প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী নিয়ে কি ভাবছো?

Sheikh Atik Hasan: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 প্রধানমন্ত্রী কে

উত্তর দাও (২ টি উত্তর আছে )

.
*প্রধানমন্ত্রী*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আনিসুল হক কিন্তু আপনারই আবিষ্কার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তাই আরেকজন আনিসুল হক আপনাকেই আবিষ্কার করতে হবে!!

আমরা আপনার দিকেই চেয়ে আছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র হিসেবে আমরা আর একজন আনিসুল হক চাই।

ডুপ্লিকেট, রেপ্লিকা, কার্বন কপি আনিসুল হক। যিনি সবার ফোন ধরবেন এবং তাঁকে ফোনে রেখেই কাজ

শুরু করে দেবেন, যিনি সামান্য একটা টেক্সট মেসেজের উত্তর দেবেন এবং কাজ শেষ করে আবার

সেটা জানিয়ে দেবেন। যিনি স্বপ্ন দেখাবেন এবং তা বাস্তবায়ন করে সবার মুখে হাসি ফোঁটাবেন।

মোটকথা আমরা আর একজন আনিসুল হক চাই।

কিভাবে সম্ভব, তা আপনার সদয় ইচ্ছা ও আন্তরিকতা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।

কিন্তু আমরা চাই- বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন আর আদর্শ পূরণে আনিসুল হকের অনেক অনেক রেপ্লিকা।

এটা শুধু আমার নয়। এটা সময়ের দাবী, এটা স্বাধীন বাংলার আমজনতার দাবী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।

*প্রধানমন্ত্রী* *আনিসুল-হক* *মেয়র* *বাস্তবতা*

বইমেলা: একটি বেশব্লগ লিখেছে

এবারের বইমেলায় আসছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নতুন বই। বাংলাদেশের সমকালীন রাজনীতির ওপর বিভিন্ন সময়ে প্রকাশিত তাঁর লেখা ১৩টি প্রবন্ধ নিয়ে প্রকাশিত হচ্ছে সংকলন গ্রন্থ ‘নির্বাচিত প্রবন্ধ’।

আগামী প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত এই নির্বাচিত প্রবন্ধের মূল্য ৩৫০ টাকা। এর প্রচ্ছদ এঁকেছেন আনওয়ার ফারুক। কাল বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে মাসব্যাপী অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৭। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেলা তিনটার দিকে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে বইমেলার উদ্বোধন করবেন। প্রথম দিন থেকে মেলার ১৩ নম্বর প্যাভিলিয়নে বইটি পাওয়া যাবে। 

ইমেরিটাস অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম এই বইয়ের ভূমিকায় লিখেছেন,  লেখক হিসেবে শেখ হাসিনা মূলত প্রাবন্ধিক, বিশেষভাবে বলতে গেলে রাজনৈতিক ভাষ্যকার। তাঁর “নির্বাচিত প্রবন্ধ” সংকলন গ্রন্থটি বর্তমান বাংলাদেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের চিন্তাচেতনা, মন-মানসিকতা ও দৃষ্টিভঙ্গির পরিচয় বহন করে। সে কারণেই এই গ্রন্থটির গুরুত্ব অপরিসীম।

সংকলনের প্রথম প্রবন্ধ ‘বাংলাদেশে স্বৈরতন্ত্রের জন্ম’। ১৯৯৩ সালে লিখিত এই প্রবন্ধে বাংলাদেশে স্বৈরাচারের উদ্ভব ও বিকাশ সম্পর্কে একজন রাজনীতিবিদের প্রত্যক্ষ পরিচয় ফুটে উঠেছে। ‘শিক্ষিত জনশক্তি অর্থনৈতিক উন্নয়নের পূর্বশর্ত’ প্রবন্ধে তিনি বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থার সমস্যাকে চিহ্নিত করেছেন। ১৯৯৩ সালে লিখিত ‘সবার উপরে মানুষ সত্য’ প্রবন্ধে শেখ হাসিনা ১৯৪৮ সালে জাতিসংঘের মানবাধিকার ঘোষণা সত্ত্বেও বিশ্বযুদ্ধোত্তর পৃথিবীতে দেশে দেশে মানুষে মানুষে এবং একই দেশে শ্রেণিবিভক্ত সমাজে মানবতার যে চরম অবমাননা, তার প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

ভাষা আন্দোলনের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে লিখিত ‘ভালবাসি মাতৃভাষা’, ২০০২ সালে প্রকাশিত ‘বিপন্ন গণতন্ত্র লাঞ্ছিত মানবতা’, ১৯৯৮ সালে ৩২ নম্বর ধানমন্ডির বাড়ি নিয়ে লেখা ‘স্মৃতি বড় মধুর স্মৃতি বড় বেদনার’, বাঙালির স্বাধিকার আন্দোলন নিয়ে ২০০১ সালে লেখা ‘সংগ্রামে আন্দোলনে গৌরব গাঁথায়’, ১৯৯৯ সালে লেখা ‘বৃহৎ জনগোষ্ঠীর জন্যে উন্নয়ন’, ‘সহে না মানবতার অবমাননা’, ‘প্লিজ, সাদাকে সাদা কালোকে কালো বলুন’, ‘একটি স্মরণীয় অভিজ্ঞতা’ এবং ১৪ আগস্ট ১৯৯১ সালে লেখা ‘অনর্জিত রয়ে গেছে স্বপ্নপূরণ’ প্রবন্ধ সংকলিত হয়েছে এই নির্বাচিত প্রবন্ধে।

বইয়ের সর্বশেষ প্রবন্ধ হাইকোর্টের একটি ঐতিহাসিক রায় নিয়ে লেখা ‘সত্যের জয়’। লেখক ২০০৫ সালে এটি রচনা করেন। অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের মতে, এই প্রবন্ধে আইনের শাসনের প্রতি শেখ হাসিনার গভীর শ্রদ্ধা ও আনুগত্য প্রকাশ পেয়েছে।

বাংলাদেশের সমকালীন রাজনীতি নিয়ে আগামী প্রকাশনী থেকে এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আরও ১৩টি প্রবন্ধ সংকলন গ্রন্থ প্রকাশিত হয়। এর মধ্যে রয়েছে ‘শেখ মুজিব আমার পিতা’, ‘সাদাকালো’, ‘বিপন্ন গণতন্ত্র, লাঞ্ছিত মানবতা’, ‘দারিদ্র্য দূরীকরণ: কিছু চিন্তাভাবনা’, ‘সহে না মানবতার অবমাননা’, ‘বাংলাদেশের স্বৈরতন্ত্রের জন্ম’, ‘ওরা টোকাই কেন’, ‘আমরা জনগণের কথা বলতে এসেছি (জাতীয় সংসদে ভাষণ ১৯৮৭-১৯৯৮)’ ‘লিভিং ইন টিয়ার্স’, ‘পিপল অ্যান্ড ডেমোক্রেসি’, ‘ডেমোক্রেসি পভার্টি এলিমিনেশন অ্যান্ড পিস’, ‘ডেমোক্রেসি ইন ডিসট্রেস ডিমান্ড হিউম্যানিটি’ এবং ‘জাতীয় সংসদে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’ (যৌথ সম্পাদনা)।

আগামী প্রকাশনীর কর্ণধার ওসমান গণি বাসসকে জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রচিত ২০১৫ সালের বইমেলায় প্রকাশিত ‘শেখ মুজিব আমার পিতা’ বইয়ের পঞ্চম সংস্করণ প্রকাশিত হয়েছে। এটিও বইমেলার প্রথম দিন থেকেই আগামী প্রকাশনীর স্টলে পাওয়া যাবে। এ ছাড়া এবারের বইমেলা উপলক্ষে ‘লিভিং ইন টিয়ার্স’, ‘পিপল অ্যান্ড ডেমোক্রেসি’, ‘ডেমোক্রেসি পভার্টি এলিমিনেশন অ্যান্ড পিস’ এবং ‘ডেমোক্রেসি ইন ডিসট্রেস ডিমান্ড হিউম্যানিটি’ বই তিনটির পুনর্মুদ্রণ প্রকাশিত হয়েছে।

সূত্র : কালেরকণ্ঠ

*বইমেলা* *প্রধানমন্ত্রী* *শেখহাসিনা* *বইমেলা২০১৭* *নতুনবই*
জোকস

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি জোকস পোস্ট করেছে

ছেলেঃ বাবা,আমি ভ্যান চালামু না। পড়ালেখা করুম? বাবাঃ চুপ। একদম চুপ। পড়ালেখা করবা। পড়ালেখা করতে কত টাকা লাগা জানস। ভ্যান চালা, সরকারী চাকরি পাবি।
*রসিকতা* *জোকস* *ভ্যানচালক* *প্রধানমন্ত্রী*
ছবি

Risingbd.com: ফটো পোস্ট করেছে

ছবি

সাদাত সাদ: ফটো পোস্ট করেছে

নামঃ সিরিমাভো বন্দরনায়েকে

জন্ম: ১৭ এপ্রিল, ১৯১৬ - মৃত্যু: ১০ অক্টোবর, ২০০০, শ্রীলঙ্কার বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও ৬ষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। এছাড়াও তিনি আধুনিক বিশ্বের প্রথম মহিলা সরকার প্রধান ছিলেন। সিরিমাভো বন্দরনায়েকে তিনবার সিলন ও শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। শ্রীলঙ্কা ফ্রিডম পার্টিকে দীর্ঘদিন নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। প্রায় চল্লিশ বছর রাজনৈতিক জীবনের সাথে সম্পৃক্ত সিরিমাভো ১০ আগস্ট, ২০০০ তারিখে রাজনীতি থেকে দূরে সরে যান। এর ঠিক দুই মাস পর ৮৪ বছর বয়সে হৃদযন্ত্রক্রিয়ায় আক্রান্ত হলে দেহাবসান ঘটে তাঁর

*সিরিমাভোবন্দরনায়েকে* *সিলন* *প্রধানমন্ত্রী* *শ্রীলংকা* *রাজনীতিবিদ*

বিডি আইডল: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 সাবেক প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ মনসুর আহমেদকে কেন ক্যাপ্টেন বলা হয় ? উনার সম্পর্কে জানতে চাই।

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

.
*প্রধানমন্ত্রী* *ক্যাপ্টেনমনসুর* *জীবনী* *সাধারনজ্ঞান*

দীপ্তি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

‘আমার আট বছরের নাতি দাদার পুকুর থেকে মাছ ধরে এনে আমাকে বললো, আমি মাছ ধরে এনেছি, তুমি রান্না করবা, মজা করে রান্না করবা। সেদিনের মতো আমি জীবনে এতো নার্ভাস কোন দিন হই নাই। কারণ তার মুখের মজাটা কি রকম সেটা তো আমি জানি না।’ 

‘পরে আমার মেয়েও বললো, আমি তো তোমাকে কখনো এত নার্ভাস দেখি নাই।’

১৩ ফেব্রুয়ারি বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বিসিএস উইমেন নেটওয়ার্কের ৫ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে কথা নারীদের সমস্যা ও সম্ভাবনার নানা দিক নিয়ে কথা বলতে গিয়ে নিজের পারিবারিক জীবনের কথা এভাবেই তুলে ধরছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 


ছেলে মেয়েদের পছন্দের খাবার রান্না করা মা হিসেবে তার দায়িত্বেরই অংশ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখন তার সঙ্গে যোগ হয়েছে নাতি-নাতনীদের আবদার। 

নিজের ঘরের আরও সব মধুর পারিবারিক ঘটনা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। 
 
নাতিকে রান্না করে খাওয়াতে পারার মধ্যেও এক ধরনের তৃপ্তি রয়েছে, উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘খাওয়ার পর নাতিকে জিজ্ঞেস করলাম, ভাইয়া কেমন হলো খাবার? বললো খুব মজা। এটাই আমার সেটিসফেকশন।’

আরও একটি ঘটনা দর্শকের সঙ্গে শেয়ার করলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আমার আড়াই বছরের নাতি হঠাৎ এসে আমাকে বললো, আমি ভাত খাবো না পোলাও খাবো। তোমার হাতের রান্না খাবো। সেদিন আমার অনেক কাজ। তার মধ্যেও আমাকে সময় বের করে করতে হয়েছে নাতিকে পোলাও রান্না করে দেওয়ার জন্য।’
 
রান্না করতে পারাটা গৌরবের উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, একটা অদ্ভুত ব্যাপার আমি মাঝে মধ্যে শুনি। আমি তো একজন মা। আমি রান্না করছি শুনলে সবাই যেন অবাক হয়ে যায়! অবাক হওয়ার কি আছে। আমার ছেলেমেয়ে আমার রান্না পছন্দ করে। আমি প্রধানমন্ত্রী হই আর যাই হই আমার নিজের ছেলে মেয়েদের জন্য রান্না করবো, তাদের মুখে খাবার তুলে দিবো এটাতো আমার সবচেয়ে গৌরবের ব্যাপার।

(সংগৃহীত) 
 
*প্রধানমন্ত্রী* *রান্না*

Risingbd.com: চৌদ্দর কম বয়সি গৃহকর্মী রাখা যাবে না এই প্রথম গৃহকর্মীর সুরক্ষা ও কল্যাণ নীতি, ২০১৫-এর খসড়ায় অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে..More- http://bit.ly/1mvMBPQ

*গৃহকর্মী* *২০১৫আইন* *প্রধানমন্ত্রী* *সচিবালয়* *মন্ত্রিসভা*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

মাঝে মাঝে পত্রিকায় অদ্ভুদ সব আইন শিরোনামে ফিচার দেখি। এতে অনেক দেশের অনেক বিচিত্র আইন সম্পর্কে জানতে পারি। কিন্তু বাংলাদেশে কোনো অদ্ভুদ আইন হয়তো এই তালিকায় নাই। তবে এবার বোধ হয় চলে আসবে। কারন গান শুনে জেল খাটতে হলে, এটা দুনিয়ার অদ্ভুদ আইনের অন্যতম সেরা অদ্ভুদ আইন হবে।

এক শ্রমিক প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করে গাওয়া অশ্লীল গান মুঠোফোনের লাউড স্পিকারে শুনছেন। খবর পেয়ে কারখানায় গিয়ে রাহেলকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে গান, পোশাকশ্রমিক গ্রেফতার

সবাইকে সাবধান হওয়ার এখনই সময়। এখন সবারই উচিত, পকেটে তুলা রাখা। কারন এই ধরনের গান কানে আসা মাত্রই কানে তুলা না দিলে আপনিও ফেসে যেতে পারেন।

আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসিনুল কাদির বলেন, আটক রাহেল ও পলাতক দুজনকে আসামি করে পুলিশ তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি আইন ২০০৬-এর ৫৭ (১) ধারায় মামলা হয়েছে। পলাতক দু’জনকে আটক করতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

আমি যতদুর জানি, ৫৭ ধারায় সর্বোচ্চ শাস্তি ১৪ বছরের জেল। আদালতে প্রমান হলে এদের ১৪ বছরের জেল হতে পারে।
আবার কয়েকদিন আগে শীর্ষ সন্ত্রাসী জোসেফ (কার যেন ভাই) হত্যা মামলায় ১৪ বছরের জেল খেটে মুক্তির অপেক্ষায়। অন্যদিকে ধর্ষক পরিমলেরও জেল ১৪ বছর।
সুতরাং আমরা বলতে পারি অশ্লীল গান শোনা হত্যা-ধর্ষনের মতোই অপরাধ।

এবার নিচের অংশটুকু উস্কানিমূলক হয়ে থাকলে আগেই ক্ষমাপ্রার্থী ।

আশুলিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মলয় কুমার সাহা জানান, আজ সকালে কারখানার জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা দোলন কুমার সাহা খবর দেন, এক শ্রমিক প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করে গাওয়া অশ্লীল গান মুঠোফোনের লাউড স্পিকারে শুনছেন। খবর পেয়ে কারখানায় গিয়ে রাহেলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ সময় তাঁর শরীর তল্লাশি করে একটি মেমোরি কার্ড ও মুঠোফোন জব্দ করা হয়
এই অংশটুকু ভালো করে পড়ুন। এক সাহার খবরে আরেক সাহা গ্রেফতার করেছে। ভালোই চলছে সাহাদের চক্র।

*আইন* *বেশম্ভব* *বাংলাদেশ* *প্রধানমন্ত্রী* *সংগৃহীত* *গান* *জেল*
*বেশম্ভব* *বাংলাদেশ* *প্রধানমন্ত্রী* *সংগৃহীত* *গান* *জেল*

Risingbd.com: মোদিকে হত্যার পরিকল্পনা ফাঁস জঙ্গিরা যদি প্রধানমন্ত্রী মোদির নিরাপত্তাবেষ্টনী ভাঙতে না পারে তবে আত্মঘাতী গ্রেনেড হামলা চালাবে....বিস্তারিত - http://bit.ly/1Q8h0zY

*আত্মঘাতী* *হামলা* *প্রধানমন্ত্রী* *সারাবিশ্ব* *ভারত* *মোদী* *বেশম্ভব* *ভাগ্য*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★