আনারস

আনারস নিয়ে কি ভাবছো?

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 আনারসের শরবত কিভাবে বানাতে পারি?

উত্তর দাও (২ টি উত্তর আছে )

.
*আনারস* *আনারসেরশরবত*

tanjila shamim: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 আনারস ও দুধ একসাথে খেলে কি হবে?

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

.
*আনারস* *দুধ* *বিষক্রিয়া* *এসিডিটি* *গ্যাস্ট্রিকসমস্যা* *ফুডট্যাবু* *কুসংস্কার*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

সহজে ফলের খোসা ছাড়ানো ও কাটার জন্য এখন বাজারে কয়েক রকম কাটার দেখতে পাওয়া যায়। ঘর কন্নার আনারস কাটারের মতো ছোটখাটো সরঞ্জাম অনেকটা সময় বাঁচায়। আনারস কেটে পরিবেশন করা একটু কঠিন কাজই। কারণ অন্যান ফলের চেয়ে আনারস কাটতে একটু বেশিই ঝক্কি পোহাতে হয়। আনারসের চোখগুলো থেকে গেলে তা জিহ্বায় বিস্বাদ ঠেকে। কিন্তু আনারস কাটতে আর ঝক্কি পোহাতে হবে না। উদ্ভাবন হয়েছে এক নতুন হস্তচালিত কিচেন মেশিনের, যা দিয়ে মাত্র ১ মিনিটেই আনারস কাটা যাবে।  এই বিশেষ কাটারটির নাম পাইনএ্যাপেল ইজি স্লেইসার (Pineapple easy Slicer)।

এই আনারস কাটারের সাহায্যে একবারেই আনারসের সম্পূর্ণ খোসা ছাড়িয়ে নেওয়া যায়। খোসা ছাড়ানোর সময় আনারসের গায়ে খাঁজকাটা নকশা তৈরি হয়ে যায়। পিস করার পর টুকরাগুলো ফুলের মতো দেখায়। আনারস বা অন্যান্য ফল কাটার সরঞ্জামের দাম প্রায় কাছাকাছি। তবে দেশি ও বিদেশি দুই ধরনের কোয়ালিটি আছে। দেশিগুলোর দাম ১২০ থেকে ২৫০ টাকার মধ্যে। একটু ভালো মানের চাইলে ১৫০ থেকে ৫০০ টাকা খরচ হতে পারে। 

টিউটোরিয়াল দেখে নিতে পারেন :

https://youtu.be/z2pZUtWuw3U 

*আনারস* *আনারসকাটার* *পাইনএ্যাপেলকাটার* *কিচেনগ্যাজেট* *গৃহস্থালিসামগ্রী*

মুখোশ: একটি বেশব্লগ লিখেছে

মৌসুমী ফলের নানা গুণ। আর সেটা যদি হয় আনারস তাহলে তো কথাই নেই। অসংখ্য গুণে গুনান্বিত এই ফলে খেয়ে যেমন শরীরে পানির চাহিদা মেটানো যায় তেমনি বাড়তি পুষ্টিগুণ পেতে জুড়ি নেই এর। এই গরমে তাই খাদ্য তালিকায় যুক্ত হোক আনারস। জেনে নিই আনারসের ৭টি উপকারিতা-

পুষ্টির অভাব দূর করে
আনারস পুষ্টির বেশ বড় একটি উৎস। আনারসে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ এবং সি, ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম ও ফসফরাস। এসব উপাদান আমাদের দেহের পুষ্টির অভাব পূরণে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

ওজন নিয়ন্ত্রণে 
শুনতে অবাক লাগলেও আনারস আমাদের ওজন কমাতে সাহায্য করে। কারণ আনারসে প্রচুর ফাইবার এবং অনেক কম ফ্যাট রয়েছে। সকালে আনারস বা সালাদ হিসেবে এর ব্যবহার অথবা আনারসের জুস অনেক বেশি স্বাস্থ্যকর।

হাড় গঠনে 
আনারসে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম ও ম্যাঙ্গানিজ। ক্যালসিয়াম হাড়ের গঠনে বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এবং ম্যাঙ্গানিজ হাড়কে করে তোলে মজবুত। প্রতিদিনের খাবার তালিকায় পরিমিত পরিমাণ আনারস রাখলে হাড়ের সমস্যাজনিত যে কোনও রোগ প্রতিরোধ করা সম্ভব।

দাঁত ও মাড়ি সুরক্ষায়
আনারসের ক্যালসিয়াম দাঁতের সুরক্ষায় কাজ করে। মাড়ির যে কোনো সমস্যা সমাধান করতে বেশ কার্যকর ভূমিকা পালন করে। প্রতিদিন আনারস খেলে দাঁতে জীবাণুর আক্রমণ কম হয় এবং দাঁত ঠিক থাকে।

চোখের স্বাস্থ্য রক্ষায়
বিভিন্ন গবেষণায় দেখা যায়, আনারস ম্যাক্যুলার ডিগ্রেডেশন হওয়া থেকে আমাদের রক্ষা করে। এ রোগটি আমাদের চোখের রেটিনা নষ্ট করে দেয় এবং আমরা ধীরে ধীরে অন্ধ হয়ে যাই। আনারসে রয়েছে বেটা ক্যারোটিন। প্রতিদিন আনারস খেলে এ রোগ হওয়ার সম্ভাবনা ৩০ শতাংশ পর্যন্ত কমে যায়। এতে সুস্থ থাকে আমাদের চোখ।

হজমশক্তি বৃদ্ধি করে
আনারস আমাদের হজমশক্তি বৃদ্ধি করতে বেশ কার্যকরী। আনারসে রয়েছে ব্রোমেলিন, যা আমাদের হজমশক্তিকে উন্নত করতে সাহায্য করে। বদহজম বা হজমজনিত যে কোনো সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে প্রতিদিন আনারস খাওয়া অত্যন্ত জরুরি।

রক্ত জমাটে বাধা দেয়
দেহে রক্ত জমাট বাঁধতে বাধা দেয় এই ফল। ফলে শিরা-ধমনির (রক্তবাহী নালি) দেয়ালে রক্ত না জমার জন্য সারা শরীরে সঠিকভাবে রক্ত যেতে পারে। হৃদপিণ্ড আমাদের শরীরে অক্সিজেনযুক্ত রক্ত সরবরাহ করে। আনারস রক্ত পরিষ্কার করে হৃদপিণ্ডকে কাজ করতে সাহায্য করে

*আনারস*
ছবি

আমানুল্লাহ সরকার: ফটো পোস্ট করেছে

আনারস চাষ

*আনারস*

শাওন: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 আনারসের জ্যাম কিভাবে বানায়?

উত্তর দাও (২ টি উত্তর আছে )

*জ্যাম* *আনারস* *রেসিপি*

★ছায়াবতী★: একটি টিপস পোস্ট করেছে

আনারসের যতো গুণ
http://www.bangla.24livenewspaper.com/lifestyle/health/2107-%E0%A6%86%E0%A6%A8%E0%A6%BE%E0%A6%B0%E0%A6%B8%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%AF%E0%A6%A4%E0%A7%8B-%E0%A6%97%E0%A7%81%E0%A6%A3
এই সময়ে পাওয়া যাওয়া ফলের মধ্যে আনারস অন্যতম। আনারসের রয়েছে বেশ সমৃদ্ধ পুষ্টিগুণ।আনারসে আছে ভিটামিন সি ও ম্যাঙ্গানিজ। এই দু’টো উপাদানই দাঁতের মাড়ির জন্যে খুবই ভালো। আনারস খাওয়ার ফলে দাঁতের মাড়ির টিস্যু ভালো থাকে। আর এর ফলে দাঁত এবং মাড়ির বিভিন্ন রোগ থেকে বেঁচে থাকা যায়। একই সাথে কারও নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ থাকলে তা থেকেই রেহাই পাওয়া যাবে। তাই দাঁতের উপকার পেতে বেশি বেশি আনারস খান। চোখের রেটিনার একটি কমন রোগ হচ্ছে Macular Degeneration। এ রোগ থেকে রেহাই পেতে শরীরে প্রচুর ভিটামিন 'এ' এবং বিটা ক্যারোটিন প্রয়োজন। আর এই দু’টোই আনারসে প্রচুর পরিমাণে রয়েছে। তাই চোখের রোগ প্রতিরোধে আনারস খান। যাদের হজমে সমস্যা আছে তাঁরা চোখ বুজে আনারস খেতে পারেন। কারন আনারসে আছে ভিটামিন বি-৬ ও প্রচুর পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম। যা মানুষের পাকস্থলীর হজম ক্ষমতা বাড়ায়। তাই হজমের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আনারস বা আনারসের জুস খান। সর্দি, কাশি, কফ ইত্যাদি সমস্যা থেকে রেহাই পেতেও আনারসের শরণাপন্ন হতে পারেন। গবেষকদের মতে, কণ্ঠনালীর সমস্যায় আনারসের জুস বেশ কার্যকর। আনারসের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ গুণটি হচ্ছে, এটি হাড় মজবুত করে। আনারসে থাকা ম্যাঙ্গানিজ হাড় মজবুত করতে সাহায্য করে। একজন মানুষের জন্য প্রয়োজনীয় ম্যাঙ্গানিজের প্রায় ৭৩ শতাংশই আনারসে পাওয়া যায়। এছাড়া আনারস আর্থ্রাইটিস, গেঁটে বাত, কব্জির হাড়ের নানা রোগ উপশমে ভূমিকা রাখে। ...বিস্তারিত
*হেলদিফুড* *আনারস*
৯৪ বার দেখা হয়েছে

দীপ্তি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

শবে বরাত উপলক্ষে  প্রচন্ড গরমের মাঝেও রান্না ঘরে হালুয়া তৈরির পুরো আয়োজন চলছে। যারা এখনো হালুয়া তৈরি করার সুযোগ পান নাই ব্যস্ততার জন্য তারা ঝটপট হালুয়া তৈরী করতে চাইলে রেঁধে ফেলতে পারেন আনারসের হালুয়া। বেশ সহজেই এবং কম সময়েই এই হালুয়া তৈরি করা যায় এবং হালুয়াটি খেতেও অসাধারণ স্বাদ। আসুন জেনে নেয়া যাক আনারসের হালুয়ার সহজ রেসিপিটি।

উপকরণঃ
দেড় কাপ আনারস (মিহি কুচি/ব্লেন্ড করা)
১/৪ কাপ মাওয়া (গুড়া করা)
১/২ কাপ দুধ
২ টেবিল চামচ চিনি
১ টেবিল চামচ ঘি
সামান্য জাফরান (১ টেবিল চামচ দুধে গোলানো)
বাদাম. কিসমিস (সাজানোর জন্য)

প্রস্তুত প্রণালীঃ
  • একটি প্যানে ঘি গরম করে নিন।
  • ঘি গরম হয়ে গেলে প্যানে আনারস ও চিনি দিয়ে অল্প আঁচে নাড়তে থাকুন।
  • ৮-১০ মিনিট নাড়ার পরে মাওয়া ও দুধ দিয়ে ধীরে ধীরে মিশিয়ে নিন।
  • ৪-৫ মিনিট ক্রমাগত নাড়তে থাকুন যেন দুধ শুকিয়ে হালুয়া ঘন হয়ে আসে।
  • জাফরানের মিশ্রণটি দিয়ে আরো কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে হালুয়া ঘন হয়ে গেলে নামিয়ে ফেলুন চুলা থেকে।
  • ব্যাস তৈরী মজাদার আনারসের হালুয়া।

টার্ট চাইলে কিনে নিতে পারেন বিভিন্ন পেস্ট্রি শপ থেকে কিংবা নিচের পদ্ধতিতে বানিয়েও নিতে পারেন l 

উপকরণঃ
- ১৮০ গ্রাম বাটার
- ৬ টেবিল চামচ পানি
- ২ টেবিল চামচ তেল
- ২ টেবিল চামচ চিনি
- ১ চিমটি লবণ
- ২ কাপ (৩০০ গ্রাম) ময়দা

পদ্ধতিঃ
- প্রথমে বাটার, তেল, পানি, চিনি ও লবণ একসাথে গরম করে গলিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর এতে পেস্ট্রির জন্য রাখা ময়দা দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে নিন। খুব দ্রুত ঘন ঘন নেড়ে মাখিয়ে নেবেন।

- যখন ময়দার মিশ্রন পাত্রের গা থেকে উঠে আসবে তখন বুঝবেন ডো তৈরি হয়ে গিয়েছে।

- মিনি মাফিনের মোল্ড ব্যবহার করবেন। তৈরি করা ডো মাফিনের মোল্ডে ভালো করে দিয়ে মোল্ডের আঁকার দেবেন। এতে করে বাটির মতো আঁকার তৈরি হবে।

- ১ টি কাটা চামচ দিয়ে মোল্ডে রাখা ডো ২ বার করে কেঁচে দিন। এরপর ২০০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে ৮-১২ মিনিট বেক করে নিন। অথবা সোনালী বাদামী হওয়া পর্যন্ত বেক করে নিন। এরপর নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন।

- এরপর মোল্ডে রাখা টার্টের ভেতরে তৈরি করা আনারসের হালুয়া দিয়ে ভর্তি করে দিন।

- এরপর ওভেন ১৫০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে ৫-১০ মিনিট বেক করে নিন অথবা পছন্দ মতো স্বাদের ক্রাস্ট হওয়া পর্যন্ত বেক করে নিন।

- ব্যস, এবার ওভেন থেকে নামিয়ে পরিবেশন করুন সুস্বাদু মজাদার আনারসের টার্ট হালুয়া l 

*হালুয়া* *ফ্রুটসহালুয়া* *আনারস* *শবে-বরাত* *রেসিপি* *আনারসটার্ট*

গাজী আজিজ: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আমাদের মধ্যে অনেকেরই আনারস খুব প্রিয় একটি পুষ্টিগুণ সম্পন্ন ফল। ফলটি মিষ্টি, রসালো ও তৃপ্তিকর। এই ফলটিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘এ’, ‘সি’, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস এবং পটাশিয়াম রয়েছে। এই ফলটিতে প্রচুর পরিমাণ আঁশ ও ক্যালোরি রয়েছে। এটি কলস্টেরল ও চর্বিমুক্ত। তাই স্বাস্থ্য সুরক্ষায় এ ফলের জুড়ি নেই। আনারসে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামি সি, যা ভাইরাস প্রতিরোধ করে এবং গলা থেকে কফ দূর করে। ঠা-া ইনফেকশন হয়ে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হলেও আনারস খেলে বেশ উপকার পাওয়া যাবে। আনারসে থাকা খনিজ পদার্থ হাড়কে মজবুত করে। এক কাপ আনারসের রসে পুরো শরীরের খনিজ পদার্থের ৭৩ শতাংশ পর্যন্ত পূরণ করতে পারে। দাঁতের মাঢ়ি নিয়ে যারা দুশ্চিন্তগ্রস্ত তারা নিয়মিত আনারস খেলে দাঁতের মাঢ়ি সুস্থ ও মজবুত হয়। গরম-ঠা-ার জ্বর, জ্বরজ্বর ভাব দূর করে এই ফল। এতে ব্যথা দূরকারী উপাদান রয়েছে। তাই শরীরের ব্যথা দূর করার জন্য এর অবদান গুরুত্বপূর্ণ। আনারস কৃমিনাশক। কৃমি দূর করার জন্য খালি পেটে (সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে) আনারস খাওয়া উচিত। এ ছাড়া ফলটি দেহে রক্ত জমাট বাঁধতে বাধা দেয়। ফলে শিরা-ধমনির (রক্তবাহী নালি) দেয়ালে রক্ত না জমার জন্য সারা শরীরে সঠিকভাবে রক্ত যেতে পারে। হৃৎপি- আমাদের শরীরে অক্সিজেনযুক্ত রক্ত সরবরাহ করে। আনারস রক্ত পরিষ্কার করে হৃৎপি-কে কাজ করতে সাহায্য করে এবং দেহের তৈলাক্ত ত্বক, ব্রণসহ সব রূপলাবণ্যে আনারসের যথেষ্ট কদর রয়েছে। সূত্র: ইন্টারনেট
*আনারস*

হাফিজ উল্লাহ: একটি বেশব্লগ লিখেছে

বাজারে এখন চোখ বুলালেই চোখে পড়ে ছোট ছোট আনারস ছোট্ট এবং হলদে প্রায় আনারসগুলো যে কারো নজর কাড়তে বাধ্য শুধু নজর কাড়া নয় এই আনারসগুলো স্বাদেও বেশ অতুলনীয় এক টুকরো আনারস মুখে দিলে অমৃতের স্বাদ পাওয়া যায়
যে কোনো ধরনের ফাস্টফুড জাতীয় খাবারের তুলনায় এই ছোট্ট ছোট্ট একেকটা আনারস অনেক বেশি স্বাস্থ্যকর তা বলাই বাহুল্য তারপরও অনেকে জেনে শুনে আনারস খেতে চান না কিন্তু এই সময়ে আনারস খাওয়া শরীরে জন্য অত্যন্ত জরুরী জানতে চান আনারসের স্বাস্থ্য উপকারিতা? চলুন তবে দেখে নেয়া যাক আনারস খাওয়া কেন আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য জরুরী

দেহের পুষ্টির অভাব দূর করে আনারস:
আনারস পুষ্টির বেশ বড় একটি উৎস আনারসে রয়েছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন এবং সি, ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম ফসফরাস এই সকল উপাদান আমাদের দেহের পুষ্টির অভাব পূরণে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে প্রতিদিন অল্প পরিমানে আনারস খেলে দেহে এইসকল পুষ্টি উপাদানের অভাব থাকবে না

ওজন কমায় আনারস:
শুনতে বেশ অবাক লাগলেও আনারস আমাদের ওজন কমানোয় বেশ সাহায্য করে কারন আনারসে প্রচুর ফাইবার রয়েছে এবং অনেক কম ফ্যাট সকালের যে সময়ে ফলমূল খাওয়া হয় সে সময় আনারস এবং সালাদে আনারস ব্যবহার অথবা আনারসের জুস অনেক বেশি স্বাস্থ্যকর তাই ওজন কমাতে চাইলে আনারস খান

হাড়ের সুস্থতায় আনারস:
আনারসে রয়েছে প্রচুর পরিমানে ক্যালসিয়াম ম্যাংগানিজ ক্যালসিয়াম হাড়ের গঠনে বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এবং ম্যাংগানিজ হাড়কে করে তোলে মজবুত প্রতিদিনের খাবার তালিকায় পরিমিত পরিমান আনারস রাখলে হাড়ের সমস্যাজনিত যে কোনো রোগ প্রতিরোধ করা সম্ভব

দাঁত মাড়ির সুরক্ষায় আনারস:
আনারসের ক্যালসিয়াম দাঁতের সুরক্ষায় কাজ করে মাড়ির যে কোনো সমস্যা সমাধান করতে বেশ কার্যকর ভূমিকা পালন করে প্রতিদিন আনারস খেলে দাঁতে জীবাণুর আক্রমণ কম হয় এবং দাঁত ঠিক থাকে

চোখের স্বাস্থ্য রক্ষায় আনারস:
বিভিন্ন গবেষণায় দেখা যায় যে আনারস ম্যাক্যুলার ডিগ্রেডেশন হওয়া থেকে আমাদের রক্ষা করে এই রোগটি আমাদের চোখের রেটিনা নষ্ট করে দেয় এবং আমরা ধীরে ধীরে অন্ধ হয়ে যাই আনারসে রয়েছে বেটা ক্যারোটিন প্রতিদিন আনারস খেলে এই রোগ হওয়ার সম্ভাবনা ৩০ শতাংশ পর্যন্ত কমে যায় এতে সুস্থ থাকে আমাদের চোখ

হজমশক্তি বৃদ্ধি করে আনারস
আনারস আমাদের হজমশক্তি বৃদ্ধি করতে বেশ কার্যকরী আনারসে রয়েছে ব্রোমেলিন যা আমাদের হজমশক্তিকে উন্নত করতে সাহায্য করে বদহজম বা হজম জনিত যে কোনো সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে প্রতিদিন আনারস খাওয়া অত্যন্ত জরুরী

- মূল: নক্ষত্র ডেস্ক
*আনারস* *সাস্থ্যতথ্য*

রং নাম্বার: গরমে আনারসের উপকারিতা: আনারস শুধু সুস্বাদু গ্রীষ্মকালীন ফলই নয়, এতে রয়েছে বহু পুষ্টিগুণ। এ লেখায় তুলে ধরা হলো আনারসের এসব গুণের কয়েকটি। আনারসে রয়েছে ভিটামিন এ এবং সি। এ ছাড়াও এতে রয়েছে ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম ও ফসফরাস। আনারসে রয়েছে উচ্চমাত্রার ফাইবার ও নিম্নমাত্রার ফ্যাট ও কোলেস্টেরল।

*স্বাস্থ্যতথ্য* *হেলথটিপস* *আনারস*
ছবি

প্যাঁচা : ফটো পোস্ট করেছে

কন্টকাকীর্ণ...

*আনারস* *ক্লিকক্লিক-প্যাঁচা*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★