জ্যাকেট

জ্যাকেট নিয়ে কি ভাবছো?

আমানুল্লাহ সরকার: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 ঢাকায় ভালো লাইফ জ্যাকেট কোথায় পাবো? দাম কত নিবে?

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

*জ্যাকেট* *লাইফজ্যাকেট*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

শীতে তরুণ-তরুণীদের শীত নিবারণের পাশাপাশি স্টাইল মেইনটেইন করাটাও জরুরি হয়ে পড়ে। তাই শীতের ভারী পোশাক জ্যাকেটেও এসেছে নতুনত্বের ছোঁয়া,তরুণ-তরুণীদের জন্য আধুনিক ফ্যাশনে প্রতিনিয়ত যোগ হচ্ছে নতুন মাত্রা। পোশাকের রংঢং যেন বদলে দেয় প্রকৃতি।


জ্যাকেটের কাটিং প্যাটার্নের মধ্যেও বৈচিত্র্য লক্ষ্য করা যায়। কিছু জ্যাকেট সামনে খোলা। তাতে হয়তো বোতাম বা ফিতা ব্যবহার করা হয়েছে আটকানোর জন্য।

শুধু জ্যাকেট ব্যবহার করলেই তো আর হল না। বরং বাছাই করা কিছু পোশাকের সঙ্গে ফ্যাশনেবল জ্যাকেট আপনাকে এনে দিতে পারে এলিট ক্লাসের লুক। চলুন  দারুন কিছু জ্যাকেটের কালেকশন দেখে নেই।

জ্যাকেটটি কিনতে ক্লিক করুন

জ্যাকেটেটি কিনতে ক্লিক করুন

জ্যাকেটটি কিনতে ক্লিক করুন

হুডি জ্যাকেটটি কিনতে ক্লিক করুন

আকর্ষণীয় এই ফুল স্লিভ জ্যাকেটি কিনতে ক্লিক করুন

লেডিজ ফুল স্লিভ প্যাডেড জ্যাকেটটি কিনতে এখানে ক্লিক করুন

লেডিজ উইটার ওভারকোট জ্যাকেট কিনতে এখানে ক্লিক করুন

 

কোথায় থেকে কিনবেন?


কম দামে বৈচিত্র্যময় ডিজাইনের জ্যাকেট কিনতে চাইলে চলে যেতে পারেন বঙ্গবাজার, বদরুদ্দোজা সুপার মার্কেট, নিউমার্কেটে। তাছাড়া ইচ্ছে করলে দেশের যেকোন প্রান্ত থেকে ঘরে বসেই আকর্ষণীয় জ্যাকেট কিনে নিতে পারবেন দেশের সেরা অনলাইন শপ আজকেরডিল ডটকম থেকে। সাথে দ্রুত ডেলিভারী তো থাকছে। দেশের যে কোন প্রান্ত থেকে ছবির পণ্য গুলো কিনতে চাইলে এখনি এখানে ক্লিক করুন

*জ্যাকেট* *শীতেরফ্যাশন* *স্মার্টশপিং*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

স্টাইলিশ জ্যাকেট কিনতে ক্লিক করুনশীতের ঠান্ডা অলরেডি হালকা হালকা করে ধাক্বা দেওয়া শুরু করেছে। এই সময়টাতে পাতলা কাপড়ের উপর নির্ভশীলতা কমিয়ে অনেকেই ভারী কাপড় কিনতে শুরু করেছে। তবে ভারী কাপড় ফ্যাশনে কতটা স্টাইলিশ হবে সেটা নিয়ে চিন্তা করেই ফ্যাশন সচেতনরা ঝুঁকছে চমকপ্রদ সব শীতের জ্যাকেটর দিকে।

স্টাইলিশ জ্যাকেট কিনতে ক্লিক করুনসমসাময়িক চাহিদার কথা বিবেচনা করে ফ্যাশন হাউসগুলোও তাদের কালেকশনে যুক্ত করেছে বাহারি ধাচের ফ্যাশনেবল জ্যাকেট। শার্ট, টিশার্ট, শাড়ীর ও প্যান্টের সঙ্গে পরতে পারবেন এই জ্যাকেট।

স্টাইলিশ জ্যাকেট কিনতে ক্লিক করুনবাজারে প্রাপ্ত অনেক জ্যাকেট সামনে একেবারে খোলা থাকে আবার অনেক গুলোতে থাকে বোতাম চেইন, ফিতা ইত্যাদি। মানুষভেদে পছন্দ আলাদা তাই ফ্যাশনের কালেকশন ও আলাদা। যাই বলেন ফ্যাশনে যুক্ত হয়েছে জ্যাকেট। তরুণরাও স্বাগত জানিয়ে গ্রহণ করেছে। বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজের মালিকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে এবার শীতে ফ্যাশনএ্যাবল জ্যাকেটের ক্রেতা বেশীর ভাগই হলো নারী।


যেখানে পাওয়া যাবে

কিনতে ক্লিক করুন

রাজধানীর যতোগুলো ফ্যাশন হাউজ রয়েছে সবগুলোতেই পাবেন জ্যাকেটের প্রদর্শন। উন্নতমানের কিনতে হলে নির্দিষ্ট ব্র্যান্ডের শো-রুমে যাওয়াই ভালো। তবে পছন্দমত ভাল জ্যাকেট আপনি অনলাইন মার্কেটপ্লেস আজকেরডিল থেকেও কিনতে পারবেন। এছাড়াও নিউ মার্কেট, বঙ্গবাজার, ইসলামপুর, বদরুদ্দোজা সুপার মার্কেট, আজিজ সুপার মার্কেট, রাজধানী সুপার মার্কেট, প্রিন্স প্লাজাসহ বিভিন্ন মার্কেট গুলোতে পাবেন জ্যাকেটের শো-রুম।

জ্যাকেটের দর-দাম

কিনতে ক্লিক করুন

অনলাইনে জ্যাকেট কিনে দরদাম করার কোন উপায় নেই ঠিক কিন্তু অনলাইন থেকে কিনে ঠকবেন না এটা নিশ্চিত। আর যারা মার্কেটে গিয়ে জ্যাকেট কিনতে চান দর দাম সম্পর্কে একটু অভিজ্ঞতা নিয়ে গেলে অবশ্যই আপনার সহযোগীতা হবে। বেশ কতোগুলো ফ্যাশন হাউজ ঘুরে আপনাদেরকে দরদামের একটি ধারনা দিচ্ছি। রেকসিন জ্যাকেট পাবেন-১২শ থেকে ২৫শ টাকার মধ্যে, চামড়ার জ্যাকেট ২২শ থেকে ১২ হাজার টাকার মধ্যে।

কিনতে ক্লিক করুনরেইন কোর্টের মতো পাতলা কাপড়ের জ্যাকেট পাবেন- ১৫শ টাকা থেকে ৩৫শ টাকার মধ্যে, মকমলের জ্যাকেট পাবেন- ৪ হাজার থেকে ৬ হাজার টাকার মধ্যে। সুতি কাপড়ের জ্যাকেট ১৮শ থেকে ৫ হাজার টাকায় এবং খাদি কাপড়ের জ্যাকেট ১ হাজার থেকে শুরু করে ৫ হাজার টাকার মধ্যে পাবেন। বাংলাদেশী ক্রেতাদের রুচি যাচাই-বাছাই করে, বিদেশী কম্পানী গুলো এবার তৈরী করেছে ফ্যাশনএ্যাবল জ্যাকেট।

বন্ধুরা ঘরে বসেই যারা আকর্ষণীয় সব জ্যাকেট কিনতে চান তারা এখানে ক্লিক করুন

*জ্যাকেট* *শীতফ্যাশন* *স্মার্টশপিং*

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 লেদারের পোশাক যেমন- জ্যাকেট, ব্লেজার ইত্যাদির যত্ন কিভাবে নিতে হয়?

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

.
*লেদার* *লেদারেরপোশাক* *জ্যাকেট* *ব্লেজার* *যত্নআত্তি* *লাইফস্টাইলটিপস*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

শীতে তরুণদের শীত নিবারণের পাশাপাশি স্টাইল মেইনটেইন করাটাও জরুরি হয়ে পড়ে। তাই শীতের ভারী পোশাক জ্যাকেটেও এসেছে নতুনত্বের ছোঁয়া,তরুণদের জন্য আধুনিক ফ্যাশনে প্রতিনিয়ত যোগ হচ্ছে নতুন মাত্রা। পোশাকের রংঢং যেন বদলে দেয় প্রকৃতি। 
জ্যাকেটের কাটিং প্যাটার্নের মধ্যেও বৈচিত্র্য লক্ষ্য করা যায়। কিছু জ্যাকেট সামনে খোলা। তাতে হয়তো বোতাম বা ফিতা ব্যবহার করা হয়েছে আটকানোর জন্য। 

শুধু জ্যাকেট ব্যবহার করলেই তো আর হল না। বরং বাছাই করা কিছু পোশাকের সঙ্গে ফ্যাশনেবল্ জ্যাকেট আপনাকে এনে দিতে পারে এলিট ক্লাসের লুক। তাই জেনে নিন কী ধরনের পোশাকের সঙ্গে লেদার জ্যাকেটে আপনাকে দেখতে বেশি ভালো লাগবে। সেই সাথে পরিচিত হবো কিছু দারুন  জ্যাকেটের সাথে ।

HARLEY DAVIDSON জ্যাকেট

ডেনিম বা ফর্ম্যাল ট্রাউজ়ারের সঙ্গে এই লেদার জ্যাকেটটি বেশ ভালো মানাবে আপনাকে। 
এটি আপনার ফ্যাশন স্টেটমেন্টে এনে দেবে আলাদা মাত্রা। 
হাই কোয়ালিটি ফেব্রিক 
স্টাইলিশ ডিজাইন 
আধুনিকতার সাথে মানানসই 
সাইজঃ S, M, L S-
লেন্থঃ ২৬"/ চেস্টঃ ৩৪"; M-লেন্থঃ ২৭"/ 
চেস্টঃ ৩৬"; L-লেন্থঃ ২৯"/ চেস্টঃ ৪০"
জ্যাকেটটির মুল্য ৩,৫০০ টাকা
কিনতে চাইলে ক্লিক করুন  HARLEY DAVIDSON জ্যাকেট


আর্টিফিসিয়াল লেদার হুডি জ্যাকেট

ফেব্রিকঃ আর্টিফিসিয়াল লেদার ও নীট কটন 
কাপড়টি স্ট্রেচ ফেব্রিক 
যেকোনো মাপের বডিতে এডজাস্টেবল 
হাই কোয়ালিটি ফেব্রিক 
স্টাইলিশ ডিজাইন 
আধুনিকতার সাথে মানানসই 
এটি ড্রাই ওয়াশ করতে হবে 
সাইজঃ (লেন্থ-৩০”, চেষ্ট-৪২”)
১,২০০ টাকা
কিনতে চাইলে ক্লিক করুন  লেদার হুডি জ্যাকেট



স্মার্ট স্পোর্টস হুডি জ্যাকেট

জেন্টস স্পোর্টস হুডি জ্যাকেট 
হাই কোয়ালিটি ট্রাউজার ফেব্রিক 
স্টাইলিশ ডিজাইন 
আধুনিকতার সাথে মানানসই 
এটি ড্রাই ওয়াশ করতে হবে 
সাইজঃ M, L, XL. M=লেন্থঃ ২৮"/ চেস্টঃ ১৯"; L=লেন্থঃ ২৯"/ চেস্টঃ ১৯.৫"; XL=লেন্থঃ ৩০"/ চেস্টঃ ২০";
জ্যাকেটটির মুল্য ২,৩৯৯ টাকা
কিনতে চাইলে ক্লিক করুন  স্মার্ট স্পোর্টস হুডি জ্যাকেট



এক্সক্লুসিভ লেদার জ্যাকেট

এই শীতে RAVEN এর এক্সক্লুসিভ লেদার জ্যাকেট 
হয়ে উঠুন স্টাইল আইকন 
জেনুইন লেদারে তৈরী 
রাউন্ড কলারজিপ ক্লোজার 
সাইজঃ S, M, L 
মেজারমেন্টঃ S
এ ধরনের জ্যাকেট ব্যবহার করা যেতে পারে কুর্তা, টপস, এর সঙ্গে। 
মুল্য ৭,৮০০ টাকা
কিনতে চাইলে ক্লিক করুন  RAVEN এর এক্সক্লুসিভ লেদার জ্যাকেট



জেন্টস ফুল স্লিভ জ্যাকেট

জেন্টস ফুল স্লিভ জ্যাকেট
হাই কোয়ালিটি ফেব্রিক 
স্টাইলিশ ডিজাইন 
ড্রাই ওয়াশ করতে হবে 
আধুনিকতার সাথে মানানসই 
সাইজঃ M M-লেন্থঃ ২৬"/ চেস্টঃ ৪২";
৩,৫৫০ টাকা 
কিনতে চাইলে ক্লিক করুন  জেন্টস ফুল স্লিভ জ্যাকেট


এক্সক্লুসিভ লেদার জ্যাকেট

এই শীতে RAVEN এর এক্সক্লুসিভ লেদার জ্যাকেট গায়ে হয়ে উঠুন স্টাইল আইকন 
জেনুইন লেদারে তৈরী 
রাউন্ড কলারজিপ ক্লোজার 
সাইজঃ S, M, L 
মেজারমেন্টঃ S
জ্যাকেটটি ব্যবহার করা যেতে পারে কুর্তা, টপস, এর সঙ্গে। 
৭,৮০০ টাকা
কিনতে চাইলে ক্লিক করুন  এক্সক্লুসিভ লেদার জ্যাকেট


*জ্যাকেট* *শীতফ্যাশন* *স্মার্টশপিং*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

চলছে মাঘ মাস! হীম শীতের ঠাণ্ডা হাওয়া শরীরটাকে নিমেষেই শীতল করে দিচ্ছে। শীতের এই সময়টাতে উষ্ণতার পর নিতে ফ্যাশন ও ট্রেন্ড বজায় রেখে চলছে শীতের পোশাক কেনার ধুম। হিম কুয়াশায় আর সন্ধ্যায় ঝিরঝিরে বাতাসটাকে ফাঁকি দিয়ে তরুণ তরুনীরা মেতে উঠছে শীত ফ্যাশনে। প্রতিবারের মত শীতের ফ্যাশনে এসেছে হুডি। শীতে তরুণ-তরুণীর পোশাক মানেই চোখে ভেসে ওঠে পায়ে কনভার্স, পরনে জিন্স ও ফুল স্লিভ টি-শার্ট, ফুল স্লিভ পোলো শার্ট, জ্যাকেট, কাশ্মীরি শাল, চাদর, মাফলার সঙ্গে যোগ হয় শীত ফ্যাশনের মুডি পোশাক হুডি। 

হুডি: 
হুডি পোশাক পশ্চিমা ফ্যাশনের গুরুত্বপূর্ণ একটি সংস্করণ। সময় বদলের ফ্যাশনে হুডি টিনএজদের মধ্যে জনপ্রিয় একটি পোশাক ও ফ্যাশন হয়ে উঠেছে। শুধু ছেলেরাই নয়, স্বাচ্ছন্দ্যে চলাফেরার জন্য টিনএজ মেয়েরাও বেছে নিচ্ছেন চমৎকার এ শীত পোশাকটি। শীতে হিমেল হাওয়ার হাত থেকে কানকে বাঁচাতে হুডির বিকল্প নেই। কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়সহ যে কোনো জায়গায় হুডি পরে সহজেই চলাচল করা যায় এবং অন্যান্য শীত পোশাকের মতো বাড়তি কোনো ঝামেলা নেই। হুডির সবচেয়ে বড় সুবিধা হল জিন্স, সালোয়ার-কামিজসহ যে কোনো পোশাকের সঙ্গে মানানসই। হালকা শীতের মধ্যে এ পোশাকটির চাহিদা সব থেকে বেশি থাকে।  তবে হাড় কাপানো শীতের মোকাবিলা দিতেও হুডির জুড়ি নেই l দেশের শীতের তাপমাত্রা অনুযায়ী নরম উলের হুডি এবং ভারী সিন্থেটিক হুডি সব রকমের কালেকশনই এখন সর্বত্রই পাওয়া যায় l একবার ঢু মেরে দেখতে পারেন আজকের ডিল ডট কমের উইন্টার কালেকশনে, তরুণ তরুনীদের জন্য সেখানে রয়েছে বিভিন্ন স্টাইলের হুডি l 


জ্যাকেট/ব্লেজার/ওয়েস্ট কোট: 
শীতে ফ্যাশনেবল পুরুষের সবচেয়ে পছন্দ এবং আরামদায়ক পোশাক হলো  জ্যাকেট। কারণ এগুলো কর্মক্ষেত্রে যেমন পরা যায়, তেমনি মানিয়ে যায় অন্য যে কোন স্থানেও। যাদের বাইকে করে  কাজে যেতে হয় তাদের জন্য জ্যাকেটের সবচেয়ে কমফর্টেবল পোশাক কারণ এটি যেমন ফ্যাশনেবল তেমনি শীত থেকে আমাদের রক্ষা করে দারুণভাবে। আজকের ডিলে রয়েছে জ্যাকেটের দারুন সব সম্ভার l  সিন্থেটিক লেদার, ডেনিম, ফ্লিচ এবং পলিয়েস্টারের জ্যাকেটকে রং-বেরঙের স্টিকার, পকেট, জিপার এবং প্রিন্ট যুক্ত করে করা হয়েছে আকর্ষণীয়। আজকাল মেয়েদের মধ্যেও জ্যাকেট পরার প্রবণতা বেশ লক্ষ্যনীয় l ডেনিম ট্রাউজার্স এবং হাই টপ স্নিকার্সের সঙ্গে  জ্যাকেট বেশ মানিয়ে যায় l হালকা-পাতলা গরম কাপড়ই পছন্দ এই সময়ের তরুণ তরুনীদের। আর তাই দেখা আজকাল ডিলে মিলছে পাতলা কাপড়ের জ্যাকেটের। শীতের পোশাকের মধ্যে পুরুষরা ফর্মাল গেট আপ নিতে বেছে নেয় কোট এবং ব্লেজারকে। কারণ এগুলো কর্মক্ষেত্রে যেমন পরা যায়, তেমন যেকোনো পার্টিতেও বেশ মানিয়ে যায়, কারণ শীতে মানেই তো বিয়ের মৌসুম l  এবারের শীতের ফ্যাশনে তরুণদের চাহিদা মাথায় রেখে ব্লেজারেও এসেছে পরিবর্তন। ব্লেজারের কাপড়, কাট-ছাঁট, বেতাম, রং ইত্যাদি বিষয়ে এবার বৈচিত্র্যের ছোঁয়া লেগেছে বেশি। জিনস, চামড়া, সুতির বাইরে এবার নতুন এসেছে মখমলের জ্যাকেট বা ওয়েস্ট কোট। চলুন দেখে নেই এক ঝলক আজকের ডিলে জ্যাকেট, ব্লেজার এবং ওয়েস্ট কোটের সব এক্সক্লুসিভ কালেকশন l


কাশ্মীরি শাল:
কুয়াশার প্রভাবে হালকা শীতে শাল হয়ে ওঠে নারীর প্রধান স্টাইল স্টেটমেন্ট। শীতের পোশাকের মধ্যে মেয়েদের পছন্দের তালিকায় অন্যতম শীর্ষে কাশ্মীরি শাল, হাজার ফ্যাশনের মধ্যেও চোখ আটকে যায় সব সময়। গোটা প্রকৃতি যেন প্রস্তুত হচ্ছে কাশ্মীরি বাহারি শালে নিজেকে জড়িয়ে শীত উপভোগ করতে। তাই আজকের ডিলেও লেগেছে শীতের আমেজ, সেখানে রয়েছে নানা ডিজাইনের আকর্ষনীয় সব কালেকশন l অনেক জায়গাতেই পশমিনা বা কাশ্মীরি  শাল বলে যা বিক্রি করা হয় সেগুলি কি আসল কাশ্মীরি শাল? একটি প্রশ্ন থেকেই যায়। তবে একটু সচেতন হলে আপনি নিজেই চিনে নিতে পারবেন আজকের ডিল থেকে আসল কাশ্মীরি শাল। চলুন তবে দেখে আসি কাশ্মীরি শালের এক্সক্লুসিভ সব কালেকশন l 


টুপি ও মাফলার: 
হাড়কাঁপানো শীত আর তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে শুরু হয়েছে শীত ফ্যাশনের জোয়ার। সোয়েটার, জ্যাকেট আর অন্যসব শীতের পোশাকে আকর্ষণীয় করে তোলে এর এক্সেসরিজ। এর মধ্যে অন্যতম মাফলার ও টুপি। শীতের ফ্যাশনে অনেক বড় ভূমিকা রাখে টুপি। পুরো স্টাইলকে যেন পাল্টে দেয়। তবে মাফলরও বেশি মানানসই। এর পাশাপাশি এসেছে মেয়েদের জন্য বিনি ক্যাপ। শীত থেকে রক্ষার পাশাপাশি কানও সুরক্ষা করবে বিনি ক্যাপ। টুপির সঙ্গে ম্যাচ করে নিন মাফলারও। টুপির রং ও ম্যাটেরিয়ালের সঙ্গে মানানসই মাফলার বেশ আকর্ষণীয় করে তুলবে আপনাকে। পছন্দের কানটুপি ও মাফলার পেয়ে যাবেন রাজধানীর বিভিন্ন মার্কেট সহ আজকের ডিলেও l 


লেডিজ ওয়্যার/সোয়েটার: 
এবার পাশ্চাত্য ধারা অনুসরণ করে তৈরি করা হয়েছে মেয়েদের শীতপোশাক, বিশেষ করে সোয়েটার। দৈর্ঘ্য একটু বেশি ও স্ট্রাইপ সোয়েটার এবার বেশি চলছে। সোয়েটারের গলায় ওভার ফ্লিপ ডিজাইন ব্যবহার করা হয়েছে। এটি স্কার্ফের বিকল্প হিসেবে কাজ করে। শীতে অফিসে কর্মরত মেয়েদের পাশাপাশি সাধারণ মেয়েরাও স্যুটকে শীতের ফ্যাশন হিসেবে বেছে নিতে পারেন। এধরনের পোশাক শুধু আভিজাত্যই প্রকাশ করে না সেই সাথে করপোরেট লুকও বজায় রাখে। টি-শার্ট ও শার্টের ওপর পরার জন্য হাতাকাটা সোয়েটার মানানসই। মধ্যে কুচি দেওয়া, চুড়িদার হাতা তরুণীদের পছন্দ। এবার সম্পূর্ণ আঁঁটসাঁট নয় বরং একটু ঘের দেওয়া, ঢোলা শীতপোশাকের বেশ চল দেখা যাচ্ছে। নিট কাপড় দিয়েই মূলত তৈরি হয়েছে এসব সোয়েটার। এ ছাড়া পশমি উলের, ক্রুশ কাজের সোয়েটারও পরছেন অনেকে। তবে সোজা কাটের প্যান্ট বা জিনসের সঙ্গে পরতে পারেন ব্লেজার ও কোট। দৈর্ঘ্যে হাঁটুর ওপর পর্যন্ত এমন সোয়েটার মেয়েদের কাছে এবার জনপ্রিয়। ফুলহাতার পাশাপাশি খাটো হাতার সোয়েটারও চলছে। কালো, সাদা, চাপা সাদা, ছাই, ধূসর ছাড়াও হলদে সবুজ, লাল, গোলাপি, নীল ইত্যাদি বিভিন্ন রঙের স্ট্রাইপ দেওয়া সোয়েটার প্রাধান্য পেয়েছে। আপনি ঘুরে দেখতে পারেন আজকের দিলের উইন্টার কালেকশন সেই সাথে নিচের লিঙ্কটিতে রয়েছে স্টাইলিশ কিছু সোয়েটারের কালেকশন l 


সোনামনিদের শীতের পোশাক: 
এবারের শীতে শিশুদের জন্যও পাওয়া যাচ্ছে নানা ধরনের পোশাক। শিশুদের শীতের এসব পোশাক তৈরি করা হয়েছে শৈল্পিকভাবে। ফুল, লতাপাতা, প্রাণিজগৎ ও তারার মোটিফগুলো সোয়েটার, জ্যাকেট বা জিন্সে যোগ করেছে ভিন্ন মাত্রা। নবজাতক শিশু থেকে শুরু করে সব মেয়েশিশুর শীতপোশাকেই আনন্দের ছোঁয়া আনার চেষ্টা করা হয়েছে। নবজাতক শিশুদের জন্য রয়েছে বেবিকিপার, যা পায়ের তালু থেকে মাথা পর্যন্ত উষ্ণ রাখবে শিশুকে। মেয়েদের ফতুয়া ও ফ্রকে যোগ করা হয়েছে হুডি আর থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্টের বদলে ফুলপ্যান্ট। রয়েছে ডেনিমের জ্যাকেট আর উলের সোয়েটারও। এছাড়া চামড়ার জ্যাকেটও কিনতে পারেন। আর এসবই রয়েছে আজকের ডিলে l চলুন দেখে নেই l 

সোয়েটার: 
প্রচণ্ড শীতে চাই উষ্ণতায় মোড়া সোয়েটার। পোশাকের সঙ্গে ফ্যাশনেবল সোয়েটার নিয়ে আসে বৈচিত্র্য। এবার পাতলা কাপড়ের সোয়েটার চলছে বেশ। অল্প শীতে এ ধরনের পাতলা সোয়েটার আরামদায়ক। এছাড়া ফুলহাতা টি-শার্ট, ফুলহাতা পলো শার্টও পরতে পারেন এই মৌসুমে। ছেলেদের শীতের পোশাকের মধ্যে আছে নানা ধরনের সোয়েটার। গোল গলা, ভি গলা, চিকন কলারের এসব সোয়েটারে থাকছে বিভিন্ন ধরনের ডিজাইন। সামনের দিকে চেইন বা বোতাম আছে কিছু সোয়েটারে। মেয়েদের জন্য উলের তৈরি কার্ডিগানও রয়েছে, উলেন ছাড়াও পশমি উলের, ক্রুশ কাজের সোয়েটারও বেশ চলছে l হাফ স্লিভ সোয়েটার তো পুরুষদের অন্যতম পছন্দের শীত পোশাক l টি-শার্ট ও শার্টের ওপর পরার জন্য হাতাকাটা সোয়েটার মানানসই। স্টাইলিশ সোয়েটারের সব কটি কালেকশনই মিলছে আজকের ডিলে l 

ফুল স্লিভ টি শার্ট / ফুল স্লিভ পোলো শার্ট: 
হালকা শীতে ফুলহাতা টি-শার্ট আর ফুল হাত পোলো শার্টের চাহিদা প্রচুর। আর ক্যাজুয়াল লুক নিতে চাইলে টি-শার্টের চেয়ে ভালো আর কী আছে! নানা ধরনের ফুল হাতা টি-শার্ট এবং ফুল হাতা পলো শার্ট পাওয়া যাচ্ছে আজকের ডিলে l 

*শীতেরপোশাক* *হুডি* *জ্যাকেট* *সোয়েটার* *মাফলার* *কেনাকাটা* *শপিং* *স্মার্টশপিং* *অনলাইনশপিং*

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 ভালো লেডিস জ্যাকেট কোথায় কিনতে পাওয়া যাবে?

উত্তর দাও (৩ টি উত্তর আছে )

.
*জ্যাকেট* *শীতেরপোশাক* *শপিং* *কেনাকাটা*

পূজা: একটি বেশব্লগ লিখেছে

শীত মানেই ‘জ্যাকেট সিজন’। স্পষ্ট করে বললে, লেয়ারিং-এর ফান্ডায় ফ্যাশনে উষ্ণতার বুনিয়াদ। এই শীতে শরীরে রঙ ঢালতে হলে জ্যাকেটই ভরসা! এক রঙা লেয়ারিং-এর কেতাবি সাজে চড়া রঙের জ্যাকেটেই থাকে একমাত্র যাদু। শপিং মল থেকে শুরু করে নিউ মার্কেট বা ফুটপাথ পর্যন্ত ছড়িয়ে ছিটিয়ে এখন জ্যাকেটের পসরা। আর কত রকম ভাইব্র্যান্ট, এনার্জেটিক সব রঙ! দেখে চোখ আর মন দুই-ই জুড়োতে বাধ্য। ওয়ার্ড্রোব সাজাতে অগত্যা ঝাঁপিয়ে পড়া ছাড়া গতি নেই।

বোম্বার জ্যাকেট
হাতের নাগালেই রয়েছে বোম্বার জ্যাকেট। যার অন্য নাম ফ্লাইট জ্যাকেটও বটে। এক সময় এই জ্যাকেটের উদ্ভাবন কেবল পাইলটদের জন্যই। তবে একে এখন ফ্যাশন স্টেটমেন্ট-এর এক অন্য পরিভাষা বলাই যায়। হাড়কাঁপানো শীতে উষ্ণতা পেতে গেলে এ রকম এক পিস স্টকে রাখতেই হবে। উল, লেদার ইত্যাদি নানা ঢঙে পাওয়া যাবে। কোনও পার্টিতে একটা ইভনিং ড্রেসের উপর পরে ফেলুন নির্দ্বিধায়। পায়ে থাকুক হিল। ফেমিনিন লুক পেতে বাধ্য। মুহূর্তেই যে পার্টির মধ্যমণি হয়ে উঠবেন, সে ক্ষেত্রে সন্দেহ নেই। বেশি হাড়কাঁপানো শীতে একটা বোম্বার জ্যাকেট চাপিয়ে নিলে যে বেশ ভালই আরাম, সেটাও মানছেন আজকের আধুনিকারা। 
ওভারসাইজড সোয়েটার
ওভারসাইজড সোয়েটার-এর কথাও ভুললে চলবে না। টমবয়িশ লুক পেতে গেলে এই সোয়েটারের জুড়ি মেলা ভার। চটপট একটা বয়ফ্রেন্ড জিনস্-এর উপরে একটু বড় সাইজের সোয়েটার পরে ফেলতে পারেন। পায়ে থাকুক ক্যানভাস জুতো। আর গার্লি লুক পেতে হলে লার্জ-স্মল কনট্রাস্ট করে পরুন। মিনি স্কার্ট বা পেনসিল স্কার্টের সঙ্গে রঙ বা প্রিন্টের সাম্যতা বজায় রেখে একটা বড় সোয়েটার পরুন। 'ভিতরে যদি এক কালারের টপ পরেন, তবে অবশ্যই উপরের সোয়েটার প্রিন্টেড হতে হবে। ঠিক তেমনই উল্টোটা। চাইলে সোয়েটারের ভিতরে ট্যাঙ্ক টপও পরতে পারেন'। বোহেমিয়ান লুক পেতে  ম্যাক্সি স্কার্টের সঙ্গে মিক্স অ্যান্ড ম্যাচ করে ওভার সাইজড সোয়েটার গলান। এ বেলায় পায়ে অবশ্যই ওয়েজ হিল পরবেন।


কিমোনো জ্যাকেট
এছাড়া এখন বাজার গরম ‘কিমোনো-ইন্সপায়ার্ড’ ফ্যাশনে। কিমোনো হল জাপানের ট্র্যাডিশনাল পোশাক। ষাট-সত্তরের দশকে এই জ্যাকেটের চাহিদা ছিল তুঙ্গে। একটু পুরনো বা ভিনটেজ লুকে ফিরে যেতে মন চাইছে? তাহলে কিমোনো জ্যাকেট বেস্ট। এই প্রজন্মের আধুনিকারাও কিমোনো বেশ ভালই পছন্দ করছেন। এছাড়াও ডিজাইনাররা শীতের পোশাক হিসেবে বোলেরো জ্যাকেট, পঞ্চু কিংবা ট্রেঞ্চ কোটকেও বেশ প্রাধান্য দিচ্ছেন।

(সংকলিত)

*শীতেরফ্যাশন* *জ্যাকেট*

খুশি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

চলছে শীতকাল চারদিকে ঘন কুয়াশা। ঠিক যেন গোধুলীর পড়ন্ত লগ্নে অন্ধকার নেমে আসছে। হীম বাতাস, কখনও ধীরগতি যেন লুক্কায়িত থাকে শীতের আঁচড়। যা মিন মিন করে টোকা দিতে থাকে সমস্ত শরীরে। কম্পিত হয় শরীর। ঠান্ডায় কুঁচয়ে যাওয়ার উপক্রম হয় মাথা থেকে পা পর্যন্ত। প্রয়োজন হয় কিছু বাড়তি কাপড়ের; যা দ্বারা নিবারণ হতে পারে কনকনে শীত। একেকজন একেক ধরনের শীত পোশাক বেছে নিতে থাকে তীব্র এই শীতের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য। যাবতীয় পোশাকের পাশাপাশি বাজারে পাওয়া যায় ফ্যাশন এবং শীতের পোশাক লেদার জ্যাকেট। যা তরুণদের ফ্যাশনেবল পোশাকের সঙ্গে শীতের জন্যই একটি আকর্ষণীয় পোশাক হিসেবে বাজারে স্থান করে নিয়েছে।

 এখন ছেলেমেয়েদের শরীরে জ্যাকেট দেখতে পাওয়া যায় সচরাচর। কিন্তু লেদার জ্যাকেট যেটি ফ্যাশনের সঙ্গে শীতের চাহিদা মেটাতে সম্পূর্ণরূপে প্রস্তুত। আর দোকানিরাও তাদের দোকানগুলো সাজিয়েছে একেবারে নতুন ডিজাইনের লেদার জ্যাকেট দিয়ে। এগুলো খুব সহজেই আপনার শরীর-মনের সঙ্গে মানিয়ে পরতে পারবেন। বলা যায় ‘এক ঢিলে দুই পাখি মারার মতো’। সেই সঙ্গে গর্জিয়াস এই লেদার জ্যাকেট আলাদাভাবে নিজেকে তৈরি করে তুলবে। দেখতেও অন্যের চেয়ে বাড়তি লুক দেখা যাবে খুব সহজেই। এমন চিন্তাপ্রিয় তরুণ-তরুণী হরহামেশাই দেখা যায়। এসব চিন্তাপ্রিয় বা ফ্যাশনপ্রিয় ছেলেমেয়ে এবার এই শীতে একই ধরনের ব্লেজার বা জ্যাকেট পাবে; যা পাশে থাকা বন্ধুর ফ্যাশনে থাকলেও খারাপ লাগবে না। বরং আপনার মন আরো বিকশিত হতে পারবে। কারণ বাজারের এই ব্যতিক্রমী জ্যাকেটটি শীতের প্রয়োজন মেটাতে মিল-অমিল থাকলেও একে অন্যের সঙ্গে খুব সহজেই মানিয়ে নিতে পারে। 

ফ্যাশন ডিজাইনার জাহিদ বলেন- এই শীতে তরুণদের কথা চিন্তা করে আমাদের ফ্যাশন বাজারে সম্পূর্ণ নতুন প্যাটার্নের লেদার জ্যাকেট পাওয়া যাচ্ছে। অত্যন্ত আকর্ষণীয় এবং বাহারি ডিজাইনসমৃদ্ধ। জ্যাকেটগুলো ছেলেমেয়ে উভয়ের জন্য আলাদাভাবে তৈরি। চীন এবং থাইল্যান্ড থেকে আমদানি করা হয়। বিভিন্ন রঙের সমন্বয়ে আচ্ছাদিত এই জ্যাকেট শীত নিবারণ ছাড়াও যে কোন ধরনের অনুষ্ঠানে ব্যবহার উপযোগী। সেই সঙ্গে বাড়তি ইমেজ সৃষ্টি করতে যথেষ্ট ভূমিকা রাখবে বলে মনে করেন ডে-ওয়ানের সিনিয়র সেলস্ ম্যানেজার ওয়াহিদ। জ্যাকেটগুলো চেক, স্ট্রাইপ এবং এক কালারের মধ্যে হয়ে থাকে। এগুলো আবার পাতলা/মোটা, হার্ড এবং সফটনেস। কেনার সময় অবশ্যই ক্রেতার বাজেট এবং চাহিদার ওপর লক্ষ্য রাখতে হবে। কিছু জ্যাকেট আছে যেগুলো লেদার মনে হলেও র‌্যাকসিনের তৈরি। এগুলো তুলনামূলক দাম কম পড়বে। খুব বেশিদিন টেকসই হবে না। তাই ক্রেতার মাথায় রাখা জরুরী কোনটি লেদার আর কোনটি র‌্যাকসিনের তৈরি। 

প্রচলিত ডিজাইনের ধারা অব্যাহত রেখে নতুন আঙ্গিকে বাজারে এসেছে ব্লেজার কাম-জ্যাকেট। আলাদা ডিজাইন অর্থাৎ হুড লাগানো থাকে। কেউ ইচ্ছা করলে হুডসহ জ্যাকেটটি কিনতে পারেন। প্রয়োজন ফুরালে বা ইচ্ছা করলে চেন লাগানো হুডটি খুলে রাখতে পারেন। তাতে আপনার জ্যাকেটের সৌন্দর্যের কোন ঘাটতি হবে না। মানের দিক থেকে গর্জিয়াস ডিজাইনের জ্যাকেট ৪-৫টির মধ্যে পাওয়া যাবে। একটু নরমাল ডিজাইন ১৫-২০টির মধ্যে এখন বাজারে পাওয়া যায়।

যারা নরমাল জ্যাকেট সংগ্রহ করতে চান তাদের অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। এ জাতীয় জ্যাকেটের ফাইবার থেকে খুব সহজেই সৌন্দর্য্য হ্রাস পেতে পারে। এদিকটায় বাড়তি নজর দেয়াই ভাল। এছাড়াও গত তিন-চার বছর আগে আরও একটি জ্যাকেট বাজারে এসেছে যা আজও রুচিসম্মত এবং ফ্যাশনপ্রিয় ছেলে এবং মেয়ের ব্যবহার উপযোগী। ভারত, চীন থেকে বাংলাদেশে আসে। জ্যাকেটটি গত চার বছর আগেই শীতের উষ্ণতার সঙ্গে বাড়তি ফ্যাশন হিসেবে তরুণদের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে। এটি সম্পূর্ণ কটন এবং সিনথেটিক্সেরে ওপর তৈরি। ভেতরের দিকে হাল্কা মখমলের ব্যবহার করা হয়। ফলে শীতের প্রকোপ থেকে খুব সহজেই রক্ষা পাওয়া যায়। কালার কম্বিনেশনের ক্ষেত্রে নিজের ইচ্ছামতো বাছাই করা যেতে পারে। এ্যাশ, বেগুনি, মেরুন ও মিশ্রণসহ বিভিন্ন রঙের হয়ে থাকে। এটি পার্টি বা বন্ধুদের আড্ডায় মানানসই।

কোথায় পাওয়া যাবে লেদার জ্যাকেট। ব্যস্ত এই শহরের অভিজাত শপিং মল যেমন, বসুন্ধরা শপিং সেন্টার, মেট্রো শপিংমল, রাইফেলস স্কয়ার, ইস্টার্ন প্লাজা, রাপা প্লাজা, ইস্টার্ন পয়েন্ট শপিং সেন্টার, মৌচাক সুপার মার্কেট, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, নিউমার্কেট থেকে এগুলো ক্রয় করা যেতে পারে।

দাম-এগুলো আপনি যেখানেই কিনতে যাবেন সেখানেই একই দাম আপনাকে দিতে হবে। নরমাল জ্যাকেটের দাম পড়বে ৩,৫০০ টাকা। গর্জিয়াস বা ভাল মানের জ্যাকেটের দাম পড়বে ৭,৫০০ টাকা পর্যন্ত।
সূত্রঃ  জনকণ্ঠ
*জ্যাকেট* *শীতেরফ্যাশন*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

চলছে শীত মৌসুম। ঋতু পরিক্রমায় এখন শীতকাল। পৌষ ও মাঘে শীতের দাবাদাহ থেকে নিজেকে রক্ষা করতে গরম পোশাকের কোন বিকল্প নেই। তাইতো শীতকালকে ঘিরে বাজারে চলছে শীতের পোশাক কেনার চরম ব্যস্ততা। বাজারে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের সব শীতের পোশাক তবে সবগুলোকে ছাড়িয়ে শীতের তীব্রতা কমাতে জ্যাকেটকে পাধান্য দিচ্ছে অধিকাংশ ফ্যাশন পিয়সীরা। আজকে ভিন্নধর্মী সব জ্যাকেট সমাহার নিয়ে আপনাদের সাথে হাজির হয়েছি। চলুন দেখে নেওয়া যাক কি কি জ্যাকেট এসেছে বাজারে আর আপনি কোনটি পরবেন?

হিলফায়ার ডাউন জ্যাকেটঃ

হিলফায়ার ডাউন জ্যাকেট দেখতে একটু মোটা হলেও তীব্র শীতের হাত থেকে রক্ষা পেতে এর জুড়ি মেলা ভার। ৫৫০ ফিল পাওয়ার ডাউন ইনসুলেশন এবং ওমনি-হিট থার্মাল রিফ্লেক্টিভ লাইনিং দেয়া এই জ্যাকেটগুলো দেখতেও বেশ সুন্দর। জিন্সের সাথে সহজেই মানিয়ে যায়। এ ধরণের জ্যাকেটের দাম পড়বে ৬ থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত।

ওরাকল জ্যাকেটঃ

খুব ভোরে অফিসে বা ক্লাসের উদ্দেশ্যে বেড়িয়ে পড়তে হয় এমন কারো প্রথম পছন্দ হতে পারে Oracle Jacket। খুব ঘন কুয়াশায়ও স্বচ্ছন্দে এই জ্যাকেট পরে বেরিয়ে পরতে পারেন কারণ এগুলো সম্পূর্ণ ওয়াটার প্রুফ। স্ট্রেচ ফ্যাব্রিক দিয়ে তৈরি এই জ্যাকেটগুলো আপনার গলাকেও রক্ষা করবে ঠাণ্ডায় জমে যাওয়ার হাত থেকে।

রেইন শ্যাডো জ্যাকেটঃ

এ জ্যাকেটগুলো সাধারণত খুব তুষারপাত হয় এমন দেশের জন্য তৈরি। ওয়াটার প্রুফ এই জ্যাকেটগুলো ধীরে ধীরে আমাদের দেশের তরুণদেরও পছন্দের তালিকায় উঠে আসছে। জ্যাকেটগুলো পেয়ে যাবেন ৮ থেকে ১২ হাজার টাকার মধ্যেই।

কুইলট্যাড নাইলন পিয়া কোটঃ

কোট বা ব্লেজারের পরিবর্তে এই জ্যাকেটগুলো পরে যেতে পারেন কর্মক্ষেত্রে। আবার ছুটির দিনে বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতে গেলেও সহজেই মানিয়ে যাবে পরিবেশের সাথে। এই জ্যাকেটের সুবিধা হলো, তীব্র শীতেও আপনাকে উষ্ম রাখবে, আবার দেখতে হালকা-পাতলা যা শুধুমাত্র কোট বা ব্লেজারের পক্ষেও হওয়া সম্ভব। দাম পড়বে ৫০০০-৮০০০ টাকার মধ্যে।

এছাড়া কম দামে জ্যাকেট কিনতে চাইলে চলে যেতে পারেন রাজধানীর গুলিস্তান, মালিবাগ, মগবাজার, ফার্মগেট, বাড্ডা, সদরঘাট, উত্তরা, বনানী, গুলশান, মহাখালী, মিরপুর, কল্যাণপুর, সদরঘাট, কেরানীগঞ্জ, এলিফ্যান্ট রোড, নিউমার্কেটের দোকানগুলোতে।

একটু বেশি দাম দিয়ে জ্যাকেট, কোট বা ব্লেজার কিনতে চাইলে চলে যান ও-টু, আর্টিস্টি, ফ্রিল্যান্ড, ক্যাটস আই, একস্ট্যাসি, স্মার্টেক্স, প্লাস পয়েন্ট, ইনফিনিটিসহ বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজগুলোয়। এখন আপনিই ঠিক করে নিন কোন জ্যাকেটি কিনবেন? আপনার একমাত্র পছন্দের পরিধেয় হবে কোনটি তা বেছে নেওয়ার সিদ্ধান্ত আপনার।

*জ্যাকেট* *শীতেরফ্যাশন* *শীতেরপোশাক*

দীপ্তি: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

৪/৫
ফর্মাল বা ক্যাজুয়াল যাই হোক, শীতেও আমার চাই স্মার্ট পোশাক
ধুর! শীত মানেই একগাদা উলেন পোশাকে জুবুধুবু?
মোটেই না, স্মার্ট জ্যাকেট, হুডি, শাল, মাফলারে তৈরী করো নিজের স্টাইল স্টেটমেন্ট
*শীতেরফ্যাশন* *হুডি* *জ্যাকেট* *মাফলার* *স্মার্টপোশাক*
ছবি

কেয়া _নাহিদা: ফটো পোস্ট করেছে

আপুরা যার যেটা পছন্দ তারা তাড়ি নিয়ে নিন ..........

Extra 10% Off ≥2 Items coat 1==>>http://goo.gl/TIduWB coat 2==>>http://goo.gl/JDf5du coat 3==>>http://goo.gl/8XKNjB coat 4==>>http://goo.gl/DdlDvN coat 5==>>http://goo.gl/5js10v coat 6==>>http://goo.gl/Isgkxb best selling outerwears==>>http://goo.gl/

*নতুনফ্যাশন* *ফ্যাশনটিপস* *লেডিসফ্যাশন* *শপিং* *ফ্যাশন* *জ্যাকেট*
ছবি

বিডি আইডল: ফটো পোস্ট করেছে

মেয়েদের কিছু ফ্যাশনেবল জ্যাকেট

*জ্যাকেট*
ছবি

বিডি আইডল: ফটো পোস্ট করেছে

মেয়েদের জ্যাকেট ।

*জ্যাকেট*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

উষ্ণ আবহাওয়ায় চারিদিকে শীতের তীব্রতা বাড়তে শুরু করেছে। বাড়তি এই শীতের হাত থেকে নিজেকে বাঁচতে গরম পোশাক চাই ই চাই। তবে শীতে গরম পোশাকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি পরিচিত হচ্ছে জ্যাকেট। বিশেষ করে শীতের এই সময়টাতে তরুণ প্রজন্মের কাছে জ্যাকেট ফ্যাশন খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। জ্যাকেটে দুই গুণ এক হলো শীত থেকে রক্ষা করা আরেক হল ফ্যাশনেবল হওয়া। তাই সবার কাছেই জ্যাকেট শীতের গরম পোশাক হিসেবে বিবেচিত।

বর্তমানে বাজারে বিভিন্ন কালার ও রঙের জ্যাকেট পাওয়া যাচ্ছে। কাল, গাঢ় ও মেরুনের পাশাপাশি কালো হলুদের মিশ্রণ, বেগুনি হলদে  ও সবুজেভাব রঙের চামড়ার জ্যাকেট বর্তমানে বেশি চলছে। হাইনেক ও হুডি জ্যাকেট গুলোতে নজর কাড়তে বাড়তি পকেট ব্যবহার করা হয়েছে।

দেশের সব বড় থেকে মাঝারি শপিং মলে বাহারি ডিজাইনের শীতের জ্যাকেট পাওয়া যাচ্ছে। তাহলে আর দেরি কেন আজই কিনে নিন আপনার পছন্দের জ্যাকেট।

*জ্যাকেট* *শীতেরফ্যাশন*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★