জায়নামাজ

জায়নামাজ নিয়ে কি ভাবছো?

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

ঈদুল ফিতরের সময়টাতে যাকাত দেন অনেকেই। যাকাত হিসেবে নগদ টাকা বা তা দিয়ে কেনা পোশাক কিংবা অন্য কোনো প্রয়োজনীয় পণ্য দেওয়া যায়। নগদ টাকার পাশাপাশি যারা যাকাত হিসেবে পোশাক বেছে নিয়েছেন, তাদের জন্য রইল বাজারদর ও খোঁজখবর। যাকাত দেওয়ার জন্য সবচেয়ে প্রচলিত পোশাক হচ্ছে শাড়ি ও লুঙ্গি। যাকাতের কাপড় পাওয়া যাবে ঢাকার বিভিন্ন মার্কেটে। ফুলবাড়িয়ার বঙ্গবাজার বিকল্প হকার্স মার্কেটের রিটন লুঙ্গি স্টোর, মালঞ্চ শাড়ি ঘর, সারিয়া শাড়ি বিতান, সুমাইয়া শাড়ি হাউস, আরিফ শাড়ি বিতান, জিদনী শাড়ি বিতানসহ বেশ কিছু দোকানে যাকাতের কাপড় পাওয়া যায়। এছাড়া আহছানিয়া মিশনের বিক্রয়কেন্দ্রে যাকাতের কাপড় পাওয়া যায়।

কাপড়ের সবচেয়ে বড় পাইকারি বাজার হিসেবে পরিচিত স্থান হলো ইসলামপুর। গুলিস্তানের পীর ইয়ামেনী মার্কেটেও কাপড় পাওয়া যায়। এসব কাপড় পাবনা, কুষ্টিয়া ও সিরাজগঞ্জে তৈরি হয়, এরপর ঢাকায় আসে। একটু বেশি পরিমাণে যাকাতের কাপড় কিনতে চাইলে যেতে পারেন ঢাকার অদূরে শেখের চর বাবু বাজারে। এসব স্থান যাকাতের কাপড় কেনার জন্য উপযুক্ত হিসেবে পরিচিত।

অর্ডার দিতে ক্লিক করুন 

যাকাতের লুঙ্গি
ইসলামপুরে যাকাতের লুঙ্গি পাবেন ২০০ থেকে ২৫০ টাকায়। বঙ্গবাজার, গুলিস্তানে লুঙ্গির দাম শুরু ১৫০ টাকা থেকে। ফার্মগেট সুপার মার্কেটে লুঙ্গি পাবেন ২০০ থেকে ৩০০ টাকায়। নিউমার্কেট ও ধানমন্ডি হকার্স মার্কেটে লুঙ্গি পাবেন ১৫০ থেকে ২৫০ টাকায়। নূরজাহান সুপার মার্কেটে যাকাতের জন্য ছাপা লুঙ্গি পাবেন ১৯৫ থেকে ২৫০ টাকায়। ঢাকা আহ্ছানিয়া তাঁতঘরে লুঙ্গি মিলবে ২২০ থেকে ১ হাজার ৩০০ টাকায়। এছাড়া অনলাইন শপিং মল আজকের ডিলে পাইকারী মূল্যে পাবেন যাকাতের লুঙ্গি। 

 

জায়নামাজ
অনেকে শাড়ি, লুঙ্গির পাশাপাশি জায়নামাজও দিয়ে থাকেন। সে ক্ষেত্রে যেতে পারেন বায়তুল মোকাররম মার্কেট, নিউমার্কেট, ধানমন্ডি হকার্স মার্কেট ও ইসলামপুরে। বায়তুল মোকাররম মার্কেট, নিউমার্কেট ও ধানমন্ডি হকার্স মার্কেটে জায়নামাজের দাম শুরু ১০০ টাকা থেকে। এ ছাড়া ইসলামপুরে মিলবে ১৩০ থেকে ১৭০ টাকায় চীনা ও ৩৩০ টাকা থেকে ৭৫০ টাকার তুর্কি ও পাকিস্তানি জায়নামাজ। আজকের ডিলেও জায়নামাজ, পকেট জায়নামাজ কিনতে পাওয়া যায়।  


যাকাতের শাড়ি
ঢাকার ইসলামপুরে যাকাতের শাড়ি পাবেন ৩০০ থেকে ৩৬০ টাকায়; বঙ্গবাজার, গুলিস্তানে শাড়ি পাবেন ২৬০ থেকে ৩৫০ টাকায়। ফার্মগেট সুপার মার্কেটে ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকায়। নিউমার্কেটে শাড়ি পাবেন ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকায়। ধানমন্ডি হকার্স মার্কেটে (নিউমার্কেটের বিপরীতে) ২৬০ থেকে ৩৫০ টাকা। নুরজাহান সুপার মার্কেটে (নিউমার্কেটের বিপরীতে) যাকাতের জন্য ছাপা শাড়ির দাম শুরু ২৯৫ থেকে ৪৫০ টাকা। ঢাকা আহসানিয়া তাঁত ঘরে (গ্রিনরোড, গ্রিন লাইফ হাসপাতালের বিপরীতে) যাকাতের শাড়ি পাবেন ৩৩৫ থেকে ৭০০ টাকায়; আর টাঙ্গাইলের তাঁতের শাড়ি মিলবে ৫৫০ থেকে ৭০০০ টাকা পর্যন্ত।


অন্যান্য
পরিধেয় শাড়ি, লুঙ্গির পাশাপাশি দিতে পারেন জায়নামাজ, পাঞ্জাবি, থ্রি পিস ইত্যাদি। ঢাকা আহ্ছানিয়া তাঁতঘরে যাকাত হিসেবে দেওয়ার জন্য পাঞ্জাবি পাবেন ৩০০ থেকে ১ হাজার ৪০০ টাকায়। থ্রি পিস পাবেন ৪৯০ থেকে ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত। জায়নামাজের জন্য যেতে পারেন বায়তুল মোকাররম মার্কেট, নিউমার্কেট, ধানমন্ডি হকার্স মার্কেট, বঙ্গবাজার, গুলিস্তান ও পুরান ঢাকার ইসলামপুরে। সে ক্ষেত্রে দেশি জায়নামাজের দাম শুরু ১০০ টাকা থেকে। আমদানি করা জায়নামাজ পাবেন ১৩০ থেকে ১৭০ টাকায় ও তুর্কি জায়নামাজের দাম ৩৩০ থেকে ৭৫০ টাকা। আজকের ডিলেও পাবেন। 

*যাকাত* *যাকাতেরলুঙ্গি* *যাকাতেরশাড়ি* *জায়নামাজ* *ধর্মীয়অনুসঙ্গ*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

পণ্যগুলো দেখতে ক্লিক করুনআসছে রমজান মাস। এমাসের ইবাদত অন্য সব মাসের ইবাদতের চেয়ে উত্তম। ইবাদত বন্দেগীর মাধ্যমে প্রত্যেকটি মুসলমান এই মাসেই অশেষ সওয়াব হাসিল করে চায়। কিন্তু সমস্যা হল, আপনি একজন নামাজি ব্যাক্তি, গাড়িতে ভ্রমণকালে হঠাৎ নামাজের সময় হয়ে গেল, আসে পাশে কোন পরিচিত মসজিদ নেই, অথবা গাড়ী থামিয়ে মসজিদে গিয়ে নামাজও পরতে পারছেন না। কোন জায়গায় গেলেন কিন্তু নামাজের জায়গা নেই। তখন কি করবেন? এই সমস্যা দূর করার জন্য নামাজিরা সাথে রাখাতে পারেন পকেট জায়নামজ আর সবসময় জিকিরের জন্য সাথে রাখতে পারেন ডিজিটাল তসবি।

পকেট জায়নামাজ:

জায়নামাজের জন্য ক্লিক করুন
একজন মুসলিম হিসেবে আপনি যেখানেই, যেভাবেই থাকুক না কেন নামায পড়তে হবেই। নামাজের ওয়াক্তে যদি আপনি মসজিদের বা বাসার কাছাকাছি না থাকেন তাহলে আপনাকে যেকোনো জায়গাতেই কিন্তু নামাজ পড়তে হবে। একজন ধর্মপ্রাণ মুসলমান সবসময় চেষ্টা করে সঠিক ওয়াক্তে নামাজ আদায় করতে। তাই বর্তমান কর্মব্যস্ত জীবনে বহনযোগ্য এই জায়নামটি সবসময় সাথে রাখতে পারেন। বাড়িতে,হোটেলে,অফিস,পার্ক,যানবাহন,শপিংমল সর্বোপরি সবখানে আপনি এই জায়নামাজ ব্যবহার করতে পারবেন।

ডিজিটাল কোরআন শরীফ:

কোরআন শরীফের জন্য ক্লিক করুন
কোরআন শরীফ শুদ্ধ ভাবে তেলাওয়াত, শুনতে কিংবা শিখতে আগ্রহীদের জন্য রয়েছে ডিজিটাল আল কোরআন শরীফ। এবং এর সাথে রয়েছে একটি স্পিকার পেন। কোরআন শরীফের জন্য ক্লিক করুনসাথের এই কলমটি কোরআন শরীফের যে কোন অক্ষরে, আয়াতে, পৃষ্ঠা ও সুরার উপর স্পর্শ করা মাত্রই আরবীতে তেলাওয়াত করবে এবং নির্দিষ্ট স্থানে স্পর্শ করলে বিশ্ব বরেণ্য ৭ জন ক্বারির কন্ঠে আল কোরআন তেলাওয়াত করবে এবং ইংরেজী, বাংলা, উর্দু, ফার্সি সহ মোট ৭টি ভাষায় তর্জমা করবে। সাথে রয়েছে আরো আকর্ষণীয় সব ফাংশন।

ডিজিটাল তসবীহ:

ডিজিটাল তসবীর জন্য ক্লিক করুন
রমজান মাসে যারা সবসময় জিকিরে মগ্ধ থাকতে চান তারা নিয়ে নিতে পারেন ডিজিটাল তসবী। এই ডিজিটাল তসবীহ দিয়ে খুব সহজে হিসাব রাখা যায় নির্ভুলভাবে। আপনি কতবার জিকির করলেন কতবার আল্লাহর নাম জপলেন কিংবা কতবার কালেমা পড়েছেন এই ডিজিটাল তসবী তার হিসেব রাখবে।ডিজিটাল তসবীর জন্য ক্লিক করুন

রমজান মাস উপলক্ষ্যে এই ইবাদতের অনুসঙ্গ গুলি কিনতে পাবেন দেশের সেরা অনলাইন শপিংমল আজকের ডিল থেকে। অনলাইনে কিনতে এখানে ক্লিক করুন

*কোরআনশরীফ* *জায়নামাজ* *তসবী* *ইবাদত* *রমজান* *মাহেরমজান*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★