Preview
প্রশ্ন করুন

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

বেশতো বিজ্ঞাপন

দীপ্তি  আমি শান্ত, সাম্য, আহ্লাদী, মিশুক, পরিপাটি, গোছালো, খুব নরম মনের একজন সাধারণ মানুষ :)

মহাগুরু

চিকিৎসকদের মতে, কিডনিতে পাথর কেন হয় এর উত্তর দেওয়া মুশকিল। তাদের মতে, অনেক ক্ষেত্রে কারণ জানাই যায় না। তবে প্রত্যেকের দেহে পাথর যাতে না হয় এমন কিছু নিরোধক পদার্থ রয়েছে। সেই উপাদানগুলো যদি কম থাকে সেসব ব্যক্তির পাথর হওয়ার প্রবণতা বেশি। বংশগতভাবে এই সমস্যা হতে পারে। জীবনযাপনের কারণেও এটি হতে পারে । মূলত যারা পানি কম খায় তাদের এই সমস্যা হতে পারে। এছাড়া যারা ক্যালসিয়াম জাতীয় ট্যাবলেট প্রচুর পরিমাণে খায় এদেরও পাথর হওয়ার আশঙ্কা বেশি।

পাথরগুলো কেবল কিডনিতে নয়, এর বিভিন্ন অংশে হতে পারে। কিডনির ভেতর থেকে বের হওয়া বৃক্ক নালীতে হতে পারে, প্রস্রাবের থলেতে হতে পারে এবং থলের থেকে বের হয়ে অনেক সময় পাথর মূত্রনালিতেও হতে পারে। কিডনিতে পাথর থাকে তবে কোমড়ের দুইপাশে নাভীর উপরের দিকে ব্যথা হয়। এর কারণে তীব্র ব্যথা হয়। ব্যথাটি কিছুক্ষণ থেমে থেমে আবার হয়। কাপুনি দিয়ে জ্বরও আসতে পারে। তবে আশংকার কথা এই যে, কখনো কখনো কোনো লক্ষণ ছাড়াই পাথর বড় হয়ে যেতে পারে কিডনির ভেতরে।

এখন কিন্তু শতকরা ৯০ ভাগ ক্ষেত্রে কোনো অপারেশনের প্রয়োজন পড়ে না। আর যদি দরকার পড়েও তখন ল্যাপরোস্কোপির মাধ্যমে ছোট তিনটি ছিদ্র করেবেশিরভাগ ক্ষেত্রে পাথর বের করে আনা যায়। অন্য উপায়ে চিকিৎসার মধ্যে রয়েছে স্টোন ক্র্যাশ। তবে, এই সিদ্ধান্ত নিতে পারেন একজন চিকিৎসক রোগীর শারীরিক অবস্থ্যা বিবেচনা করে। 

ঘরোয়া উপায় : প্রচুর পানি পান করুন এবং একটু জগিং করতে হবে। 

তবে আপনি অবশ্যই একজন চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন। তার পরামর্শ মতোই চিকিৎসা করুন। 


অথবা,

বেশতো বিজ্ঞাপন