নানা স্বাস্থ্য সমস্যা তৈরী করে। এক গবেষনায় দেখা গেছে, প্রতি কেজি ৫০ মাইক্রোগ্রামের বেশি আফলাটক্সিনযুক্ত খাবার খাওয়ানোর ফলে মাছের ওজন কমেছে ও বৃদ্ধি ব্যাহত হয়েছে।খরাপ্রবন আফ্রিকার সাব-সাহারা ও চীনের কোন কোন অঞ্চলে প্রতি বছর অসংখ্য লোক আফলা টক্সিন বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হয় ও মারা যায়।
*টক্সিন* *খাবার* *মাছ*

আদনান অমিন: উদয়: এর একটি উত্তর শেয়ার করেছে "বিষয়টি ভালো লাগলো"

 ঢাকা শহরে নাকি দুটো পানির এটিএম বসানো হয়েছে ; 'পানির এটিএম' --- বিষয়টি যদি কেউ বুঝিয়ে বলতেন? কিভাবে এই এটিএম ব্যবহার করে পানি পেতে পারে জনগণ?
উদয়: পানির এটিএমেপ্রিপেইড কার্ড দিয়ে গ্রাহকেরা যেকোনো সময় সেখান থেকে বিশুদ্ধ পানি সংগ্রহ করতে পারছেন। ডেনমার্কের একটি প্রতিষ্ঠানের সহায়তায় ফকিরাপুলে ওয়াসার পানির পাম্পে বসানো হয়েছে ওই এটিএম বুথ। বুথে এটিএম...বিস্তারিত

২ টি উত্তর আছে

*পানি* *পানিরএটিএম* *ওয়াসা*

আদনান অমিন: আজকে বাংলাদেশ এবং নিউজল্যান্ড মধ্যকার খেলাটি স্বপ্ন দেখলে মন্ধ হয় না ।

*খেলা* *বাংলাদেশ*

আদনান অমিন: একটি প্রশ্ন শেয়ার করেছে

 চিকুনগুনিয়া রোগ হলে এর প্রাথমিক চিকিৎসা কি ?

৪ টি উত্তর আছে

.
*চিকুনগুনিয়া* *হেলথটিপস*

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?


অথবা,

আজকের
গড়
এযাবত
১,১৮৩

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

+ আরও