পোড়াবাড়ির সন্দেশ

পোড়াবাড়িরসন্দেশ নিয়ে কি ভাবছো?

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

মিষ্টি প্রিয় বাঙালিদের কাছে সন্দেশ একটি বড় জায়গা দখল করে আছে। দুধের ছানা দিয়ে তৈরি এই মিষ্টান্নটি এতই সুস্বাদু যে কেউ এবার খেলে বারবার খেতে চাইবে। খাদ্য উপাদানের দিক থেকে এটি বেশ পুষ্টিকর। আজকের আয়োজন আমাদের দেশের কয়েক জেলার বিখ্যাত সব সন্দেশ নিয়ে। 
(কনটেন্টটির ছবিগুলোতে ক্লিক করে বিভিন্ন জেলার বিখ্যাত সন্দেশ কিনতে পারবেন)
  
নাটোরের অবাক সন্দেশ
কাঁচা গোল্লার পরে অবাক সন্দেশ নাটরের ঐতিহ্যবাহী মিষ্টান্ন। অবাক সন্দেশ অত্যন্ত সুস্বাদু, মুখরোচক। অন্যান্য জায়গায় পাওয়া যায় না বলে এই মিষ্টা্ন্নটি এতটা সুপরিচিত না। তবে নাটোর ও এর আশেপাশের কয়েকটি জেলায় অবাক সন্দেশের যথেষ্ঠ সুনাম রয়েছে। এই মিষ্টান্নটি নাটোর সদরের প্রতিটি মিষ্টির দোকানেই পাওয়া যাবে। দাম প্রতি কেজি ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা।
 
এই অবাক নামের উৎপত্তি নিয়ে  বিভিন্ন মিষ্টির কারিগরদের বিভিন্ন রকম মত আছে। কারো কারো মতে এই মিষ্টির উদ্ভাবক শ্রী অবাক কুমার। তার নাম অনুসারেই এর নামকরণ করা হয় অবাক সন্দেশ। আবার কেউ কেউ বলেন, এই সন্দেশের এতই স্বাদ যে কেউ খেলে অবাক না হয়ে পারবে না। যাই হোক কোন সমর্থিত নির্ভযোগ্য সূত্র পাওয়া যায় না। সবই মুখে মুখে কথা গুলো এসেছে। 
অবাক সন্দেশ কিনতে ক্লিক করুন
 
সাতক্ষীরার সন্দেশ
সাতক্ষীরা মিষ্টি ভক্ত এমন কাউকেউ পাওযা যাবেনা যারা সন্দেশের নাম শোনেননি । খাঁটি দুধের ছানা দিয়ে তৈরি এক ধরণের সুস্বাদু মিষ্টি সন্দেশ। যিনি এক বার সাতক্ষীরার সন্দেশ খেয়েছেন তারপর এর নাম শুনলেই খুব সহজে তার জিহ্বাই পানি আসবে। খাঁটি দুধের খাটি ছানার সাথে চিনি ও হালকা ময়দা জ্বালিয়ে সন্দেশ তৈরী করা হয়। অনেক সময় খেঁজুরের গুড় মিশিয়ে সন্দেশ তৈরী করা হয়, যেটার নাম গুড়ের সন্দেশ। খাদ্য উপাদানের দিক থেকে এটি একটি পুষ্টিকর খাবার। বাঙ্গালির উৎসব আয়োজনে এই অসাধারণ উপাদেয় খাবারটির ব্যবহার অনেক প্রাচীন কাল থেকেই চলে আসছে। তাইতো পারিবারিক যেকোন আপ্যায়নের তালিকায় প্রথম স্থানে নাম থাকে যেটি, সেটি হল সন্দেশ।
সাতক্ষীরার সন্দেশ কিনতে ক্লিক করুন
 
ব্রাহ্মনবাড়িয়ার প্যারা সন্দেশ
রসনাবিলাস খাবারের মধ্যে ব্রাহ্মনবাড়িয়ার প্যারা সন্দেশে খুবই বিখ্যাত। শুরুতে পূজামণ্ডপের দেবদেবীর উপাসনার জন্য তৈরি করা হলেও এখন এ সন্দেশ দেশের গণ্ডি পেরিয়ে যাচ্ছে বিদেশে। বিশেষ কিছু বৈশিষ্ট্যের কারণে মিষ্টান্ন জগতের অনেক বড় একটি জায়গা দখল করে আছে এ সন্দেশ। এখন দেশের বিভিন্ন স্থানে প্যারা সন্দেশ তৈরি হলেও এটি প্রথম তৈরি হয় নওগাঁ শহরে। তারপর ব্রাহ্মনবাড়িয়া সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়ে। তরল দুধের সঙ্গে চিনি মিশিয়ে জ্বাল করে প্রথমতে ক্ষীর এবং তারপর সে ক্ষীর থেকে তৈরী করা হয় প্যারা সন্দেশ। 
প্যারা সন্দেশ কিনতে ক্লিক করুন
 
টাঙ্গাইলের পোড়াবাড়ির সন্দেশ
বিভিন্ন জাতীয় মিষ্টান্ন তৈরীতে টাঙ্গাইলের নাম আগে থেকেই বেশ জনপ্রিয়। টাঙ্গাইলের ঐতিহ্যবাহী মিষ্টি গুলোর মধ্যে পোড়াবাড়ির সন্দেশ একটি। ঐতিহ্যবাহী পোড়াবাড়ির সন্দেশ খেতে খুবই সুস্বাদু ও নির্ভেজাল উপকরণ দ্বারা তৈরি। টাঙ্গাইলের পোড়াবাড়ির গোপাল মিস্টান্ন ভান্ডারে এখনো ঐতিহ্যগত ভাবে সন্দেশ তৈরী করা হয়।  আসল মান ও স্বাদ পেতে হলে সরাসরি টাঙ্গাইল থেকে সরবারহ করা মিষ্টির বিকল্প নেই। বাঙ্গালির যে  কোন অনুষ্ঠান বা উৎসব উদযাপনে এই সন্দেশের চাহিদা আকশচুম্বী।
পোড়াবাড়ির সন্দেশ কিনতে ক্লিক করুন 
 
সন্দেশের দামদর ও কেনাকাটা
বিখ্যাত এই সন্দেশগুলো বাংলাদেশের সব জায়গায় পাওয়া যায়। এর রেসিপিটাও বেশ সহজ। চাইলে বাড়িতেও বানিয়ে নিতে পারবেন। ১৫০ টাকা থেকে শুরু করে ৮০০ টাকার মধ্যে দেশের যে কোন মিষ্টির দোকানে সন্দেশ কিনতে পাবেন। যারা ঢাকার মধ্যে রয়েছেন তারা বাড়তি কষ্ট না করে দেশের জনপ্রিয়  অনলাইন শপিংমল আজকের ডিলের ওয়েবসাইটে গিয়ে অর্ডার করে ঘরে বসেই বিখ্যাত সন্দেশ কিনতে পারবেন। অর্ডারকৃত সন্দেশ তারা আপনার ঠিকানা মত পৌঁছে দেবে।  
উপরের সন্দেশ গুলো কিনতে  এখানে ক্লিক করুন। 
*অবাকসন্দেশ* *প্যারাসন্দেশ* *পোড়াবাড়িরসন্দেশ* *স্মার্টশপিং*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★