উকিল

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

কোর্ট এ একটা কেস চলতেছে। সাক্ষী এর কাঠগড়ায় দাড়িয়ে আছেন এক দাদীমা। তার বয়স অনেক, সাদা চুল, মুখে ফলসে দাঁত, হাই পাওয়ার চশমা। যাই হোক, বাদী পক্ষের উকিল এগিয়ে এলেন দাদিমার দিকে।

উকিলঃ আচ্ছা দাদীমা, আপনি আমারে চেনেন?

দাদীমাঃ চিনি না মানে? বিলক্ষণ চিনি। তোমারে তো আমি লেংটা হইয়া ঘুরে বেরাইতে দেখছি। কিন্তু মোতালেব, তুমি তো জীবনে কিছু করবার পারলা না। তুমি মিছা কথা কও। তোমার সুন্দরী বউ থাকতে অন্য মাইয়ার পিছনে ঘুর ঘুর কর। লোকেরে উল্টা বুঝাও, সবাইরে ঠকাও, আর পিছনে লোকের বদনাম কর । তুমি মনে কর তুমি নিজেরে মনে কর রাঘব বোয়াল ! আসলে তুমি একটা পুঁটি মাছও না ! আমি তোমারে অবশ্যই চিনি

উকিল এই শুইন্যা পুরা ঘাবড়ায় গেলেন। গোটা কোর্টের লোকজনও একদম হা হইয়া গেছে। কী করবে বুঝতে না পাইরা এইবার উকিল আসামি পক্ষের উকিলরে দেখায় বললেন,

উকিলঃ দাদীমা, আপনি কী ওরে চেনেন?

দাদীমাঃ আরে, আসলাম না? ওরে কেন চিনুম না। আমার যখন বিয়া হয় তখন ওই বেটা দুধের শিশু। ছোটবেলায় তো বেশ ভালই আছিল। বড় হইয়া হইল একটা অলস, অকর্মার ধারী। আবার শুনি রোজ রোজ মদ খাওয়া শুরু করছে। কারও সাথে ঠিকঠাক কথা কইবার পারে না। এই জেলার সবথিকা বাজে উকিল হইল ওই আসলাম।
ওঃ বলতে ভুইলা গেছিলাম, এ আবার তিনটা পরকীয়া প্রেম করছে। তার একটা তোমার বউ এর লগে।

এই কথা শুইন্যা আসলাম উকিল কোর্টের মধ্যে অজ্ঞান হয়া গেলেন। এইবার বিচারক বললেন,

বিচারকঃ “মোতালেব মিয়াঁ, আপনি সীট এ যায়া বসেন। আর যদি মুর্খের মত প্রশ্ন করছেন যে উনি আমারে চেনে কিনা, আপনারে আমি ফাঁসিতে ঝোলামু।

*রসিকতা* *জোকস* *উকিল* *মহিলা*
জোকস

হাফিজ উল্লাহ: একটি জোকস পোস্ট করেছে

[বাঘমামা-সর্বনাশ] উকিল: আপনি বলতে চাইছেন, আপনার কিছুই মনে নেই? সাক্ষী: জি না, কিছুই মনে নেই। . . . উকিল: কী কী ভুলে গেছেন, সেটা কি মনে আছে?
*উকিল* *কমেডিয়ানহাফিজ*
জোকস

সাদাত সাদ: একটি জোকস পোস্ট করেছে

উকিল : সব সময় খারাপ মানুষ থেকে দূরে থাকবে রফিক : আমি আপনার থেকে চিরকাল দূরে থাকার চেষ্টা করব (শয়তানিহাসি)
*উকিল*
জোকস

হাফিজ উল্লাহ: একটি জোকস পোস্ট করেছে

[বেশবচন-বলদকিগাছেধরে] উকিলঃ আমি যা যা প্রশ্ন করব তার উত্তরে শুধু হ্যা অথবা না বলবে। এর বেশি কোনো ব্যাপারে অনর্থক কথা বলবে না। আসামীঃ সব প্রশ্নের উত্তর কি হ্যা না দিয়ে দেয়া যায়। উকিলঃ অবশ্যই যায়। আসামীঃ তাহলে আমি আপনাকে একটা প্রশ্ন করি ? উকিলঃ করো। আসামীঃ আপনি কি আগের মত এখনো পকেট মারেন ?
*উকিল* *পুরাইধরা* *কমেডিয়ানহাফিজ*
জোকস

হাফিজ উল্লাহ: একটি জোকস পোস্ট করেছে

৫/৫
[বাঘমামা-উশটাখাইসি] উকিল বলছেন আসামিকে, ‘এবারের মতো তোমাকে বেকসুর খালাস পাইয়ে দিলাম। কিন্তু এখন থেকে পাজি লোকজনের কাছ থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করবে।’ আসামি: অবশ্যই স্যার। আমি অবশ্যই উকিলদের কাছ থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করব।
*উকিল* *কমেডিয়ানহাফিজ* *পুরাইধরা*

হাফিজ উল্লাহ: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

উকিলবাবুঃ তোমার তাহলে চুরির মামলা? কিন্তু মামলার খরচ চালাবে কী করে? মক্কেলঃ হুজুর টাকাপয়সা নেই, তবে একটা গরু আছে । উকিলবাবুঃ ঠিক আছে, তাহলে গরু বেচেই আমার ফি দেবে!
উকিলবাবুঃ তা পুলিশ তোমার নামে কোন জিনিস চুরির মামলা দিয়েছে ? মক্কেলঃ ওই গরু চুরির মামলা হুজুর... !!
*মামলা* *উকিল*
জোকস

হাফিজ উল্লাহ: একটি জোকস পোস্ট করেছে

উকিলঃ আমি যা যা প্রশ্ন করব তার উত্তরে শুধু হ্যা অথবা না বলবে। এর বেশি কোনো ব্যাপারে অনর্থক কথা বলবে না। আসামীঃ সব প্রশ্নের উত্তর কি হ্যা না দিয়ে দেয়া যায়। উকিলঃ অবশ্যই যায়। আসামীঃ তাহলে আমি আপনাকে একটা প্রশ্ন করি উকিলঃ করো। আসামীঃ আপনি কি আগের মত এখনো পকেট মারেন ?
*উকিল*
জোকস

হাফিজ উল্লাহ: একটি জোকস পোস্ট করেছে

শিক্ষক :পল্টু, লেখাপড়ায় তোমার মোটেও মনোযোগ নেই। কালই তোমার বাবাকে স্কুলে আসতে বলবে। তার সঙ্গে কথা বলতে হবে। ছাত্র :কিন্তু তার জন্য যে ফি লাগবে স্যার। শিক্ষক :মানে? ছাত্র : বাবা উকিল তো, ফি ছাড়া কারও সঙ্গে কোনো কথাই বলেন না!
*উকিল*
জোকস

মিকু: একটি জোকস পোস্ট করেছে

.উকিল সাহেব হস্তদন্ত হয়ে বাড়ি ফিরলেন অনেক আগেই । উকিল গিন্নী অবাক হয়ে বললেন কোন দিকে চাঁদ উঠল আজ । এত সকাল সকাল সাহেব যে বাড়ী চলে এলেন । সে কথা পরে বলছি, উকিল সাহেব বললেন, আগে তোমার যাবতীয় কাপড় চোপড় আর গহনাগুলো শিগরীর তোমার বাপের বাড়ীতে রেখে আসোগে । আরো অবাক হয়ে গিন্নি বললেন, ওমা সে কি কেন ? আজ এক অতি কুখ্যাত চোরকে বেকুসুর খালাস দিয়ে এসেছি। সে নাকি সন্ধার পর কৃতজ্ঞতা জানাতে আসবে!! (খিকখিক)
*উকিল* *চোর*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★