আষাঢ়েগল্প
আষাঢ়েগল্প নিয়ে কি ভাবছো?

Lutfun Nessa: *আষাঢ়েগল্প* বেগম খালেদা জিয়া গতরাত ১০:২০ মি: লন্ডনে এলিজাবেথ হাসপাতালে ডাক্তারদের সাথে পাঞ্জা লড়ে ক্লান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করেন. (মনখারাপ)

রাখিব আপন: *আষাঢ়েগল্প* বালকটি চলে গেল ।বালিকাটি বসে পড়ল।রুমের ভেতরে শুয়ে থাকা মেয়েটি খাবারের জন্য চিৎকার করে উঠল ।#দ্য লিজেন্দ দুঃখু মিয়া#

ইসমাইল হোসেন: *আষাঢ়েগল্প* অবশেষে খালেদা জিয়াকে প্রেসিডেন্ট বানিয়ে শেখ হাসিনা ৪র্থ বারের মত বাংলাদেশের প্রধান মন্ত্রীর আসন গ্রহন করলেন।

Tanzil Ahamed Tanim: *আষাঢ়েগল্প* এই মুহূর্তে আষাঢ়ে গল্প হল পহেলা বৈশাখ ১৪ই এপ্রিল এর পরিবর্তে ২২ এপ্রিল পালিত হবে । (খুশী২)(খুশী২)(খুশী২)

লুসিফার: এইচএসসি পরীক্ষার্থী হিসেবে এই মুহূর্তে আমার সব চেয়ে আকাঙ্খিত *আষাঢ়েগল্প* গল্প হলো "অনিবার্য কারণবশত ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিতব্য এইচএসসি পরীক্ষাটি ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত হবে !" (মাইরালা)(আম্মুউউউ)(ফুঁপিয়েকান্না)(ছেড়েদেশয়তান)

সুমন (দুষ্ট পাখির বাবা): ভেবেছিলাম *বর্ষাকাল* শেষ হলে *বিছানাকান্দি* যেয়ে *আষাঢ়েগল্প* শুনবো আর *খিচুড়ি* খাব কিন্তু হায়রে কপাল আপুর *শখেরবাগান* *বৃষ্টি*র কারণে নষ্ট হলে বাসার *পরিস্থিতি**গরম* হয়ে উঠে তাই *গ্যাঞ্জাম* থেকে বাঁচতে *টঙের-দোকান* বসে আছি.....

*বর্ষাকাল* *বিছানাকান্দি* *আষাঢ়েগল্প* *খিচুড়ি* *শখেরবাগান* *পরিস্থিতি**গরম* *গ্যাঞ্জাম*

শাকিল: যদি আপনার এমন ধারণা যে- আপনি যে দল কে সমর্থন করেন বরাবরই তারাই হারবে, সব সময় যদি এমনটা ঘটে তাহলে আজকে ওই ব্রিটিশদের সাপোর্ট করেন মন থেকে ...উল্টা কিছু ঘটলে বুঝবেন আপনি সেই রকম ভাগ্যবান |

*আষাঢ়েগল্প* *বাংলাদেশ-না-ইংল্যান্ড*

প্যাঁচা : আর কত,গতরাতের আগের রাতে চুরি করে রাত ১টার দিকে বাসা থেকে বাইক নিয়ে বের হইছিলাম এবং অবাক করা ঘটনার মুখোমুখি হলাম। একপা খালি,একপায়ে জুতা,হাতে ব্যান্ডেজ দেখে রাস্তায় পুলিশ দাড় করাইলো।কাহিনী শুনে উলটা হাসাহাসি এবং পরে যতক্ষণ একই রাস্তা আমরা ছিলাম,আমাকে ওনাদের সামনে সামনে চলতে বললেন যেন অন্য গাড়ি ঝামেলা করতে না পারে।হাহাহা... আমি খুবই অবাক হইছি ওনাদের এই আচরণে।আমিতো ভাবছিলাম হেনস্থার সীমা থাকবেনা...হাহাহাহা..Almost too good to be true(ভেঙ্গানো)

*পুলিশ* *আষাঢ়েগল্প*

বিম্ববতী: বেশতো জন্মলগ্নে অতীব প্রানোচ্ছল ছিল! যাহা রান্নার রেসিপি আর রূপচর্চা ব্যাতিরেকেও দেশ-বিদেশের নানান সমস্যা লইয়া আলোচনায় ব্যস্ত থাকিত! একদিন বেশতোকে না দেখিলে বেশিরভাগ সদস্য'রই বদহজম হইতো বলিয়া শুনিয়াছিলাম! আজ এহেন বাক্যকে *আষাঢ়েগল্প* ভাবিয়া ঘুম দিন,,

*বেশতো* *স্যাটায়ার*

Robin: *আষাঢ়েগল্প* উজানের পানি ভাটি অঞ্চল বাংলাদেশের ওপর দিয়েই যাবে; কিন্তু ফারাক্কা না থাকলে পানি নিয়মিত বৃষ্টির সাথে নিয়মিত অল্প অল্প করে পানি আসতো; এভাবে ফারাক্কায় পানি আটকিয়ে অনেক পানি জমিয়ে একসাথে ছাড়লেতো দুকূল ছাপিয়ে পানি আসবেই নদীকুল ভাঙবেই।

প্যাঁচা : *আষাঢ়েগল্প* "আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালোবাসি..."...(ভয়পাইসি)(ভাগোওওও)

সাদাত সাদ: [বাঘমামা-এইটাকিসুহইলো]একটু হাসি মুখ দেখার লোভে এতদূর বহুদূর শেষ পর্যন্ত আমি পরাজিত সেই হাসি মুখ দেখা হলো না।

*হাসিমুখ* *বাবা* *মুখ* *মনেরকথা* *আষাঢ়েগল্প*

সাদাত সাদ: হারানো দিন গুলো খুবই সুন্দর। কোন এক সময় মাত্র ১০০ টাকার একটা ব্যাট কেনার পয়সা আমার ছিলনা, আর এখন তো আর ব্যাট এর প্রয়োজন ই হয়না। গতবার দেশে গিয়ে ছোটদের কে হাজার টাকা দামের ৫ টা ব্যাট কিনে দিয়ে আসলাম, অথচ আমি সেই ব্যাট দিয়ে একদিন ও খেলিনি। আসলে মানুষের জীবন টাই যেন কেমন। দিন বদলে যায়, বদলে যায় শৈশবের ইচ্ছে গুলো ও। আমরা হারিয়ে যায় কর্মবস্ততায়।

*শৈশব* *স্মৃতি* *মনেরকথা* *আষাঢ়েগল্প*

♦ মমিতা ♦: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

আবুল টিভির সকালের খবর
শ্বাস নেবার উপর ভ্যাট বসিয়েছে সরকার জনসাধারণকে জানানো যাচ্ছে যে সবাই দিনে সীমিত ভাবে শ্বাস নেবেন, অতিরিক্ত নিলে বাড়তি ভ্যাট প্রদান করতে হবে আবুল টিভির সকালের খবর এখানেই সমাপ্তি পরবর্তী সংবাদ দেখবেন, আমাদের প্রতিষ্টাতা আবুলের মৃত্যুর পর। ততদিন আপনারা ভাল থাকুন
*আষাঢ়েগল্প* *ভ্যাট*

নিপু সেন: ২০৮০ সালের কোন এক ভোরবেলা ! শুভ্র তার মাথায় এবং বুকে আলাদা আলাদা দুটি ডিভাইস লাগিয়ে তার সকাল বেলার জগিং করছে- ডিভাইস দুটি অনবরত শুভ্রর মনে এবং মস্তিষ্কে স্ক্যান করছে ! বাসায় ফিরে শুভ্র ডিভাইসটির এলসিডি মনিটরে দেখতে পেলো- গত কাল সে তার বসকে অভিশাপ দিয়েছিলো, ও একটু লজ্জা পেলো ! কিন্তু বেশ হালকা লাগছে সব দুশ্চিন্তা/খারাপ কিছু ডিভাইসটি মুছে ফেলেছে

*আষাঢ়েগল্প* *প্রতিযোগিতা*

হাফিজ উল্লাহ: একটি বেশব্লগ লিখেছে

খবর পরছি চেনা পথিক,
মেয়রের করা মানহানির মামলায় পলাতক রয়েছেন জনাব মারগুব সাহেব l আমাদের অনুসন্ধানী রিপোর্ট বলছে উনি ইতি মধ্যে বাংলাদেশ ছেড়ে গেছেন l পুলিশ বলছে তারা ইন্টারপুলের মাধ্যমে আসামিকে ধরার/গ্রেফতার করার  চেষ্টা করে চলছে l

গতকাল তুরাগ নদীর পাশে উড়ুক্ক গাড়ির রেজিস্ট্রেশন নিতে গিয়ে বেশতোর ছেলে এবং মেয়ে দুপক্ষের মাঝে চরম হট্টগোল লাগে l আহত মেয়েদের নদীর উত্তর পার্শে আর ছেলেদের দক্ষিন পার্শে ভর্তি করা হয়েছে l ডাক্তার জানিয়েছেন আহতরা আশংকামুক্ত নয় l বেশতো মেম্বার্স এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে এর চরম নিন্দা জানিয়ে বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি জানিয়েছে l ঘটনা তদন্তে পুলিশ একজন সাবেক বিচার পতিকে প্রধান করে ৩ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করেছে l 

এদিকে মেয়রের দেয়া সতর্ক নোটিস পেয়ে লড়ে-চড়ে বসেছেন আমাদের ট্যাগদাতা বেশতোবুজ l আমাদের প্রতিনিদিদের পাঠানো তথ্যে দেখা যাচ্ছে গত কয়েকদিন ধরে বেশতোবুজ পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করছে না l আমাদের হাতে খবর আছে মামলা ডিসমিস না হওয়া পর্যন্ত গা ঢাকা দিতে পারেন বেশতোবুজ l

আষাঢ়ে টিভির পরবর্তী খবর জানার জন্যে আমাদের আসে-পাশেই থাকুন, সব সময় l
ধন্যবাদ l
*আষাঢ়েগল্প* *প্রতিযোগিতা*

তিমু চৌধুরী: [বাঘমামা-সর্বনাশ] তাহলে কি ফটোকনটেস্ট আর আষাঢ়ে গল্প কনটেস্ট শেষ??? (মাইরালা)

*ফটোকনটেস্ট* *আষাঢ়েগল্প* *অনুতাপ* *মনেরকথা*

হাফিজ উল্লাহ: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

>| আষাঢ়ে টিভির এইমাত্র পাওয়া খবর |<
মেয়রকে নিয়ে আষাঢ়েপল্পের নামে কটুক্তি করে পোস্ট দেয়ায় জনাব মারগুব সাহেবের নামে ১.৫০ পয়সার মানহানির মামলা ঠুকেছেন মেয়র l সতর্ক নোটিস দিয়েছেন বেশতোবুজকে মারগুব সাহেবকে আষাঢ়েগল্পের নামে কনটেস্ট দিয়ে উত্সাহ দেয়ার জন্যে l
*আষাঢ়েগল্প* *প্রতিযোগিতা*

তিমু চৌধুরী: একটি বেশব্লগ লিখেছে

এতক্ষণ শোনছিলেন শিরোনাম এখন শোনবেন বিস্তারিত (হাইতুলি)ঃ 

আজ পাঁচই সেপ্টেম্বর দুই হাজার পনেরো ইং তারিখে দেশের সুনাম-ক্ষেত অতি মাত্রায় প্রতিভাধর এবং বেশতো সাইটের অতি জনপ্রিয়ো এক্টিভিস্ট , অল রাউন্ডার লেখক চৌধুরী সাহেব সকাল আটটা হতে রাত সাড়ে নয়টা পর্যন্ত অনলাইনে না আশায় তুমুল তোলপাড় হয়ে যায় বেশতো ডট কমে। আমাদের অনলাইন সংবাদকর্মী জানিয়েছেন , চৌধুরী সাহেবের অনলাইনে না আসার কারনে এবং কোনো বেশব্লগ না লিখায় তার দুইজন ফলোয়ার ইতোমধ্যে পটল তুলতে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন তারই সাথে অন্যান্য ফলোয়ার এবং নন ফলোয়ার সবাই আমরণ অফলাইনের ডাক দিয়েছেন। 
এইদিকে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে একদল ঝটিকা মিছিল নিয়ে তাদের দাবী জানাবার জন্য অনলাইন ইভেন্টেরও একটি প্রস্তাব দিয়েছে। অবস্থা যে বেগতিক তা বুঝার জন্য আর কিছু বলার প্রয়োজন নেই বললেই চলে। 
এইদিকে বেশতো ডট কমের , বিশিষ্ট প্রশ্নবাজ , পোস্ট মাস্টার , ফটোগ্রাফার , কমেডিয়ান , চিন্তক এবং বেশটুনিস্টরা নিজেদের অবস্থান হতে স্বেচ্ছায় পদ ত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন।  
কান্নার রোল উঠেছে সকল বেশতো আইডীর মাঝে এবং এই শোকে বেশতো বাজ যিনি বেশতো ডোট কমের বাইনোকোলার নামে পরিচিত তিনি নিজের আইডী ডিয়েক্টিভ করার ঘোষণা দিয়েছেন।

সবার এই অসহনীয় অবস্থা দেখে আমাদের মাঠকর্মী যখন চৌধুরী সাহেবের সাথে সাক্ষাৎ করেন তখন চৌধুরী সাহেব বজ্রকণ্ঠে তার অনলাইনে না আসার কারণ হিসেবে বলেন, " আম্মু বলেছে, পরীক্ষার আগে নো ইন্টারনেট নো বেশতোইং ।" (খিকখিক)   

আশা করি অতি শীঘ্রই অবস্থার উন্নতি হবে । বিদায় নিচ্ছি আষাঢ়ে নিউজ বুলেটিন থেকে । সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।  
*আষাঢ়েগল্প*

তিমু চৌধুরী: একটি বেশব্লগ লিখেছে

বাংলাদেশের সাথে ইন্ডিয়ার তুমুল সাইবার যুদ্ধ চলছে । ছোট বড় সকল হ্যাকার দলগুলো ইন্ডিয়ার অফিশিয়াল সাইটগুলোতে এটাক করছে। প্রায় ৫০ হাজার সাইট ইতমধ্যে হ্যাক করেছে বাংলাদেশী হ্যাকাররা ।

 

ঠিক ঐ মুহুর্তে এক ক্ষুদে হ্যাকার টিম উঠে আসে সিলেট থেকে,  নাম “4 হ্যাকার্স”  । কারন টিমে মাত্র চারজন সদস্য ছিল ।  ট্রিকার, অস্ট্রিক, হ্যারি, ওস্টিন ।  তারা একাই ইন্ডিয়ায় ১০ হাজার সাইট নষ্ট করেছিল।  যদিও তাদের অনালাইন এক্টিভিটি এত বেশি ছিলনা ।

অন্যদিকে ট্রান্সপারেন্ট হ্যাট হ্যাকার্স নামের এক বিশাল হ্যাকিং নেটওয়ার্ক সহ আরো কিছু টিম বাকি ৪০ হাজার সাইটের বারোটা বাজিয়েছিল।

 

কিন্তু তখন ইন্ডিয়ান গভর্মেন্টের একটা সাইট, ইন্ডিয়া_গভট.কম সাইটটা হ্যাক করতে হিমশিম খাচ্ছে বাংলাদেশের হ্যাকাররা। সাইটটা হ্যাক করতে পারলেই ইন্ডীয়ার সরকারের টনক নড়ে যাবে । যা করার ১ রাতের মাঝে , নাহলে পরের দিন সকালেই বাংলাদেশ আর ইন্ডিয়ার মাঝে শান্তি চুক্তি হয়ে যাবে।  

 

অনেক হ্যাকার দল ব্যার্থ হয়েছে বারবার চেষ্টা করেও। একমাত্র ভরসা তখন “4 হ্যাকার্স”   তখনই ট্রান্সপারেন্ট হ্যাট হ্যাকার্স টিমের এক সদস্য “4 হ্যাকার্স” টিমের সাথে যোগাযোগ করে । 4 হ্যাকার্স তখন বলে যে চারটা ল্যাপটপ আর ব্ল্যাক হ্যাক ১৭.৫ সফট লাগবে । তখন ট্রান্সপারেন্ট হ্যাকার্স কথা দেয় যে,  যত সফটওয়্যার , কম্পিউটার লাগবে ট্রান্সপারেন্ট হ্যাট হ্যাকার্স টিম তার ব্যবস্থা করে দিবে 4 হ্যাকার্স টীমের কাজ শুধু ইন্ডিয়ার ওয়েব সাইটটা হ্যাক করে দেয়া।

যদিও  4 হ্যাকার্স  টিমের মেম্বাররা প্রথমে রাজি হয়ে যায় কিন্তু অনেক চিন্তা করার পর ট্রিকার বলে উঠে এই কাজে অনেক রিস্ক হবে । যেখানে শান্তি চুক্তি হবে তার আগের রাতে অযথা এইসব করে নতুন হাঙ্গামা করার ফায়দা নেই।  এত দ্রুত কাজ করতে গিয়ে ধরা খাবার চান্সও অনেক। আবার 4 হ্যাকার্স টিমের সবাই চিন্তাতে পরে । এইদিকে আরেকটা সমস্যা হচ্ছে অস্ট্রিক একটা কাজে অন্যকোথাও চলে গেছে। ৩ জন মিলে সিদ্ধান্ত নিতে এমনিতেও অনেক সমস্যা হচ্ছে । বারবার ট্রান্সপারেন্ট হ্যাট হ্যাকার্স টিম থেকে ফোন আসছে। সব মিলিয়ে এক মহা প্যাঁচানো অবস্থায় তিনজন হ্যাকার । একের পর এক সমস্যা বেড়ে চলেছে । আর বারবার অস্ট্রিক মেসেজ দিয়ে চলেছে , “কখন হ্যাক করব ???”  । রাগের মাথায় তখন ট্রিকার অস্ট্রিককে ম্যাসেজ দিয়ে বলে “হ্যাক ট্যাক করব না। তুই অফ যা। বারবার ম্যাসেজ না দিয়ে ভাগ এইখান থাইকা।”

এরপর ট্রিকার, হ্যারি, ওস্টিন তিনজন মিলে একসাথে বসে অনেক চিন্তা করে ফাইনাল ডিসিশন নিয়েই নেয় যে যাই হোক তারা হ্যাক করবে। তখন ওস্টিন বারবার অস্ট্রিক কে ফোন করে আসার জন্য । কিন্তু আজব হাতে মাত্র ৪ ঘন্টা আছে আর অস্ট্রিকের মোবাইল বন্ধ । একের পর এক ফোন দিয়েই চলেছি। অস্ট্রিকের গার্লফ্রেন্ডের নাম্বারও ট্রাই করা হল , কাজ হলনা। সবকটার সুইচ অফ।

এমন সময় আরেক সমস্যা এসে হাজির , ট্রান্সপারেন্ট হ্যাট হ্যাকার্স খবর দিলো যে ব্ল্যাক হ্যাক ১৭.৫ সফট নেই। সফটের অরিজিন কিনতে পারেনি তারা। এর মাঝে ল্যাপটপ পেয়েছে মাত্র ২ টা । এইগুলা দিয়েই কাজ করতে হবে। তখন আরেক সমস্যায় পরল। 4  হ্যাকার্স টিম । একেত মেম্বার মাত্র তিনজন আছে , আবার ল্যাপটপও মাত্র দুইটা পেয়েছে এর মাঝে ব্ল্যাক হ্যাক ১৭.৫ সফট নেই , সেটার বিকল্প  নিজেরাই তৈরি করে নিতে হবে। এত সমস্যার মাঝে হ্যাক করায় ৮০ ভাগ ধরা পরার সম্ভাবনা রয়েছে। কিছু করার নেই , তার যেহেতু কথা দিয়েছে সেহেতু কাজ টা করতেই হবে কিন্তু সমস্যা হচ্ছে অস্ট্রিক নেই। অস্ট্রিক থাকলে কাজটা আরো সহজ হত । অস্ট্রিক  কে কল করার জন্য ওস্টিন মোবাইল্টা হাতে নিয়েছে এমন সময় , ট্রিকার বলে উঠে , “ বাদ দে ওস্টিন। অস্ট্রিককে জানাবার দরকার নেই। অযথা অস্ট্রিককে বিপদে টেনে আনার দরকার নেই।”

ওস্টিনও কথাটা মেনে নেয় ।  তারপর তিনজন মিলেই নতুন করে ব্ল্যাক হ্যাক ১৭.৫ পাচ সফটওয়্যার টা বানাতে চেষ্টা করে। সফটওয়্যার টা বানিয়ে সাইটটা হ্যাক করার কাজে হাত দেয় , কিন্তু অনেক চেস্ট করেও করতে পারেনি। ব্ল্যাক হ্যাক সফটওয়্যারটা ঠিক ভাবে কাজ করছিল না । এইদিকে সময় কমতে কমতে , সময় শেষ হয়ে এলো । হ্যাক করা হল না। ব্যার্থ হল 4  হ্যাকার্স ।

 

ব্যার্থতার সাথে আরো একটি ব্যার্থতা নেমে এলো তাদের মাঝে। টিমটা আর আগের মত রইল না। কেমন যেন ভাঙা ভাঙা হয়ে গেল। অস্ট্রিক বদলে গেলো , হ্যারি আর ওস্টিনও যার যার ঠিকানায় চলে গেলো । আর আমি , ট্রিকার এখন ঘরে বসে পুরোনো স্মৃতিগুলো তাজা করে চলেছি  বেশতো ডট কমে
*আষাঢ়েগল্প*

আজি ঝর ঝর, মুখর বাদল দিনে

৬০৬ টি পোস্ট আছে

এত্ত গরম, আবহাওয়া দেখে মনে হচ্ছে দেশটা মরুভূমি হয়ে যাবে নাকি!

২৯৩ টি পোস্ট আছে

উদ্ভট গল্পের সমাহার

১২৩ টি পোস্ট আছে

আয় বৃষ্টি ঝেঁপে, ধান দিবো মেপে

১১৭ টি পোস্ট আছে

দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা

৯৯ টি পোস্ট আছে

বৃষ্টির দিনে, শীতকালে কিংবা সারা বছর

৫৪ টি পোস্ট আছে

ইট-পাথরে শখের বাগান!

৩৩ টি পোস্ট আছে

গ্যাঞ্জাম ছাড়া আমাদের লাইফ- অসম্ভব!

২৮ টি পোস্ট আছে

সবসময় হিট

২৭ টি পোস্ট আছে

১৩ টি পোস্ট আছে