বইমেলা ২০১৬

বইমেলা-২০১৬ নিয়ে কি ভাবছো?

সাদাত সাদ: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

বইমেলায় অনেক নতুন লেখকের বই এসেছে, সম্ভব হলে নতুন দের একটি বই হলেও কিনুন। আগামীতে তাদের কাছ থেকে আরো সুন্দর সুন্দর বই পাওয়া যাবে। এবারের বইমেলায় যারা তাদের প্রথম গল্প, উপন্যাস, কবিতার বই প্রকাশ করেছেন তাদের সবাইকে অনেক অনেক অভিনন্দন এবং শুভেচ্ছা। আশা করি আগামীতে আপনাদের কাছ থেকে আরো অনেক মূল্যবান বই পাবো (খুকখুকহাসি)
*বইমেলা* *বইমেলা-২০১৬*

বইমেলা: একটি বেশব্লগ লিখেছে

এবারের অমর একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়েছে রণজিৎ সরকারের রোমান্টিক প্রেমের উপন্যাস ‘নায়িকার প্রেমে পড়েছি’। অধিকাংশ মানুষ নায়ক-নায়িকার প্রেমে পড়ে। প্রেমে পড়েছেন আপনিও। আবার কেউ কেউ প্রেমে পড়ে নিজেকে ফুতুর করে দেয় । হয়তো তারা এ সময় উপলদ্ধি করে জীবন মানেই নাট্যমঞ্চ। সুতরাং এখানে নায়ক-নায়িকার প্রেমে পড়ার কাহিনি নিয়ে এই উপন্যাস। 

নায়িকার প্রেমে পড়েছি উপন্যাস সম্পর্কে লেখক রণজিৎ সরকার বলেন, ‘যৌবনের শুরুতে পর্দায় নায়ক-নায়িকার ছবি দেখে মুগ্ধ হই আমরা। মুগ্ধতা থেকে ভালোলাগা আর ভালোলাগা থেকেই কোনো একজনের প্রেমে পড়ি আমরা অনেকেই। এভাবে তার অজান্তে হৃদয়ে একান্ত আপন করে ভাবি। তাকে নিয়ে কল্পনার জগতে হাবুডুবু খাই। কিন্তু কোন ভাবে তাকে বলা হয় না। বলার সুযোগ হয় না। 
শুধু পর্দায় দেখে মুগ্ধ হই। হৃদয়ের সঙ্গী হিসেবে আপন মনে পথ চলি তাকে নিয়ে। কিন্তু কথাগুলো একান্ত হৃদয়ের কোণে জমা হয়ে থাকে। আর এই জমানো কথাই নায়িকার প্রেমে পড়েছি উপন্যাসে বলার চেষ্টা করেছি আমি। আশা করি যারা এমন প্রেমে পড়েছেন। তারা উপন্যাসটা পড়লে নিজেকে খুঁজে পাবেন। আপনার মনের লুকানো প্রেমের কথাই বলা হয়েছে। যা পড়ার পর এক নিশ্বাসে বলবেন, ‘এ তো আমার জীবনের প্রেমকাহিনি!’

লেখক হয়তো আপনার পছন্দের নায়িকাদের বইটি উৎসর্গ করেছেন। তারা হলেন: শাবনূর, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, জ্যোতিকা জ্যোতি, বিদ্যা সিনহা সাহা মিম। বইটি প্রকাশ করেছেন শব্দশৈলী। স্টল নম্বর ৪৩৪-৪৩৬। প্রচ্ছদ শিল্পী, সোহেল আমান। মূল্য ১৬০ টাকা। যারা ঘরে বসে প্রিয় বইটি সংগ্রহ করতে চান তারা রকমারি ডটকম, ফোন নম্বর ০১৫১৯৫২১৯৭১-এবং ১৬২৯৭-এই ঠিকানায় যোগাযোগ করতে পারেন। 
*বইমেলা* *বইমেলা-২০১৬* *উপন্যাস*

বইমেলা: একটি বেশব্লগ লিখেছে

এবারের বইমেলায় শিশু সাহিত্যিক খন্দকার মাহমুদুল হাসানের বিভিন্ন ধরনের ১১টি বই প্রকািশত হয়েছে। তার এ বইগুলো হচ্ছে ‘বাংলা ও বাঙালির ইতিহাস’ এবং ‘ভাষার ইতিকথা’ এ বই দুটি প্রকাশ করেছে তাম্রলিপি। ‘প্রাচীন সভ্যতার ইতিহাস’, ‘পুরাকীর্তির বাংলাদেশ’ ও ‘সেরা সায়েন্স ফিকশন’ এ বইতিনটি প্রকাশ তরেছে পার্ল পাবলিকেশন্স। 

‘হিব্রু থেকে ইহুদি’, ‘ইতিহাসের সেরা গল্প’ ও ‘সুন্দরবনের গল্প’ এ বই তিনটি মেলায় এনেছে কথাপ্রকাশ। ঝিঙেফুল থেকে প্রকাশিত হয়েছে ‘মাঝরাতের ছায়ামূর্তি’। ‘প্রাচীন বাংলার আশ্চর্য কীর্তি’ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ শিশু একাডেমী। প্রকাশনা সংস্থা আদিগন্ত থেকে প্রকাশ হয়েছে ‘ছোটদের হাসির গল্প’ ।

লেখকের বইগুলো তাম্রলিপি, পার্ল পাবলিকেশন্স, ঝিঙেফুল পাবলিকেশন ও বাংলাদেশ শিশু একাডেমির স্টলে পাওয়া যাবে। এছাড়াও রকমারি ডটকমে বই গুলো পাওয়া যাচ্ছে। 
*বইমেলা* *বইমেলা-২০১৬*

বইমেলা: একটি বেশব্লগ লিখেছে

বাংলা একাডেমির তথ্যানুযায়ী, মঙ্গলবার মেলার নবম দিনে প্রকাশিত হয়েছে ১১০টি নতুন বই। এর মধ্যে গল্প ২০, উপন্যাস ১৫, প্রবন্ধ ৮, কবিতা ২৮, শিশু সাহিত্য ৩, ছড়া ৫,  জীবনী ৪, মুক্তিযুদ্ধ ১, নাটক ১, বিজ্ঞান ৫, ভ্রমণ ১, ইতিহাস ৩, স্বাস্থ্য ১,  রম্য/ধাধা ১, অনুবাদ ১, সায়েন্স ফিকশন ৩ ও অন্যান্য ১০টি বই। 
 
মেলায় আসা নতুন বইয়ের মধ্যে রয়েছে— সৈয়দ শামসুল হকের ‘বাবার সাথে যাওয়া ও অন্যান্য বিষয়ের গল্প’ (রাত্রি প্রকাশনী), মুনতাসীর মামুনের ‘ইতিহাসের খেরোখাতা সাত, ইমদাদুল হক মিলনের ‘গোস্টস্ স্টোরিজ ফর ইউ ও মোস্তফা কামালের ‘সায়েন্স ফিকশন সমগ্র ২’ (অনন্যা), অসীম সাহার ‘শ্মশান ঘাটের মাঝি’ (চন্দ্রদ্বীপ), মুহাম্মদ জাহাঙ্গীরের ‘মিডিয়ার নানা কথা’, আবদুল মওদুদ অনূদিত ‘দি ইন্ডিয়ার মুসলমানস’ (মাওলা ব্রাদার্স), বিচারপতি মো. গোলাম রব্বানীর ‘বাংলাদেশের সংবিধানের বিকাশ, বৈশিষ্ট্য ও বিচ্যুতি’, বুলবুল সরওয়ার অনূদিত ‘হূদয়ে আমার মির্জা গালিব’ ও পিয়াস মজিদের ‘এলামেলো ভাবনাবৃন্দ’ (ঐতিহ্য), রাজু আলাউদ্দিন অনূদিত ‘কথাসমগ্র’ (কথাপ্রকাশ), স্বকৃত নোমানের ‘তাজউদ্দীন আহমদ’ (উত্স), রাগিব হাসানের ‘বিদ্যাকৌশল : লেখাপড়ায় সাফল্যের সহজ ফরমুলা’ ও আসিফ সিবগাত ভূঞা ‘সহজ কুরআন’ (আদর্শ), অরণ্য পাশার ‘আনন্দ আশ্রম’ (দেশ পাবলিকেশন্স), মানিক মুনতাসীরের ‘খবরের কবর’ (মনের কথা প্রকাশনা)।
*বইমেলা* *বইমেলা-২০১৬* *নতুনবই*

মো:আ:মোতালিব বেশব্লগটি শেয়ার করেছে

একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৬তে  কুরআনের ১৭টি সুরা ও তার ব্যাখ্যা নিয়ে ‘সহজ কুরআন’ নামের একটি বই প্রকাশিত হয়েছে। বইটি লিখেছেন আসিফ সিবগাত ভূঞা। মজার ব্যাপার হচ্ছে, আসিফ কখনো কোনো মাদ্রাসায় পড়েন নি। তার পড়ালেখা ‘জেনারেল’ লাইনে। ছাত্র হিসেবেও আহামরি কিছু নন। আইবিএতে পড়ার সময় তিনি এক বন্ধুর বাড়িতে ইসলামিক আলোচনা শুনতে যান এবং সেখানে গিয়ে তার ইসলামের প্রতি নতুন করে ভালোবাসা জন্মায়। তিনি ধর্মীয় দায়িত্বগুলো পালন করার পাশাপাশি ইসলাম সম্পর্কে ভালো করে জানার আগ্রহ বোধ করেন।
গত প্র্রায় একযুগ সময় ধরে ইসলাম নিয়ে তার জানাশোনা কিছুটা অন্যের সাহায্যে, কিছুটা নিজের চেষ্টায়। এজন্য ২০০৯ সালে চলে যান কাতারে, কাতার ইউনিভার্সিটির একটি এক বছরকালীন আরবি ভাষার কোর্স করতে। আরবি ভাষায় কিছুটা দক্ষতা অর্জন করে সেটা দিয়ে তিনি ইসলামের বিভিন্ন শাস্ত্রের পাঠ নেয়া শুরু করেন। সম্প্রতি মিশকাহ ইউনিভার্সিটি নামক একটি অনলাইন বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি নতুন করে ইসলামিক স্টাডিজ নিয়ে পড়ছেন। এখানে মিশরের বিখ্যাত আযহার ইউনিভার্সিটির বেশ কয়েকজন প্র্রফেসরের সান্নিধ্যে তার জ্ঞান অর্জনের সুযোগ হচ্ছে। 

এ বইটির নাম ‘সহজ কুরআন’ দেওয়া হয়েছে বেশ কয়েকটি ব্যাপার একসাথে মাথায় রেখে।  ‘সহজ কুরআন’ বলে এটা বোঝানো হয়নি যে কুরআন সহজ। সেরকমটা পাঠক মনে করতে পারেন—সেই ঝুঁকি মাথায় রেখেই ‘সহজ কুরআন’ নামটি রাখা । ব্যাখ্যা করা যেতে পারে কী কী কারণে ‘সহজ কুরআন’ নামটি লেখকের কাছে লাগসই মনে হয়েছে।

ব্যাখ্যা করতে গিয়ে তিনি বলেন, প্রথমত, এ বইয়ে আমি সূরা ফাতিহা ও সূরা যিলযাল থেকে শুরু করে সূরা নাস পর্যন্ত শেষ ১৬টি—অর্থাৎ মোট ১৭টি সূরার ব্যাখ্যা নিয়ে এসেছি। এই ১৭টি সূরা সাধারণ মানুষ সবচেয়ে বেশি মুখস্থ করেন এবং কিছুটা জেনে-বুঝে থাকেন। তাই পরিচিত সূরাগুলো দিয়ে যদি তারা কুরআন পড়া শুরু করেন, সেটা তাদের জন্য সবচেয়ে সহজ হবে বলে আমার মনে হয়েছে।

দ্বিতীয়ত, কুরআনের ব্যাখ্যা কঠিন থেকে কঠিনতর হতে পারে ব্যাখ্যাদাতার টার্গেট অডিয়েন্স ও  অ্যাকাডেমিক উদ্দেশ্যের ওপর ভর করে।  এখানে সুরাগুলোর ব্যাখ্যা যতটা পারা যায় ভাষার কাঠিন্য থেকে দূরে রাখার চেষ্টা করা হয়েছে। কুরআনের ব্যাখ্যা দাঁড় করানো প্রজেক্ট হিসেবে খুব সহজ নয়। কারণ কুরআনের টপিক ও ভাষা দুটোই—বিশেষ করে, বর্তমান সময়ের পাঠকদের পাঠাভ্যাস মাথায় রাখলে—সহজ নয়। সেক্ষেত্রে এর ব্যাখ্যায় মৌলিকভাবে কিছু জটিলতা ও ভাবগাম্ভীর্য রাখতেই হবে, ওইটুকু বাদ দিলে কুরআন আর কুরআন থাকে না। কুরআনের একটি মূল লক্ষ্যই হচ্ছে মানুষের চিন্তা সচল করা। ব্যাখ্যায় এসে যদি চিন্তার অংশটুকু উধাও হয়ে যায়, তাহলে সেই ব্যাখ্যা সহজ হলেও সঠিক হবে না। কিন্তু এর পরও চেষ্টা করা হয়েছে যে ব্যাখ্যায় ঠিক ততটুকু গাম্ভীর্য ও ভাবজটিলতাকে স্থান দেওয়ার, যতটুকু না হলেই নয়। 

তৃতীয়ত, আরেকটি বিষয় হলো কুরআন ব্যাখ্যার সময় লেখকের একটি অ্যাকাডেমিক দায়িত্ব থাকে যে এখানে সে নিজের মনগড়া কথা বলবে না; বরং যেভাবে কুরআনের বিষয়ের ও ভাষার প্লিতরা কুরআনকে বুঝেছেন, সেটাকে বজায় রাখার চেষ্টা করবে। কিন্তু অপরদিকে লেখক যদি কেবল পুরোনো কথাই অ্যাকাডেমিক স্টাইলে রিপিট করেন, তাহলে নতুন করে ব্যাখ্যা লেখার কোনো যুক্তি থাকে না। উপরন্তু আধুনিক সমাজ যে সময়টাকে দেখছে, সেই সময়ের আলোকে নতুন মেজাজের ও ঢঙের কথা না এলে পাঠক লেখার মধ্যে নিজেকে খুঁজে পান না। তাই এই বইয়ে আমি সর্বাত্মক চেষ্টা করেছি কুরআনের ব্যাখ্যা করার যে অ্যাকাডেমিক ধারা গত কয়েক শ’ বছরে মুসলিম আলেমরা ধরে রেখেছেন তার প্রতি যথোপযুক্ত সৎ থেকে, এরপর সেই ব্যাখ্যাকে সময়ের ও সমাজের বোতলে ধারণ করার। এটি বাংলাদেশের যেকোন ভালো বাংলা বোঝা শিক্ষিত মানুষের কুরআন স্টাডি করার প্রথম স্টেপ যেন হতে পারে, সে জন্য প্রাণপণ চেষ্টা করা হয়েছে।

প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই প্রথম সপ্তাহের সর্বোচ্চ বিক্রির তালিকায় স্থান করে নিয়েছে সহজ কুরআন বইটি বইটির প্রকাশক—আদর্শের স্টলে এই তথ্য পাওয়া যায়। গ্রন্থমেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে আদর্শের ৫৭৫-৫৭৬ নাম্বার স্টলে ও অনলাইন বুকশপ রকমারি.কমে অর্ডার দিয়ে বইটি সংগ্রহ করা যাবে। বিনিময় মূল্য ২০০ টাকা।
*আলকোরআন* *বইমেলা* *বইমেলা-২০১৬*

বইমেলা: একটি বেশব্লগ লিখেছে

বর্তমান সময়ের একজন জনপ্রিয় লেখকের নাম রণজিৎ সরকার। তরুণ এই কথাসাহিত্যিক তার লেখনী শক্তির মাধ্যমে অল্প সময়েই বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। নতুন প্রজন্মের সম্ভাবনাময় এই কলম সৈনিকের লেখা ৭টি বই এবারের অমর একুশে গ্রন্থমেলায় পাওয়া যাচ্ছে। 
 
অমর একশে গ্রন্থমেলা ২০১৬ তে প্রকাশিত রণজিৎ সরকারের নতুন ৭টি বই
 
ভাষাশহীদদের গল্প 
ভাষা আন্দোলনে প্রাণ উৎসর্গকারী ভাষা শহীদদের জীবনের উপরে লেখা হয়েছে ‘ভাষাশহীদদের গল্প’। গল্পের এই বইটি শিশু-কিশোরদের উপযোগী করে লেখা হয়েছে। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন নিয়াজ চৌদুরী তুলি। এটি তাম্রলিপি থেকে প্রকাশিত হয়েছে। বইটির মূল্য ১৩৫ টাকা। পাওয়া যাচ্ছে বইমেলার তাম্রলিপির স্টলে। 
 
ক্লাসরুমে ভূতের তাণ্ডব
এটি একটি কিশোর উপন্যাস। স্কুলের ক্লাসরুমে অদ্ভুত সব ঘটনা নিয়ে বন্ধুদের মধ্যে একটা আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। ক্লাসের অজ্ঞাত এক ছাত্র তাণ্ডব করে আর দোষ হয় ভূতের।  এধরনের কাহিনী নিয়েই ক্লাসরুমে ভূতের তাণ্ডব বইটি লেখা হয়েছে। এর প্রচ্ছদ এঁকেছেন  নিয়াজ চৌধুরী তুলি। পাওয়া যাচ্ছে বইমেলার তাম্রলিপির স্টলে। মূল্য ২০০টাকা।
 
অর্পা ব্যস্ত পড়ালেখায়
শিশু-কিশোরদের শিক্ষমূলক গল্পর বই এটি। এই বইটিতে বেশ কয়েকটি গল্প আছে শিক্ষামূলক। শিশুদের মেধা বিকাশে ও পড়ালেখা মনোযোগ আকর্ষণ করবে। বইটি প্রকাশ করেছেন শব্দশৈলী। প্রচ্ছদ এঁকেছেন মামুন হোসাইন। মূল্য ১৩৫ টাকা।
 
স্কুলের বন্ধুরা
পার্ল পাবলিকেশন্স থেকে প্রকাশিত এই বইটিও একটি কিশোর উপন্যাস। শিশু নির্যাতন নিয়ে লেখা হয়েছে স্কুলের বন্ধুরা কিশোর উপন্যাসটি। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন নিয়াজ চৌধুরী তুলি। আর এটি পার্ল পাবলিকেশন্স প্রকাশ করেছে। বইটির মূল্য মাত্র ১৫০ টাকা। 
 
 
 
 
 
 
বীরশ্রেষ্ঠদের গল্প 
সাত বীরশ্রেষ্ঠদের জীবনী নিয়ে লেখা হয়েছে এই বইটি। একাত্তরে এই বীরশ্রেষ্ঠরা আমাদের স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনতে কীভাবে অবদান রেখেছিল তারই চিত্র। বইটিতে আমাদের জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের জীবন ও কর্ম সম্পর্কে জানতে পারা যাবে। এই বইটিরও প্রচ্ছদ এঁকেছেন নিয়াজ চৌধুরী তুলি। তাম্রলিপি থেকে বইটি বেরিয়েছে। বইটির মূল্য রাখা হয়েছে ১৩৫ টাকা।
 
পথে পাওয়া
অনলাইনে বেশ আগে থেকেই সাড়া জাগিয়েছে রণজিৎ সরকারের পথে পাওয়া সিরিজ যা এখন বই আকারে এবারের বই মেলায় প্রকাশিত হল। পথে পাওয়া বইটি আমাদের চারপাশে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন ঘটনা প্রবাহ নিয়ে লেখা হয়েছে।  সাহস পাবলিকেশন্স জনপ্রিয় সিরিজ ‘পথে পাওয়া’ সাহসের সাথে প্রকাশ করেছে। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন-নিয়াজ চৌধুরী তুলি। বইমেলায় সাহস পাবলিকেশনের স্টলে এটি পাওয়া যাবে। 
 
নায়িকার প্রেমে পড়েছি
নায়ক-নায়িকাদের প্রেমে পড়ার কাহিনি নিয়ে লেখা রোমান্টিক উপন্যাস ‘নায়িকার প্রেমে পড়েছি’। যৌবনের শুরুতে যারা টিভি বা সিনেমা হলের পর্দায় নায়িকাদের ছবি দেখে প্রেমে পড়েছেন বইটি তাদের জন্য। উপন্যাসটি প্রকাশ করেছে: শব্দশৈলী, প্রচ্ছদ করেছেন- সোহেল আমান। 
 
 
 
 
 
 
লেখকের অন্যান্য বই সমূহ
তরুণ এই লেখক ইতিমধ্যে ২৭টি বই প্রকাশ করেছেন। তাঁর লেখা প্রথম গল্পের বই ‘স্কুল ছুটির পর’ ২০১২ সালের বইমেলায় প্রকাশ হয়। নবীন লেখকের বই হিসেবে ওই মেলাতেই বইটি দ্বিতীয় মুদ্রণ হয়েছিল। তার প্রকাশিত অন্য বইগুলো হল- ভূতের ফাঁসি, স্কুল ছুটির দিনগুলি, টিফিনের সময়, স্কুলে ভূতের আড্ডা, মায়ের সাথে স্কুলে, অল্প বয়সী মাস্টার মশাই, স্কুলে প্রতিদিন, চাঁদ বুড়ির বান্ধবী অনিন্দী, শিশুতোষ মুক্তিযুদ্ধের গল্প, রোল নাম্বার জিরো জিরো ওয়ান, দুষ্টু ভূতের আস্তানায়, সংগীতার আঁকাআঁকি, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ব, ক্লাসরুমে যত কাণ্ড, স্কুলে অনুপস্থিত, শিশুতোষ একুশের গল্প, ছোটদের মুক্তিযুদ্ধের অজানা গল্প, লালু বাহিনীর লাফিং ক্লাব ও প্রেমহীন ক্যাম্পাস। উপরের এই বইগুলোও এবারের বই মেলা থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন। এছাড়াও অনলাইনে রকমারি ডটকমের ওয়েবসাইট থেকেও বই কিনতে পারবেন। 
 
লেখক পরিচিতি
১৯৮৪ সালের ১২ মে পিতৃভূমি সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ উপজেলার সরাইদহ গ্রামে রণজিৎ সরকারের জন্ম। বাবা নারায়ণ সরকার, মা শোভা সরকার। দাদু, মা আর বাবার কাছ থেকে শিক্ষার হাতেখড়ি। ক্লাস নাইন থেকে ডেবিট-ক্রেডিট পড়তে পড়তে হিসাববিজ্ঞানে অনার্স-মাস্টার্স। বর্তমানে একটি জাতীয় পত্রিকায় সম্পাদকীয় বিভাগে কর্মরত আছেন। নিয়মিত লিখছেন জাতীয় দৈনিক, সাপ্তাহিক, মাসিক, ছোটকাগজ, অনলাইনে।
 
নতুন এই লেখক তাঁর লেখনীর মাধ্যমে জয় করুক সকলের মন। বাংলা সাহিত্যে তাঁর পথচলা হোক সুদীর্ঘ। অনেক অনেক শুভ কামনা রইলো রণজিৎ সরকারের জন্য।
*বইমেলা-২০১৬* *নতুনবই* *বইমেলা* *বইমেলা২০১৬*
ছবি

বইমেলা: ফটো পোস্ট করেছে

হুমায়ূন আহমেদের প্রথম স্ত্রী গুলতেকিনের লেখা প্রথম কবিতার বই ‘আজো, কেউ হাঁটে অবিরাম’

এবারের বইমেলায় কবিতার বই দিয়ে সাহিত্যে আত্মপ্রকাশ করেছেন প্রয়াত কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের প্রথম স্ত্রী গুলতেকিন। মেলায় তার লেখা প্রথম কবিতার বই ‘আজো, কেউ হাঁটে অবিরাম’ প্রকাশ করেছে তাম্রলিপি। ‘গুলতেকিন আহমেদ’ হিসেবে পরিচিতি থাকলেও বইতে তার নাম লেখা হয়েছে গুলতেকিন খান। তাম্রলিপিতে বইমেলার প্রথম দিন থেকে গুলতেকিন খানের বইটি পাওয়া যাচ্ছে। আগামী শুক্রবার (০৫ ফেব্রুয়ারি) বাংলা একাডেমির কবি শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষে বইটির প্রকাশনা উৎসব হবে। এতে গুলতেকিন উপস্থিত থাকবেন।’ বইটিতে ৩৫টি কবিতা রয়েছে। ধ্রুব এষের আঁকা প্রচ্ছদে বইটির মূল্য রাখা হয়েছে ১৩৫ টাকা

*গুলতেকিন* *কবিতারবই* *কাব্যগ্রন্থ* *বইমেলা-২০১৬*

বইমেলা: একটি বেশব্লগ লিখেছে

হাকিম চত্বরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা চা খেতে আসতেন দল বেধে। হাকিম ছিলেন একজন চাওয়ালা। চায়ের দোকান ছিল তার। একদিন তার নামের সাথে যুক্ত হয় একটি এলাকার নাম হাকিম চত্বর। আবার অনেকে এই চত্বরকে চিনেন লাইব্রেরি চত্বর হিসেবে। কারণ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির পাশেই এর অবস্থান। গত দুই দিন ধরে এই চত্বরটি ছিল প্রিয় কবিদের দখলে। এককথায় ‘কবি চত্বর’ হয়ে উঠেছিল গোটা এলাকা। যে দিকে তাকায়েছি দেখা মিলেছে শুধুই কবিদের। 


কবিদের অনিন্দ্য সুন্দর এক মেলা বসেছিল হাকিম চত্বরে। প্রতিবছরই একবার অর্থাৎ ১লা ফেব্রয়ারি দুইদিন ব্যাপি কবিতা উৎসব উপলক্ষে হাকিম চত্বরে কবিদের মেলা বসে। এ যেন প্রাণের মেলা। অন্যায় অবিচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর প্রেরণা সঞ্চারী জমায়েত। তাই তো এবার জাতীয় কবিতা উৎসবের শ্লোগান ছিল ‘কবিতা মৈত্রীর কবিতা শান্তির’। গত মঙ্গলবার ছিল জাতীয় কবিতা উৎসবের শেষ দিন। উৎসব মঞ্চে একাধিক অধিবেশনে দেশ-বিদেশের কবিদের অংশ গ্রহণ ছিল বিশেষভাবে উলে­খ করার মতো। সকাল ১১টায় ‘কবিতা মৈত্রীর কবিতা শান্তির’ শীর্ষক প্রবন্ধ পাঠ করেন ড. বিশ্বজিৎ ঘোষ। সভাপতিত্ব করেন কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা। বিকেলে একাধিক পর্বে দেশ-বিদেশের নিবন্ধিত কবিরা কবিতা পাঠ করেন।  সন্ধ্যায় আমন্ত্রিত শিল্পীদের অংশগ্রহণে কবিতার গান পরিবেশিত হয়। সভাপতিত্ব করেন নাসির উদ্দিন ইউসুফ। দেশ-বিদেশের কয়েকশ কবির পাশাপাশি বিপুল সংখ্যক দর্শক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।
*জাতীয়কবিতাউৎসব* *বইমেলা-২০১৬*

দীপ্তি: একটি বেশব্লগ লিখেছে


অন্যান্য বছরের মতো এবারও বইমেলায় শোবিজের এক ঝাঁক তারকার লেখা বই প্রকাশ হচ্ছে। তারকাদের ব্যাপারে ভক্তদের বেশ আগ্রহ রয়েছে বলে তাদের লেখা বইয়ের প্রতিও থাকে বাড়তি কৌতুহল। এবারের বইমেলায় বিশিষ্ট অভিনেতা আবুল হায়াত এর ‘নির্বাচিত গল্প সংকলন’ নামে একটি গল্পের বই প্রকাশ হবে। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন তারই সুযোগ্যা কন্যা অভিনেত্রী ও চিত্রশিল্পী বিপাশা হায়াৎ। বইটিতে ১২টি গল্প স্থান পাবে। ডেইলি স্টারের প্রকাশনা সংস্থা থেকে বইটি প্রকাশিত হবে। এটি একুশে বইমেলার দ্বিতীয় সপ্তাহে পাওয়া যাবে। 

বিশিষ্ট অভিনেতা ড. ইনামুল হক এর দুইটি বই প্রকাশ হবে। দুইটির মধ্যে একটি বই চূড়ান্ত করেছেন। এটি ইংল্যান্ডের বিখ্যাত নাট্যকার হ্যারোল্ড পিন্টারের দুটি নাটক নিয়ে অনুবাদের বই। বইটির নাম ‘হ্যারোল্ড পিন্টার’। এছাড়া একটি বিজ্ঞানবিষয়ক বই প্রকাশ করবেন। 

বিশিষ্ট গণসংগীত শিল্পী ফকির আলমগীরের সাতটি বই প্রকাশিত হবে। এ গুলোর মধ্যে রয়েছে অনন্যা থেকে ‘ইউরোপের পথে পথে’, ‘স্মৃতির আয়নায়’, ‘মুক্তিযুদ্ধে বিদেশি বন্ধুরা’, ‘নির্বাচিত নিবন্ধ’, ‘মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি’ ও ‘বিজয়ের গান’ দৃরন্ত থেকে ‘স্মরণ’ জিনিয়াস থেকে ‘দেশ দেশান্তর’ ও ‘স্মৃতি আলাপনে মুক্তিযুদ্ধ’।ফকির আলমগীর প্রতি বছর মেলায় আমি পাঠকদের জন্য নতুন নতুন বই উপহার দেয়ার চেষ্টা করেন। তারই ধারাবাহিকতায় এবারও পাঠকরা আমার লেখা ভালো কিছু বই পাবেন। 

জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী কনক চাঁপা একটি কবিতার বই প্রকাশ করবেন। বইটির নাম ‘মেঘের ডানায় উড়ে’। বইটি নাগরী প্রকাশনা থেকে প্রকাশিত হবে। জনপ্রিয় গীতিকার, নাট্যকার ও সাংবাদিক অনুরূপ আইচের একটি উপন্যাস বের হচ্ছে। ‘প্রেমহীনা’ শীর্ষক ও উপন্যাসটি প্রিয়মুখ প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত হবে। একজন ব্যান্ডশিল্পীর যাপিত জীবনকে ঘিরে এর কাহিনি অবর্তিত হয়েছে। পাশাপাশি এতে উঠে এসেছে অডিও অঙ্গন ধ্বংসের নেপথ্যের কারণ। এর আগে তার আরো পাঁচটি বই প্রকাশিত হয়েছে। বই গুলো হচ্ছে, প্রেমলীলা, গল্প সমগ্র, অ্যালকোহল, প্রেম নয় ভালোবাসা ও অনুরূপ আইচের গান। 

শিল্পী থেকে এবার কবির খাতায় নাম লেখালেন ক্লোজআপ ওয়ান তারকা সাজিয়া সুলতানা পুতুল। এবারের বইমেলায় তিনি একটি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশ করতে যাচ্ছেন। ইতিমধ্যে এর কাজ সম্পন্ন করেছেন। এ বইটি ‘পুতুল কাব্য উপক্রমনিকা’ শিরোনামে প্রকাশিত হবে। বইটিতে ১১৭টি কবিতা রয়েছে। প্রিয়মুখ প্রকাশনী থেকে বইটি প্রকাশিত হবে। জীবনের প্রথম কবিতার বইটি নিয়ে তিনি অনেক আশাবাদী। আশা করছেন, বইটি পাঠক মহলে মুগ্ধতা ছড়াবে। (সূত্র: ইন্টারনেট)
*বইমেলা* *বইমেলা-২০১৬* *তারকাদেরবই*

দীপ্তি: একটি বেশব্লগ লিখেছে


বেশতো প্রতিনিধিদের মধ্যে একটি টিম প্রতিদিনই বইমেলা ঘুরে এসে বইমেলার তথ্যবলী সমন্ধে আমাদের অবগত করছেন l তারই সূত্র ধরে, আমরা প্রতিদিনই চেষ্টা করব বইমেলার খুঁটিনাটি যাবতীয় তথ্যবলী আপনাদের সকলের সাথে শেয়ার করতে l তো আজ জানা যাক, বইমেলার দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার বইমেলার প্রাঙ্গনের কিছু খবর l 

পাঠক, লেখক আর প্রকাশকদের আনাগোনায় ইতিমধ্যেই ধীরে ধীরে জমে উঠতে শুরু করেছে অমর একুশে গ্রন্থমেলা। মঙ্গলবার মেলার দ্বিতীয় দিন বিকেল থেকে আস্তে আস্তে পাঠকদের সমাগম শুরু হতে থাকে।পরিবারের ছোট সদস্যসহ প্রিয়জনদের নিয়ে অনেকে এসেছেন বইমেলায়। গতকাল নাকি ছোট শিশুদেরই বই কেনার প্রতি বেশি আগ্রহ ছিল এবং স্টলগুলোতে মূলত ছোটদের আনাগোনা আর তাদের বইই বেশি বিক্রি হতে দেখা গিয়েছে l 

তবে, মেলার দ্বিতীয় দিনেও কোনো কোনো বইয়ের স্টল নির্মাণ করতে দেখা যায়। পূর্ণাঙ্গরূপে বইমেলা কয়েকদিনের মধ্যেই জমে উঠবে, এমনটাই আশা করছেন লেখক ও প্রকাশকরা। এবছর বাংলা একাডেমী ছাড়াও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মেলার পরিসর বৃদ্ধি করায় পাঠকরা স্বাচ্ছন্দ্যে পুরো এলাকা ঘুরে ঘুরে পছন্দের বই কিনছেন। 

জানিয়ে রাখি, এ বছর অমর একুশে গ্রন্থমেলায় ৪০২টি প্রতিষ্ঠানকে মোট ৬০৩টি স্টল বরাদ্দ দিয়েছে বাংলা একাডেমি। এদিকে, বিকেলে বইমেলা চত্বরে এসে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির একটি স্টল উদ্বোধন করেন। এসময় তিনি গণমাধ্যমে বাংলা ভাষার সঠিক উচ্চারণ তুলে ধরার আহ্বান জানান। 

তো সংক্ষেপে এই ছিল মোটামোটি বইমেলার দ্বিতীয় দিনের চিত্র l 

*বইমেলা* *বইমেলা-২০১৬* *অমরএকুশেগ্রন্থমেলা*
ছবি

দীপ্তি: ফটো পোস্ট করেছে

বইমেলায় হুমায়ুন আহমেদের অন্যদিন নতুনরূপে

অন্যদিন গল্পটি বিচিত্রায় ১৯৭৬ সালে প্রথম প্রকাশিত হয়। পুস্তকাকারে প্রকাশের জন্য গল্পটি আগাগোড়া নতুন করে লেখা হয়। বইটি প্রকাশ করেছে খান ব্রার্দাস এ্যান্ড কোম্পানী ১৯৮৩ সালে... অন্যদিন বইটি থেকে সংগ্রহিত হুমায়ূন আহমেদের সেরা কয়েকটি উক্তিঃ ১. সুখী হওয়ার একটা অদ্ভুত ক্ষমতা আছে মানুষের। অতি সামান্য জিনিসও মানুষকে অভিভূত করে ফেলতে পারে। ২. দুনিয়াতে মন্দ মানুষ এত বেশী বলেই ভাল মানুষদের জন্য আমাদের এত মন কাঁদে। ৩. বিয়ে করার যে কি ঝামেলা, বিয়ে না করলে বুঝবেন না। ৪. সংসারের মাথাতো মেয়েরাই হয়। হয় না? ৫. সান্তনার কথা বলাতো খুব কঠিন। সবাই বলতে পারে না। ৬. একজন সফল মানুষের মুখে তার দুর্ভাগ্যের দিনের কথা শুনতে ভালই লাগে। বইটি আমি পড়েছি, ভীষণ ভালো আর মজার একটি বই l আপনি না পড়ে থাকলে সংগ্রহে রাখতে পারেন এবার বইমেলা থেকে কিনে (খুকখুকহাসি)

*বইমেলা* *বইমেলা-২০১৬* *হুমায়ুনআহমেদ*

দীপ্তি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

অমর একুশে গ্রন্থমেলা বাংলা একাডেমির চত্বর ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে হওয়ায় মেলার কোথায় কি রয়েছে তা জানা না থাকলে অনেক দর্শনার্থী তথা পাঠককে ঝামেলায় পড়তে হয়। তাই মেলার কোথায় কি রয়েছে সেটা মেলার দর্শনার্থীদের জানা জরুরি। বইমেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বইয়ের সবগুলো প্রকাশনা রয়েছে। অর্থাৎ বই কিনতে হলে অবশ্যই যেতে হবে মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে। শিশু কর্নারও মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অবস্থিত। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রবেশ করলেই হাতের বাম পাশে একটি তথ্যকেন্দ্র রয়েছে। যেখান থেকে মেলার স্টল কিংবা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাবে। 


মেলার ১৫টি প্যাভিলিয়নও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে রয়েছে। আর মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের প্রবেশ মুখে রয়েছে একটি মানচিত্র। কোন স্টল কোথায় সেটা দেখা যাবে ঐ মানচিত্রে। এমনকি সবগুলো স্টলের তালিকাও মিলবে ঐ মানচিত্রে। এছাড়াও মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে ১৫জন বিশিষ্টব্যক্তির নামানুসারে যে চত্বর করা হয়েছে তাও মিলবে সেখানে। মেলার বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী দুই অংশেই নতুন বইয়ের মোড়ক উম্মোচনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। একাডেমির নজরুল মঞ্চে নতুন বইয়ের মোড়ক উম্মোচনের পাশাপাশি সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশেও বইয়ের মোড়ক উম্মোচন করা যাবে। বাংলা একাডেমির অংশে বর্ধমান হাউজের বেদিতে মিলবে একটি তথ্যকেন্দ্র। সেটি থেকে মেলার বেশ গুরুত্বপূর্ণ তথ্যসহ মেলায় আসা নুতন বই, নতুন বইয়ের মোড়ক উম্মোচনের খবরা-খবর প্রচার করা হয়। আর মেলার একাডেমির অংশে রয়েছে সরকারী, বেসরকারী বিভিন্ন সংস্থা, মিডিয়া, বাংলাদেশ শিশু একাডেমি, এনজিও সহ বিভিন্ন সেবা প্রদানকারীর স্টল।  


মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশ ও একাডেমির দুই অংশের প্রবেশ মুখেই রয়েছে র‌্যাব সহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর বুথ। এছাড়াও পুরো মেলায় অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থার জন্য দুই অংশে দমকল বাহিনী রয়েছে। দমকল বাহিনীর মূল স্টেশনটি মেলার একাডেমির চত্বরের বর্ধমান হাউজের পশ্চিম কর্নারে অবস্থিত। যদিও মেলার বিভিন্ন চত্বর এবং পয়েন্টেই রয়েছে দমকল বাহিনীর টিম। একাডেমি প্রাঙ্গনে রবীন্দ্র স্মৃতিবিজড়িত শিলাইদহ কুঠিবাড়ির আদলে ‘লেখককুঞ্জ’ রয়েছে বর্ধমান হাউজের সামনে। এছাড়াও একাডেমির বর্ধমান হাউজের পূর্বপাশে রয়েছে মিডিয়া সেন্টার। একাডেমির বহেরাতলায় রয়েছে লিটল ম্যাগ চত্বর। যেখানে পাওয়া যাবে মুক্তচিন্তার লেখকদের লেখা বিভিন্ন বই। (সূত্র: ইন্টারনেট) 
*বইমেলা* *বইমেলা-২০১৬* *অমরএকুশেগ্রন্থমেলা*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★