নতুন লেখক

নতুনলেখক নিয়ে কি ভাবছো?

নাসিমুল আলম: *নতুনলেখক* আগামীদিনের সুর শোন ওই বিষণ্ণতার গানের মাঝে, ভাবনাগুলোর দ্বার খুলে দাও – বরণ কর জীবনটাকে।

খুশি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

প্রখ্যাত মরমী সাধক মাতাল কবি আব্দুর রাজ্জাক দেওয়ান স্মারকগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। এবারের অমর একুশে বইমেলায় তাঁর স্মরণে এই গ্রন্থটি প্রকাশিত হয়েছে। কবির ১২তম মৃত্যুবার্ষিকীতে প্রকাশিত ২৮৪ পৃষ্ঠার এ স্মারকগ্রন্থে স্থান পেয়েছে কবির জীবনী, তার ওপর লেখা প্রবন্ধ, সাক্ষাৎকার, অনুভূতিমালা, স্মৃতিমালা (ছবি), কবির পাণ্ডুলিপির দু’পাতা ৫২টি গান ও অনুবাদসহ ৯টি গান।

স্মারকগ্রন্থে প্রবন্ধ রয়েছে— অধ্যক্ষ মুহম্মদ ছাদেক আলী, Professor Dr. Christina Nygren, বিটিভির উপ-মহাপরিচালক গোলাম শফিক, মুক্তিযোদ্ধা আলতাফ হোসেন, কবির জ্যেষ্ঠপুত্র কাজল দেওয়ান, কবির কনিষ্ঠপুত্র সুজন দেওয়ান, বাংলা একাডেমির উপপরিচালক ড. তপন বাগচী, নাট্যকর শাকির দেওয়ান, কবির ভক্ত কামাল দেওয়ান, কবির অনুরাগী ও গবেষক মহসীন দেওয়ান লিটন, সঙ্গীতশিল্পী মতি রহমান, মুক্তিযুদ্ধ-গবেষক ইকবাল জাফর খন্দকার, Director Janet Best, প্রামাণ্য নির্মাতা ফরিদ হোসেন, সঙ্গীতশিল্পী কাজী সজীব রাফসানজানি ও প্রাবন্ধিক মোঃ জহিরুল হকের।

সাক্ষাৎকার রয়েছে— কবিপত্নি জনাবা নাসিমা দেওয়ান, বাউল শিল্পী ও অনুরাগী আলেয়া বেগম, শিষ্যা মমতাজ বেগম, শিল্পী ও অনুরাগী শিল্পী আরিফ দেওয়ান, শিল্পী ও অনুরাগী আক্কাছ দেওয়ান, শিল্পী ও অনুরাগী শাহ আলম সরকার, শিল্পী ও অনুরাগী লতিফ সরকার, বন্ধু সিদ্দিকুর রহমান, অনুরাগী তনির উদ্দীন খান এবং রিকশাচালক ও অনুরাগী দুলাল মিয়ার।

কবির সম্পর্কে অনুভূতি নেওয়া হয়েছে— কবিবন্ধু আলহাজ মোহাম্মদ ইসমাইল, কবিবন্ধু মোক্তার হোসেন (মেম্বার), জ্যেষ্ঠ বাউল শিল্পী ও অনুরাগী গণি সরকার, বন্ধু ও মুক্তিযোদ্ধা নাসির মিয়া, শিষ্য ও বাউল শিল্পী জালাল দেওয়ান, শিষ্য ও বাউল শিল্পী নীলা পাগলী, শিষ্য ও বাউল শিল্পী বিল্লাল দেওয়ান, শিষ্য ও বাউল শিল্পী খালেক দেওয়ান, শিষ্য ও বাউল শিল্পী শ্যাম দেওয়ান, প্রতিবেশী ও অনুরাগী জগদীস মণ্ডল, শিষ্য ও বাউল শিল্পী আব্দুল হাই দেওয়ান, অনুরাগী ও বাউল শিল্পী আকলিমা বেগম, ভক্ত ও ব্যবসায়ী হাবিবুল্লাহ খান, বাউল শিল্পী ও অনুরাগী চিত্ত দেওয়ান, অনুরাগী ও বাউল শিল্পী আবুল সরকার, অনুরাগী ও ব্যবসায়ী সিকদার বেনজীর আহমেদ, ভক্ত ও যন্ত্রশিল্পী (তবলা) মোঃ ফজল মিয়া ফাজিল, অনুরাগী আশিক আলী দেওয়ান, অনুরাগী ও ব্যবসায়ী মোহাম্মদ কহিনূর, অনুরাগী ফজলুল করীম, অনুরাগী ও বাউল শিল্পী তাসলিমা বেগম (মায়া রাণী), অনুরাগী ও কবির বন্ধুপুত্র আশরাফুল জলিল স্বপন, শিষ্য ও বাউল শিল্পী দ্বীপু দেওয়ান, শিষ্য ও বাউল শিল্পী লতা দেওয়ান, শিষ্য ও বাউল শিল্পী শাহীন দেওয়ান, শিষ্য ও বাউল শিল্পী নয়ন দেওয়ান, শিষ্য ও বাউল শিল্পী রীতা দেওয়ান, শিষ্যা ও অনুরাগী শিউলী দেওয়ান, অনুরাগী ও শিল্পী জামাল সরকারের কাছ থেকে।

‘স্মৃতিমালা’তে রয়েছে কবি, কবির ওস্তাদ, তাঁর ভক্ত-অনুরাগী, বন্ধু ও পরিবারের সদস্যদের ছবি। ‘বাহান্ন ফুল’-এ রয়েছে কবির বায়ান্নটি গান। এ ছাড়া রয়েছে অনুবাদসহ ৯টি গান ও কবির পাণ্ডুলিপির দু’টি গানের স্ক্যান কপি।

এই মরমী কবি সম্পর্কে উৎসাহী, ভক্ত, অনুরাগী ও গবেষকদের জন্য বইটি গুরুত্বপূর্ণ বিবেচিত হবে বলে প্রত্যাশা করা যায়।
(সংকলিত)

*বইমেলা* *নতুনবই* *বইমেলা২০১৫* *নতুনলেখক*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

একুশে বইমেলা ২০১৫ উপলক্ষে তরুণ প্রজন্মের জনপ্রিয় লেখক রেদোয়ান মাসুদ নিয়ে এসেছে চমকপ্রদ কবিতার বই "মনে পড়ে তোমাকে"। বইটি প্রকাশ করেছে বর্ণ প্রকাশনী।  অমর একুশে গ্রন্থমেলার সোহ্‌রাওয়ার্দী উদ্যানের বর্ণ প্রকাশের ২৬৬ নং স্টলে বইট পাওয়া যাবে।
*বইমেলা* *বইমেলা২০১৫* *নতুনবই* *নতুনলেখক* *কবিতারবই* *কবিতা*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

একুশে বইমেলায় প্রকাশিত হল সাংবাদিক ও লেখক আলম শামসের কবিতার বই ‘মর্ত্যের স্পর্শে’। বইটি প্রকাশ করেছে আজমাইন পাবলিকেশন্স। প্রচ্ছদশিল্পী মনিরুজ্জামান পলাশ ও দাম ১৫০ টাকা। পাওয়া যাবে মেলার ৩৫ ও ১৯০ নং স্টলে।

মূলত রোমান্টিকতা নির্ভর কবিতার সংকলন কাব্যগ্রন্থ ‘মর্ত্যের স্পর্শে’। চলমান সমাজের নানা বয়সের নারী-পুরুষের প্রেমময় আবেগ-আকাঙ্ক্ষা নিয়েই রচিত হয়েছে বইটির কবিতা।

বইয়ের ভূমিকায় কবি, কথাশিল্পী ও সাংবাদিক আল মুজাহিদী লিখেছেন, ‘আলম শামসের কবিতার মূল প্রেরণা ও বিষয়-নিশ্চয় সুন্দর ও সত্যের ওপর স্থাপিত প্রেম ও ‘প্যাট্রিওটিজম’। যে মানুষ মৃত্তিকা ও মাতৃভূমি থেকে একেবারে আপনার হয়ে ওঠে আসে সেই শুধু শিল্পী হয়ে সতত প্রাণিত হয়। ....আলম শামস সেই শক্তি ও সম্ভাবনা নিঙড়ে নিখাঁদ করে তুলতে প্রয়াসী প্রাণবন্ত এক আবেগপ্রবণ কবি। আবেগের আতিশয্যে কবিতাকে অন্তরঙ্গ করে তুলতে সচেষ্ট।’

*বইমেলা* *নতুনবই* *নতুনলেখক* *বইমেলা২০১৫*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৫ নাসিমূল আহসানের দ্বিতীয় গ্রন্থ ‘রোদের কাছে চিঠি’ প্রকাশিত হয়েছে। বইটি প্রকাশ করেছে রাঁচী গ্রন্থনিকেতন। এর আগে চলতি বইমেলাতেই প্রকাশিত হয় লেখকের প্রথম বই ‘গোলাপ মেয়ের সাথে স্বর্গযাত্রা’।

‘রোদের কাছে চিঠি’ বইতে লেখক জীবন ও প্রকৃতি সম্পর্কে চারপাশের মানুষের সহজাত আবেগ-অনুভূতি নান্দনিকভাবে উপস্থাপন করেছেন।

বইটির মুক্তগদ্য সংকলনের লেখাগুলো ২০১১ সাল থেকে এ পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে ভিন্ন ভিন্ন পরিপ্রেক্ষিতে রচিত। বইটির সে চলে গেলে, খরগোশছানা মা, রোদের কাছে চিঠি, তিল, জাদুবিদ্যা, রিকশাঅলার পা, শিশুরা মরে গেলে প্রভৃতি ছোট ছোট মুক্তগদ্যপাঠে মিলবে জীবন-যাপনের নানামুখী বাস্তবতা।

গ্রন্থমেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের রাঁচী গ্রন্থনিকেতনের স্টলে (স্টল নম্বর-১৭১) বইটি পাওয়া যাবে।

*বইমেলা* *বইমেলা২০১৫* *নতুনবই* *নতুনলেখক*
ছবি

পূজা: ফটো পোস্ট করেছে

খুশি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

নতুন প্রজন্মের তরুণ কথাসাহিত্যিক এহ্সান মাহমুদের প্রথম উপন্যাস ‘একাত্তরের লাল মিয়া’ অমর একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়েছে। উপন্যাসটি প্রকাশ করেছে প্লাটফর্ম প্রকাশনী।

‘একাত্তরের লাল মিয়া’ উপন্যাসের কেন্দ্রে রয়েছেন মাদারীপুরের মুক্তিযোদ্ধা মো. লাল মিয়া খান। তার জীবন কাহিনীর মধ্য দিয়ে বর্ণিত হয়েছে দেশভাগ, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীন বাংলাদেশের নাগরিকদের নানা বঞ্চনা-হতাশার গল্প।

‘একাত্তরের লাল মিয়া’ বই আকারে প্রকাশের আগে দৈনিক সংবাদে ধারাবাহিকভাবে ছাপা হয়। ওই সময় উপন্যাসটি বেশ প্রশংসিত হয়।

বইটি প্রকাশ করেছে প্লাটফর্ম। প্রচ্ছদ এঁকেছেন কাইয়ুম চৌধুরী। গ্রন্থমেলায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে প্লাটফর্মের স্টলে বইটি পাওয়া যাবে।


*বইমেলা* *বইমেলা২০১৫* *নতুনবই* *উপন্যাস* *নতুনলেখক*
ছবি

আমানুল্লাহ সরকার: ফটো পোস্ট করেছে

৫/৫

নতুন লেখক মারিয়া রিমা’র কবিতার বই ‘বেনামী’

বইটিতে মারিয়া রিমা তার কবিতায় ধরেছেন প্রেম, অসঙ্গতি আর নাগরিক জীবন। মারিয়া রিমার প্রকাশিত এই প্রথম বইটি প্রকাশ করেছে ‘ঘাসফুল’ প্রকাশনী। পাওয়া যাচ্ছে বইমেলার ২১৮ নং স্টলে। মূল্য রাখা হয়েছে একশ’ টাকা।

*কবিতারবই* *কবিতা* *বইমেলা* *নতুনলেখক* *নতুনলেখিকা* *নতুনবই* *বইমেলা২০১৫*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

চলছে অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৫। বইমেলাকে ঘিরে প্রতিদিনই আসছে নতুন নতুন বই। তবে বই প্রকাশের দিক থেকে পুরাতন লেখকদের চেয়ে কোন অংশেই পিছিয়ে নেই নতুন লেখকরা।  একুশে গ্রন্থমেলার একাদশ দিনে বুধবার মেলার নজরুল মঞ্চে মোড়ক উন্মোচন হয়েছে ছয়টি বইয়ের। এর মধ্যে শাহ আলমগীর মোড়ক উন্মোচন করেন নন্দিতা থেকে প্রকাশিত শামীম পারভেজের ‘হৃদয়ের কথা’, শিমুল মুস্তাফা উন্মোচন করেন ইউনিভার্সাল একাডেমি প্রকাশিত শিমুল পারভীনের ‘দেখতে আমি পাইনি তোমায়’। প্রাবন্ধিক সৈয়দ আবুল মকসুদ উন্মোচন করেন মাহবুব কামালের ‘জাত নিমের পাতা’।

একাডেমির তথ্যকেন্দ্র এবং সমন্বয় ও জনসংযোগ উপ-বিভাগ থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, বুধবার মেলার একাদশ দিনে নতুন ১০৭টি বই এসেছে। এর মধ্যে গল্প ২২, উপন্যাস ১৬, প্রবন্ধ ৭, কবিতা ২০, গবেষণা ২, ছড়া ৩, জীবনী ১, মুক্তিযুদ্ধ ৩, বিজ্ঞান ৩, ইতিহাস ২, রাজনীতি ২, স্বাস্থ্য ১, অনুবাদ ১, বৈজ্ঞানিক কল্পককাহিনী ১ এবং অন্যান্য বিষয়ের ওপর বই এসেছে ২৩টি।

নান্দনিক থেকে এসেছে আহমাদ মোস্তফা কামালের ‘একদিন সব কিছু গল্প হয়ে যায়’, চরম উদাসের ‘এসো নিজে করি’, ঐতিহ্য থেকে এসেছে আসাদুল ইসলামের ‘আটলান্টিক হাসির নির্ঘুম বিদ্যুৎ’, অ্যাডর্ন থেকে এসেছে আবদুস সালাম মামুনের ‘উপমহাদেশের আইন ও শাসনের ইতিহাস’, মাওলা ব্রাদার্স থেকে এসেছে শাহাদুজ্জামানের ‘গল্পসমগ্র ১’, পাঠসূত্র থেকে এসেছে শোয়ায়েব মুহামদের ‘ঘুড়িযাত্রা’, দিব্যপ্রকাশ থেকে এসেছে মঈনুল আহসান সাবেরের ‘কারণজল’, অনিন্দ্য প্রকাশ থেকে এসেছে অরুণ চৌধুরীর ‘সুখ সখিগণ’, অনন্যা থেকে এসেছে মুনতাসীর মামুনের ‘লড়াই চলছে লড়াই চলবে’, শাহাবুদ্দীন নাগরীর ‘তাপসী’, সময় প্রকাশন থেকে এসেছে কামাল চৌধুরীর ‘উড়ে যাওয়া বাতাসের ভাষা’, চন্দ্রদীপ থেকে এসেছে আলী ইমামের ‘অপারেশন কুয়াকাটা’, জয়তী থেকে এসেছে আন্দালিব রাশদীর ‘সাতাশ বছর পরে’, পালক থেকে এসেছে কাওসার রহমানের ‘কালো টাকার সন্ধান’ উল্লেখযোগ্য।


*বইমেলা* *বইমেলা২০১৫* *নতুনবই* *নতুনলেখক*

খুশি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

সংবাদ পাঠিকা ও সঙ্গীতশিল্পী লোপা হোসাইন এবার পরিচিত হলেন নতুন পরিচয়ে। প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘যে অন্ধত্বের নাম ভালোবাসা’র মোড়ক উন্মোচিত হওয়ার মধ্য দিয়ে তরুণ লেখিকার তালিকায় নাম লেখালেন তিনি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরসি মজুমদার অডিটোরিয়ামে মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

লোপা হোসাইন ২০০৫ সালে ক্লোজআপ ওয়ান প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে সঙ্গীত জগতে প্রবেশ করেন। একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে সিনিয়র সংবাদ উপস্থাপিকা হিসেবে কর্মরত আছেন। ইতোমধ্যে তার দুটি একক ও বেশকিছু মিক্সড এ্যালবাম প্রকাশিত হয়েছে। লোপা হোসাইনের প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘যে অন্ধত্বের নাম ভালোবাসা’র অনলাইন সহযোগী দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকম। বইটি পাওয়া যাচ্ছে অমর একুশে গ্রন্থমেলায় আদর্শ প্রকাশনীর ৪১১-৪১২ নম্বর স্টলে। 

*নতুনবই* *বইমেলা* *বইমেলা২০১৫* *নতুনলেখক* *নতুনলেখিকা* *কাব্যগ্রন্থ*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

কৃষি নির্ভর বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষ যখন কৃষির উপর নির্ভরশীল তখন সেই সব কৃষক এবং তাদের উৎপাদতি ফসলের খবরাখবর জনগণের মাঝে পৌঁছে দেওয়ার জন্য কৃষি সাংবাদিকতার কোন বিকল্প নেই। মূলত কৃষি সাংবাদিকতায় পেশাদ্বারিত্ব বাড়ানোর জন্য কৃষিবিদ মনিরুজ্জামান কবির  একটি বই লিখেছেন যার শিরোনাম ‘কৃষি সাংবাদিকতা শিক্ষণ’। বইটি এবারের বই মেলায় প্রকাশিত হয়েছে।

লেখক ও বইটির বিস্তারিত তথ্যঃ
বইটি অমর একুশে বইমেলায় ৪ ফেব্রুয়ারী প্রকাশিত হয়েছে। বইটি প্রকাশ করেছে হাওলাদার প্রকাশণী ।অমর একুশে বই মেলার স্টল নাম্বার-৮২। বইটির লেখক কৃষিবিদ মনিরুজ্জামান কবির।লেখক ২০০৬ সাল থেকে একটি জাতীয় দৈনিকের শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) সংবাদদাতা ছিলেন।২০০৮ সাল থেকে জাতীয় দৈনিক পত্রিকা যায়যায়দিন এর কৃষি ফিচার পাতার বিভাগীয় সম্পাদক ।২০০৯ থেকে  স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেল বাংলা ‍ভিশন এর কৃষিভিত্তিক পোগ্রামের গবেষক ও স্ক্রিপ্ট রাইটার ছিলেন।বইটি সম্পর্কে লেখক মনিরুজ্জামান কবির জানান,গণমাধ্যমে গুণগত মানসম্পন্ন কৃষিভিত্তিক লেখা ও লেখক বৃদ্ধির প্রয়াস এ বইটি। তিনি আরও জানান,বইটি বিক্রি বাবদ অর্জিত লভ্যাংশ কৃষি ও কৃষকের মানোন্নয়নে ব্যয় হবে।


*নতুনবই* *বইমেলা* *বইমেলা২০১৫* *নতুনলেখক* *সাংবাদিকতা*
ছবি

পূজা: ফটো পোস্ট করেছে

প্রথম সপ্তাহে মেলায় তরুণ কবিদের ৭ টি কবিতার বই

প্রতিবারের ধারাবাহিকতায় এবারও মেলার প্রথম সপ্তাহেই প্রকাশিত হয়েছে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক কবিতার বই।

*বইমেলা* *বইমেলা২০১৫* *কবিতারবই* *নতুনলেখক* *কাব্যগ্রন্থ*
ছবি

আমানুল্লাহ সরকার: ফটো পোস্ট করেছে

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আকর্ষণীয় লেখনি শক্তি আর আধুনিকতার ভাব ধারায় নিজের লেখাকে পাঠকপ্রিয় করে তুলেছেন নতুন প্রজন্মের লেখিকা অদিতি ফাল্গুনী। এবারের বইমেলাতেও তার একটি বই বের হচ্ছে। খুব অল্প সময়ে জনপ্রিয়তা অর্জনকারী প্রিয় এই লেখিকার সম্ভাবনাময় লেখক হয়ে উঠার কথা তিনি এভাবেই ব্যক্ত করলেন...


অদিতি ফাল্গুনীর বক্তব্যঃ

লেখক কীভাবে হয়ে উঠলাম, এর আসলে সুনির্দিষ্ট কোনো উত্তর নেই। একজন মানুষ জীবনের বিভিন্ন অভিজ্ঞতা থেকে ধীরে ধীরে লেখক হয়ে ওঠে। অনেক দিনের শিক্ষা ও সংস্কৃতি একজন সাধারণ মানুষ থেকে লেখক হয়ে উঠতে সাহায্য করে। নিজের চারপাশের ঘটে যাওয়া অসংখ্য ঘটনার সাক্ষী হয়ে কীভাবে যেন লেখার বীজ উপ্ত হলো নিজের মধ্যে। তবে যদি আমাকে জিজ্ঞেস করা হয়, আমি লেখক কি না, সেক্ষেত্রে আমার নিজের সম্পূর্ণ ভিন্ন মত রয়েছে। প্রায়ই নিজেকে প্রশ্ন করি, সত্যি কি লেখক হয়ে উঠতে পেরেছি আজও? আমার সন্দেহ আছে প্রবল। এ পর্যন্ত আমার প্রকাশিত বইয়ের তালিকায় আছে বেশ কয়টি বই। তার মধ্যে আটটি গল্প সংকলন, তিনটি কবিতার বই, ছয়টি অনুবাদ (এবার যেটি আসছে সেটি-সহ), একটি প্রবন্ধ সংকলন, তিনটি গবেষণা, দুটি শিশুদের জন্য গ্রন্থ। সব মিলিয়ে তেইশটি বই হবে এবার। এগুলো সব ছাইপাঁশ নাকি আসলেই কিছু হয়েছে, সেটা শুধু সময়ই বলতে পারবে।

এবারের মেলায় আমার যে বই বের হচ্ছে তা একটি অনুবাদ গ্রন্থ। এই বইয়ের কাজ শুরু করার পেছনে আসলে তেমন কোনো কারণ নেই। আসলে গাজায় গত বছরের জুলাইয়ে ইসরাইলি বোমা হামলা শুরু হলে নেট ঘেঁটে কিছু ফিলিস্তিনি কবিতা অনুবাদ শুরু করি। মাহমুদ দারাবিশ ইতোমধ্যেই বেশ অনূদিত। কাজেই তার দু-একটি কবিতাসহ অন্য ফিলিস্তিনি কবিদের কবিতা অনুবাদ করা শুরু করি। এ পর্যন্ত মোট ৭৪টি কবিতা অনুবাদ করা হয়েছে। আরও কয়েকটি বাকি। এই বইটির নাম ‘চান্দ্রেয় আর্তনাদ ও অন্যান্য ফিলিস্তিনি কবিতা’ বের করছে নতুন প্রকাশনা সংস্থা রূপসী বাংলা। ২০০১-এ রুশ চিত্রশিল্পী মার্ক শাগালের আত্মজীবনীর আমার করা অনুবাদটি এবার পুনর্মুদ্রণও করছে রূপসী বাংলা।

আমার প্রিয় লেখকের কথা বলতে গেলে আসলে একসাথে অনেকের নামই চলে আসে। এতদিনের জীবনে অনেক লেখকের লেখাই পড়া হয়েছে। তাই প্রিয় লেখক কে জিজ্ঞেস করলে আসলে ওভাবে যেকোনো কয়েকজন এর নাম বলতে পারব না। বেশ অনেকজনই আছেন প্রিয় লেখকের তালিকায়। তাদের অনেকে আমার লেখার অনুপ্রেরণাও। ভবিষ্যতের জন্য কী পরিকল্পনা রয়েছে, সেটা ঠিক বলতে পারছি না, কারণ ভবিষ্যত্ ব্যাপারটাই তো মূলত অনিশ্চিত। আর একজীবনে কত পরিকল্পনাই তো করে একজন মানুষ বা একজন লেখক। সেই পরিকল্পনার নানা কিছুই তো অনেক সময় পারিপার্শ্বিক নানা বাধা বা সংকটের কারণে আমরা পূরণ করতে পারি না। কিছু স্বপ্ন তো অবশ্যই আছে। দেখা যাক, পূরণ হয় কি না!
(লেখিকার বক্তব্য সংগৃহীত)

*নতুনলেখক* *বইমেলা* *বইমেলা২০১৫* *নতুনলেখিকা* *একুশে-বইমেলা*
ছবি

আমানুল্লাহ সরকার: ফটো পোস্ট করেছে

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★