চুড়ি

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

দেখতে দেখতে বছর ঘুরে চলে এলো আরেকটি বসন্ত। বসন্তকে বরণ করতে তরুণীদের মধ্যে ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে নানান জল্পনা কল্পনা। ফাল্গুনের রঙের মাঝে বাসন্তী রঙের শাড়ি, খোঁপায় গোঁজা গাঁদা ফুল, হাতভর্তি চুড়ি, কপালে লাল টিপ আর হালকা মেকআপ নারীর সৌন্দর্য ফুটে ওঠে। ফাল্গুন মানেই বাসন্তী রংয়ের মেলা। হলুদ-লাল পাড়ের শাড়ি, হাত ভর্তি চুড়ি আর মাথায় গাঁদাফুল— সব মিলিয়ে পূর্ণতা পায় বসন্তের সাজ। বসন্তের প্রথম দিনে দেশীয় পোশাকের সঙ্গে হাতে থাকুক রঙিন চুড়ি।  "চুড়ি নেবেন চুড়ি, হরেক রকম চুড়ি", একসময়ের গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যের সঙ্গী ছিলো চুড়ি। 

বাঙালি নারীর হাতে রেশমি চুড়ির রিনিঝিনি ছন্দে, মন মেতে ওঠে আনন্দে। কানে ঝুলানো দুল সঙ্গে দেয় আলাদা আবহ। তাই বসন্ত বরণে নতুন পোশাকের সঙ্গে হাতভর্তি চুড়ি বা ব্রেসলেট  আর মিলিয়ে কানের দুল চাই-ই চাই। আর কদিন বাদে পহেলা ফাল্গুন। তাই নিজের সাজগোজের সব অনুষঙ্গ ঠিকঠাক মত আরেকবার মিলিয়ে নিতে পারেন। পোশাকের রং-এর সঙ্গে মিলিয়ে চুড়ি-গয়না কিনেছেন তো? এখনো না কিনে থাকলে জেনে নিন কোথায় পাবেন মনের মতো কাঁচের চুড়ি আর কানের দুল। 

টিএসসির মোড়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরি ভবনের পাশে, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান এবং ছবির হাট ও চারুকলার সামনে কাঠ, মাটির গয়না আর কাচের চুড়ির পসরা সাজিয়ে বসেছেন চুড়িওয়ালা মামারা। এছাড়া দোয়েল চত্বর, আজিজ সুপার মার্কেট, আড়ং, কলাবাগানসহ ইডেন কলেজ, নিউ মার্কেটে রাস্তার দুপাশে, গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজের পাশে রয়েছে চুড়ি, দুল, গলার মালার বিশাল বাজার।

বাসন্তী সাজে অনায়াসে এসব গয়না মানিয়ে যাবে। নানা রকম ঝুনঝুনি, চুমকি, পুঁতি ব্যবহার করা মাটির গয়নাও আপনার সাজে ব্যাবহার করতে পারেন। বসন্ত সাজের বড় একটি অংশ জুড়ে থাকে ফুলের গয়না। ফুলেল সাজে নিজেকে অনন্য করে তুলতে বেছে নিতে পারেন রং-বেরঙের ফুলের গয়না। এখন প্রয়োজন আপনার রুচি আর সাধ্যের সমন্বয় করে গয়না কেনার পালা। এসব গয়না ১৫০ থেকে ৩৫০ টাকার মধ্যে অনায়াসে পেয়ে যাবেন। হাতের চুড়ি পাবেন সেট অনুযায়ী ভিন্ন দামে।

অনেকে কাঁচের চুড়ির বদলে দুই হাতে এক জোড়া বালা বা সিটিগোল্ডের চুড় পড়তে বেশি পছন্দ করেন, তাদের জন্য আজকের ডিলের রয়েছে আকর্ষণীয় বসন্তের ডিজাইনার চুড়ি কালেকশন । আজকের ডিল থেকে চুড়ি কিনতে ক্লিক করুন এখানে ও ছবিগুলোতে।

বসন্তের প্রথম সকালে বাসন্তি রঙা শাড়ি, কপালে টিপ, হাতে চুড়ি, পায়ে নূপুর, খোঁপায় গাঁদা ফুল জড়িয়ে বেরিয়ে পড়বে তরুণী-বধূরা। বসন্ত মানেই পূর্ণতা। বসন্ত মানেই নতুন প্রাণের কলরব। বসন্ত মানেই একে অপরের হাত ধরে হাঁটা। মিলনের এ ঋতু বাসন্তী রঙে সাজায় মনকে, মানুষকে করে আনমনা। এমনও মধুর দিনে এমন শঙ্কাও কি জাগে না অধীর প্রতিক্ষায় থাকা কোন মনে- ‘সে কি আমায় নেবে চিনে/ এই নব ফাল্গুনের দিনে- জানিনে…?’ 

*চুড়ি* *বসন্তেরসাজ* *পহেলফাল্গুন* *ফাল্গুনীসাজ* *সাজসজ্জা* *গহনা*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

"চুড়ি নেবেন চুড়ি, হরেক রকম চুড়ি", একসময়ের গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যের সঙ্গী ছিলো চুড়ি। রেশমি চুড়ি, কাঁচের চুড়ি, বৈশাখী চুড়ি, কারিনা চুড়ি, দেবদাস চুড়ি বাহারি নামে চুড়ির ঝনঝন আওয়াজ মাতিয়ে রাখতো রমনীদের হাত। বর্তমানে চুড়ির কদর কমে গেছে। বিশেষ কোনো উদযাপন ছাড়া চুড়ির বেচা-কেনা একবারেই হয় না। তবে আসছে পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে চুড়ির কারখানার কারিগররা যেনো কাজের সন্ধান পেয়েছে। দিন-রাত এক করে বাহারি রঙ ও ডিজাইনের চুড়ি তৈরি করতে এখন তারা ব্যস্ত সময় পার করছেন।
বাঙালি নারীর হাতে রেশমি চুড়ির রিনিঝিনি ছন্দে, মন মেতে ওঠে আনন্দে। কানে ঝুলানো দুল সঙ্গে দেয় আলাদা আবহ। তাই বৈশাখ বরণে নতুন পোশাকের সঙ্গে হাতভর্তি রেশমি চুড়ি আর মিলিয়ে কানের দুল চাই-ই চাই। আর কদিন বাদে পহেলা বৈশাখ। তাই নিজের সাজগোজের সব অনুষঙ্গ ঠিকঠাক মত আরেকবার মিলিয়ে নিতে পারেন। পোশাকের রং-এর সঙ্গে মিলিয়ে চুড়ি-গয়না কিনেছেন তো? এখনো না কিনে থাকলে জেনে নিন কোথায় পাবেন মনের মতো কাঁচের চুড়ি আর কানের দুল। 
 
 
টিএসসির মোড়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরি ভবনের পাশে, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান এবং ছবির হাট ও চারুকলার সামনে কাঠ, মাটির গয়না আর কাচের চুড়ির পসরা সাজিয়ে বসেছেন চুড়িওয়ালা মামারা। এছাড়া দোয়েল চত্বর, আজিজ সুপার মার্কেট, আড়ং, কলাবাগানসহ ইডেন কলেজ, নিউ মার্কেটে রাস্তার দুপাশে, গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজের পাশে রয়েছে চুড়ি, দুল, গলার মালার বিশাল বাজার। পহেলা বৈশাখে মাটির গয়নার চাহিদা অন্য সময়ের চেয়ে অনেক বেশি। 
 
আকর্ষণীয় এই গয়নাগুলোর দাম থাকবে হাতের নাগালেই। এক জোড়া কানের দুল ৫০ থেকে ৮০ টাকা, মালা ৮০ থেকে ২৫০ টাকা, চুড়ি ২০ থেকে ২০০ টাকার মধ্যে। মাটির ওপর ডিজাইন করে তাতে রং ধরিয়ে তৈরি হয় গহনা। পিছিয়ে নেই অনলাইন শপ আজকের ডিলও । পহেলা বৈশাখ উপলক্ষ্যে তাদের রয়েছে বৈশাখী আয়োজন নামের বিশাল কালেকশন। 
 
আধুনিকতার ছোঁয়ায় মানের ভিন্নতায় এসেছে ব্যবহারের বিশিষ্টতা। এখন মাটির গহনায় যুক্ত করা হয় বিভিন্ন স্টোন, ছোট ছোট ডিজাইনের মেটাল, পুতি। ইদানীং বিটস ও মেটালের গয়না বেশ চলছে। এবারের বৈশাখে আপনিও বেছে নিতে পারেন এমন গয়না। কিনতে পারেন বিভিন্ন ফলের বিচির গয়না, প্লাস্টিক, কাঁচ পুঁতি আর কাঠ পুঁতির গয়না। এবারের বৈশাখে পুঁতির সঙ্গে মেটাল মিলিয়ে তৈরি করা হালকা ও ভারী নকশাদার বাহারি গয়না পাওয়া যাচ্ছে। 
 
 
বৈশাখী সাজে অনায়াসে এসব গয়না মানিয়ে যাবে। নানা রকম ঝুনঝুনি, চুমকি, পুঁতি ব্যবহার করা মাটির গয়নাও আপনার সাজে ব্যাবহার করতে পারেন। বৈশাখী সাজের বড় একটি অংশ জুড়ে থাকে ফুলের গয়না। ফুলেল সাজে নিজেকে অনন্য করে তুলতে বেছে নিতে পারেন রং-বেরঙের ফুলের গয়না। এখন প্রয়োজন আপনার রুচি আর সাধ্যের সমন্বয় করে গয়না কেনার পালা। এসব গয়না ১৫০ থেকে ৩৫০ টাকার মধ্যে অনায়াসে পেয়ে যাবেন। হাতের চুড়ি পাবেন সেট অনুযায়ী ভিন্ন দামে। আজকের ডিল থেকে চুড়ি কিনতে ক্লিক করুন এখানে।
*চুড়ি* *বৈশাখীসাজ*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

কিনে দে রেশমী চুড়ি নইলে যাব বাপের বাড়ি... সত্যিই এই গানটিই বলে দেয় বাঙ্গালি নারীদের ফ্যাশনের অন্যতম অনুসঙ্গ চুড়ি। দু’হাত ভর্তি চুড়ি আর চলতে ফিরতে কাঁচের চুড়ির রিনিঝিন শব্দ না হলে ফ্যাশনটা যেন জমে না। আর বিশেষ করে যেকোন উৎসব আয়োজনের দিন জমকালো সাজের সঙ্গে একগুচ্ছ চুড়ি যেন না পরলেই নয়! তাইতো নতুন ফ্যাশনে বাহারি চুড়ির প্রতি তরুনীদের আগ্রহটা অনেক বেশী বেড়ে গেছে। চুড়ি থাকলে সাজটাই যেন একটু অন্যরকম সুন্দর হয়ে ওঠে। চুড়ি হাতের সৌন্দর্য আরও বাড়িয়ে দেয়, সাজগোজে নিয়ে আসে নান্দনিকতা। আজকের আয়োজন বাহারি সব চুড়ি নিয়ে। কনটেন্টটির ছবি গুলোতে ক্লিক করে বিস্তারিত দেখে নিতে পারবেন। 

ফ্যাশনে চুড়ি
নতুন প্রজন্মের নারীদের কাছে চুড়ি পছন্দের এক বিশেষ অনুষঙ্গ। রিনিঝিনি কাঁচের চুড়ির সঙ্গে সঙ্গে মেটাল, সুতা, চামড়া, ব্যাকেলাইট, রবার, কাঠ, মাটি, বিডস, পুঁতি, সিটি গোল্ডসহ নানান ধরনের চুড়ি মিলবে বাজারে। আধুনিকতার ছোঁয়ায়, এখন মানুষের আগ্রহ বেড়েছে নান্দনিকতায়।  তাই কাঁচের চুড়িতে ফুটিয়ে তোলা হচ্ছে শিল্পের বাহারি ডিজাইনের ছোঁয়া। 

যুগ পাল্টেছে আর পাল্টেছে চুড়ির ধরনও। রেশমী চুড়ির পাশাপাশি সমান ভাবে জায়গা করে নিয়েছে চৌকো, ত্রিকোণ, ডিম্বাকৃতির প্লাস্টিক ও মেটাল চুড়ি। মাটি, সুতা, চামড়া, ব্যাকেলাইট, রবার, কাঠ, মাটি, বিডস, পুঁতি, সিটি গোল্ডসহ নানা ধরনের চুড়ির ব্যবহার বাড়ছে। এগুলো চুড়ির বৈচিত্র্য বাড়িয়ে দিয়েছে।


চুড়ি পরার প্রচলন মূলত শাড়ির সাথে হলেও আজকার সালোয়ার কামিজ, ফতুয়া, লং স্কার্টের সাথেও তরুণীদের চুড়ি পরার প্রবণতা লক্ষ করা যায়। তবে সেটা হতে হবে অবশ্যই পোশাকের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে। ওয়েস্টার্ন ড্রেসের সাথেও দু-একটা চুড়ি পরলে আসে অন্যরকম সামঞ্জস্য।


বাংলাদেশে বর্তমানে প্রতিটি উৎসবেই বাঙালি নারী চুড়ি সাজের জন্য বেছে নিচ্ছে। ছোট বড় যে কোনো বয়সী মেয়েরাই চুড়ি পরছে। ঋতুবৈচিত্র্যের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চুড়ির রং নির্বাচন করেন বাঙালি নারীরা। আমাদের দেশে বৈশাখে লাল সাদা, বসন্তে লাল-হলুদ, বাসন্তী চুড়ি পরে নারীরা। আবার বিভিন্ন দিবসে যেমন; একুশে সাদা-কালো, বিজয় আর স্বাধীনতা দিবসে লাল-সবুজ রংয়ের চুড়ি হাতে পরে দেশপ্রেমের প্রকাশ ঘটায় বাঙালি তরুণীরা।

দরদাম ও যেখানে কিনতে পাবেন?
রাজধানী ঢাকার বসুন্ধরা সিটি থেকে শুরু করে দেশের ছোট বড় সবগুলো মার্কেট ও শপিংমলেও পাওয়া যাবে বাহারী ডিজাইনের বাহারি চুড়ি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার সামনে, টিএসসি মোড়, কলা ভবন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, ছবিরহাট, দোয়েল চত্বরে এইসব চুড়ি পাওয়া যায়। এছাড়াও ইডেন কলেজ, গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজের সামনে, নিউমার্কেট, গাউছিয়া, চাঁদনী চকেও পাওয়া যায় রেশমী চুড়িসহ হরেক রকম চুড়ি।  

এ ছাড়াও যারা অনলাইন থেকে ঘরে বসে অর্ডার দিয়ে স্টাইলিশ চুড়ি কিনতে চান তারা দেশের বড় অনলাইন শপিং মল আজকের ডিল ডটকম থেকে ঘুরে আসতে পারেন। ডজনপ্রতি ২৫-৭০০ টাকা দামের মধ্যে পাওয়া যাবে এসব চুড়ি। একটু ভাল মানের চুড়ি কিনতে গেল ১০০০ থেকে ৫০০০ টাকার মধ্যেই পেয়ে যাবেন।
*চুড়ি* *হালফ্যাশন* *শপিং* *কেনাকাটা* *স্মার্টশপিং*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

তরুনীরা গহনা পড়তে যেমন পছন্দ করে ঠিক তেমনই গহনা উপহার হিসেবে পেলেও দারুন খুশি হয় l বড়দিন আর নতুন বছরকে সামনে রেখে ভালোবাসার মানুষটিকে ছোট্ট কোনো গহনাও উপহার দিতে পারেন। চাইলে তাকে আংটি অথবা হাতের ব্রেসলেটও দিতে পারেন। গহনার ক্ষেত্রে তরুণীদের পছন্দের শীর্ষে অবস্থান করছে পায়েল বা নূপুর। 

তবে যাই কিনুন, কেনার সময় অবশ্যই ভালবাসার মানুষটির সাথে যাতে মানানসই হয় তা ভেবে কিনবেন। চলুন জেনে নেয়া যাক এমন কিছু গহনার কালেকশন > সম্পর্কে l 





















*অর্ণামেন্ট* *গিফট* *নিউইয়ারগিফট* *রিং* *পায়েল* *চুড়ি* *স্মার্টশপিং*
ছবি

আমি লাবনী: ফটো পোস্ট করেছে

পছন্দের চুড়ি...

*চুড়ি*
শপিং

★ছায়াবতী★: কেনাকাটা সংক্রান্ত একটি তথ্য দিচ্ছে

দাম- ৩০৩ টাকা
http://ajkerdeal.com/Product/78510/bangle-0800

আমার আম্মুর হাতে সেইই লাগবে (খুবকিউটলাগছে)(খুবকিউটলাগছে)(চুম্মা)

*হাল-ফ্যাশন* *অনলাইন-শপিং* *চুড়ি*
১৫১বার দেখা হয়েছে

ছবি

অসামাজিক কবি: ফটো পোস্ট করেছে

৫/৫

গতকাল বিকালে আপার সাথে ঘুরতে গিয়ে......... অবশেষে চুড়ির কিছু ছবি তুললাম

*চুড়ি*
ছবি

অসামাজিক কবি: ফটো পোস্ট করেছে

গতকাল বিকালে আপার সাথে ঘুরতে গিয়ে......... অবশেষে চুড়ির কিছু ছবি তুললাম

*চুড়ি*
ছবি

মৃন্ময়ী সাবিহা: ফটো পোস্ট করেছে

★ছায়াবতী★: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

মা যখন খাইয়ে দেয় তখন সবচে ভাল্লাগে যখন তার হাতের চুড়ি প্লেইটে লেগে যে শব্দটা হয় সেইটা! টিং টুং টাং
*মা* *চুড়ি* *ভালবাসা*
ছবি

★ছায়াবতী★: ফটো পোস্ট করেছে

রহমান আতা: *খিচুড়ি* বউ-এর হাতের রিনিঝিনি *চুড়ি* আর *খিচুড়ি*-দুটোরই নেই কোন জুড়ি..

©The Arafat™: *বাঙ্গালিয়ানা* মানে *টিপ* *শাড়ি* *চুড়ি* *আলতা* *এলোচুল* বিশেষ করে *লালটিপ* আর *ঝড়োহওয়া* !!

শ্রীলা উমা: আপুরা সকলের জন্য *বৈশাখী* উপহার *বৈশাখীসাজ* টা কি *চুড়ি* ছাড়া হয় নাকি @Rimi @Dipty @Sutopa ও অন্যান্য............

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★