গরমের ফ্যাশন

গরমেরফ্যাশন নিয়ে কি ভাবছো?

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

চলতি ফ্যাশনের সাথে খাপ খাইয়ে নিজেকে কিভাবে মানিয়ে তুলবেন সেদিকেই নজর সবার। তাইতো এখন পোশাকে সেই ভানার ভাব প্রকাশ পাচ্ছে, বিশেষকরে, ছেলেদের প্যান্টে নতুনত্বের ছাপ। এই গরমে ফ্যাশন প্রিয় ছেলেরা জিন্স ও ফর্মাল প্যান্টগুলোকে বাদ দিয়ে বেছে নিচ্ছে কার্গো শর্টস প্যান্ট। ফর্মাল কোন আয়োজনে নয় বিকেলে ঘুরতে অথবা বাড়িতে পড়ার জন্য কার্গেো ও শর্টস প্যান্ট ব্যবহৃত হচ্ছে। 

আরামদায়ক হওয়ায় গরমে কার্গো ও শর্টসের প্রতি তরুণদের আগ্রহ বাড়তে শুরু করেছে। ক্যাজুয়াল পোশাক হিসেবে গরমে কার্গো জনপ্রিয় হয়ে ওঠায় বর্তমানে কাপড়ের পাশাপাশি থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্টের ডিজাইনেও ভিন্নতা আনা হচ্ছে। ছোট থেকে প্রাপ্তবয়স্ক সবার জন্যই রয়েছে কার্গো ও শর্টসের নানা ডিজাইন।

বৈচিত্র্যে কার্গো ও শর্টসঃ


প্যান্টে বর্তমানে বেশ বৈচিত্র্য এসেছে। থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্টের সামনের দিকে কোনোটিতে দুপাশে দুটি পকেট রয়েছে, কোনোটিতে চারটি। কোনোটিতে আবার পেছনেও পকেট রয়েছে। কার্গো প্যান্টগুলোতেও থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্টের মত পকেট রয়েছে। প্যান্ট ভেদে কোন কোন টিতে চারটির অধিক পকেটও রয়েছে। বর্তমান বাজারে পকেট ছাড়াও কিছু প্যান্ট রয়েছে যে প্যান্টগুলোও অনেকেই পছন্দ করছেন।

শর্টস প্যান্টের কোমরে বোতাম, ইলাস্টিক কিংবা ফিতাও ব্যবহার হয়ে থাকে। বর্তমানে থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্টের পকেটে চেইন বা বোতামের ব্যবহারে নতুনত্ব এসেছে। বৈচিত্র্য আনতে শর্টস প্যান্টের মধ্যেও এখন অনেক নতুনত্ব এসেছে। নিচের দিকে এক ইঞ্চি পরিমাণ জায়গাজুড়ে কোনোটায় লাগানো হচ্ছে অন্য রঙের কাপড়। তার সঙ্গে মিলিয়ে দুপাশের পকেটের কোনায় অল্প করে সেই রঙ জুড়ে দিয়ে আনা হচ্ছে বৈচিত্র্য। একটু সেমি ফিটিং শর্টসই এ সময় বেশি চলছে।

এখন জিন্স কাপড় অনেকটা পাতলা করে বানানো হচ্ছে থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্ট। সুতি কাপড়ের থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্ট এবং গ্যাবার্ডিনের কাপড়ের হালকা ধরনের মাল্টিপারপাস পকেটওয়ালা মোবাইল থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্টগুলোও গরমে বেশ আরামদায়ক। আমরা অর্গানিক কটন ব্যবহার করেও থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্ট বানাচ্ছি, যা শীত-গরম সব সময়ই আরামদায়ক। নানা ধরনের কাপড়ের থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্ট রয়েছে বাজারে। এর মধ্যে সুতি ও জিন্স কাপড়ের থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্টই এখন বেশি চলছে। এর পাশাপাশি গেঞ্জি, গ্যাবার্ডিন কাপড়ের শর্টস প্যান্ট পরতে পারেন। গেঞ্জি কাপড়ের শর্টস প্যান্টগুলো ঘরে পরার জন্য আরামদায়ক এবং মানানসই।

অনেক ভাই আছে যারা এধরনের প্যান্ট পছন্দ করেন। আপনি যদি তাদের মধ্যে পড়েন তাহলে আপনাকেই বলছি, দেরি কেন ভাইয়া? স্টক শেষ হবার আগেই আপনার পছন্দের প্যান্টটি কিনে নিন আজকেরডিল থেকে। ঘরে বসেই দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিংমল আজকেরডিল থেকে কার্গো ও শর্টস প্যান্ট কিনতে এখানে ক্লিক করুন

*কার্গো* *শটর্স* *প্যান্ট* *গরমেরফ্যাশন* *স্মার্টশপিং*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

কুর্তি কিনতে ক্লিক করুনভালো একটি স্টাইলিশ পোশাক যদি পরনে থাকে তাহলে তো ফূর্তির কোন অভাব থাকে না। বিশেষজ্ঞরা বলেন, কারো মন খারাপ থাকলে ভাল পোশাক পরলেই নাকি মনটা অটোমেটিক ভাল হয়ে যায়। যদি তাই হয় তাহলে বর্তমান সময়ের স্টাইলিশ পোশাক কুর্তি পরলে ফূর্তিতো এমনিতে মনের ভেতর আকডুম বাগডুম করবে। চলুন স্টাইলিশ পোশাক কুর্তি সম্পর্কে জেনে নেই।

কুর্তি

কুর্তি কিনতে ক্লিক করুন

"কুর্তা" বা "কুর্তি" শব্দটি মূলত পার্সিয়ান, যার অর্থ "কলারবিহীন শার্ট"। "কুর্তা" আসলে মধ্য, পশ্চিম এবং দক্ষিন এশিয়ায় প্রচলিত একটি ছেলেদের পোশাক। কিন্তু এটি বর্তমানে "কুর্তি" নামে ইন্ডিয়া, পাকিস্তান, নেপাল, শ্রীলঙ্কা এবং বাংলাদেশে মেয়েদের একটি জনপ্রিয় পোশাক হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। আমাদের দেশে বর্তমানে এটি অধিক জনপ্রিয় পোশাকে পরিণত হয়েছে। বিশেষ করে তরুণীদের প্রথম পছন্দের তালিকায় রয়েছে এটি।


কুর্তি ফ্যাশন

কুর্তি কিনতে ক্লিক করুন

হাল সময়ের তরুণীদের পছন্দের শীর্ষে রয়েছে স্লিভলেস ও লং সাইজের কুর্তি। কুর্তি এমন একটি পোশাক যা বেশ ঢিলেঢালা এবং আরামদায়ক। নানা রঙে এবং ডিজাইনে তৈরি কুর্তি আজকাল ফ্যাশন সচেতন কিংবা আরামপ্রিয় সবার মাঝেই অনেক জনপ্রিয়। ক্যাজুয়াল অথবা ফর্মাল যেকোনো স্টাইলের সাথেই এই পোশাকটি বেশ মানানসই। জিন্স, লেগিংস ছাড়া ঢিলে স্যালোয়ারের সাথেও কুর্তি পরা যায় অনায়াসেই। বাজারে লাল থেকে শুরু করে সাদা, নীল, সবুজ, হলুদ, বেগুনি, কমলা, মেজেন্ডা থাকছে সব কটা রঙেই। এক রঙা পোশাকের ফ্যাশন বদলে একই পোশাকে কয়েক রঙের ব্যবহার এখন বেশি জনপ্রিয়।



লম্বা ও ঢিলেঢালা কুর্তি

কুর্তি কিনতে ক্লিক করুন

লং কামিজের মতো লম্বা আর ঢিলেঢালা কুর্তিও এখন অনেকের পছন্দ। সুতি কিংবা লিনেন কাপড়ের হওয়ায় কুর্তিগুলো পরেও আরাম। এগুলোর সামনের দিকটায় থাকে এক রঙের কোনো কাপড় আর পেছনের দিকটায় জবরজং প্রিন্টের কাপড়। হাইনেক কলার ও ফুল স্লিভ কিংবা থ্রি-কোয়ার্টার হাতার কুর্তিগুলোর জমিনজুড়ে থাকে নানা মোটিফ।



শর্ট কুর্তি

কুর্তি কিনতে ক্লিক করুনকুর্তি কিনতে ক্লিক করুন

শর্ট ও স্লিভলেস কুর্তিও বর্তমানে বেশ ভাল চলে। সাথে হাতাকাটা কুর্তিরও বেশ চাহিদা আছে। ফ্যাশনটা কে একটু স্টাইলিশ করে তুলতে হবে এ ধরনের কর্তির বিকল্প নেই। এই ধরনের কর্তি যেমন আরামদায়ক তেমনই মানানসই। বাজারে লাল থেকে শুরু করে সাদা, নীল, সবুজ, হলুদ, বেগুনি, কমলা, মেজেন্ডা থাকছে সব কটা রঙেই। আপনি আপনার পছন্দমত রঙের টি কিনে নিন। তবে এগুলোতে কয়েকটি রংয়ের কমবিনেশন থাকলে ভাল লাগে।

কোথায় পাবেন?

কুর্তি কিনতে ক্লিক করুন

দেশের প্রায় সব ধরনের পোশাকের মার্কেটে মিলবে দেশী বিদেশী বিভিন্ন ডিজাইনের পছন্দসই কুর্তি। আপনি সেখান থেকে আপনার পছন্দেরটি বেছে নিতে পারেন। এছাড়াও আপনি ঘরে বসে কিনতে পারেন পছন্দের কুর্তি এজন্য আপনি দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মল আজকের ডিল এর ওয়েবসাইট এ গিয়ে অর্ডার করতে পারেন। আপনাদের সুবিধার্থে নিচে একটি অনলাইন লিংক শেয়ার করলাম।
সব ধরনের ফ্যাশনেবল কুর্তির কালেকশন দেখতে এখানে ক্লিক করুন

*গরমেরফ্যাশন* *কুর্তিফ্যাশন* *ফ্যাশনেবলকুর্তি* *স্মার্টশপিং*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

টি-শার্ট কিনতে ক্লিক করুনগরমে ফ্যাশন আর অন্য রকম আরাম কোনটিতে হয়? এ প্রশ্নের ৯০ ভাগ উত্তর হবে টি-শার্ট।  টি-শার্ট এখন ফ্যাশনেরও অন্যতম অংশ। টিনেজ থেকে শুরু করে বয়স্ক সবার কাছেই টি-শার্ট গরমের অন্যতম ফ্যাশনেবল পোশাক। এ যুগের ফ্যাশনেবল ছেলে মেয়েদের কাথে গরমে আরামের পোশাক হিসেবে সবচেয়ে জনপ্রিয় স্থানটি ধরে রেখেছে টি-শার্ট। এ কারনেই ফ্যাশন হাউস গুলো সমসাময়িক নানা ঘটনা, বিশেষ দিবস ও ঐতিহ্যকে মোটিফ হিসেবে টিশার্টে ব্যবহার করছে। টি-শার্ট সার্বজনীন পোশাক হলেও স্টাইল পরিবর্তনে এর জুড়ি মেলা ভার। বাজারে এখন বাহারি রং, ব্লক, বাটিক স্ক্রিনপ্রিন্টের টি-শার্টের সমারোহ।


বেছে নিন আপনার পছন্দের রং

টি-শার্ট কিনতে ক্লিক করুনটি-শার্ট কিনতে ক্লিক করুন

কালো রং অতিরিক্ত তাপ শোষণ করে। তাই কালোর বাইরে এসে বেছে নিতে পারেন উজ্জ্বল রংগুলো। সাদা, নীল, ছাই, ঘন নীল, সবুজ, মেরুন, চাপা সাদা, হলুদ, হালকা ফিরোজা, গোলাপি, লালচে ইত্যাদি রঙের টি-শার্ট পরতে পারেন।

টি-শার্ট কিনতে ক্লিক করুনটি-শার্টে সুতি ও নিট ফেব্রিক্সের কাপড় ব্যবহার করা হচ্ছে। এ ছাড়া কটন, পলিস্টারসহ বিভিন্ন কাপড়ের টি-শার্টও মিলে যাবে ফ্যাশন হাউসগুলোতে। টি-শার্টের কাপড় সম্পূর্ণ সুতি হলে তা বেশ আরাম দায়ক হবে। ফ্যাশানে এখন গোল গলা ও কলারসহ দুই ধরনের টি-শার্টই বেশ চলছে। টি-শার্টে ও এসেছে নতুন ডিজাইন হাফ হাতার নিচের দিকে ও কলারে ভিন্ন কাপড়ের ব্যবহার চলছে। টি-শার্ট জিন্স, গ্যাবাডিন কিংবা অন্য প্যান্টের সঙ্গে বেশ মানিয়ে যায়। আর সব বয়েসের মানুষ স্বাচ্ছন্দে তাদের পোষাকের তালিকায় রাখতে পারে এই পোষাক।


স্টাইলিশ টি- শার্ট কোথায় পাবেন

টি-শার্ট কিনতে ক্লিক করুনটি-শার্ট কিনতে ক্লিক করুন

দেশজুড়ে বিভিন্ন ফ্যাশন হাউস আধুনিক স্টাইলের টিশার্ট পাওয়া যাবে। ফ্যাশন হাউস ছাড়াও নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা কলেজের সামনে, নিউমার্কেট এলাকায়, বায়তুল মোকাররম মার্কেটের সামনে, গুলিস্তান মোড়ে, ফার্মগেটসহ বিভিন্ন স্থানে অস্থায়ী অনেক দোকান থেকেও নানা রঙ ও নকশার টি-শার্ট কেনা যাবে। বিভিন্ন ডিজাইনের এসব টি-শার্ট কেনা যাবে ১৫০ থেকে ৩৮০ টাকায়। যারা বাধাহীন মার্কেটে অভ্যস্থ তারা দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মল আজকের ডিল ডটকমের ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইনে অর্ডার করে পছন্দের টি-শার্ট কিনতে পারবেন। অনলাইনে অসংখ্য টি-শার্টের কালেকশন দেখতে এখানে ক্লিক করুন

*গরমেরফ্যাশন* *ফ্যাশন* *স্মার্টশপিং*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আবহমান বাংলায় ফ্যাশনে প্রতিদিন নতুুন নতুন পোশাক যুক্ত হচ্ছে। এসব পোশাকের মধ্য থেকে সময়ের ট্রেন্ডি সব পোশাক নিয়ে আমাদের ভাবনার কোন কমতি থাকে না। কোন পোশাকটিতে নিজেকে ভাল ভাবে ফুটিয়ে তোলা সম্ভব তা নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটান ফ্যাশন প্রিয় নারীরা। তবে ট্রেন্ডি ফ্যাশনে বর্তমানে নারীদের সবচেয়ে বেশী পছন্দ কুর্তি। সাধারন কামিজগুলোর তুলনায় লম্বা ঢোলাঢালা এই কুর্তিই এখন বেশি চলছে।সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বদলে যাচ্ছে ফ্যাশন। ঋতু বদলের সঙ্গে তাল মিলিয়ে পোশাক পরিচ্ছদেও আসছে পরিবর্তন। এই পরিবর্তনশীলতার মধ্যেই কিছু জিনিস হয়ে ওঠে সময়ের ট্রেন্ড। গত কয়েক বছরে লং কামিজ এবং কুর্তি জনপ্রিয়তা কেবল বেড়েই চলেছে। গরম যেন আপনার ফ্যাশনের উপর প্রভাব ফেলতে না পারে, তার জন্য চলছে নানান আয়োজন। প্রচণ্ড গরমে কুর্তি, কামিজ ফ্যাশন প্রিয়সী নারীদের সেরা পছন্দ। এতে করে গরমে স্বস্তির সাথে এ পোশাকে আপনাকে লাগবে স্টাইলিশ।

স্টাইলিশ লং কুর্তির জন্য ক্লিক করুন

"কুর্তা" বা "কুর্তি" শব্দটি মূলত পার্সিয়ান, যার অর্থ "কলারবিহীন শার্ট"। "কুর্তা" আসলে মধ্য, পশ্চিম এবং দক্ষিন এশিয়ায় প্রচলিত একটি ছেলেদের পোশাক। কিন্তু এটি বর্তমানে "কুর্তি" নামে ইন্ডিয়া, পাকিস্তান, নেপাল, শ্রীলঙ্কা এবং বাংলাদেশে মেয়েদের একটি জনপ্রিয় পোশাক হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। আমাদের দেশে বর্তমানে এটি অধিক জনপ্রিয় পোশাকে পরিণত হয়েছে। বিশেষ করে তরুণীদের প্রথম পছন্দের তালিকায় রয়েছে এটি।

স্টাইলিশ কুর্তির জন্য ক্লিক করুন

বিভিন্ন কাটের সুতি কাপরের কুর্তি পরতে পারেন। কামিজের ক্ষেত্রেও বেছে নিতে পারেন সুতি কাপর। সুতার কাজ করা, ব্লক, এব্রডারি, টাইডাই করা পোশাক আপনাকে লাগবে অনন্য। বৃত্তের মতো ফ্যাশনও বার বার ফিরে আসে। তারপরেও একই পোশাক যত পছন্দেরই হোক সেটা বার বার পরতে একঘেয়েমি লাগে। তাই নিজের রুচিতে আরও বৈচিত্র্য আনার জন্য একটু অন্য রং বা ঢঙের পোশাক সবসময় বেছে নেন। এ সময়ের তরুণীরা রঙিন পোশাকে বেশি প্রাধান্য দেন। সাদা, সবুজ, লাল, হলুদ, ফিরোজা, কমলা, গোলাপি, মেরুন, নীলের মতো উজ্জ্বল সব রংয়ের পোশাকগুলোকে রঙিন করে তুলছে।

স্টাইলিশ লং কুর্তির জন্য ক্লিক করুন

লম্বা ও ঢিলেঢালা কুর্তি:

লং কামিজের মতো লম্বা আর ঢিলেঢালা কুর্তিও এখন অনেকের পছন্দ। সুতি কিংবা লিনেন কাপড়ের হওয়ায় কুর্তিগুলো পরেও আরাম। এগুলোর সামনের দিকটায় থাকে এক রঙের কোনো কাপড় আর পেছনের দিকটায় জবরজং প্রিন্টের কাপড়। হাইনেক কলার ও ফুল স্লিভ কিংবা থ্রি-কোয়ার্টার হাতার কুর্তিগুলোর জমিনজুড়ে থাকে নানা মোটিফ।
 



স্টাইলিশ কুর্তির জন্য ক্লিক করুন

শর্ট কুর্তি:

শর্ট ও স্লিভলেস কুর্তিও বর্তমানে বেশ ভাল চলে। সাথে হাতাকাটা কুর্তিরও বেশ চাহিদা আছে। ফ্যাশনটা কে একটু স্টাইলিশ করে তুলতে হবে এ ধরনের কর্তির বিকল্প নেই। এই ধরনের কর্তি যেমন আরামদায়ক তেমনই মানানসই। বাজারে লাল থেকে শুরু করে সাদা, নীল, সবুজ, হলুদ, বেগুনি, কমলা, মেজেন্ডা থাকছে সব কটা রঙেই। আপনি আপনার পছন্দমত রঙের টি কিনে নিন। তবে এগুলোতে কয়েকটি রংয়ের কমবিনেশন থাকলে ভাল লাগে। শর্ট কুর্তি কিনতে ক্লিক করুন

স্টাইলিশ লং কুর্তির জন্য ক্লিক করুন

কুর্তিতে অনেক তরুনিই স্বাচ্ছন্দের পাশাপাশি ফ্যাশনেবল মনে করেন। এছারাও কামিজের ক্ষেত্রে লং কামিজ বেশ ফ্যাশনেবল। নিত্যনতুন স্টাইল সংযোজন করা হচ্ছে সালোয়ার-কামিজে। অনেকটা আলখেল্লা স্টাইলে তৈরি করা হচ্ছে বিশেষ ধরনের কামিজ। লং কুর্তার পাশাপাশি শর্ট-কামিজগুলোও বেশ চলছে। দেশের প্রায় সব ধরনের পোশাকের মার্কেটে মিলবে দেশী বিদেশী বিভিন্ন ডিজাইনের পছন্দসই কুর্তি। আপনি সেখান থেকে আপনার পছন্দেরটি বেছে নিতে পারেন। এছাড়াও আপনি ঘরে বসে কিনতে পারেন পছন্দের কুর্তি এজন্য আপনি দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মল আজকের ডিল এর ওয়েবসাইট এ গিয়ে অর্ডার করতে পারেন। আপনাদের সুবিধার্থে নিচে একটি অনলাইন লিংক শেয়ার করলাম।

সব ধরনের ফ্যাশনেবল কুর্তির কালেকশন দেখতে ক্লিক করুন

স্টাইলিশ কুর্তির জন্য ক্লিক করুন

কোথায় পাওয়া যায় কেমন দামঃ
বনানী,গুলশান এর পিঙ্ক সিটি সহ বিভিন্ন মার্কেট-এ দেদারসে বিক্রি হচ্ছে এই সব সিঙ্গেল কুর্তি। দাম ১৫০০ টাকা-৪৫০০ টাকার মাঝে। আর এইসব কুর্তি ঢোলাঢালা পায়জামার বদলে লেগিংস দিয়ে পড়া হয়। বিভিন্ন রঙের লেগিংস ও লেইস দেয়া সুন্দর সুন্দর লেগিংসও পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন শপিং মলগুলোতে । দাম ২০০ টাকা -৮০০ টাকা পর্যন্ত। কুর্তির সাথে পড়তে পারেন এক রঙের কিংবা শেডের কোন ওড়না। কুর্তির কাপড়ের রঙের সাথে মিলিয়ে ওড়নায় শেড করিয়ে নিতে পারেন। ওড়নায় ২ রঙের শেড করাতে খরচ পরে ৫০০ টাকা -৬০০ টাকা এবং ৩ রঙের শেডে খরচ পড়বে ৬০০ টাকা-৭০০ টাকা।

স্টাইলিশ কুর্তির জন্য ক্লিক করুন

গাউসিয়া, চাদনি চক, বনানী সুপার মার্কেট, পিঙ্ক সিটি, মৌচাক এর বিভিন্ন দোকানে ওড়নায় শেড করানো যায়। এসব পোশাক পাওয়া যাচ্ছে দেশিয় ফ্যাশন হাউসগুলোতে। যমুনা ফিউচার পার্ক, ইনফিনিটি মেগা মল, অঞ্জন`স, আড়ং, কে-ক্রাফট, বাংলার মেলা, প্রবর্তনা, বিবিয়ানা, নগরদোলা, সাদাকালো, অন্যমেলা, দেশালের শোরুমগুলোতে। আর অনলাইনে কিনতে চাইলে আজকের ডিল সবথেকে বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠান। এখানে শর্ট ও লং কুর্তির বিশাল কালেকশন রয়েছে। 

স্টাইলিশ লং কুর্তির জন্য ক্লিক করুন

চাইলেও আপনি বানিয়েও নিতে পারেন এই কুর্তি। সাড়ে ৩ হাত বহরের দেড় গজ এক রঙের কাপড় আর দেড় গজ কোন ম্যাচিং প্রিন্ট এর কাপড় কিনে দর্জিকে দিয়ে দিন। বানিয়ে দিবে আপনাকে আপনারই পছন্দমত। গাউসিয়া, চাদনি চক, বনানী সুপার মার্কেট, পিঙ্ক সিটি, মৌচাক সহ বিভিন্ন শপিং মল গুলোতে আপনি পাবেন এইসব গজ কাপড়। বর্ণিল রঙ এবং বিভিন্ন ডিজাইনের এইসব গজ কাপড় থেকে বেছে নিন আপনার পছন্দের গজ কাপড়টি। গজ প্রতি দাম পড়বে ২০০ টাকা-১৫০০ টাকা পর্যন্ত।

স্টাইলিশ লং কুর্তির জন্য ক্লিক করুন

ফ্যাশন প্রিয়সী আপুদের বলছি, নিজেদের কে একটু ভিন্ন ভাবে উপস্থাপন ও ফ্যাশনেবল ট্রেন্ডি লুক ধরে রাখতে চাইলে একটু আধুনিক চিন্তা করার পাশাপাশি সমসাময়িক ট্রেন্ডি ফ্যাশান অনুসরণ করে সবসময় আপডেট থাকুন।

 

 

*কুর্তি* *হালফ্যাশন* *শপিং* *স্মার্টশপিং* *গরমেরফ্যাশন*
ছবি

নাহিন: ফটো পোস্ট করেছে

গরমে ছোট বড় সবার জন্য আরামদায়ক পোশাক হিসাবে টি-শার্টের জুড়ি নেই

*টি-শার্ট* *গরমেরফ্যাশন*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

জাম্পস্যুট গরমের উত্তম পোশাক হিসেবে বিবেচিত। পাশ্চাত্যের পোশাক হলেও এখনো জাম্পস্যুটের বেশ কদর রয়েছে। তাই এই গরমে নিজে একটু নতুন করে সাজিয়ে নিতে বেছে নিতে পারেন রংচঙা জাম্পস্যুট। আধুনিক ফ্যাশনে আমাদের দেশে এই পোশাক বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। জাম্পস্যুটের জনপ্রিয়তার প্রধান কারণ হলো এটি খুবই আরামদায়ক এবং ফ্যাশনেবল।

একটা সময় ফ্যাশনে ট্রেন্ড ধরে রেখেছিল ফিটিং পোশাক। পালাজ্জো বা লেগিংসের মতো বেশ কিছু নতুন ট্রেন্ডও যোগ হয়েছে এর সঙ্গে। তবে আবারও ঢিলেঢালা পোশাকের চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলছে। তাই ধীরে ধীরে ফ্যাশন অঙ্গনে ঢিলেঢালা পোশাকের চলন শুরু করেছে জাম্পস্যুট।

ডিজাইন ও ধরন
আজকাল বিভিন্ন ধাঁচের জাম্পস্যুট পাওয়া যাচ্ছে। এই পোশাকে দেশীয় প্যাটার্ন ও ডিজাইনে এসেছে নতুনত্ব। যার গড়নে রয়েছে পাশ্চাত্যের ছোঁয়া আর ডিজাইনে রয়েছে দেশীয় আমেজ।

ঢিলেঢালা ও স্টাইলিশ দুটোরই কম্বিনেশন জাম্পস্যুট তৈরী হয়। ফুলস্লিভ, স্লিভলেস, ব্যাকলেস যেকোনো প্যাটার্নের জাম্পস্যুটই আপনাকে দিতে পারে আরো বেশি আধুনিক ও আকর্ষণীয় লুক। পোশাকটি যেকোনো ধরনের গলার কাটিংয়ের সঙ্গে মানানসই। জাম্পস্যুটে দুটি ভাগ থাকে। আর এ দুই ভাগের মধ্যে সামঞ্জস্য আনে চওড়া একটি বেল্ট। সেটা কাপড়ের হতে পারে, আবার লেদারেরও হতে পারে। তবে কালার কন্ট্রাস্টের সঙ্গে মিলিয়ে বেল্টের রংকে প্রাধান্য দেওয়া উচিত, যা পোশাকটিকে অনেক বেশি ফুটিয়ে তুলবে। আর সঙ্গে পালাজ্জোটাই বেশি মানানসই। তবে চাইলে সাধারণ কুচি দেওয়া পাজামাও পরতে পারেন।

কাপড়ে বৈচিত্র্য
সাধারণত লিলেন, সিনথেটিক, জর্জেট, শার্টিন, হাফসিল্ক ও সিল্ক কাপড়ের হয়ে থাকে এসব জাম্পস্যুট, যা পরতে খুবই আরামদায়ক এবং স্বস্তির। ডিজাইনার তাননাজ জানান, জাম্পস্যুট তৈরি করার জন্য তাঁরা লিলেন, সফ্ট জর্জেট ও সিল্ক কাপড় বেছে নেন, যা সব বয়সীর কাছেই পছন্দের। জাম্পস্যুট পার্টি পোশাক হিসেবে দারুণ মানানসই। রঙের ক্ষেত্রে এই পোশাক একরঙাও হতে পারে। আবার স্বাচ্ছন্দ্যের জন্য পরতে পারেন প্রিন্টেড কাপড়ের জাম্পস্যুট।

যেখানে পাবেনঃ
বিভিন্ন ডিজাইনের জাম্পস্যুট পাওয়া যাবে ইয়েলো, এক্সট্যাসি, ক্যাটস আই, ফ্রি-ল্যান্ড, সোল ড্যান্স, পিঙ্ক সিটি, ও-টু, মান্ত্রা, বসুন্ধরা সিটি শপিংমল, যমুনা ফিউচার পার্কের বিভিন্ন শোরুম এবং বদরুদ্দোজা সুপার মার্কেটে। এ ছাড়া অনলাইন শপ পালসে অর্ডার দিতে পারেন এসব বাহারি ডিজাইনের জাম্পস্যুট। আর নিজের পছন্দ অনুযায়ী জাম্পস্যুট বানাতে চাইলে আপনাকে ঢুঁ মারতে হবে পরিচিত দর্জিপাড়ায়।
(সংকলিত)

*ফ্যাশন* *ফ্যাশনটিপস* *গরমেরফ্যাশন* *জাম্পস্যুট*
ছবি

AjkerDeal.com: ফটো পোস্ট করেছে

৫/৫

এই গরমে পড়ুন স্টাইলিশ ও আরামদায়ক জেন্টস থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্ট।

এই গরমে পড়ুন স্টাইলিশ ও আরামদায়ক জেন্টস থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্ট। বিস্তারিত - http://www.ajkerdeal.com/Merchant/4984/raj-super-shop ফোনে অর্ডার দিন - ০৯৬১২ ০০৭ ০০৭ এ কিংবা আপনার নম্বর আমাদেরকে ইনবক্স করুন। সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মল

*শপিং* *থ্রি-কোয়ার্টারপ্যান্ট* *ফ্যাশন* *গরমেরফ্যাশন* *ফ্যাশনটিপস* *অনলাইনশপিং*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★