গল্পকথা

গল্পকথা নিয়ে কি ভাবছো?

রুপালি বীন: একটি বেশব্লগ লিখেছে

স্বামী -স্ত্রী বেড়াতে গেল (খুকখুকহাসি) চিড়িয়াখানায়। সেখানে দেখল একটি বানর তার সঙ্গীনির সাথে খেলছে (শয়তানিহাসি)। স্ত্রী দৃশ্যটা দেখে মুগ্ধ হয়ে স্বামীকে বলল: কী চমৎকার ভালোবাসার দৃশ্য ! এরপর তারা গেল সিংহদের খাঁচার কাছে।
দেখল: সিংহ খাঁচার একপাশে চুপচাপ বসে (মনখারাপ)এবং সিংহীটা অদূরে অন্য দিকে ফিরে বসে আছে। স্ত্রী দেখে বলল: আহ! ভালোবাসার কী নির্মম পরিণতি!(মনখারাপ) স্বামী এতক্ষণ চুপচাপ স্ত্রীর পাশে হাঁটছিল। এবার নীরবতা ভঙ্গ করে বললেন:
ধরো! এই কাঁচের টুকরাটা সিংহীর দিকে ছুঁড়ে মারো, আর দেখো কী ঘটে!(না)
মহিলাটি যখন কাঁচের টুকরোটা ছুঁড়ে মারল,
সিংহ ক্ষিপ্ত হয়ে সঙ্গীনিকে বাঁচানোর জন্য গর্জে উঠল।(হার্ট)
এবার মেয়ে বানরটার দিকে ছুঁড়ে মারো। দেখ কী ঘটে।
পুরুষ বানরটার আচরণ লক্ষ্য কর। স্ত্রী আ‌রেক‌টি কাঁচের টুকরো বানরীর দিকে ছুঁড়ে মারল। দেখা গেল ছুঁড়ে মারার আগেই বানরটা আত্মরক্ষার্তে ছুটে পালিয়ে গেল। সঙ্গীনির দিকে ফিরেও তাকাল না।(হাইতুলি)
স্বামী বলল: মানুষ তোমার সামনে যা প্রকাশ করে তা দেখে প্রভাবিত হয়ে যেয়ো না। অনেক মানুষ আছে যারা তাদের বানোয়াট লোক দেখানো আবেগ-অনুভূতি প্রকাশ করে অন্যকে প্রতারিত করে।
আবার অনেক মানুষ আছে যারা তাদের ভেতরে গভীর অনুরাগ- ভালবাসা লুকিয়ে রাখে।(হার্ট)  আর বর্তমানে সিংহদের চেয়ে বানরদের সংখ্যাই বেশি।(মাইরালা)
ইয়া আল্লাহ! আমাদেরকে আপনজনের সাথে অকৃত্রিম আচরণ করার তাওফীক দান করুন। আমীন
(কা‌লেক্ট‌েড)

*রূপকগল্প* *গল্পকথা* *আড্ডা* *বেশম্ভব* *ভালোবাসা*

সাদাত সাদ: মেয়েটি যে রাস্তা দিয়ে স্কুলে যেতো ঠিক সেই রাস্তার পাশেই দাড়িয়ে থাকতো ছেলেটা। প্রতিদিনই দুজনের দেখা হতো কিন্তু কথা হতো না। এভাবে দির্ঘ কয়েক মাস অতিবাহিত হবার পর হঠাৎ একদিন ছেলেটা হারিয়ে গেল। এখন মেয়েটি প্রায়ই রাস্তার পাশে তাকিয়ে থাকে ছেলেটা কে দেখার জন্য।

*ছোটগল্প* *গল্পকথা* *স্মৃতিকথা* *গল্পমালা* *অবিশ্বাস্যভালবাসা* *নাবলাকথা*

Mahi Rudro: [শেয়ালপণ্ডিত-বিরক্তকরিসনা]একটা গল্প লিখবো। সত্য ঘটনাকে কল্প-কাহিনীর মতো করে লিখবো, নাকি কল্প-কাহিনীকে সত্যের মতো লিখবো?

*গল্পকথা* *কল্পকথা*

সাদাত সাদ: একটি বেশব্লগ লিখেছে

গল্পটি এক দাড়কাক ও ময়ুরের। এক বনে বাস করত একটি দাড়কাক। উড়ে যাবার সময় তার নজর পড়ল একদল ময়ুরের দিকে। ময়ুরের পেখম দেখে সে মুগ্ধ। তারও খুব ইচ্ছে হল ময়ুরের দলে যোগ দিতে কিন্তু সে তো দাড়কাক!
এরপর সে ময়ুরের পেখম কুড়িয়ে নিয়ে নিজের গায়ে লাগাল এবং ময়ুরের দলে ভিড়তে চাইল কিন্তু ময়ুর তাকে চিনতে পেরে দূর দূর করে তাড়িয়ে দিল। মনের দুঃখে সে ফিরে গেল তার দাড়কাকের দলে। কিন্তু তার শরীরে ময়ুরের পেখম দেখে তারাও তাকে দূর দূর করে তাড়িয়ে দিল। মনের দুঃখে সে একাই থাকতে লাগলো, কেউ তাকে আর আপন করে নিল না।
এ গল্প থেকে আমরা এই শিক্ষা নিতে পারি যে, আল্লাহ যাকে যেভাবে সৃষ্টি করেছেন তার সেভাবেই সন্তুষ্ট থাকা উচিত। অন্যের অনুকরণ করতে গেলে বিপদ হতো। 
*গল্পকথা* *গল্প* *শিক্ষনীয়*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★