ছোটদের ফ্যাশন

ছোটদেরফ্যাশন নিয়ে কি ভাবছো?

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

ঢাক ঢোল পিটিয়ে অসাম্প্রদায়িক বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ উদযাপনের আর খুব একটা দেরি নেই। বাঙালির সার্বজনীন এই উৎসবকে বর্ণিল করতে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই একআত্না হয়ে যায়। বৃদ্ধ থেকে শিশুরা কেউ বাদ যায় না এই আনুষ্ঠানিকতায়। বৈশাখে শিশুদের সাজটাই সবার বেশি চোখে পড়ে। তাইতো দেশীয় ফ্যাশন হাউসগুলো এবারের বৈশাখে শিশুদের ফ্যাশনে পাধান্য দিয়েছে। সোনামনিদের কথা মাথায় রেখে বর্ণিল সাজে সেজে উঠেছে ফ্যাশন হাউজগুলো। চলুন তাহলে দেখে নেই  কেমন হবে শিশুদের বৈশাখী ফ্যাশন। আর কেমন করে সাজাবেন আপনার ছোট্ট সোনামনিটিকে। 
 
ছোটদের বৈশাখী ফ্যাশন:
এবছর সব বারের মতই বৈশাখের ফ্যাশনে আছে লাল সাদার প্রাধান্য। কিন্তু সেই সাথে অন্যান্য উজ্জ্বল রঙ যেমন নীল, হলুদ, কমলা, সবুজ, কালো ইত্যাদি রংও তাদের জায়গা করে নিয়েছে। লাল সাদার পটভূমিতে নানান রঙের খেলা এইবার পোশাকে নতুন মাত্রা যোগ করেছে। বাজারে বড়দের শাড়ি, সালওয়ার কামিজ, পাঞ্জাবী ইত্যাদির পাশাপাশি পাওয়া যাচ্ছে ছোটদের জন্য হরেক রকমের পোশাক। ছোট ছেলেদের জন্য আছে ফতুয়া, শার্ট, টিশার্ট আর পাঞ্জাবী। পাঞ্জাবীর সাথে এবার ধুতির থেকে পায়জামার চলটাই বেশি। 
 
এই সময়ে গরমের কথা মাথায় রেখে অধিকাংশ পোশাক তৈরি করা হয়েছে আরামদায়ক পাতলা সুতি ও খাদি কাপড় ব্যবহার করে। পাঞ্জাবীতে সাদা ও লাল রঙ প্রাধান্য পাচ্ছে যদিও কিন্তু পাঞ্জাবীর হাতে, গলায় বা পাশে অন্যান্য রঙের ব্যাবহার দেখা যাচ্ছে। আরও পাওয়া যাচ্ছে সুতি বা খাদি কাপড়ের শার্ট ও হাফ প্যান্টের সেট। এসবে রঙের ব্যাবহার লক্ষণীয়। আর আছে ফতুয়া ও টিশার্ট। ফতুয়াতে অন্যান্য রঙের থেকে লাল সাদার প্রাধান্য দেখা গেলেও টিশার্টে উজ্জ্বল রঙের ব্যাবহারটাই বেশি চখে পড়ে। মেয়েদের জন্য আছে শাড়ি, সালওয়ার কামিজ, ফতুয়া, স্কারট আর টপ, ফ্রক ও কিছু পাশ্চাত্যের পোশাকের আদলে তৈরি পোশাক। ছেলেদের মতই এসব পোশাক তৈরি হয়েছে গরমকে মাথায় রেখে সুতি ও খাদি কাপড় দিয়ে। 
রঙের ক্ষেত্রেও ট্র্যাডিশনাল লাল সাদার পাশাপাশি উজ্জ্বল রঙের ব্যাবহার করা হয়েছে। শাড়িতে সাদার পরিবর্তে তৈরি লাল, কমলা, হলুদ রঙের কাপড়ের ব্যাবহার বেশি দেখা গেছে। পাশ্চাত্যের পোশাকগুলোতে বিভিন্ন রঙের পাশাপাশি প্রিন্টেড কাপড়ের ব্যাবহার লক্ষ্য করা গেছে। মেয়েদের সালওয়ার কামিজ ও ফতুয়ার ক্ষেত্রে লাল, সাদার পাশাপাশি গোলাপি ও কমলা রঙটাই প্রাধান্য পেয়েছে। এবার ছেলে মেয়ে উভয়ের পোশাকে এমব্রয়ডারি ওয়ার্ক, স্কিন প্রিন্ট, এপ্লিকের কাজ বেশি দেখা গেছে। সেই সাথে আছে ব্লকের কাজ। ছেলেমেয়ে উভয়ের পোশাকেই এমব্রয়ডারি ওয়ার্ক করা হয়েছে প্রধানত গলায় ও হাতাতে। মেয়েদের শাড়ির ক্ষেত্রে আর ছেলেদের পাঞ্জাবীর হাতে ব্লকের কাজ বেশি দেখা গেছে। মেয়েদের সালওয়ার কামিজ আর ফতুয়াতে ইয়কের কাজ এখন ফ্যাশনে আছে। সেই সাথে ছেলেদের শার্ট আর ফতুয়াতে এবং মেয়েদের টপস, ফতুয়া এবং কিছু শাড়িতেও স্কিন প্রিন্টের কাজ দেখা গেছে। 
 
ছেলে মেয়ে উভয়ের টি শার্টে ও টপসে স্কিন প্রিন্টটাই লক্ষণীয়। বৈশাখে আনন্দ করাটাই স্বাভাবিক। আর ছোটদের জন্য তা আরও বেশি আনন্দ নিয়ে আসে। তাই তাদের পোশাকে আনন্দের ছোঁয়া তো থাকবেই। কিন্তু ভুলে গেলে চলবে না যে গরমটাও অনেক বেশি থাকবে সেই সময়। তাই পোশাক নির্বাচন করার সময় ফ্যাশনের পাশাপাশি খেয়াল রাখতে হবে তাদের আরামের দিকটাও। পোশাকের রঙের পাশাপাশি সমান গুরুত্ব দিন কাপড় নির্বাচন করার প্রতিও। সব কিছু বিবেচনা করে কিনে ফেলুন বাচ্চার কাপড়টি। এবার আপনার বাচ্চার স্বাচ্ছন্দ্য ও নতুন ফ্যাশনের পোশাক দুইয়ে মিলিয়ে রাঙিয়ে নিন আপনাদের বৈশাখ উৎসব।
 
 
ঘরে বসেই কিনে নিন ছোটমনির বৈশাখী পোশাক:
ইচ্ছে থাকলেও কর্মব্যস্ততার কারনে অনেকেই সোনামনির প্রয়োজনীয় অনুসঙ্গটি কেনার জন্য তাকে নিয়ে বের হতে পারেন না। তবে বিচলিত হবার কোন কারণ নেই ডিজাটাল যুগে ডিজিটালি সব কেনাকাটা সেরা নিতে পারবেন ঘরে বসে। এজন্য আপনার সহযোগী হতে পারে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিংমল আজকের ডিল। আজকের ডিলে আপনি সব ধরনের বৈশাখী অনুসঙ্গ কিনতে পাবেন। বিশ্বাস না হলে  একটি বার ঘুরে আসুন এই লিংক থেকে। 

 

*বৈশাখীফ্যাশন* *ছোটদেরফ্যাশন* *স্মার্টশপিং*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★