কমফোর্টার

কমফোর্টার নিয়ে কি ভাবছো?

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

ব্ল্যাঙ্কেট কিনতে ক্লিক করুনহাঁড় কাঁপুনি শীতে বিছানায় উষ্ণতার সঙ্গী লেপ, কাঁথা আর কম্বল। যুগের পরিক্রমায় লেপ-কাঁথার ব্যবহার কমে গেলেও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে কম্বলের ব্যবহার। এই শীতে বিছানায় উষ্ণতার পরশ পেতে একটি ভালো মানের কম্বলই যথেষ্ঠে। নান্দনিক ডিজাইন আর দাম কম হওয়ায় কম্বলের চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। চলুন হাঁড় কাঁপুনি শীত থেকে বাঁচাতে পারে এমন ১০টি আকর্ষণীয় কম্বল দেখে নেই।

০১. আকর্ষণীয় বেড কম্বল 


কিনতে ক্লিক করুন

০২. মাইক্রো ফাইবার ব্ল্যাঙ্কেট


কিনতে ক্লিক করুন

 ০৩.  ডাবল বেড সাইজ কম্বল


কিনতে ক্লিক করুন

০৪. ডাবল বেড সাইজ কমফোর্টার


কিনতে ক্লিক করুন

০৫. কমফোর্টার টু


কিনতে ক্লিক করুন

০৬. কালারফুল কম্বল


কিনতে ক্লিক করুন

০৭. পোলার ফ্লিস ব্ল্যাঙ্কেট


কিনতে ক্লিক করুন

০৮. মাইক্রো ফাইবার বেড ব্ল্যাঙ্কেট


কিনতে ক্লিক করুন

০৯. মাইক্রো ফাইবার


কিনতে ক্লিক করুন

১০. পোলারিজ মাইক্রো ফাইবার ডিলাক্স ব্লাঙ্কেট


কিনতে ক্লিক করুন

দেশি-বিদেশি কম্বলে ছেয়ে গেছে রাজধানীর শপিং সেন্টারগুলো। অফলাইনের পাশাপাশি অনলাইনেও পাওয়া যাচ্ছে এসব আকর্ষণীয় কম্বল। দেশের যে কোন প্রান্ত থেকে আপনি আপনার পছন্দের কম্বলটি বেছে নিতে পারবেন। এক ক্লিককেই শীতের কম্বল কিনতে এখানে ক্লিক করুন

*কম্বল* *ব্ল্যাঙ্কেট* *কমফোর্টার* *স্মার্টশপিং*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

সারাদিনের কর্মব্যস্ত ক্লান্ত সময়ের পর কিন্তু শেষ আশ্রয় আপনার শোবার ঘরই। মানুন বা না মানুন, শীতকালে লেপের নিচের আরামের কথা অস্বীকার করার কোন উপায় কিন্তু নেই। হু হু ঠান্ডায় লেপের ওমে মায়ের হাতের গরম গরম ভাপা পিঠার কথা কে ভুলতে পারে? তো, তৈরী তো সেই আরামের কেন্দ্রস্থল? যথেষ্ট কমফোর্টার বা কম্বল না থাকলে, এখুনি সময় কিনে নেয়ার বা বানিয়ে নেয়ার। আরো কিছুদিন পর সময় পাওয়া যাবে না। অথবা বানানোর ঝামেলায় না যেতে চাইলে ঢুঁ মারতে পারেন অনলাইন শপিং মল আজকের ডিলে। টেকসই রঙ এবং ফেব্রিক দেখে কিনে ফেলুন রেডিমেড একটি। একটি কমফোর্টার বেশ কয়েক বছরের জন্য নিশ্চিন্ত রাখতে পারে।  

যাই বলুন, হাঁড় কাঁপুনি শীতে বিছানায় উষ্ণতার সঙ্গী লেপ, কাঁথা আর কম্বল। যুগের পরিক্রমায় লেপ-কাঁথার ব্যবহার কমে গেলেও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে কমফোর্ট আর কম্বলের ব্যবহার। এই শীতে বিছানায় উষ্ণতার পরশ পেতে একটি ভালো মানের কমফোর্ট বা কম্বলই যথেষ্ঠে। নান্দনিক ডিজাইন আর দাম কম হওয়ায় এগুলোর চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। 

দেশি-বিদেশি কম্বলে ছেয়ে রাজধানীর শপিং সেন্টারগুলো। সেসব কেনার জন্য বেড়েছে ক্রেতাদের আনাগোনা। বিক্রেতার মুখে শোনা যাচ্ছে নতুন নতুন কম্বলের ব্যান্ডের নাম।  দেশী কম্বলের পাশাপাশি পাওয়া যাচ্ছে চীনা, জাপানি ও কোরিয়ান কম্বল। চীনা ডাবল কম্বলগুলোর দাম ২ হাজার ২শ’ থেকে ৫ হাজার টাকা। জাপানি কম্বলগুলোর দাম ৩ হাজার থেকে ৪ হাজার টাকা। কোরিয়ান কম্বলের দাম ৪ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা। সিঙ্গেল কম্বলের দাম ২ হাজার থেকে ৪ হাজার টাকা। বাচ্চাদের কম্বলগুলো পাওয়া যাচ্ছে ৬শ’ থেকে ১ হাজার ৫শ’ টাকায়। 

কম্বল কেনার আগে প্রথমে দেখে নিতে হবে হাত দিয়ে টানলে পশমগুলো উঠে যাচ্ছে কিনা আর সেলাইগুলো ঠিক আছে কিনা। পশম উঠে আসলে বুঝতে হবে কম্বলের মান খারাপ। বিদেশি কম্বলের মধ্যে চীনের কম্বলগুলোর চাহিদাই সবচেয়ে বেশি। মান তুলনামূলকভাবে খারাপ হলেও, দাম কম হওয়ায় বাড়তি চাহিদার মূল কারণ। কাপড়ের ধরন, রঙের বিভিন্নতা, আর ময়লার ধরণবলেদেবে কোনোটাতে দরকার পড়বে লন্ড্রি ওয়াশ, আবার কোনটা ড্রাই ওয়াশ করলেই চলবে। 

আজকের ডিল থেকে কি ধরনের কমফোর্টার ও কম্বল কিনবেন সে সম্পর্কে জানতে এই লিংকে ক্লিক করুন। 

*কম্বল* *কমফোর্টার* *শীতকাল*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★