প্রেসার কুকার

প্রেসারকুকার নিয়ে কি ভাবছো?

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 প্রেসার কুকারের সহজে কিভাবে পুডিং বানানো যেতে পারে?

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

.
*পুডিং* *প্রেসারকুকার* *রেসিপি*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

শীতের আগমনী বার্তা এখন প্রকৃতি জুড়ে। শীতের সবজিও উঠতে শুরু করেছে বাজারে। শীতের সবজি আর পিঠা—এ দুটোই শীতের মজার খাবার। পুরো শীতকালে সবজির বাজার নানা রকম সবজিতে থাকে ঠাসা। ফুলকপি, বাঁধাকপি, ওলকপি, ব্রোকলি, গাজর, শালগম, টমেটো, শিম, চিনা বাঁধাকপি, লাল বাঁধাকপি, ফ্রেঞ্চবিন—কত-না সবজি! এর সঙ্গে রয়েছে শীতের মজাদার পালংশাক। এসব শাকসবজি খেয়ে পুরো শীতকাল চনমনে হয়ে উঠতে পারেন, বাড়াতে পারেন দেহের পুষ্টি। যদিও শীতের বেশ কিছু সবজি এখন অন্য সময়েও পাওয়া যায়, তবু শীতকালে শীতের সবজির মজাই যেন আলাদা। শীতের শিশিরে সবজি থাকে টাটকা। শাকসবজি যত টাটকা খেতে পারবেন, তার পুষ্টিগুণ তত বেশি ঠিক থাকবে। বিভিন্ন উপায়ে খেতে পারেন শীতকালিন সবজি।

আজকে আপনাদের জন্য থাকছে প্রেসার কুকারে শীতের সবজি রান্নার ঝটপট কিছু রেসিপি :

এই হিম হিম আবহাওয়ায় গরম স্যুপ হতে পারে উপাদেয় খাবার। বাঁধাকপি ও বিভিন্ন সবজি দিয়ে ঝটপট বানিয়ে ফেলতে পারেন মজাদার স্যুপ। 

বাঁধাকপির স্যুপ রেসিপি

উপকরণ :

মুরগির বুকের মাংস - ১ কাপ 
বাঁধাকপি কুচি- ২ কাপ
টমেটো কুচি- ১ কাপ
ধনেপাতা কুচি- ২ চা চামচ
গাজর কুচি- ২ কাপ
পেঁয়াজ কুচি- ২ কাপ
বরবরি কুচি- ১ কাপ
মরিচ গুঁড়া- স্বাদ মতো
গোলমরিচের গুঁড়া- সামান্য
মসলা- যেকোনও একটি স্বাদ মতো
কর্ন ফ্লাওয়ার- ১ চা চামচ


প্রস্তুত প্রণালি
মুরগি ও সব সবজি একসঙ্গে সেদ্ধ করে নিন প্রেসার কুকারে। কর্ন ফ্লাওয়ার দিয়ে আরও ১০ মিনিট সেদ্ধ করুন। মরিচ গুঁড়া ও মসলা দিন। গোলমরিচের গুঁড়া ছিটিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন বাঁধাকপির স্যুপ।

সুস্বাদু সবজি সালাদ

উপকরণ :  মুরগির বুকের মাংস, গাজর কুচি আধা কাপ, শসা কুচি আধা কাপ, বাঁধাকপি কুচি আধা কাপ, পেঁপে কুচি আধা কাপ, টমেটো কুচি আধা কাপ, সেদ্ধ ডিম কুচি ১টি, ভাজা বাদাম ১০-১২টি, পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিল-চামচ, (সিরকায় ভিজিয়ে রাখা) কাঁচামরিচ মিহি কুচি ২টি, ধনেপাতা কুচি ১ চা-চামচ, লেবুর রস ১ টেবিল-চামচ, চিনি ১ চা-চামচ, সালাদ ড্রেসিং ৪ টেবিল-চামচ, লবণ স্বাদমতো।

প্রস্তুত প্রণালি :
মাংস লবণ-পানিতে প্রেসার কুকারে সেদ্ধ করে পাতলা পাতলা করে কেটে ওপরের সব উপকরণ দিয়ে একসঙ্গে মাখিয়ে ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে পরিবেশন করা যায় মজাদার সবজি সালাদ।

শীতের সবজি বিরিয়ানি

বিরিয়ানি নামটা শুনলে মাংস আর তেল, মশলা দেওয়া খাবারের কথা মনে পড়ে যায়। তেল মশলা কম দিয়েও বিরিয়ানি রান্না করা সম্ভব। নানারকম সবজি দিয়ে রান্না করে নিতে পারেন স্বাস্থ্যকর সবজি বিরিয়ানি। প্রেসার  কুকারে শীতের সবজি দিয়ে তৈরি করে নিন মজাদার সবজি বিরিয়ানি।

উপকরণ:

  • ১ কাপ পোলাও চাল
  • ৪টি লবঙ্গ
  • ২টি দারুচিনি
  • ১টি তেজপাতা
  • ৮-১০ টি গোলমরিচ
  • ১ চা চামচ জিরা
  • ১/২ চা চামচ মরিচের গুঁড়ো
  • ১ টেবিল চামচ ধনিয়া গুঁড়ো
  • ২ টেবিল চামচ বিরিয়ানি মশলা
  • ১/২ কাপ টকদই
  • ১ কাপ পেঁয়াজ কুচি
  • ১ টেবিল চামচ আদা রসুন কুচি
  • ১/৪ কাপ ফুলকুপি
  • ১/৪ কাপ বিনস
  • ১/৪ কাপ গাজর কুচি
  • ১/৪ কাপ আলু
  • ১/৪ কাপ পুদিনা পাতা কুচি
  • ১/৪ কাপ ধনেপাতা কুচি
  • তেল
  • লবণ
  • পানি

প্রণালী:

• পোলাও চাল ভালো করে ধুয়ে ৩০ মিনিট পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। ৩০ মিনিট পর পানি ফেলে দিন।

• প্রেসার কুকারে তেল গরম করতে দিন। তেল গরম হয়ে আসলে এতে তেজপাতা, এলাচ, গোলমরিচ, লবঙ্গ, জিরা দিয়ে দিন।

• কিছুক্ষণ নাড়ুন তারপর এতে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে দিন।

• পেঁয়াজ বাদামী রং হয়ে আসলে এতে আদার পেস্ট, রসুনের পেস্ট, পুদিনা পাতা এবং ধনেপাতা কুচি দিয়ে কিছুক্ষণ রান্না করুন।

• এরপর এতে আলু, গাজর, ফুলকুপি, বিনস দিয়ে দিন।

• সবজি রান্না হলে এতে লবণ, মরিচ গুঁড়ো, ধনিয়া গুঁড়ো, বিরিয়ানি মশলা এবং টকদই দিয়ে ৫ মিনিট রান্না করুন।

• এবার এতে চাল দিয়ে মশলার সাথে ৫ মিনিট নাড়ুন।

• এতে পৌনে দুই কাপ পানি দিয়ে প্রেসার কুকারের ঢাকনা লাগিয়ে দিন।

• প্রেশার কুকারে হুইসেল দিলে চুলা বন্ধ করে দিন।

• ব্যস তৈরি হয়ে গেল মজাদার সবজি বিরিয়ানি।

প্রেসার কুকার কোথায় পাবেন : প্রেসার কুকারে রান্না করলে অনেকটা সময় সাশ্রয় হয়। ছোট বড় কয়েকটি প্রেসার কুকার কিনতে পারেন। এগুলোর দাম পরবে ১০০০ থেকে ২৫০০ টাকার মধ্যে। বাজারে এক থেকে ছয় লিটার ধারণক্ষমতার প্রেসার কুকার রয়েছে। দেশে তৈরি বেশ কয়েকটি ব্র্যান্ড বাজারে পাবেন নিউ মার্কেট, চন্দ্রিমা সহ  আপনার এলাকার যেকোনো ক্রোকারিজের দোকানেও। আর অনলাইনে কিনতে চাইলে আজকের ডিল থেকে নিশ্চিন্তে কিনতে পারেন। ওখানে দেশি-বিদেশী নানা ব্র্যান্ডের প্রায় ১০০ টি প্রেসার কুকার রয়েছে। কিনতে চাইলে এখানে ও ছবিতে ক্লিক করুন।

 

*প্রেসারকুকার* *শীতেরসবজি* *কুকিংটিপস* *রন্ধনটিপস* *রেসিপি*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

দ্রুত রান্নার জন্য আরও একটি যন্ত্র বেশ জনপ্রিয়, যার নাম প্রেসার কুকার। তাপ ও চাপে দ্রুত রান্নার জন্য প্রেসার কুকারের জুড়ি নেই। আজকাল শহরের প্রায় প্রত্যেক বাড়িতেই প্রেসার কুকারের ব্যবহার লক্ষ্য করা যায়। সিদ্ধ হতে দেরি হয় এমন খাবার যেমন খাসি বা গরুর মাংস, বুটের ডাল ইত্যাদি রান্না করার জন্য সাধারণত যে সময় দরকার হয়, প্রেসার কুকারে তার প্রায় অর্ধেক সময় লাগে। তাড়াতাড়ি রান্না হয় বলে জ্বালানি খরচ কম হয়। 

♦ ভাত: প্রথমেই আসি ভেতো বাঙালীর ভাতের কথায়। ভাত ফুটাতে এমনিতে যতটা সময় লাগে তার তিন ভাগের এক ভাগ সময় নিয়ে ফুটাতে পারেন যদি প্রেসার কুকার ব্যবহার করেন। শুধু চাল আর পানির পরিমাণটা ঠিক থাকলেই হল। সাধারণভাবে যেটুকু চাল তার দ্বিগুণ পানি নিলেই হবে। প্রেসার কুকারে তিনবার লম্বা সিটি বাজলেই ভাত সিদ্ধ হয়ে যাবে। এতে সময় নিবে পাঁচ থেকে সাত মিনিট। যদি কারও কুকারে লম্বা সিটি না বাজে, ছোট ছোট সিটি বাজে, তাহলে তিনবারের বদলে ছয়বার সিটি গুণতে হবে। আর চুলা বন্ধ করার আরও ১৫-২০ মিনিট পর কুকারের ঢাকনি খুলতে হবে। তাহলে ভাত মোটামুটি ঝরঝরে হয়ে যাবে। এর আগে ভাপ বের করে খুলে ফেললে ভাত আঠালো থাকে। আর কেউ যদি ইলেকট্রিক রাইস কুকারে ভাত ফুটান, তাহলে তো ভাতের পিছনে কোন গ্যাসই খরচ হবে না।


♦ ডাল: ভাতের পরই চলে আসে ডালের কথা। মসুরের ডাল সিদ্ধ হতে যে সময় লাগে একেও তিন ভাগের এক ভাগে কমিয়ে আনতে পারেন। শুধু একটা ছোট কাজ করতে হবে। ডাল সিদ্ধ বসানোর চার ঘন্টা আগে ডাল ধুয়ে পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে। আমি যেটা করি, অফিসে যাওয়ার আগে ডাল ভিজিয়ে রেখে যাই, দুপুরে অফিস থেকে এসে রান্না করি। দশ মিনিটের মধ্যে ডাল সিদ্ধ হয়ে যায়। এরপর পেঁয়াজ-মরিচ-রসুন তেলে ভেজে বাগার দিয়ে দিলেই হল। পনের মিনিটে ডাল রান্না শেষ। মনে করে ডাল সিদ্ধ করার সময় পানি কমিয়ে দিতে হবে। নয়তো পানি শুকাতেই সময় লেগে যাবে। চার ঘন্টা ভিজানোর সময় না থাকলে প্রেসার কুকারেও ডাল সিদ্ধ করা যায়, তবে ওতে কেন যেন ডালের স্বাদটা ঠিক আসে না। এভাবে হালিমও বানাতে পারেন।

♦ গরু/খাসীর মাংস: গরু/খাসীর মাংসের জন্যও সেই প্রেসার কুকারই ভরসা। তবে দুইভাবে রান্না করা যায়। একটা হল মাংস আগে প্রেসার কুকারে সিদ্ধ করে চর্বির পানিটুকু ফেলে দিয়ে এরপর মশলা কষিয়ে রান্না করা যায়। অথবা আগেই মশলা দিয়ে কষিয়ে নিয়ে এরপর পানি দিয়ে প্রেসার কুকারে বসিয়ে দেয়া যায়। প্রথমটায় তেল-চর্বি কম থাকে, দ্বিতীয় পদ্ধতিতে কষানোটা ভালো হয়। আমি আগে প্রথম পদ্ধতিতে করতাম, এখন দ্বিতীয় পদ্ধতিতে মাংস রান্না করি। প্রেসার কুকারে মাংস ভালো মত সিদ্ধ হতে কমপক্ষে বারোটা লম্বা সিটি বাজতে হবে। কেউ কেউ মুরগীর মাংসও প্রেসার কুকারে করে। তবে মুরগীর মাংস কষতেই সেদ্ধ হয়ে যায় তাই প্রেসার কুকারে দেবার প্রয়োজন পরে না।


♦ শাক-সবজী: এগুলো প্রেসার কুকারে ঠিক সুবিধা হয় না। তাই কড়াইতেই রান্না করি। তবে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রান্না করি, এতে তাড়াতাড়ি সিদ্ধ হয়। শুধু আলুভর্তার জন্য আলু সিদ্ধ করতে প্রেসার কুকার খুব কাজে লাগে। দুইটা লম্বা সিটিই আলু সুন্দরমত সিদ্ধ করার জন্য যথেষ্ট।

 


 

 

 

 

 

 

 

♦ পোলাও/খিচুড়ি: প্রেসার কুকারে সাদা পোলাও করা যায়। এক্ষেত্রে চালের পরিমাণ যতটুকু, পানিও ঠিক ততটুকু নিতে হবে। আর খিচুড়ি যদি পোলাও-এর চাল দিয়ে করতে চান, তাহলে চাল-ডালের সমপরিমাণ থেকে একটু কম পানি দিতে হবে। ভাতের চাল দিয়ে খিচুড়ি করলে ডালের সমপরিমাণ পানি, আর চালের দ্বিগুণ পরিমাণ পানি যোগ করে দিলেই হবে। সবজি-খিচুড়ি করলেও একই নিয়ম, শুধু সবজীর জন্য খুব সামান্য পরিমাণ পানি যোগ করে দিতে হবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

♦ পুডিং: ১/২ লিটার দুধ নেড়ে নেড়ে জ্বাল দিতে থাকুন, খেয়াল রাখবেন দুধে যাতে স্বর বসে না যায়। তাই ঘন ঘন নাড়তে হবে। দুধ কমে যখন প্রায় অর্ধেক হয়ে যাবে নামিয়ে ঠান্ডা করুন। অন্য পাত্রে ৫ টা ডিম ভাল করে ফেটে নিন, এইবার এর সাথে চিনি মেশান। সবটা চিনি গলে যাবে না, তবুও যতটা সম্ভব ভাল করে মেশান। মিশ্রণটি জ্বাল দেয়া ঠান্ডা দুধে দিন, ১ চা চামচ ঘি দিন। ভাল করে ফেটে নিন, ভাল করে। এইবার পছন্দসই একটি পাত্র (প্রেসার কুকার উপযোগী) চুলায় চাপিয়ে তাতে সামান্য চিনি দিয়ে একটু লালচে (পুড়ে) করে নিন, পুডিং যখন উপুড় করে পরিবেশন করবেন তখন দেখতে ভাল দেখাবে। প্রেসার কুকারে পানি দিয়ে এর মধ্যে একটি স্ট্যান্ড বসিয়ে তার উপর পুডিং এর মিশ্রণ সহ ঢাকনা দিয়ে পাত্রটি দিন। ৩/৪ সিটি পর্যন্ত রান্না হতে দিন। এই সময়ে পাত্রের ঢাকনা তুলে দেখতে পারেন পুডিং জমেছে কিনা। মিনিট বিশেক এর মত লাগবে পুডিং হতে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

কোথায় পাবেন : বাজারে এক থেকে ছয় লিটার ধারণক্ষমতার প্রেসার কুকার রয়েছে। দেশে তৈরি বেশ কয়েকটি ব্র্যান্ড বাজারে পাবেন নিউ মার্কেট, চন্দ্রিমা সহ  আপনার এলাকার যেকোনো ক্রোকারিজের দোকানেও। আর অনলাইনে কিনতে চাইলে আজকের ডিল থেকে নিশ্চিন্তে কিনতে পারেন। ওখানে দেশি-বিদেশী নানা ব্র্যান্ডের প্রায় ৭৫ টি প্রেসার কুকার রয়েছে। কিনতে চাইলে এখানে ও ছবিতে ক্লিক করুন।

*প্রেসারকুকার* *কুকিংটিপস* *রন্ধনটিপস*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

কিনতে ক্লিক করুনঈদ মানেই বাড়তি প্রেসার! কুরবানী ঈদে সেই প্রেসার বেড়ে দিগুণ হয়। হাট থেকে গরু কিনে গরুর গুতা খাওয়ার টেনশন তো থাকেই সাথে যুক্ত হয় বাড়িওয়ালি ঠিকমত মাংস সিদ্ধ করে রান্না করতে পারবে কিনা সেই চিন্তা! এই ধরনের চিন্তুা যদি আপনার মাথায় ঘুরপাক খায় তাহলে টেনশন একটু কমিয়ে নিন। আপনার অর্ধেক চিন্তার ভার প্রেসার কুকারের হাতে ছেড়ে দিন। সেই সব সামলে নিবে। তাহলে আর দেরী কেন আজই সংগ্রহ করুন আপনার পছন্দের প্রেসার কুকার।

প্রেসার কুকারের ব্যবহার ও সুবিধাঃ

কিনতে ক্লিক করুন
বর্তমানে প্রায় প্রত্যেক বাড়িতেই প্রেসার কুকারের ব্যবহার লক্ষ্য করা যায়। সিদ্ধ হতে দেরি হয় এমন খাবার যেমন খাসি বা গরুর মাংস, বুটের ডাল ইত্যাদি রান্না করার জন্য সাধারণত যে সময় দরকার হয়, প্রেসার কুকারে তার প্রায় অর্ধেক সময় লাগে। তাড়াতাড়ি রান্না হয় বলে জ্বালানি খরচ কম হয়। স্বাদ ভালো হয়। তাছাড়া একটি পরিবারে স্বামী-স্ত্রী দু’জনই চাকরিজীবী হলে শুধু মাংস কেন, সব বানাই খুব চটজলদি সেরে বাইরে বেরুনো সম্ভব হয় বলেই দিন দিন প্রেসার কুকারের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

কিনতে ক্লিক করুন

প্রেসার কুকার সাধারণত অ্যালুমিনিয়ামে তৈরি হয়। হাতলটি এমন ধাতুতে তৈরি হয় যাতে উষ্ণতা এর মধ্যে প্রবাহিত হয় না অথবা আগুনের তাপে পুড়েও যায় না। পাত্রটির ওপরের অংশে একটি ঢাকনার মাঝামাঝি পিন ভাল্ব নামে ভারি ওজনের একটি ভাল্ব আছে। প্রয়োজনের অতিরিক্ত চাপ সৃষ্টি হলে সেটি ওপরের দিকে ওঠে বাতাস বের করার ব্যবস্থা আছে। কোন কারণে এ ব্যবস্থা কার্যকর না থাকলে অতি বেশি চাপের সৃষ্টি হলে যাতে বিস্ফোরণ না ঘটে তার জন্য আছে সেফটি ভাল্ব, যেটি ঢাকনার একপাশে থাকে, বিপদ ঘটার আগেই ভিতরের বাস্প বেরিয়ে আসবে ঐ সেফটি ভাল্ব ছিদ্র করে।

কোথায় পাবেন দাম কেমনঃ

কিনতে ক্লিক করুন
দেশে তৈরি বেশ কয়েকটি ব্র্যান্ড বাজারে পাবেন। এর মধ্যে কিয়াম ও গাজীর নাম বেশ পরিচিত। এর দাম ৭০০ থেকে দু’হাজার টাকা পর্যন্ত। অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের তৈরি প্রেসার কুকারের দাম পড়বে ৫০০ থেকে তিন হাজার টাকা। পুরান ঢাকার ইসলামপুর, চকবাজার, গুলিস্তান, গাউছিয়া, নিউমার্কেট, ডিসিসি মার্কেট, মৌচাক মার্কেট, বায়তুল মোকাররম, গুলশান ও মিরপুরের বিভিন্ন এলাকায় পাবেন আপনি ভালো মানের রাইস কুকার ও প্রেসার কুকার। আর নিশ্চিন্তে ঘরে বসে ভাল মানের প্রেসার কুকার কিনতে চাইলে ঢু মারতে পারেন দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিংমল আজকের ডিলের ওয়েবসাইটে। অনলাইন থেকে ভালমানের প্রেসার কুকার কিনতে এখানে ক্লিক করুন

*প্রেসারকুকার* *স্মার্টশপিং*

AjkerDeal.com: একটি বেশব্লগ লিখেছে

চাকরিজীবী নারীদের রোজার মাসে অফিসের পাশাপাশি অন্য সকল কাজ চালিয়ে যাবার লক্ষ্যে অবশ্যই আগে থেকে পরিকল্পনা সাজিয়ে নিতে হবে। কেননা একজন নারীকে যখন মা হিসেবে সন্তানের নানা চাহিদা পূরণ, পরিবারের সকলের জন্য রোজার সেহেরি, ইফতারির ব্যবস্থা করার পাশাপাশি চাকরি চালিয়ে যেতে হয়- তখন তা বেশ কঠিন হয়ে পড়ে। তাই চাকরিজীবীদের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত চাপের কথা মাথায় রেখে এ মাসে ঘর ও অফিসের কাজকে সমানভাবে ভাগ করে নিতে হবে। এর জন্য তার জীবনসঙ্গীর ভূমিকা কিন্তু মুখ্য। 

অনেক সময় সেহেরির জন্য খুব বেশি সময় বাকি থাকে না। তখন খুব ঝটপট কিছু রান্না করতে হয়। আমাদের প্রাত্যহিক জীবনে তো বটেই আমাদের জীবনধারণের অপরিহার্য্য অংশ খাবার কাজেও প্রযুক্তি আমাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে পরম সুহৃদের মতো। প্রেসার কুকার তাদের মধ্যে অন্যতম। তাই রোজাদার কর্মজীবী নারীসহ যে কোনো নারীই প্রেসার কুকারে অল্প সময়ে দ্রুত ইফতার বা সেহেরির রান্না সেরে উঠতে পারেন। এতে সময় বাঁচার পাশাপাশি, বাড়ির বউ/মা/মেয়েটি রোজার মাসে ইবাদত বন্দেগী করার পাশাপাশি খানিক বিশ্রামও নিতে পারবে। রমজান মাসে সংসারের নারীর কাজটি সহজ করে দিতে তাকে উপহার দিতে পারেন প্রেসার কুকার। 

আজ থাকছে প্রেসার কুকারের সাহায্যে সহজে কিছু নিত্য নৈমিত্তিক রান্না করার টিপস 


ভাত:
প্রথমেই আসি ভাত রান্নার কথায়। ভাত ফুটাতে এমনিতে যতটা সময় লাগে তার তিন ভাগের এক ভাগ সময় নিয়ে ফুটাতে পারেন যদি প্রেসার কুকার ব্যবহার করেন। শুধু চাল আর পানির পরিমাণটা ঠিক থাকলেই হবে। সাধারণভাবে যেটুকু চাল তার দ্বিগুণ পানি নিলেই হবে। প্রেসার কুকারে তিনবার লম্বা সিটি বাজলেই ভাত সিদ্ধ হয়ে যাবে। এতে সময় নিবে পাঁচ থেকে সাত মিনিট। যদি কারও কুকারে লম্বা সিটি না বাজে, ছোট ছোট সিটি বাজে, তাহলে তিনবারের বদলে ছয়বার সিটি গুণতে হবে। আর চুলা বন্ধ করার আরও ১৫-২০ মিনিট পর কুকারের ঢাকনি খুলতে হবে। তাহলে ভাত মোটামুটি ঝরঝরে হয়ে যাবে। এর আগে ভাপ বের করে খুলে ফেললে ভাত আঠালো থাকে। আর কেউ যদি ইলেকট্রিক রাইস কুকারে ভাত ফুটান, তাহলে তো ভাতের পিছনে কোন গ্যাসই খরচ হবে না।


প্রেসার কুকার কিনতে ক্লিক করুন 

ডাল:
ভাতের পরই চলে আসে ডালের কথা। মসুরের ডাল সিদ্ধ হতে যে সময় লাগে একেও তিন ভাগের এক ভাগে কমিয়ে আনতে পারেন। শুধু একটা ছোট কাজ করতে হবে। ডাল সিদ্ধ বসানোর চার ঘন্টা আগে ডাল ধুয়ে পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে। আমি যেটা করি, অফিসে যাওয়ার আগে ডাল ভিজিয়ে রেখে যাই, দুপুরে অফিস থেকে এসে রান্না করি। দশ মিনিটের মধ্যে ডাল সিদ্ধ হয়ে যায়। এরপর পেঁয়াজ-মরিচ-রসুন তেলে ভেজে বাগার দিয়ে দিলেই হল। পনের মিনিটে ডাল রান্না শেষ। মনে করে ডাল সিদ্ধ করার সময় পানি কমিয়ে দিতে হবে। নয়তো পানি শুকাতেই সময় লেগে যাবে। একেইভাবে ইফতারের পেয়াজু বানানোর জন্য প্রেসার কুকারে ডাল সিদ্ধ করে নিতে পারেন।



প্রেসার কুকার কিনতে ক্লিক করুন 

গরু/খাসীর মাংস:
গরু/খাসীর মাংসের জন্যও সেই প্রেসার কুকারই ভরসা। তবে দুইভাবে রান্না করা যায়। একটা হলো মাংস আগে প্রেসার কুকারে সিদ্ধ করে পানিটুকু ফেলে দিয়ে এরপর মশলা কষিয়ে রান্না করা যায়। অথবা আগেই মশলা দিয়ে কষিয়ে নিয়ে এরপর পানি দিয়ে প্রেসার কুকারে বসিয়ে দেয়া যায়। প্রথমটায় তেল-চর্বি কম থাকে, দ্বিতীয় পদ্ধতিতে কষানোটা ভালো হয়। প্রেসার কুকারে মাংস ভালো মত সিদ্ধ হতে কমপক্ষে বারোটা লম্বা সিটি বাজতে হবে। কেউ কেউ মুরগীর মাংসও প্রেসার কুকারে করে। আজকাল তো রাইস কুকারের মত কারি কুকারও পাওয়া যায়। এমনটা হলে গ্যাস আরও অনেকখানি সাশ্রয় করা যায়। 



প্রেসার কুকার কিনতে ক্লিক করুন 

শাক-সবজি:
এগুলো প্রেসার কুকারে সবজি ভাপিয়ে নিতে পারেন, এতে সবজি রান্না করতে সময় কম লাগবে। সিদ্ধ সবজি ফোড়ন আর মসলা দিয়ে কষিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রান্না করুন, এতে তাড়াতাড়ি সিদ্ধ হয়। শুধু আলুভর্তার জন্য আলু সিদ্ধ করতে প্রেসার কুকার খুব কাজে লাগে, আলুর চপের জন্য আলুও সিদ্ধ করে নিতে পারেন প্রেসার কুকারে । দুইটা লম্বা সিটিই আলু সুন্দরমত সিদ্ধ করার জন্য যথেষ্ট। 



প্রেসার কুকার কিনতে ক্লিক করুন 

পোলাও/খিচুড়ি:
প্রেসার কুকারে সাদা পোলাও করা যায়। এক্ষেত্রে চালের পরিমাণ যতটুকু, পানিও ঠিক ততটুকু নিতে হবে। আর খিচুড়ি যদি পোলাও-এর চাল দিয়ে করতে চান, তাহলে চাল-ডালের সমপরিমাণ থেকে একটু কম পানি দিতে হবে। ভাতের চাল দিয়ে খিচুড়ি করলে ডালের সমপরিমাণ পানি, আর চালের দ্বিগুণ পরিমাণ পানি যোগ করে দিলেই হবে। সবজি-খিচুড়ি করলেও একই নিয়ম, শুধু সবজীর জন্য খুব সামান্য পরিমাণ পানি যোগ করে দিতে হবে।

প্রেসার কুকারের বিশাল কালেকশন থেকে আপনার পছন্দেরটি কিনতে এখানে ্ক্লিক করুন

*প্রেসারকুকার* *রমজান* *সেহেরি* *রান্না*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★