গরম

সজিবুল ইসলাম: *গরম* গরমে ঘুম আসতেছে না !!!! কি যে করি ????

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 হঠাৎ গরম থেকে এসেই ঠান্ডা পানি খেতে নিষেধ করা হয় কেন?

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

*গরম* *ঠান্ডাপানি* *লাইফস্টাইলটিপস*

3niR: *গরম* (কিগরম)

নাজমুল এহসান সবুজ: *গরম* গরম যদি রপ্তানি করা যেত,!!! কত ভালো হত!!!!!

প্যাঁচা : *বর্ষাকাল*এ ঝড়ের মধ্যে কেবল রেইনকোট পরে মোটরসাইকেলে করে ঘুরতে সিরাম লাগে তবে কিছুতেই কাদা পানিটা ভাল লাগে না।কারণ চাকা পিছলায়।হাহাহাহা...তবে যতই ভাল লাগুক *শীতকাল* এর মত ভাল লাগা কাজ করে না আর তা থেকেও ভাল লাগে *গ্রীষ্মকাল* তবে *গরম* না।হাহাহা...

ঈশান রাব্বি: [গ্রীষ্ম-অত্যাচারী] জীবনে প্রত্তম এত্তো গরম দেখতাছি রে ভাই (মন্দ)

*ফালতুপোস্ট* *গরম*

ঈশান রাব্বি: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

এত্তো গরমে পরাণ আমার যায় যায় আর পারিনা (কান্না)
*গরম* *অসস্তিকর*

ঈশান রাব্বি: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

এই কয়েকদিন থেকে মনেহয় আমি যেন ভিনগ্রহে আছি কারণ পৃথিবীতে তো এত গরম থাকার কথা না (চিন্তাকরি)
*গরম* *ভিনগ্রহ*

Risingbd.com: এক কলস পানির জন্য… রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় পানযোগ্য পানির সংকট দেখা দিয়েছে। পানি সংগ্রহে ব্যাপক ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে সেখানকার অধিবাসীদের। এক কলস পানির জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা পাম্পে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে তাদের। বাসায় বাসায় সংযোগ দেওয়া ....বিস্তারিত পড়ুন - http://bit.ly/1TfTAbg

*পানিরসংকট* *সংকট* *পানি* *আড্ডা* *গরম*

ঈশান রাব্বি: [গ্রীষ্ম-কিগরম] এই গরমে মনের কথা বলার একজন সাথী পাইলাম না। বউ সে তো নিজেরে নিয়াই ব্যস্ত

*গরম*

আড়াল থেকেই বলছি: [গ্রীষ্ম-কিগরম]২/১ দিন বৃষ্টি আপা আমাগো লগে একটু মস্করা কইরা আবার ভাগছে,আর তাই সূর্য মামা রাগ কইরা আজ প্রচন্ড মাথা গরম করছে

*গরম*

Risingbd.com: গরমে ভালুকের জন্য আইসক্রিম, হরিণের তরমুজ এই গরমে ভারতের জয়পুর চিড়িয়াখানার পশু পাখির জন্য বিশেষ খাবারের ব্যবস্থা করেছেন চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানা যায়, চিড়িয়াখানায় ভালুককে আইসক্রিম... বিস্তারিত পড়ুন - http://bit.ly/1NUAHeG

*হরিন* *ভাল্লুক* *গরম* *গরমেপশুপাখিরখাবার* *আড্ডা* *জানাঅজানা*

রামিম অচিন: [গ্রীষ্ম-কিগরম]প্রচণ্ড গরমে জীবন টাই পাংখা হয়ে গেছে (ব্যাপকটেনশনেআসি)

*গরম*

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 গরমে সুস্থ্যতা রক্ষায় কি ধরনের খাবার এড়িয়ে চলা উচিত?

উত্তর দাও (২ টি উত্তর আছে )

*গরম* *গরমেরসুস্থ্যতা* *গরমেরঅসুখ*

শারমিন বীথি: [গ্রীষ্ম-ঝড়োহাওয়া]এই গরমে *গরম* নিয়ে কিছু লেখার শক্তিই পাই নি এতদিন... . কাল বিকালে বৃষ্টি যেন স্বস্তি নিয়ে এলো। (খুকখুকহাসি)

*গরম*

আসিফ: এত গরম এই প্রথম উপভোগ করছি

*গরম*

পূজা: একটি বেশব্লগ লিখেছে

গরমে হাসফাঁস অবস্থা। এর মধ্য ঘরে এসি না থাকলে অবস্থা আরও শোচনীয়। সারা দিনের ক্লান্তির পর রাতে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটলে মেজাজ যেমন বিগড়ে থাকে, শরীরও খারাপ হয়। গ্রীষ্মকালের প্রচন্ড গরমে আপনার ঘরকে ঠাণ্ডা রাখা প্রয়োজন। কারণ এই গ্রীষ্মের জলন্ত সূর্যের কারণে ঘেমে একাকার হয়ে যায় মানুষ এবং রাত্রিটাও হয়ে উঠে অস্বস্তিকর। সবার পক্ষে এয়ারকন্ডিশনার লাগানো সম্ভব নয়। তাই এয়ারকন্ডিশনার ছাড়াই ঘরকে কী করে শীতল রাখা যায় সেই উপায় জানাটা প্রয়োজনীয়। চলুন তাহলে জেনে নেই এসি ছাড়াও ঘর ঠাণ্ডা রাখার কৌশল।

♦ পূর্ব ও পশ্চিমের জানালাগুলোতে ছায়া প্রদানের জন্য সানশেড বা ছাউনির ব্যবস্থা করুন। তাপ উৎপন্ন করতে পারে, বিকেলের দিকে এমন কাজগুলো করা থেকে বিরত থাকুন।  

♦ আপনার গৃহের কোন অংশটিতে সবচেয়ে বেশি বাতাস আসা যাওয়া করে তা লক্ষ্য করুন। কোন দিক দিয়ে বাতাস বেশি আসে তা চিহ্নিত করুন। তাহলে আপনি সেই অংশের জানালা খোলা রাখতে পারবেন। এর ফলে সূর্যাস্তের পরেও আপনার ঘরে বাতাস আসা যাওয়া করবে। 

♦ ঘরের জানালা খোলা রাখুন তবে দিনের বেলায় নয় রাতের বেলায়। গ্রীষ্মকালে দিনের বেলায় গরম বাতাস বয়। কিন্তু সূর্যাস্তের পরে তাপমাত্রা কমতে থাকে, ঠাণ্ডা বাতাস বয় এবং মাঝে মাঝে ঝড়বৃষ্টিও হয়। তাই সন্ধ্যায় আপনার ঘরের জানালাগুলো খুলে দিন।

♦ বিছানার চাদর হিসেবে সাদা লিনেন কাপড় ব্যবহার করুন। বিছানার চাদর মোটা ও কারুকাজ থাকলে ঘাম বেশি হয়। সাদা ও হালকা রঙের কাপড় তাপ শোষণ করেনা বরং প্রতিফলিত করে। তাছাড়া হালকা রঙ ঘরে শীতল প্রভাব ফেলে।

♦ আপনার গৃহকে শীতল রাখার জন্য ঘরের চারপাশে গাছপালা লাগান। ছায়া দিতে পারে এমন গাছ পূর্ব-পশ্চিমে লাগালে আপনার গৃহে সূর্যের তাপ আলোকে প্রতিহত করবে। ঘরের চারপাশে ঘাস ও ঘাস জাতীয় গাছ থাকলে ঘরকে শীতল রাখে।

♦ ছাদের সাদা রঙ ঘরকে শীতল রাখে। সাদা রঙ আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মিকে প্রতিহত করে প্রাকৃতিকভাবে ঘরকে ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে। তাই মানুষ এখন ঘরের ছাদে সাদা রঙের পেইন্টিং করে।

♦ এক বোল বরফের টুকরো নিয়ে ফ্যানের নীচে রেখে ফ্যান চালু করুন। কিছুক্ষণ পর বরফগুলো যখন গলতে শুরু করবে তখন বাতাস এই শীতল পানি শোষণ করবে ও ছড়িয়ে দিবে। এর ফলে আপনার ঘর ঠান্ডা হবে। পাখার কোনাকুনি এক বাটি বরফ রাখুন। কিছু ক্ষণ পর দেখবেন ঘরে ঠান্ডা বাতাস ভরে গেছে।

♦ আপনি কি জানেন যে ঋতুভেদে আপনার সিলিং ফ্যানটিকে এডজাস্ট করে নিতে হয়? হ্যাঁ গ্রীষ্মের সময় যদি ফ্যানের কাঁটা বা পাখাগুলোকে বিপরীত দিকে ঘুরিয়ে দেয়া হয় তাহলে ফ্যানের গতি বৃদ্ধি পায়।  ঘরের পাখা এমন ভাবে সেট করুন যাতে ক্লকওয়াইজের বদলে বেশি জোরে অ্যান্টি-ক্লকওয়াইজ ঘোরে। এতে ঘর ঠান্ডা থাকবে।

♦ জানলায় সানশেড লাগান। ঘর গরম করবে এমন কাজ করবেন না। জানলায় ইনসুলেটেড ফিল্ম বা ভাইন লাগিয়ে নিন। এতে রোদের তাপ থেকে রক্ষা পাবেন। কাচের জানলা যাদের, তারা পর্দার বদলে শৌখিন ‘ব্লাইন্ডস ইনস্টল’ করতে পারেন। এতেও পুরোপুরি আটকানো যায় বাইরের তাপ।

♦ বাথরুম, রান্নাঘরের এক্সহস্ট ফ্যান চালিয়ে রাখুন। এতে ভিতরের গুমোট, গরম বাতাস বেরিয়ে যাবে।

♦ ঘরে জোরালো আলো জ্বালিয়ে রাখলে গরম বাড়বে। এই সময় খুব প্রয়োজন না হলে ঘরে জোরালো আলো জ্বালবেন না। ডিম লাইট বা টেবিল ল্যাম্প ব্যবহার করুন।

♦ গরম কালে ঘরে গ্যাস, স্টোভ জ্বালালে বেশি গরম হয়। পারলে খোলা জায়গায় গ্রিল করুন। মাইক্রোওয়েভে রান্না করুন।

♦ গরম কালে দিনের বেলা সব সময় ভারী পর্দা বা উইন্ডো ব্লাইন্ড টেনে রাখুন। এতে ঘরের তাপমাত্রা কিছুটা কম রাখতে পারবেন। দক্ষিণ ও পশ্চিম দিকে দেওয়ালে জানলা থাকলে অবশ্যই পর্দা টেনে রাখুন।

♦ গরমের সময়ে ওভারহেড ট্যাঙ্কে বেশি পানি রাখবেন না। কারণ পানি তাড়াতাড়ি গরম হয়ে আগুনের মতো হয়ে যায়। গরম পানির ভাপ সব সময়েই বেশি। তাই সেই পানি যখন ব্যবহার করবেন তার গরম বাষ্প ঘরও গরম করে তুলবে। তাই প্রয়োজন মতো অল্প অল্প পানি তুলে ব্যবহার করুন। এতে পানিটাও ঠান্ডা পাওয়া যাবে।

♦ বেশ কিছু ইন্ডোর প্লান্ট রয়েছে, যা বাড়ির মধ্যে রাখলে ঘর ঠান্ডা থাকে। যেমন অ্যালোভেরা, বস্টন ফার্ন, স্নেক প্লান্ট, উইপিং ফিগ, অ্যারিকা পাম ইত্যাদি। ঘরের বাতাসকেও শুদ্ধ করে এই গাছগুলি। বাড়ির মধ্যে কয়েকটি জায়গায় বড় মাটির মালসায় করে পানি রাখুন ও তাতে কয়েকটি সুগন্ধি ফুল ফেলে দিন। দিনে দু’তিনবার পানি পরিবর্তন করে নিন। ঠান্ডা পানির বাষ্পে ঘর ঠান্ডা থাকবে। ভ্যাপসা গন্ধও হবে না।

প্রচণ্ড গরমে অস্থির হয়ে পড়েছেন প্রায় সবাই। রাস্তায় গরম, কর্মক্ষেত্রে গরম। সারাদিন না হয় কোনরকম সহ্য করা গেলো, কিন্তু এই প্রচণ্ড গরমে রাতের বেলাও যে ঘুম হচ্ছে না! সকলের বাড়িতে তো আর এসি নেই, সকলের এসি কেনার সামর্থ্যও নেই। অনেকের ঘরেই বাতাস খুব বেশী চলাচল করে না, ফলে বাতাস চলাচলে ঘর ঠাণ্ডা হয় না। অনেকের বাড়ি আবার ছাদের ঠিক নিচে বলে গরমটা অনেক বেশী লাগ, দিন শেষে ঘরটা হয়ে থাকে উনুনের মত গরম। 

বাইরের গরম থেকে বাঁচতে সবাই চায় যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বাইরের কাজ শেষ করে ঘরে ফিরতে,কিন্তু যে আশায় ঘরেফেরার এতো তাড়াহুড়ো তার পুরোটাই গুড়েবালি, কেননা ঘরের আবহাওয়া ও বাইরের আবহাওয়ার মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই, কিন্তু তাই বলে তো ঘর ছেড়ে আবার বাইরে বের হওয়া যাওয়া সম্ভব নয়, এই গরমের মধ্যেই ঘরে থাকতে হবে, উপরোক্ত উপায়গুলো অবলম্বন করে আমরা এসি ছাড়াই প্রাকৃতিকভাবে ঘরকে ঠান্ডা রাখতে পারি l একবার চেষ্টা করেই দেখুন না l

 

 

*গরম* *গরমকাল* *গ্রীষ্মকাল* *গৃহসজ্জা* *গৃহস্থালিটিপস* *ঘরঠান্ডা*

Risingbd.com: হঠাৎ হিটস্ট্রোক যেন না হয় প্রখর রোদের তাপে শরীরের ত্বকের ক্ষতি করে | অতিরিক্ত তাপে ফুসফুস, হৃৎপিণ্ড, কিডনিসহ মৌলিক অঙ্গ ঠিকভাবে কাজ করতে পারে না। মস্তিষ্কে রক্ত সঞ্চালন কমে যায়, মাথা ঝিমঝিম করে। এসবই হচ্ছে হিটস্ট্রোকের লক্ষণ..বিস্তারিত পড়ুন - http://bit.ly/1TshfFl

*হিটস্ট্রোক* *রোগেরলক্ষণ* *হেলথটিপস* *গরম* *আড্ডা* *সতর্কতা*

আজি ঝর ঝর, মুখর বাদল দিনে

৫৭৯ টি পোস্ট আছে

এত্ত গরম, আবহাওয়া দেখে মনে হচ্ছে দেশটা মরুভূমি হয়ে যাবে নাকি!

২৭৭ টি পোস্ট আছে

উদ্ভট গল্পের সমাহার

১১৯ টি পোস্ট আছে

আয় বৃষ্টি ঝেঁপে, ধান দিবো মেপে

১০৬ টি পোস্ট আছে

দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা

৯৫ টি পোস্ট আছে

বৃষ্টির দিনে, শীতকালে কিংবা সারা বছর

৫১ টি পোস্ট আছে

ইট-পাথরে শখের বাগান!

৩১ টি পোস্ট আছে

গ্যাঞ্জাম ছাড়া আমাদের লাইফ- অসম্ভব!

২৬ টি পোস্ট আছে

সবসময় হিট

২৪ টি পোস্ট আছে

১৩ টি পোস্ট আছে