প্রবাস

প্রবাস নিয়ে কি ভাবছো?

সাদাত সাদ: [বাঘমামা-এইটাকিসুহইলো] প্রবাস মানে স্বাধীনতা পরের হাতে বন্দী, প্রবাস মানে কাজের সাথে এই জীবনের সন্ধি ৷ প্রবাস মানে শুন্যতা প্রতিদিনই আসে, প্রবাস মানে অতীত স্মৃতি শুধুই চোখে ভাসে ৷ প্রবাস মানে জীবন থেকে অনেক হারিয়ে যাওয়া, প্রবাস মানে আপন স্বজন হয়তো হবেনা পাওয়া ৷ প্রবাস মানে দেশান্তরিত মমতা ঝেড়ে ফেলা, প্রবাস মানে ব্যার্থ জীবন শুধুই টাকার খেলা ৷

*পরদেশ* *প্রবাস* *বিদেশ*

সাদাত সাদ: প্রবাসে বাংলাদেশি নারীরা মারাত্মক ঝুঁকিতে জীবন যাপন করছেন। বিশেষ করে আরব দেশগুলোতে এই আশংকা বেশী লক্ষ্য করা যায়। একজন নারীর সবচেয়ে বড় সম্পদ তার ইজ্জত, সেই ইজ্জতের উপর ও হামলা চলে আরব দেশগুলোতে। আমি একজন মুসলিম হয়ে আরব দেশ গুলোর বিরুদ্ধে এই লেখা গুলো লিখতে লজ্জাবোধ করছি, তবুও লিখতে হচ্ছে আমার দেশের নারীদের জন্যে। কেননা আমার দেশের নারীর সম্মান সবার আগে। এই সুন্দর দেশে যে আমি জন্ম নিয়েছি। আমি দেশের সব নারীদের কে বলছি প্লিজ প্রবাসে আসবেন না (মাফচাই)

*আরব* *প্রবাস* *হামলা* *নারীরইজ্জত* *সম্মান* *অবিচার*

সাদাত সাদ: জুম্মার দিন অন্যান্য দিন থেকে একটু বেশিই ব্যস্ততার মধ্যে কাটে। এই শুক্রবার আসলেই কত কত কাজ যে কোত্থেকে আসে জানি(না) ব্যাচেলরদের জীবনটাই যেন ব্যস্ততার জন্যে (রাগারাগি)

*ব্যাচেলর* *আমি* *মনেরকথা* *প্রবাস*

দস্যু বনহুর: [বেশবচন-কাউয়াকোথাকার] কবে যাব কবে যাব কবে যাব কবে যাব কবে যাব কবে যাব............যাব কবে যাব কবে কবে যাব কবেযাব যাব কবে.........!!!! সময় কাটছেই না আমার!! (মাইরালা)

*প্রবাস*

শফিক ইসলাম: একটি বেশব্লগ লিখেছে





প্রবাসে পাড়ি জমাব কখনো স্বপ্নেও ভাবি নি। জীবিকার তাগিদে গৃহ পরিজন ছেড়ে অগ্যতা পরবাসের খাতায় নাম লিখাতে হল। প্রথমদিকে ব্যাপেরটা বনবাসের মতই লাগত। একজন প্রবাসী প্রতিদিনই নিত্তনতুন ঘটনার সম্মুখীন হয় , অভিজ্ঞতার ভান্ডারও বৃদ্ধিপেতে থাকে সেই সাথে। এভাবেই কেটে গেছে বেশ কয়েকটি বছর। 
প্রবাস জীবন শিখিয়েছ কিভাবে কিভাবে আশেপাশে ঘঠে যাওয়া অনেক কিছুকেই এড়িয়ে জীবনযুদ্ধে এগিয়ে যেতে হয়।
নিরাশার অতল গহ্বরে হারিয়ে যাওয়া ছেলেটা যাতে যাত চেপে, চোখের নোনাজলকে উপেক্ষা করে বলতে শিখিয়েছে “আমি ভাল আছি মা, তোমরা ভাল আছ তো?”
ভাল রান্নার খাবারও পছন্দ না করা সেই ছেলেই তামিল ইডলি, বডে এমনকি অনেক অখাদ্যকে অমৃতসুধা মনে করে খেয়ে তৃপ্তির ঢেকুর তুলে।


ঘর থেকে বেরুলেই যার রিক্সা লাগে, তাকে এখন স্বচক্র যানে বা দ্বিচক্র যানে পাড়ি দিতে হয় অনেক পথ।
মায়ের আচল তলে বেড়ে ওঠা ভীতু সন্তান হাজার মাইল দূরে নির্ভিক দিবানিশি কাটায় শুধুমাত্র প্রবাসী বলেই। 
নরম বিছানায় গা এলিয়ে দেওয়া তখন স্বপ্নের সম্ভব হয়। কারন নরম বিছানের জায়গা কাঠের তক্তা দখল করে নিয়েছে। 

সকালে ঘুম থেকে উঠাতে যাকে বাড়ি শুদ্ধু লোককে ডাকা ডাকি করতে হত , প্রবাসী হবার কারনেই তাকে সূয্যিমামার আগেই জেগে উঠতে হয়।
জ্বর ঠান্ডাকে পিছনে ফেলে রোদ বৃষ্টিকে পিছনে ফেলে এগিয়ে যায় স্বউদ্দমে
একসময় বন্ধুদের নিয়ে অস্থির জীবন যাপনে অভ্যস্থ ছেলেকে অন্য এক অস্থিরতায় পেয়ে বসে, আর তা হল বিদেশে আসার ধার দেনা ফেরত দেওয়ার অস্থিরতা। প্রতিটি টাকা খরচ করতে তাকে দু’বার ভাবতে হয়।
দেশে যে ছেলে কোন কাজই করে নি, প্রবাসে তাকেই একটি রবিবার কাজে বন্ধ দিলে হতাশায় পেয়ে বসে এই ভেবে যে –এ মাসে টাকা কম আয় হবে। অথচ তাকে বেমালুমই ভুলে যেতে হয় যে সপ্তাহের ৬ টি দিন সকাল ৭ টা থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত কাজ করেছে।
ছাত্ররাজনীতির মাঠে বীরদর্পে প্রদক্ষীণ করা ছেলেগুলোই রাজনীতির ভেদাভেদ ভূলে, প্রতিহিংসাকে পিছনে ফেলে “বাংলাদেশী” পরিচয়ে এগিয়ে চলে। বিপদে ভাই বন্ধুর মত পাশে দাঁড়ায়।
সারা দিন কাজের শেষে রাত জেগে পড়াশোনায়ও ক্লান্ত হয় না, ভোর না হয়েই বেড়িয়ে পরে কর্ম স্থলে। প্রবাসীর এ উদ্দম দেখে ঘড়ির কাটা নিজেই যেন ক্লান্ত হয়ে পরে। 
শত কষ্ট, ব্যস্ততার মাঝেও প্রবাসীদের খুশিহতে খুব বেশী কিছু লাগে না। দেশে সবাই ভাল আছে , তার হাসি মাখা কন্ঠস্বরই ভরিয়ে দেয় প্রবাসীদের প্রান।


প্রবাসে চরিত্র গুলো ভিন্ন হতে পারে কিন্তু তাদের জীবন যুদ্ধ, গল্পকথা মোটামুটি একই রকম। প্রতিটি জীবনই প্রবাসে এসে বদলে যায়, সজ্জিত হয় সম্পুর্ন এক নতুন ধাচে।
প্রবাস জীবন শিখায় জীবনকে উপলব্ধি করতে, শত বাধা উপক্ষা করে এগিয়ে চলতে। আর “আদু ভাই” এর মত আমি / আমরা শিখে যাচ্ছি বছরের পর বছর। এ শিক্ষা জীবনের শেষ কোথায় কে জানে।
*প্রবাস* *সিঙ্গাপুর* *স্ম্রৃতিকথা*
ছবি

শফিক ইসলাম: ফটো পোস্ট করেছে

৪/৫

আশির দশকে সিঙ্গাপুর এবং ঢাকার দুটি ছবি। উন্নয়নে তখন সিঙ্গাপুরের চেয়ে ঢাকাই এগিয়ে ছিল বলতে হয়, আর এখন....

(মাইরালা)

*বিদেশভ্রমন* *সিঙ্গাপুর* *প্রবাস* *ঢাকা*

শফিক ইসলাম: একটি বেশব্লগ লিখেছে

প্রতিবছরের ন্যায় এবারও ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে বাংলাবর্ষ ১৪২১ কে বরন করল সিঙ্গাপুর প্রবাসী বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অফ মেরিন টেকনোলজি (বিআইএমটি)’র প্রাক্তন ছাত্রদের সংঘঠন "ডিএমইএবিএস"। যেহেতু ১লা মে সরকারী ছুটির দিন সেহেতু প্রতি বছর এই দিনটিকেই বেছে নেওয়া হয় বর্ষবরনের জন্য। অনুষ্ঠানে প্রাক্তন ছাত্রদের পরিবার, বন্ধুবান্ধব ছাড়াও সিঙ্গাপুরের অন্যান্য সংঘঠনের নেতাকর্মী ও বিশিষ্টজনরা উপস্থিত ছিলেন। দিনভর নাচ, আড্ডা আর খেলাধুলায় মূখরিত ছিল জাপানিজ গার্ডেন। কর্মজীবনের কোলাহল ছেড়ে একটি দিনের জন্য হলেও সবাই হয়ে ওঠে বাঙালি, একই সুরে গায় বাংলা গান, জেগে ওঠে বাঙালি জাতিসত্তা;বাংলা প্রান।অনুষ্ঠানটি চ্যানেল আই –এর পর্দায় সম্প্রচারিত হবে রবিবার (০৪/০৫/২০১৪) বাংলাদেশ সময় সকাল ৭ টায়, সিঙ্গাপুর সময় সকাল ৯ টায়।
*প্রবাস* *বাংলাদেশ* *মিলনমেলা*
ছবি

শফিক ইসলাম: ফটো পোস্ট করেছে

ফিরে এলাম বেশতো তে. ব্যস্ত ছিলাম *বর্ষবরণ* নিয়ে.

যেহেতু ১লা মে সরকারী ছুটির দিন সেহেতু প্রতি বছর এই দিনটিকেই বেছে নেই সিঙ্গাপুরে বর্ষবরনের জন্য। কেমন আছেন সবাই??

*প্রবাস* *সিঙ্গাপুর* *নববর্ষ* *বর্ষবরণ*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★