পূর্ণেন্দুপত্রী

পূর্ণেন্দুপত্রী নিয়ে কি ভাবছো?

পায়েল : – কি করছো? – ছবি আকঁছি। – ওটা তো একটা বিন্দু। – তুমি ছুঁয়ে দিলেই বৃত্ত হবে। কেন্দ্র হবে তুমি। আর আমি হবো বৃত্তাবর্ত। – কিন্তু আমি যে বৃত্তে আবদ্ধ হতে চাই না। আমি চাই অসীমের অধিকার। – একটু অপেক্ষা করো। . . . এবার দেখো। ওটা কি ? ওটা তো মেঘ। – তুমি ছুঁয়ে দিলেই আকাশ হবে। তুমি হবে নি:সীম দিগন্ত। আর আমি হবো দিগন্তরেখা।

*প্রিয়কবিতা* *কথোপকথন* *পূর্ণেন্দুপত্রী*

শাহীন সুলতানা: সুখ নেই কো মনে ন্কছাবিটি হারিয়ে গেছে হলুদ বনে বনে,,,,,,,,,।

*পূর্ণেন্দুপত্রী* *পূর্ণেন্দু-পত্রী*

অনি: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

অনেকআগে তোকে একটা পাখির খবর শুনিয়েছিলুম তারপর অনেকদিন তুই বেপাত্তা আর আমিওপাখিটাকে নিয়ে হিমসিম দিনরাত তার একটাই বায়না চাইলেই আমাকে হতেহবে তার উড়বার আকাশ জলে-জঙ্গলে,কলে-কব্জায় চব্বিশ প্রহরে আমার ছত্রিশ রকমের কাজ সব ছেড়ে-ছুড়ে কখন ওর চোখের মাপের আকাশ হই বল তো? নাহলেই সারা গায়ে ডানা-ঝাপটানির চাবুক একদিন আয় না, এলেই দেখতে পাবি গা-ভর্তি লাল পালক,নীল পালক
*পূর্ণেন্দুপত্রী*
৪/৫

অর্ঘ্য কাব্যিক শূন্য: এখনো শেষ হয়নি গল্পটা... বজ্রের সঙ্গে মেঘের বিয়েটা হয়ে গেলো ঠিকই... কিন্তু পাহাড়কে সে কোনোদিন ভুলতে পারলো না... বিশ্বাস না হয় তো চিরে দেখতে পারো... পাহাড়টার হাড়-পাঁজর, ভিতরে থৈথৈ করছে শত ঝর্ণার জল...

*পূর্ণেন্দুপত্রী*
৫/৫

পায়েল : আমার সেই গল্পটা এখনো শেষ হয়নি, শোনো, পাহাড়টা, আগেই বলেছি ভালোবেসেছিলো মেঘকে, আর মেঘ কি ভাবে শুকনো খটখটে পাহাড়টাকে বানিয়ে তুলেছিল ছাব্বিশ বছরের ছোকরা, সে তো আগেই শুনেছো, সেদিন ছিলো পাহাড়টার জন্মদিন, পাহাড় মেঘকে বললে, – আজ তুমি লাল শাড়ি পরে আসবে। মেঘ পাহাড়কে বললে, – আজ তোমাকে স্নান করিয়ে দেবো চন্দন জলে......

*পাহাড়* *মেঘ* *জল* *পূর্ণেন্দুপত্রী* *কবিতা*
৫/৫

ফাহীমা: 'মাঝে মাঝে লোডশেডিং হোক। আকাশে জ্বলুক শুধু ঈশ্বরের সাতকোটি চোখ বাকী সব আলকাতরা মাখুক।'

*পূর্ণেন্দুপত্রী*
৫/৫

শাকিল আহমেদ: তোমার বন্ধু কে? দীর্ঘশ্বাস? আমার ও তাই। আমার শূন্যতা গণনাহীন। তোমারও তাই? দূরের পথ দিয়ে ঋতুরা যায় ডাকলে দরজায় আসে না কেউ। অযথা বাঁশি শুনে বাইরে যাই বাতাসে হাসাহাসি বিদ্রুপের। তোমার সাজি ছিল, বাগান নেই আমারও তাই। আমার নদী ছিল, নৌকা নেই তোমারও তাই? তোমার বিছানায় বৃষ্টিপাত আমার ঘরে দোরে ধুলোর ঝড়। তোমার ঘরেদোরে আমার মেঘ। আমার বিছানায় তোমার হিম।

*পূর্ণেন্দুপত্রী*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★