Preview
প্রশ্ন করুন

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

বেশতো বিজ্ঞাপন
( ১ টি উত্তর আছে )

( ১৫ বার দেখা হয়েছে)

আবদুল বাতেন  গোবেচারা টাইপের মানুষ।

মহাগুরু

সেন্টমার্টিন দ্বীপ:

সেন্টমার্টিন বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলার অন্তর্গত টেকনাফ উপজেলার একটি ইউনিয়ন। এটি একটি বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ এবং এটি বাংলাদেশের সর্ব-দক্ষিণের ইউনিয়ন। এ দ্বীপের অপর নাম নারিকেল জিঞ্জিরা।

দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনের জীববৈচিত্র্য রক্ষায় ২০১৯ সালের ১ মার্চ থেকে সেখানে পর্যটকদের রাতযাপন নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। তবে তা থেকে সরে এসেছে সেন্টমার্টিনে পর্যটকদের রাতযাপন সীমিত করার কথা ভাবা হচ্ছে। এবং কিছু নিষেধাজ্ঞা যুক্ত করা হয়েছে।

সেইন্টমার্টিন ভ্রমণে যেসকল নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে:

১. সেন্টমার্টিনে যে কেউ যে কোনো ভাবে যেতে পারতেন। কিন্তু আগামী ১ মার্চ- ২০১৯ থেকে সেন্টমার্টিন যেতে অনলাইনে নিবন্ধন লাগবে।

২. দ্বীপের গুরুত্বপূর্ণ এলাকা ছেঁড়া দ্বীপ ও গলাচিপা অংশে পর্যটকদের প্রবেশ সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ থাকবে।

৩. দ্বীপটির সৈকতে মোটরসাইকেল, গাড়ি, স্পিডবোট চলাচল করতে পারবে না।

৪. কচ্ছপের প্রজনন ব্যাহত হওয়ায় রাতে দ্বীপে আলো বা আগুন জ্বালানো যাবে না।

৫. দ্বীপে কোনো জেনারেটর ব্যবহার করা যাবে না। শুধু সৌরশক্তি ব্যবহার করতে হবে।

৬. নাফ নদী, দ্বীপে যাওয়া-আসার পথে এবং মূল দ্বীপে কোনো প্লাস্টিক বর্জ্য ফেলা যাবে না।

৭. প্রবাল, শৈবাল, শামুক, ঝিনুক ইত্যাদি সংগ্রহ করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

৮. দ্বীপে মাইক বা উচ্চশব্দে গান-বাজনা না করা যাবে না।

৯. দ্বীপটিতে ভ্রমণের জন্য টুরিস্ট ফি আরোপ করা হবে।

১০. প্রতিদিন সর্বোচ্চ ৫০০ পর্যটক বেড়ানোর সুযোগ পাবেন।

১১. বঙ্গোপসাগরে জাহাজ চলাচলের ওপর গতিবিধি আরোপ করা হয়েছে। 

১২. সব ধরনের নতুন স্থাপনা নির্মাণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। 

১৩. সেখানে জমি কেনা বেচা সম্পূর্ণ বন্ধ করা যাবে না।

১৪. সব হোটেল-মোটেল ও স্থাপনা উচ্ছেদ করে জমি অধিগ্রহণ করে বসবাসকারীদের অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হবে।

[অনলাইন অবলম্বনে]


অথবা,

বেশতো বিজ্ঞাপন