একুশে

একুশে নিয়ে কি ভাবছো?
ছবি

আড়াল থেকেই বলছি: ফটো পোস্ট করেছে

ঢাকা শহরের নতুন ভাস্কর্য “জননী ও গর্বিত বর্ণমালা”

*একুশে* *ফেব্রুয়ারী* *ভাষারমাস* *ভাষাদিবস* *আত্মত্যাগ*
ছবি

আড়াল থেকেই বলছি: ফটো পোস্ট করেছে

ছবি

আড়াল থেকেই বলছি: ফটো পোস্ট করেছে

আমার ভাইয়ের রক্তে রাগানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি [একুশে-অমরএকুশে]

সমুদ্র সীমায় অধিকার অর্জন সমাবেশ.. পিতা গড়েছে স্বাধীনতা কন্যা গড়েছে দেশ সাব্বাস বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে.. বাংলাদেশ ......[একুশে-আমারচেতনা]

*একুশে* *ফেব্রুয়ারী* *ভাষারমাস* *ভাষাদিবস* *আত্মত্যাগ*

আড়াল থেকেই বলছি: [একুশে-অমরএকুশে]বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম, আসলামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহু, সকালে বিছানারত অবস্থায় যখন আমরা আরেকটি সকাল কিংবা দিনের জন্য মহান আল্লাহ আমাদেরকে চোখ দুটি খোলে তাকানোর সুযোগ দেন ঠিক তখনই বিছানায় থেকে উপরের দিকে তাকিয়ে অন্তত একটিবার বলা উচিত আল্লাহু আকবার,আলহামদুলিল্লাহ এবং সুবহানাল্লাহ,কারণ একমাত্র তাঁহার ইশারায় আমরা জীবিত হয়ে উঠেছি

*শুভসকাল* *শুভদুপুর* *শুভেচ্ছা* *ভাষারমাস* *ভাষাদিবস* *একুশে* *ফেব্রুয়ারী*

আড়াল থেকেই বলছি: [একুশে-আমারচেতনা]ওরা আমার মুখের ভাষা কাইরা নিতে চায় ।। ওরা কথায় কথায় শিকল পরায় আমার হাতে-পায়ে ওরা কথায় কথায় শিকল পরায় আমাদেরই হাতে-পায়ে ওরা আমার মুখের ভাষা কাইরা নিতে চায় ।। কইতো যাহা আমার দাদায়, কইছে তাহা আমার বাবায় ।। কাজী নজরুল..

*ভাষারমাস* *ভাষাদিবস* *একুশে* *ফেব্রুয়ারী*

ফ্রেশ ফ্রজেন: [একুশে-আমারবর্ণমালা১] ২১শে ফেব্রুয়ারী কথা মনে আসলেই স্কুল লাইফের একটি কথা মনে পরে ! আমাদের স্কুলের স্যাররা ফুল দেয়ার জন্য আমাদের শহীদ মিনারে নিয়ে যেতো..... তখন ভাবতাম শহীদ মিনারে ফুল গুলো কিভাবে নেয়া যাবে (শয়তানিহাসি) ! হা হা হা.... স্যাররা যখন চলে যেতো....... তখন (খুশী২)(হাসি২)(হাসি-৩)

*একুশে*

মারগুব: একটি বেশব্লগ লিখেছে

--- গত পরশু রাতের একটি ঘটনা ---

২১শে ফেব্রুয়ারী, বনানীতে একটি আড্ডা শেষে বাসায় যাবার পথে পকেটের মোবাইলটি বেজে উঠে,
"বনানীতে আছিস? আমরা Off Track নামের এক রেস্টুরেন্টে আছি, চলে আয়! পিজা-ইন-এর ৯ তলায়..",
"আমি কিছু খেতে পারব না, আম্মু খাবার নিয়ে বসে আছে - ১০ মিনিটের জন্য বসতে পারি..", আমি বললাম
"জ্বী জ্বী স্যার, আপনি ব্যস্ত মানুষ, একটু দেখা দেন আমাদেরকে, ধন্য হই!! শালা, এর পর কি তোকে ফুলের মালা দিয়ে আনতে হবে?! জুতার মালা দিব, বুঝলি!!"

এত আদরের ডাক এড়ানো মুশকিল তার উপর হাতেও একটু সময় আছে আর আমি ঠিক ২ মিনিটের হাঁটা পথ দুরে ছিলাম সেই Off Track থেকে, তাই চলেই গেলাম সেখানে | খারাপ নয়, একটি মাঝারি ধরনের রেস্টুরেন্ট, সেকেলে চাইনিজ রেস্তোরা ধরনের প্রায় অন্ধকার না হলেও আকাশী নীল রঙের আলোতে ভরে আছে - বেশ অদ্ভুত এক আবহাওয়া | এক কোনায় আবার দেখি কীবোর্ড, ড্রামস ইত্যাদি আছে, সেখানে লম্বা, শুকনো একজন বসে আছে গিটার হাতে - গিটার বাজাচ্ছেন আর লম্বা চুল সামলাচ্ছেন |

দেখা হলো বন্ধুদের সাথে, হ্যান্ডশেক আর হাড্ডি-ভাঙ্গা কোলাকুলির পর বসলাম ১০-১৫ মিনিটের জন্য আড্ডা দিতে | তাদেরও প্রথম আসা এখানে, লাইভ মিউজিক হয় বলে দেখতে আসছে - তবে এতক্ষণে কেবল দুটি গান হয়েছে | একটু পর কোক গিলতে গিয়ে বিষম খেলাম গায়কের কথা শুনে - উনি ইংলিশে কথা বলছেন!! না, মানে, ইংলিশে কথা বলা নিয়ে আমার আপত্তি নেই - তবে আজ ২১শে ফেব্রুয়ারী এবং স্টেজে বসে যদি কথা বলতেই হয় - দরকার না থাকলে ইংলিশে বলার পক্ষপাতিত্ব আমি করিনা | তার উপর ভুলভাল ভরা ইংলিশ:
"This is a request, wanting me play something soft, emotional.. I have one hindi song, ok?", বলে তাকালেন একটি টেবিলের দিকে | টেবিলে বসা আছে কিছু মধ্য বয়স্ক মানুষ, মনে হয় দুটি পরিবার, সাথে ৮-১০ বছরের কিছু পিচ্চি, আর গায়কের কথা শুনে হাত তালি দিয়ে উঠলেন শুধু দুই জন, মনে হয় দুই পরিবারের মা হবেন পিচ্চিগুলোর |

এরপর চলল হিন্দি গান - ১৫ মিনিটে শুনলাম তিনটি হিন্দি ও মাত্র একটি বাংলা গান, বাপ্পা মজুমদারের "পরি" এবং সেখানেও মনে হয় লিরিকস ভুলে কিছু জায়গায় 'লালালা' করে কাটিয়েছেন| ডানে বামে তাকালাম - দেখি সবাই ভালই উপভোগ করছে - ভুলেই গেছে সবাই যে আজকে জাতীয় শোক দিবস, এই গায়কের বয়সের ছেলেরা ৫২তে তাদের বুকের তাজা রক্ত দিয়ে কালো রাস্তা লাল করেছে - মাত্র ৬৩ বছর পর মানুষ অন্য ভাষায় গান করে মাতাচ্ছে সেই দিনে যেদিন কত মায়ের বুক ফাঁকা হয়েছে |

- আমি খুশি যে আজ সেই 'খোকা'দের মায়েরা মনে হয় আর বেঁচে নেই আজকের এই দৃশ্য দেখার জন্য..
- আজকের মায়েরা ২১শে ফেব্রুয়ারীর দিনে মনের আনন্দে হিন্দি গানের সুরে দুলে দুলে তালি দিচ্ছেন, পাশে তাদের ৮-১০ বছরের ছেলেমেয়েদেরকে নিয়ে..

মনে পরে গেল বহু বছর আগের ঘটনা, আমার বয়স মনে হয় ৭ কি ৮, বাসায় একটি টেপ-রেকর্ডার ছিল যেটাকে আমরা ডাকতাম ডেক-সেট, বড় স্পিকার ছিল তাই | আব্বু ছাড়া সেটা কারো ধরার অনুমুতি ছিল না | এক ছুটির সকালে বললাম আব্বুকে Boney M এর গান ছাড়তে,
"না, আজকে কোনো ইংলিশ গান চলবে না আব্বু..", আদর করে বলল,
"কেন? আমি Boney M শুনব!!!", পিচ্চি আমি জেদ করলাম,
"আজকে ২১শে ফেব্রুয়ারী, বাংলা গান দিচ্ছি আচ্ছা? না হলে অনেকে কষ্ট পাবে", বলে আব্বু লতার নাম লেখা ক্যাসেট হাতে তুলে নিল
"কে কষ্ট পাবে?", অবাক হয়ে ভাবছি - আমি তো অনেক খুশিই হতাম!
"যারা আজকে মারা গিয়েছে তারা, তাদেরকে শ্রদ্ধা জানিয়ে আজকে কোনো ইংলিশ গান বাজাব না", সেই পিচ্চি আমি কিছুই বুঝি নাই তখন, তবে এতটুকু বুঝেছি যে আমার গান পাগল আব্বু আজকে শুধু বাংলা গানই বাজাবে |

"দেখ, কি রকম হিন্দি গান বাজিয়েই যাচ্ছে.." আমি বন্ধুদের বললাম
"হুম, আজকে এই কাজ করা উচিত হয় নাই..", বলে তার ফোনে টাইপ করতে ফিরে গেল একজন
"ধুর, Music is music, language doesn't matter", একজন ফস করে বলে উঠলো
"আজকে ২১শে ফেব্রুয়ারী - অন্তত পক্ষে এতটুকু সন্মান আমাদের দেয়া উচিত, আর তোর কি ৪ বছর অস্ট্রেলিয়া থেকেই চামড়া সাদা হয়ে গেছে নাকি?!", বলেই বুঝলাম বাকি বন্ধুরা সব চুপ হয়ে আছে |
"যাই, আর সময় নাই, আম্মু বসে আছে", বলে উঠে পরলাম

১০ মিনিট পর, হেঁটে হেঁটে প্রায় বাসার কাছে এসে পরেছি আর ভাবছি কিভাবে মানুষ বদলিয়ে যায় | যারা আমাকে নিয়ে ইউনিভার্সিটিতে ২১শে ফেব্রুয়ারীতে হাসাহাসি করত কারণ আমি পাঞ্জাবি না পরে খাকি আর কালো শার্ট পরে এসেছিলাম, বলত, "এইটা আমাদের ইংলিশ মিডিয়ামে পড়া জেনারেশন" আর, "ওই ব্যাটা 'ইয়ো' পাবলিক" - তাদেরই একজন আজ মাত্র ৪ বছর বিদেশে থেকে এই কথা বলে |

"ব্যাপার কি, এত চুপ কেন?", আম্মু খাবার সময় জিজ্ঞাসা করলো,
"না, আজকে ২১শে ফেব্রুয়ারী তো, তাই", বললাম আমি
"হুম! আর একটু খাও!!", বলতে বলতে আর এক টুকরো মাছ তুলে দিল আম্মু |

কত মা এই সামান্যটুকু করার সুযোগ পান নাই '৫২ তে এই দিনের পর, আবার মনে হলো |

হয়ত আমার ২১শে নিয়ে আবেগকে অনেকে বলবেন এক দিনের ন্যাকামি - তাই-ই হয়ত তাদের চোখে, কারণ তারা আজ হিন্দিতে লাইন মেরে হয়ে গেছেন আজকের স্মার্ট পাবলিক!!
*একুশে*
জোকস

লিয়া মনি: একটি জোকস পোস্ট করেছে

৫/৫
## একুশে বইমেলায় ছোটদের সব বই ## উপন্যাস ১. গাব্বু: মুহম্মদ জাফর ইকবাল (মাওলা ব্রাদার্স), মূল্য: ১৫০ টাকা ২. সাদা ঘোড়ার সোয়ারি: ইমদাদুল হক মিলন (অনন্যা), মূল্য: ১২০ টাকা ৩. জিনিয়াস জিনিয়ান: সুমন্ত আসলাম (কাকলী প্রকাশনী), মূল্য: ১৩৫ টাকা ৪. অলরাউন্ডার: মনি হায়দার (প্রিয় প্রকাশ), মূল্য: ১১০ টাকা ৫. গুড বয় ফুড বয়: আহমেদ রিয়াজ (শুভ্র প্রকাশ), মূল্য: ১৩৫ টাকা ৬. লাল শার্ট: মোস্তফা মামুন (অন্বেষা), মূল্য: ১৬০ টাকা ৭. উপলের মামা: শাফিকুর রাহী (শিশু একাডেমী), মূল্য: ৬০ টাকা ৮. স্কুল ছুটির দিনগুলি: রনজিৎ সরকার (শুভ্র প্রকাশ), মূল্য: ১৩৫ টাকা ৯. টুম্পার ছেলে বন্ধু রেশমী: ডি এম আবু বকর (প্রিয়মুখ), মূল্য: ১০৫ টাকা ১০. গ্রুপ লিডার: হাফিজ আল ফারুকী (অনন্যা), মূল্য: ১৭৫ টাকা ১১. পটলার পল্টু ভাই: ওবায়দুল সমীর (সাহস পাবলিকেশন্স), মূল্য: ১০০ টাকা ১২. ইস্টিশন: মুহম্মদ জাফর ইকবাল (তাম্রলিপি), মূল্য: ২০০ টাকা ১৩. একাত্তরের একদল দুষ্টু ছেলে: আনিসুল হক (অনন্যা), মূল্য: ১২৫ টাকা ১৪. নোটুরা চারজন: দন্ত্যস রওশন (জাগৃতি প্রকাশনী), মূল্য: ১৫০ টাকা ১৫. আঙ্কল হার্বাটের পোষাভূত: ফারুক নওয়াজ (ছায়াবীথি), মূল্য: ১০০ টাকা ১৬. ফার্স্ট পিরিয়ড: মোস্তফা মামুন (অন্বেষা), মূল্য: ১৬০ টাকা ১৭. ক্লাসরুম ৩৬৫: প্রিন্স আশরাফ (শুভ্র প্রকাশ), মূল্য: ১৩৫ টাকা ১৮. হাবলু: মাহবুব রেজা (শিশু একাডেমী),মূল্য: ৬২ টাকা ১৯. জীনের দেশে পরেশ দাদু: আশরাফুল ইসলাম নয়ন (নলেজ মিডিয়া), মূল্য: ১০০ টাকা ২০. ইস্টিশন: মুহম্মদ জাফর ইকবাল (তাম্রলিপি), মূল্য: ২০০ টাকা ২১. একাত্তরের একদল দুষ্টু ছেলে: আনিসুল হক (অনন্যা), মূল্য: ১২৫ টাকা ২২. নোটুরা চারজন: দন্ত্যস রওশন (জাগৃতি প্রকাশনী), মূল্য: ১৫০ টাকা ২৩. আঙ্কল হার্বাটের পোষাভূত: ফারুক নওয়াজ (ছায়াবীথি), মূল্য: ১০০ টাকা ২৪. ফার্স্ট পিরিয়ড: মোস্তফা মামুন (অন্বেষা), মূল্য: ১৬০ টাকা ২৫. ক্লাসরুম ৩৬৫: প্রিন্স আশরাফ (শুভ্র প্রকাশ), মূল্য: ১৩৫ টাকা ২৬. হাবলু: মাহবুব রেজা (শিশু একাডেমী),মূল্য: ৬২ টাকা ২৭. জীনের দেশে পরেশ দাদু: আশরাফুল ইসলাম নয়ন (নলেজ মিডিয়া), মূল্য: ১০০ টাকা গল্প ১. আনারসের হাসি: বশীর আল্ হেলাল (আগামী প্রকাশনী), মূল্য: ১৫০ টাকা ২. আমার দেশের গল্প পড়ি: জুবাইদা গুলশান আরা হেনা (পি পি এম সি), মূল্য: ২৫০ টাকা ৩. গ্রাম বাংলার রঙগল্প: শামসুজ্জামান খান (প্রিয় প্রকাশ), মূল্য: ১২০ টাকা ৪. লাল পরীর লাল টমেটো: আনজীর লিটন (জয়তী), মূল্য: ৬৭ টাকা ৫. মগডাল বাহাদুর: মুহসীন মোসাদ্দেক (সিঁড়ি প্রকাশন), মূল্য: ১০০ টাকা ৬. তেরো নম্বর রাজডিম: নাবীল অনুসূর্য (জয়তী প্রকাশনী), মূল্য: ১৩৫ টাকা ৭. বিঙ্কুর মামা: শেখ মাসুম কামাল (নবরাগ প্রকাশনী), মূল্য: ২০০ টাকা ৮. মিস্টার ফটাশ: রোহিত হাসান কিছলু (কাকলী প্রকাশনী), মূল্য:১৩৫ টাকা ৯. এ্যাডভেঞ্চার সুন্দরবন: বিপাসা মন্ডল (জয়তী), মূল্য: ১০০ টাকা ১০. রঙের মেলা: বকুল আশরাফ (সাহস পাবলিকেশন্স), মূল্য: ১৬০ টাকা ১১. আকাশ পাখির গল্প: সেলিনা হোসেন (সৃজনী), মূল্য: ২৩০ টাকা ১২. ভুতু আর টুতু: ধ্রুব এষ (ছায়াবীথি), মূল্য: ৫০ টাকা ১৩. মঙ্গলবার রাতে তিন পরী আসে: মনি হায়দার (অক্ষর), মূল্য: ১৫০ টাকা ১৪. দুই দল দুরন্ত: পলাশ মাহবুব (শুভ্র প্রকাশ),মূল্য: ১২০ টাকা ১৫. সুন্দরবনের বাঘরাজা: ফয়সাল শাহ (মিজান পাবলিশার্স), মূল্য: ১০০ টাকা ১৬. পরীবাগের পরী: কাদের বাবু (শুভ্র প্রকাশ), মূল্য: ১১০ টাকা ১৭. বনে এক বাঘ ছিলো: মাহবুবা ফারুক তুহিন (প্রজ্জ্বলন প্রকাশ), মূল্য: ৮০ টাকা ১৮. মহারানী রিঙ্কিমণি: আবু শাহরিয়ার (দি রয়েল পাবলিশার্স), মূল্য: ১০০ টাকা ছড়া/কবিতা ১. ভোলা মন পিড়িং পিড়িং: লুৎফর রহমান রিটন (অনন্যা), মূল্য: ১০০ টাকা ২. আড়ং: ফজল-এ-খোদা (শিশু একাডেমী), মূল্য: ৫৮ টাকা ৩. খেয়াল খুশির ছড়া: তপংকর চক্রবর্তী (কথা প্রকাশ), মূল্য: ১০০ টাকা ৪. সাত রকমের ছড়া: শাহাবুদ্দিন নাগরী (অনন্যা), মূল্য:১২৫ টাকা ৫. ছড়ায় ছড়ায় ছড়াকার: রবক্ষানী চৌধুরী (গতিধারা), মূল্য: ১০০ টাকা ৬. অদ্ভুতুড়ে: সিফাত চাখারী (প্রতিভা প্রকাশ), মূল্য: ৮০ টাকা ৭. স্বপ্নবোনা টাট্টুঘোড়া: শাকিল মাহবুব (সাহস পাবলিকেশন্স), মূল্য: ১৩৪ টাকা ৮.টুনটুনি টুনটুন: বেবী মওদুদ (মাওলা ব্রাদার্স), মূল্য: ৮০ টাকা ৯. সোনার বাংলার মুখ: সরকার জাহানারা ফরিদ (শিশু একাডেমী), মূল্য: ৪৫ টাকা ১০. রেলগাড়িটা যায় পালিয়ে:শামীম হাসনাইন (প্রতিভা প্রকাশ), মূল্য: ৭০ টাকা ১১. রংধনু প্রজাপতি: তাহমিনা কোরাইশী (পারিজাত), মূল্য: ২০০ টাকা ১২. মেঘের ঠোঁটে রঙ লেগেছে: সিরাজুল ফরিদ (জয়তী), মূল্য: ৬৭ টাকা ১৩. ক্লাসপার্টি হইচই: কাজী শামসুন নাহার (নন্দিতা প্রকাশ) মূল্য: ১০০ টাকা ১৪. ছড়ায় ছন্দে মাতি আনন্দে: সিকদার আকবর হোসেন (নলেজ মিডিয়া পাবলিকেশন্স) মূল্য: ১২০ টাকা ১৫. টুকুনমণি: এনামুল হক (নান্দনিক), মূল্য: ১৫০ টাকা বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী ১. জ্যান্ত অতীত: শেখ আবদুল হাকিম
*একুশে* *বইমেলা* *শিশুতোষবই* *গ্রন্থমেলা* *বই* *বইমেলা২০১৫* *নতুনবই*

মারগুব: [একুশে-আমারবর্ণমালা১]যদিও আমি হয়ত বাংলায় অনেকের থেকে পিছিয়ে আছি (বিশেষ করে ব্যাকরণের ক্ষেত্রে) এবং ইংলিশ শেখার গুরুত্ব নিয়ে সবসময় জোরালো বক্তব্য রাখি - আমার এই মাতৃভাষা আমি বড়ই ভালবাসি | এ জন্যই বেশতো আমার মনের এত কাছের, প্রথম দিন থেকেই বড়ই দুর্বল আমি এর প্রতি (খুকখুকহাসি)

*একুশে* *অমরএকুশে* *বেশতো* *বাংলা*

মাসুম: [একুশে-আমারবর্ণমালা১] এইটা অনেক ভাল লেগেছে আমার। অনেক ধন্যবাদ বেশতোর সামগ্রিক নিয়ন্ত্রণকারী আর এর সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে। *একুশে* ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে বেশতোর *বেশটুন* আসলে অসাধারণ আর সময়োপযোগী হয়েছে। অনেক ধন্যবাদ @Fahim @admin (ভালো)(জোস)(থাম্বসআপ)

*একুশে* *বেশটুন*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★