অ্যানিমেটেড মুভি

অ্যানিমেটেডমুভি নিয়ে কি ভাবছো?

তৌফিক পিয়াস: একটি বেশব্লগ লিখেছে

১। PIXAR: স্টিভ জবসের প্রতিষ্ঠা করা PIXAR Studio বর্তমানের সবচাইতে বৃহৎ এবং অন্যতম প্রভাবশালী অ্যানিমেশন স্টুডিও।

২। Dreamworks Animation: Dreamworks Studio-র অ্যানিমেশন ডিপার্টমেন্ট হিসেবে যাত্রা শুরু করা Dreamworks Animation ২০০৪ থেকে স্বাধীন প্রতিষ্ঠান হিসেবে প্রায় ২০৫০ জন এমপ্লয়ি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে।

৩। Walt Disney: বিশ্বের সবচাইতে পুরনো অ্যানিমেশন স্টুডিও Walt Disney. ১৯২৩ সালের ১৬অক্টোবর ওয়াল্ট ডিজনি এই স্টুডিও প্রতিষ্ঠা করেন। এই স্টুডিও থেকে ৫৩টি ফিচার ফিল্ম তৈরি করা হয়েছে। ডিজনির সর্বশেষ ফিল্ম Frozen যা বিশ্বব্যাপী সবচাইতে বেশি ব্যাবসা করা অ্যানিমেটেড ফিল্ম।

৪। Fox Animation Studios: 20th Century Fox-এর অ্যানিমেশন ডিভিশন হল এই Fox Animation Studios। Fox স্টুডিও বেশ কিছু  অ্যানিমেটেড ফিচার ফিল্ম তৈরি করে যা সফলতার মুখ দেখেনি। Ble Sky Studios কিনে নেওয়ার পর তারা ব্লকবাস্টার কিছু ফিল্ম তৈরি করে যাদের মধ্যে আছে Ice Age, Epic এবং Rio

৫। Cartoon Network Studios: এই স্টুডিও মূলত Cartoon Network টিভি চ্যানেলের জন্য কার্টুন তৈরি করে কিন্তু কোনও ফিচার ফিল্ম বানায় না।

৬। Nickelodeon Animation Studio: কার্টুন নেটওয়ার্কের মতো Nickelodeon-ও তাদের টিভি নেটনেটওয়ার্কের জন্য 2D ও 3D অ্যানিমেশন তৈরি করে।

৭। Nippon Animation: জাপানে ওয়াল্ট ডিজনি ১৯৬২ সালে ZuiyoEizo নামে যাত্রা শুরু করে । ১৯৭৫ এর জুন থেকে যা পরিবর্তন করে নিপ্পন রাখা হয়। নিপ্পন অ্যানিমেশন মূলত অ্যানিমেটেড টিভি সিরিজ তৈরি করে।

৮। Sony Pictures Animation: Sony Pictures Entertainment শাখা প্রতিষ্ঠান হিসেবে এই অ্যানিমেশন স্টুডিওর যাত্রা শুরু হয়।

৯। Illumination Entertainment: তুলনামুলকভাবে নতুন এই স্টুডিও ২০০৭ সালে প্রতিষ্ঠা হয়, যার মালিকানা NBC Universal এর। এরা মাত্র ৪টি ফিল্ম তৈরি করেছে যার মধ্যে Despicable Me সিরিজ ব্লকবাস্টার হিট।

১০। Weta Digital: এরা লাইভ অ্যাকশন মুভির জন্য ভিজুইয়াল এফেক্ট তৈরি করে। Lord of the Rings Trilogy, Avatar এর মতো মুভির এর ভিজুয়াল এফেক্ট এদের করা, যার জন্য Weta Digital ৫ বার অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ড পায় (বেস্ট ভিজুল এফেক্ট ক্যাটাগরি তে)।

তথ্যসুত্রঃ ইন্টারনেট
*অ্যানিমেশন* *অ্যানিমেটেডমুভি*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

মুভি পাগল সবার কাছে অ্যানিমেশন মুভির একটা আলাদা গুরুত্ব রয়েছে। অ্যানিমেশন মুভির সবচেয়ে ভাল দিক হচ্ছে দর্শক প্রিয়তা। শিশু থেকে শরু করে সব ধরনের দর্শকদের কাছে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে অ্যানিমেশন মুভি। আর মুভিগুলো যদি বিশ্ব বিখ্যাত নামকরা সিরিজের হয় তবে মজা কয়েকগুণ বেড়ে যায়। সিরিজ অ্যানিমেশনের বৈশিষ্ট্য হল মুভিগুলো এমন এক জায়গায় শেষ হবে এরপরের কাহিনী না জানা পর্যন্ত আপনার রাতের ঘুম গায়েব হয়ে যাবে ! নিচে কয়েকটি বিশ্বসেরা অ্যানিমেশন মুভি সিরিজের ছোট্ট করে রিভিউ দিলাম। যারা দেখেন নি, আজই দেখতে বসে যান-

Tinker Bell:
ছোট্ট এক পরী টিংকার বেল। চঞ্চল, দুরন্ত, অফুরন্ত প্রাণ শক্তির অধিকারী। নিজের চটপটে স্বভাবের জন্য সব সময়ই কোন না কোন বিপদে পড়ে সে। তবে তার আছে কিছু অকৃত্রিম বন্ধু। বন্ধুদের সহায়তায় সে ঠিকই নিজেকে বিপদ থেকে বের করে আনে। বিখ্যাত চলচিত্র নির্মাতা প্রতিষ্ঠান Disney-র অঙ্গপ্রতিষ্ঠান DisneyToon Studios এর ব্যনারে নির্মিত Tinker Bell সিরিজটি মূলত বাচ্চাদের জন্য নির্মিত একটি ফ্যান্টাসি অ্যানিমেশন মুভি সিরিজ। এখন পর্যন্ত এই সিরিজের ছয়টি মুভি রিলিজ হয়েছে। ২০০৮ সালে নাম ভূমিকায় রিলিজ হওয়া Tinker Bell ব্লকবাস্টার হিট হওয়ার পর ডিজনি একের পর এক এর সিক্যুয়েল বের করতে থাকে। ২০০৯ সালে Tinker Bell and Lost Treasure, ২০১০ এ Tinker Bell and the Great Fairy Rescue, ২০১১ তে Tinkerbell and the Mysterious Winter Woods এবং ২০১২ তে Secret of the Wings বাজারে আসে। ২০১৩ তে ডিজনী তাদের বিগ প্রজেক্ট Frozen নিয়ে ব্যস্ত ছিল বিধায় এই সিরিজের কোন মুভি রিলিজ হয় নি, তবে ২০১৪ তে আবার ডিজনী নিয়ে আসে এই সিরিজের পরবর্তী মুভি The Pirate Fairy. বাচ্চাদের মাঝে টিংকার বেল অসম্ভব জনপ্রিয় একটি ক্যারেক্টার। বড়রাও এই সিরিজটি সম উৎসাহে দেখেন।

Kung Fu Panda:
বিশ্বব্যাপী আরেক জনপ্রিয় অ্যানিমেশন সিরিজ হল কুংফু পান্ডা। চাইনিজ কুংফুকে মূল উপজীব্য করে এই সিরিজটি নির্মাণ করেছে DreamWorks Animation Skg. এক পেটুক পান্ডাকে ঘিরে এই ছবির কাহিনী বিস্তৃতি লাভ করেছে যে কিনা বাবার দোকানে নুড্যুলস বিক্রয় করেই তুষ্ট ছিল কিন্তু ভাগ্যক্রমে দেশরক্ষার স্পেশাল বাহিনী ‘ড্রাগন ওয়ারিঅরস’ এ এসে পড়ে। তারপরই কাহিনী ভিন্ন দিকে মোড নেয়। প্রচন্ড হাসির এই সিরিজটির এখন পর্যন্ত দুইটি সিক্যুয়েল বের হয়েছে- ২০০৮ সালে Kung Fu Panda আর ২০১১ তে Kung Fu Panda 2. ২০১৫ সালে এই সিরিজের তৃতীয় মুভিটি রিলিজ হওয়ার কথা আছে।

Despicable Me:
ডেসপিক্যাবল মি হল এমন একটি অ্যানিমেশন সিরিজ যেখানে আছে সায়েন্স প্রজেক্ট, এডভেঞ্চার, চুরি, প্রেম, সন্তানের প্রতি বাবার ভালবাসা, বিশ্বস্ততা এবং অ্যাকশন। এই সিরিজটি তৈরি করেছে Illumination Entertainment এবং ডিস্ট্রিবিউশনের দায়িত্বে ছিল Universal Movies. ২০১০ সালে এই সিরিজের প্রথম মুভি Despicable Me এবং ২০১৩ তে দ্বিতীয় মুভি Despicable Me 2 রিলিজ করা হয়।

How To Train Your Dragon:
২০১০ সালে রিলিজ পাওয়া How to train your dragon মুভিটিকে সর্বকালের সেরা ৫টি অ্যানিমেশন মুভির একটি বলে গণ্য করা হয়। DreamWorks Animation এর ব্যানারে নির্মিত এই মুভির নায়ক হিক্ক্যপ একজন ভাইকিং, ড্রাগনদের সাথে যুদ্ধ করেই যাদের বসবাস। টুথলেস নামক এক নাইট ফিউরি ড্রাগনকে বস মানিয়ে সে ভাইকিংদের ৩০০ বছরের ইতিহাসকেই বদলে দেয়। ভাইকিংরা ড্রাগনদের হন্তারকের পরিবর্তে হয়ে উঠে তাদের রক্ষক। ২০১৪ সালে মুক্তি পায় এই সিরিজের দ্বিতীয় মুভি How To Train Your Dragon 2.

Cloudy With Chance Of Meatballs:
ফ্লিন্ট, একজন বিজ্ঞানী। সে চায় এমন কিছু উদ্ভাবন করতে যা তার শহরের কাজে লাগবে। কিন্তু তার বেশিরভাগ উদ্ভাবনই হিতে বিপরীত হয়ে যায়। তার সবচেয়ে মহান আবিষ্কার হল মিটবলস। খাওয়ার নিয়ে যাতে কখনো কাউকে কষ্ট করতে না হয় সেজন্যই মিটবলস তৈরি করা হয়েছিল। যার কাজ হচ্ছে ইলেকট্রিক এনার্জিকে ব্যবহার করে ফুড সাপ্লাই করা। উদ্দেশ্য মহৎ কিন্তু মেয়রের ভুলে শহরে খাদ্যের বন্যা দেখা দেয়। তখন মিটবলসকে বন্ধ করতে শুরু হয় আরেক অভিজান। Sony Entertainment Ltd. এই সিরিজটি পরিচালনা করে। এখন পর্যন্ত এই সিরিজের দুইটি মুভি রিলিজ পেয়েছে। দ্বিতীয় মুভিটিতে মিটবলস কি করে নতুন আরেকটা ফুড কমিউনিটি গড়ে তুলে তা দেখানো হয়। সিরিজের প্রথম মুভিটি ছিল মিটবলস ধ্বংস করার মিশন আর দ্বিতীয় মুভিতে ছিল তাকে রক্ষা করার মিশন।
সূত্র: নিজ ও পরামর্শ.কম
*অ্যানিমেটেডমুভি* *মুভি*
ছবি

তৌফিক পিয়াস: ফটো পোস্ট করেছে

Tangled: ডিজনির বেস্ট অ্যানিমেটেড মুভি

*অ্যানিমেটেডমুভি*
ছবি

তৌফিক পিয়াস: ফটো পোস্ট করেছে

Horton Hears a Who!: একটা ফুর্তিবাজ হাতি ও তার মাইক্রোস্কোপিক বন্ধুদের গল্প

Horton: একটা ফুর্তিবাজ হাতি, যে তার মাইক্রোস্কোপিক বন্ধুদের রক্ষা করতে বনের অন্যান্য প্রাণীদের সাথে ঝামেলায় জড়িয়ে পড়ে..

*অ্যানিমেটেডমুভি*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

অ্যানিমেটেড মুভি যারা পছন্দ করেন তাদের জন্য ২০১৪ সালে মুক্তি প্রাপ্ত জনপ্রিয় কিছু অ্যানিমেটেড মুভির তালিকা তুলে ধরছি।

২০১৪ সালের অ্যানিমেটেড মুভিঃ

১. The Book of Life (2014)The Boxtrolls (2014)
২. Big Hero 6 (2014)
৩. How to Train Your Dragon 2 (2014)
৪. The Lego Movie (2014)
৫. Mr. Peabody & Sherman (2014)
৬. Penguins of Madagascar (2014)
৭. Planes: Fire & Rescue (2014)
৮. Fire & Rescue (2014)
৯. Rio 2 (2014)
১০. The Nut Job (2014)
১১. The Pirate Fairy (2014)
১২. My Little Pony: Equestria Girls - Rainbow Rocks (2014)
১৩. Postman Pat: The Movie (2014)
১৪. Der 7bte Zwerg (2014)
১৫. The Boxcar Children (2014)
১৬. Kahlil Gibran's The Prophet (2014)
১৭. Barbie and the Secret Door (2014)
১৮. Ribbit (2014) 
১৯. Appleseed Alpha (2014)
২০. The Snow Queen 2 (2014)
আশা করি  যারা অ্যানিমেটেড মুভি দেখেন তাদের কাছে এই মুভি গুলো ভাল লাগবে।
*মুভি* *সিনেমা* *অ্যানিমেটেডমুভি*

তৌফিক পিয়াস: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আমার দেখা সেরা ১৫টি *অ্যানিমেটেডমুভি* কাপলঃ 
  1. Flynn Rider & Rapunzel (Tangled)
  2. wall.E & Eve (Wall.E)
  3. Karl Fredrisksen & Ellie (Up)
  4. Flint Lockwood & Sam Sparks (Cloudy with a Chance of Meatballs)
  5. Tarzan & Jane (Tarzan)
  6. Gru & Lucy (Despicable Me 2)
  7. Aladdin & Jasmine (Aladdin)
  8. Blu and Jewel (Rio)
  9. Belle & Beast (Beauty & the Beast)
  10. Shrek & Princess Fiona (Shrek)
  11. Buzz Lightyear & Jessie (Toy Story 3)
  12. Lightning McQueen & Sally (Cars)
  13. Guy & Eep (The Croods)
  14. Manny & Ellie (Ice Age: The Meltdown)
  15. Melman & Gloria (Madagascar)

** আপনার পছন্দের কাপল কোনটা?


*অ্যানিমেটেডমুভি*
ছবি

আমানুল্লাহ সরকার: ফটো পোস্ট করেছে

টপটেনে স্থান করে নেওয়া অ্যানিমেটেড মুভি “স্প্রিটেড অ্যাওয়ে”

বর্তমানে জনপ্রিয় অ্যানিমেটেড মুভি গুলোর মধ্যে টপ টেনে থাকা একটি জনপ্রিয় মুভি “স্প্রিটেড অ্যাওয়ে”। মুভিটি ২০১১ সালে মুক্তি পায়।

*মুভি* *অ্যানিমেটেডমুভি* *সিনেমা*
ছবি

আমানুল্লাহ সরকার: ফটো পোস্ট করেছে

জনপ্রিয় একটি অ্যানিমেটেড মুভি ‘ফ্যান্টাসটিক মিঃ ফক্স’

উইস এন্ডারসন এর পরিচালনায় ‘ফ্যান্টাসটিক মিঃ ফক্স’ মুভিটি মুক্তি পায় ২০০৯ সালে।

*মুভি* *সিনেমা* *অ্যানিমেটেডমুভি*

তৌফিক পিয়াস: ৭ নভেম্বর,২০১৪ তে আসছে ডিজনির Big Hero 6 । *অ্যানিমেটেডমুভি* পাগলদের জন্য মাস্ট সি । (কুল) ট্রেলার দেখুনঃ http://www.youtube.com/watch?v=z3biFxZIJOQ

*মুভি* *ট্রেলার* *অ্যানিমেটেডমুভি*

তৌফিক পিয়াস: একটি বেশব্লগ লিখেছে

২০১০ এর ২৪ নভেম্বরে মুক্তি পায় ডিজনির অন্যতম সেরা *অ্যানিমেটেডমুভি* Tangled . অ্যানিমেটেড মুভিখোররা তো বটেই, যারা এইসবকে ‘পিচ্চি পোলাপাইনদের কার্টুন দেখিনা’ বলে মজা নিতো তাদের জন্যও এই মুভিটা একদম হটকেক ! সোনালী চুলের Princess Rupanzel, চোর-শিরোমনি Flynn Rider (মুভির নায়ক!), ম্যাক্সিমাস, প্যাসকেল আর ডাইনি বুড়ি Mother Gothel এর কথা যাদের মনে আছে তাদের জন্যই ২০১২ এর জানুয়ারীতে রিলিজ পেয়েছে Tangled এর পরবর্তী পর্ব Tangled Ever After. তবে দুঃখের বিষয় হলো মুভির দৈর্ঘ্য মাত্র ৬মিনিট ! (মনখারাপ) আগের মুভিটা যেখানে শেষ হয়েছে, এই শর্টফিল্ম এর কাহিনী সেখান থেকেই শুরু।



Rupanzel এবং Rider এর বিয়ে বিষয়ক ৬মিনিট ব্যাপী মজার মজার ঝামেলার সাথে পরিচিত হতে এক্ষুনি ডাউনলোড করে দেখে ফেলুন । (৬মিনিটের ভিড্যুর কাহিনী সংক্ষেপ আর কি দিবো!) (শয়তানিহাসি)

অফিসিয়াল ট্রেলারঃ http://www.youtube.com/watch?v=xkXOLNrQM4k
টরেন্টঃ http://kat.ph/tangled-ever-after-2012-brrip-xvid-sc0rp-t6285216.html
*মুভি* *অ্যানিমেটেডমুভি* *রিভিউ* *অ্যানিমেটেডমুভি* *শর্টফিল্ম*

তৌফিক পিয়াস: একটি বেশব্লগ লিখেছে

___________________________________
” I’m having a bad, bad day
Its about time that I get my way
Steamrolling whatever I see
I’m having a bad, bad day
If you take it personal, that’s okay
Watch, this is so fun to see
Oh.. Despicable Me “

___________________________________

কাহিনী সংক্ষেপঃ Gru পেশায় একজন ভিলেন! বিশ্বের নামীদামী সব স্থাপনা চুরি করাই যার কাজ । Vector তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দী। সুপার এভিল জিনিয়াস ভেক্টরের চুরিবিদ্যার ডেব্যু হয় মিশরের একটা জলজ্যান্ত(!) পিরামিড চুরির মাধ্যমে। হেরে যাওয়া একদমই না’পছন্দ Gru এর । তাই Vector কে টেক্কা দিয়ে ‘গ্রেটেস্ট ভিলেন অব হিস্টোরি’ হওয়ার লক্ষে নতুন কিছু চুরির প্ল্যান আঁটে সে । আরো বড়… আরো গুরুত্বপূর্ণ …. এবার সে চাঁদ চুরি করবে ! স্টেপ মাত্র ৩টা । ১. গোপন ল্যাব থেকে shrink ray চুরি ২. রকেটে করে চাঁদে পৌঁছুনো আর ৩. shrink ray ব্যবহার করে চাঁদকে একদম ছো্ট্ট করে পকেটে ভরে চলে আসা ! একদম সিম্পল ! কিন্তু শুরুতেই লাগলো ঝামেলা। চুরি করা shrink ray চলে যায় ভেক্টরের কাছে । আগে এটা উদ্ধার করতে হবে।

এবার আসি Margo, Edith আর Agnes এর কাছে। অর্ফানেজ থেকে প্রতিদিন তারা কুকিজ বিক্রি করতে বেরিয়ে পড়ে। চুরি করা shrink ray ভেক্টরের কাছ থেকে উদ্ধার করতে এই ছোট্ট মেয়ে তিনটিকে ব্যবহার করার প্ল্যান আঁটে Gru. তাদের দিয়ে কুকিজ বিক্রির নাম করে ভেক্টরের বাড়িতে ঢুকে পড়ে অনায়াসে চুরি করে আনতে হবে shrink ray. আর চুরিবিদ্যা তো তার ভালোই জানা আছে ! অনাথ মেয়ে তিনটিকে দত্তক নেয় সে । দিন যতোই যায়, অপ্রিয় ও বিরক্তিকর Gru বাচ্চাদের প্রিয় হয়ে উঠতে থাকে। পুরোটা মুভি জুড়েই Gru-র সাথে Margo, Edith আর Agnes এর প্যারেন্টাল সম্পর্ক ধীরে ধীরে কিভাবে গড়ে ওঠে তা দেখা যাবে। গ্রেটেস্ট ভিলেন হয়ে ওঠার লক্ষে ‘নিউবর্ণ ড্যাড’ Gru_র এবার প্রয়োজন রকেট । কিন্তু রকেট বানানোর জন্য ব্যাঙ্ক লোন না পাওয়ায় আবারো অনিশ্চিত হয়ে পড়ে চন্দ্র-চুরির প্ল্যান । Gru কি পারবে চাঁদকে আকাশ থেকে চুরি করে আনতে???? আর Margo, Edith আর Agnes এর প্রিয় বাবা হয়ে উঠতে??? জানতে হলে এক্ষুনি ডাউনলোড করে দেখে ফেলুন Despicable Me. প্রায় দেড়ঘন্টার এই মুভি এক বসাতেই দেখে উঠতে হবে গ্যারান্টি দিলাম !! (কুল)


IMDB rating: 7.7/10
টরেন্টঃ https://yts.re/movie/Despicable_Me_2010

*পূর্বে এখানে প্রকাশিতঃ  http://bioscopeblog.net/flynn-rider/5846
*মুভি* *অ্যানিমেটেডমুভি* *রিভিউ* *সিনেমা*

তৌফিক পিয়াস: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 আপনার দেখা সেরা এনিমেটেড মুভির নাম কি? কোন ক্যারেক্টার সবচাইতে ভালো লাগে?

উত্তর দাও (১৫ টি উত্তর আছে )

.
*এনিমেটেডমুভি* *সিনেমা* *অ্যানিমেটেডমুভি*

sammabostha: *অ্যানিমেটেডমুভি* the croods,wall-e,madagasker এই তো!

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★