বন্ধন

বন্ধন নিয়ে কি ভাবছো?

আসিফ: [বাঘমামা-প্যাচখায়াগেলাম]

*বন্ধন*
ছবি

বরুন কুমার: ফটো পোস্ট করেছে

ভালবাসা দিবস

সারা জীবন অটুট থাকুক আমাদের ভালবাসা - এই মিষ্টি হাসিতে

*ভালবাসা* *বন্ধন* *আড্ডা* *ভালবাসাদিবস*
ছবি

★ছায়াবতী★: ফটো পোস্ট করেছে

(হার্ট)(হার্ট)

বন্ধন সেতো হয়না পুরনো, সম্পর্ক গুলোর বয়স হয়না কোন চাওয়া পাওয়াগুলো যায়না হারিয়ে, অনুভূতি সেতো যায় না হারিয়ে এক পা দুই পা করে পথ চলা, নন্দিত পৃথিবীর পথ ধরে। কিছু কিছু প্রিয়মুখ কিছু হাসি নিয়ে আরো একটু বেশী চেয়েছি বেঁচে থাকতে কিছু কিছু অবয়ব মায়া খুঁজে নিতে মুহুর্ত গুলো চোখ মেলে থাকে চেনা কন্ঠের সেই চেনা ডাকে, সবটুকু চেতনা কান পেতে থাকে প্রতি মুহুর্তে তাই আজ স্বপ্ন সাজাই ভালোবাসার স্পর্শ খুঁজে যাই। অদৃশ্য সূতোয় বাধা পড়ে, প্রতি মুহুর্তে তাই স্বপ্ন সাজাই আর ভালোবাসার সংজ্ঞা খুঁজে যাই.............(হার্ট)(হার্ট)

*বন্ধন* *সংগৃহীত*

দস্যু বনহুর: [ক্রিকেট-সাবাসবোলিং] সময় অসময়ে, এখানে ওখানে, দেশে বিদেশে, তারুণ্যে, বার্ধক্যে আমরা প্রত্যেকেই একটা *প্রতিবীম্ব* খুঁজে বেড়াই এবং জীবনের বিভিন্ন ক্ষনে অন্যের চোখে নিজেকে এই খুঁজে ফেরার নামই *প্রেম*। আর, এই প্রেমই যখন কোন *বন্ধন* এ আবিষ্ট হয় তখনই *ভালবাসা*র একটা পোঁকা যায় পেটে পেটে ওর ঢুকে, বংশবিস্তার করে হয় একটা *সংসার*, নতুন আরেকটা *মায়াবৃত্ত*।

*প্রতিবীম্ব* *বন্ধন*

মোঃআশিকুর রহমান: সকলের তরে সকলে অামরা, প্রত্যেকে অামরা পরের তরে।(খরগোশ)

*বন্ধন*

শুভাশীষ: একটি বেশব্লগ লিখেছে

কাছের মানুষ বা প্রিয় মানুষদের কাছে আমাদের এক্সপেকটেশন বেশি। কিন্তু আমাদের চাওয়া কী সত্যি অনেক বেশি??

আমরা বেশি কিছু চাই না... শুধু চাই যখন অনেক ডিপ্রেশনে থাকব তখন কাছের মানুষটির হাত আমার কাধেঁ থাকবে l 

যখন অনেক বেশি টেনশনে থাকব তখন প্রিয় মানুষটি মাথার চুল গুলো এলোমেলো করে দিয়ে ঠোঁট গুলো বাকা করে একটু হাসবে l 

যখন চোখ ছল ছল করে উঠবে তখন কাছের মানুষটি হাতটা শক্ত করে ধরবে শুধু এতটুকুই চাওয়া l 


কিন্তু এতটুকু চাওয়াটাই কাছের মানুষদের কাছে অনেক বেশি মনে হয়। তাদের তো কিছু করার দরকার নাই......

খারাপ সময়ে কাছের মানুষটি পাশে থাকলে তাদের নীরবতাও আমাদের কাছে অনেক কিছু.......!!
*সান্নিধ্য* *বন্ধন* *সম্পর্ক* *কাছেরমানুষ*
৪/৫

অর্ঘ্য কাব্যিক শূন্য: একটি মানুষ আরেকটি মানুষের সাথে বন্ধনে যায়... উদ্দেশ্য, নিজের ভেতরেই নিজের বন্দিত্ব থেকে মুক্তি পাওয়া... কিছুদিন পর দেখতে পায়, একই বন্ধনে নিজের মুক্তিটাই বন্দী হয়ে আছে... ! তখন আবার মুক্তি পেতে বন্ধন ছিঁড়ে... মানুষ বন্ধন চায়... মুক্তি পেতে... ! ! মুক্তি পায়... বন্দী হতে... ! !

*বন্ধন* *সম্পর্ক* *মুক্তি*
৪/৫

পায়েল : এইটুকুতেই আটকে আছি, এইটুকুতেই পড়েছি বাঁধা অলক্ষ্য বন্ধনে, হঠাৎ কখন ফেরাবে চোখ ইচ্ছেটুকু মেলে, চোখের ভেতর কাঁপবে শুধু একটুখানি দ্বিধা, এইটুকুতেই আটকে আছি অলক্ষ্য বন্ধনে, চোখ ফেরালেই বুকের ভেতর হাত রাখবে ব্যাথা......

*ভালোবাসা* *সম্পর্ক* *কবিতা* *বন্ধন*
ছবি

দস্যু বনহুর: ফটো পোস্ট করেছে

মানুষ মায়ার বন্ধনে জড়ায়, ছিন্ন হবার জন্য।

*বন্ধন*

শফিক ইসলাম: একটি বেশব্লগ লিখেছে





 
অনুষ্ঠিত হয়ে গেল সিঙ্গাপুরস্থ বাংলাদেশী মেরিন প্রকৌশলিদের সবচেয়ে বড় কমিউনিটি ডিএমইএবিএস (DMEABS) এর বার্ষিক পুনর্মিলনী ২০১৫। 
 

সিঙ্গাপুরে বসবাসরত প্রায় ৪০০ প্রবাসি যোগ দেয় এ মিলন মেলায়। চারদিকে সাজ সাজ রব , অন্ন এক উতসবের আমেজ যা বঙ্গদেশীয় ঈদের আমেজের চেয়ে কোন অংশে কম নয়। প্রকাশ করা হয় *বন্ধন* নামে একটি ম্যাগাজিন ও। 
 

সিঙ্গাপুরের ব্যস্ত জীবনে যেখানে কয়েকজন পরিচিতকে একসাথে পাওয়া দুরুহ সেখানে প্রতি বছরের এ দিনটা সত্যি ই এক ভিন্ন মাত্রা যোগ করে মেরিন টেকনোলজির কমিউনিটির প্রতিটি সদ্যেশের মাঝে। এ দুরুহ কাজটি করে যাচ্ছে কার্যকরী কমিটি, সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশী হাইকমিশনার সহ কমিটির সদস্যবৃন্দ ফটোবন্দি।  

এতে বাড়তি আনন্দ যোগ করে বাংলা গান, কৌতুক, হাসি তামাশা বা প্রতিযোগিতা। স্মৃতিচারন, আড্ডায় মুখরিত সন্ধ্যা যেন সবাইকে ভাসিয়ে নিয়ে গেছে JCube (অনুষ্ঠান স্থল) থেকে নারায়াঙ্গঞ্জের মেরিন ইন্সটিটিউট এ। ছোট ছোট ছেলেমেয়েদের উচ্ছাস বড় দের থেকে কোন অংশে কম ছিল না। তাদের প্রান যেন বলে উঠছে - আমরা করব জয় একদিন।  

প্রতি বছর বাংলাদেশী নতুন নতুন মেরিন প্রকৌশলি সিঙ্গাপুরে কর্ম জীবন শুরু করে, নবাগত এ প্রকৌশলিদের কাছে এ অনুষ্ঠান ভিন্ন বার্তা বয়ে নিয়ে আসে। নবীন প্রবীনের সম্মিলনে শুধু আনন্দ ই না কর্ম জীবনের দিকনির্দেষনা ও যে খুজে ফিরে না তা কিন্তু নয়। 

 
বাংলা গানের সুরের মুর্ছনার রেশ কাটতে না কাটতেই পরিবেশিত হয় দেশীয় খাবার।  

সন্ধায় যত এগিয়ে চলে অনুষ্ঠান যেন ততই জমতে থাকে। চলতে থাকে শত শত ক্যেমেরা , গ্রুপ ফটো, সেলফি আরো কত কি। 
 
 
 

 
এর পর লাকি ড্র। লাকি ড্রকে ভিন্ন মাত্রা দিতে বদল হয় উপাস্থকও। পুরষ্কার পাক বা না পাক সবাই যেন আনন্দ পায় সেটাই থাকে যার উদ্দেশেয়। 

আনন্দমুখর একটি সন্ধ্যা এক্সময় সাংগ হয় , মন না চাইলেও সবাইকে আবার সেই এক ঘেয়ে ব্যস্ত জীবনের দিকে পা বাড়াতে হয় । সাথে নিয়ে যায় কিছু মূহূর্ত যা সারা বছর এমন কি বাকি জীবনের জন্য হয়ে থাকবে স্মৃতি । পিছনে পড়ে থাকে JCube এর অডিটরিয়াম ।  

এমন আর একটি সন্ধ্যা পেতে দিন গননা শুরু হয়ে যান এখান থেকেই। প্রবাসে আরোও একটি বছর পার করার অনুপ্রেরনার জন্য কিছুটা শুখ স্মৃতি, একে অপরের খোজ খবর, ভ্রাতৃত্বের বন্ধন টা কিছুটা দৃঢ় হবে এটাই হয়তো কামনা আয়োজকদের। 
আরো লিংক এ

প্রকৌশলীদের মিলনমেলায় আরোও একবারঃ সিঙ্গাপুর কথন



 
অনুষ্ঠিত হয়ে গেল সিঙ্গাপুরস্থ বাংলাদেশী মেরিন প্রকৌশলিদের সবচেয়ে বড় কমিউনিটি ডিএমইএবিএস (DMEABS) এর বার্ষিক পুনর্মিলনী ২০১৫। 
 

সিঙ্গাপুরে বসবাসরত প্রায় ৪০০ প্রবাসি যোগ দেয় এ মিলন মেলায়। চারদিকে সাজ সাজ রব , অন্ন এক উতসবের আমেজ যা বঙ্গদেশীয় ঈদের আমেজের চেয়ে কোন অংশে কম নয়। প্রকাশ করা হয় *বন্ধন* নামে একটি ম্যাগাজিন ও। 
 

সিঙ্গাপুরের ব্যস্ত জীবনে যেখানে কয়েকজন পরিচিতকে একসাথে পাওয়া দুরুহ সেখানে প্রতি বছরের এ দিনটা সত্যি ই এক ভিন্ন মাত্রা যোগ করে মেরিন টেকনোলজির কমিউনিটির প্রতিটি সদ্যেশের মাঝে। এ দুরুহ কাজটি করে যাচ্ছে কার্যকরী কমিটি, সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশী হাইকমিশনার সহ কমিটির সদস্যবৃন্দ ফটোবন্দি।  

এতে বাড়তি আনন্দ যোগ করে বাংলা গান, কৌতুক, হাসি তামাশা বা প্রতিযোগিতা। স্মৃতিচারন, আড্ডায় মুখরিত সন্ধ্যা যেন সবাইকে ভাসিয়ে নিয়ে গেছে JCube (অনুষ্ঠান স্থল) থেকে নারায়াঙ্গঞ্জের মেরিন ইন্সটিটিউট এ। ছোট ছোট ছেলেমেয়েদের উচ্ছাস বড় দের থেকে কোন অংশে কম ছিল না। তাদের প্রান যেন বলে উঠছে - আমরা করব জয় একদিন।  

প্রতি বছর বাংলাদেশী নতুন নতুন মেরিন প্রকৌশলি সিঙ্গাপুরে কর্ম জীবন শুরু করে, নবাগত এ প্রকৌশলিদের কাছে এ অনুষ্ঠান ভিন্ন বার্তা বয়ে নিয়ে আসে। নবীন প্রবীনের সম্মিলনে শুধু আনন্দ ই না কর্ম জীবনের দিকনির্দেষনা ও যে খুজে ফিরে না তা কিন্তু নয়। 

 
বাংলা গানের সুরের মুর্ছনার রেশ কাটতে না কাটতেই পরিবেশিত হয় দেশীয় খাবার।  

সন্ধায় যত এগিয়ে চলে অনুষ্ঠান যেন ততই জমতে থাকে। চলতে থাকে শত শত ক্যেমেরা , গ্রুপ ফটো, সেলফি আরো কত কি। 
 
 
 

 
এর পর লাকি ড্র। লাকি ড্রকে ভিন্ন মাত্রা দিতে বদল হয় উপাস্থকও। পুরষ্কার পাক বা না পাক সবাই যেন আনন্দ পায় সেটাই থাকে যার উদ্দেশেয়। 

আনন্দমুখর একটি সন্ধ্যা এক্সময় সাংগ হয় , মন না চাইলেও সবাইকে আবার সেই এক ঘেয়ে ব্যস্ত জীবনের দিকে পা বাড়াতে হয় । সাথে নিয়ে যায় কিছু মূহূর্ত যা সারা বছর এমন কি বাকি জীবনের জন্য হয়ে থাকবে স্মৃতি । পিছনে পড়ে থাকে JCube এর অডিটরিয়াম ।  

এমন আর একটি সন্ধ্যা পেতে দিন গননা শুরু হয়ে যান এখান থেকেই। প্রবাসে আরোও একটি বছর পার করার অনুপ্রেরনার জন্য কিছুটা শুখ স্মৃতি, একে অপরের খোজ খবর, ভ্রাতৃত্বের বন্ধন টা কিছুটা দৃঢ় হবে এটাই হয়তো কামনা আয়োজকদের। 
আরো লিংক এ 
http://sfortunehunter.blogspot.sg/2015/01/blog-post.html

*সিঙ্গাপুর* *বন্ধন* *বন্ধন*

এ. আর. খান: [বল্টু-আমাকেদিয়েহবেনা] ইস্ক্রৃটাতে টাইট দিসিলাম কাইটা গেসে প্যাঁচ একটুখানি টান দিলে কয় ক্যাঁচ কোঁচ ক্যাঁচ ক্যাঁচ!! হায়রে ইস্ক্রু টাইট দিসিলাম আজীবনের জন্য বুঝলি নারে করলি না তুই একটুখানি গণ্য! বেশি টাইটে প্যাঁচ কাইটা যায় জাইনা কি লাভ বল? টাইট না দিলে চলবে কি আর জীবন নামক কল?? (মনখারাপ)

*বন্ধন*

নাহিয়ান সেজান: [বাঘমামা-পেমেপড়ছি] আমি বেশতোর প্রেমে (হার্ট) বার বার পরতে চাই! (ভেঙ্গানো) একজিবনে যতবার সম্ভব! (লজ্জা) আমারে কেউ বের করে দিলেও যামু না (না) ! (গ্যাংনাম) পাগল প্রেমিকদের মত বার বার আসিব ফিরে তোমার মায়ায় তোমার কাছে হালকা করতে মন! (লালালা)সবাই এত্ত ভালবাসবে আমাকে কল্পনাতিত ছিল! এভাবেই সবাই পাশে থাকবেন যাতে বহুদুর যেতে পারি আপনাদের সাথে! (ভালবাসি)

*বেশতো-পরিবার* *ভালবাসা* *বন্ধন*

ভাবনা শারমীন: রঙের নেশায় উড়ছ তুমি , রঙিন তোমার মন . হয়তো তুমি ভুলে গেছ , অতীতের বন্ধন এখন তোমার অনেক বন্ধু অনেক আপন জন . হয়তো তখন ছিলাম আমি তাদেরি একজন .

*নেশা* *মন* *অতীত* *বন্ধু* *বন্ধন*

পাগলী: সহজে যদিও ভালোবেসে ফেলি সহজে থাকিনা কাছে, পাছে বাঁধা পড়ে যাই। বিস্মিত তুমি যতোবার টানো বন্ধন-সুতো ধ’রে, আমি শুধু যাই দূরে। আমি দূরে যাই- স্বপ্নের চোখে তুমি মেখে নাও ব্যথা-চন্দন চুয়া, সারাটি রাত্রি ভাসো উদাসীন বেদনার বেনোজলে… (নিচেদেখ)

*কবিতা* *স্বপ্ন* *ভালোবাসা* *বন্ধন*

মেঘবালক: আমার মত নগন্য ব্যক্তিকে যারা ফলো করেছে তাদেরকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ। সবাইকে"শুভসকাল''

*শুভসকাল* *কৃতজ্ঞতা* *বন্ধন*

পাগলী: কিছু *সম্পর্ক* ক্ষনস্থায়ী। দু'দিনের ভালো লাগা .... অতঃপর আস্তাকুড়ে ছুড়ে ফেলা অথবা নিজেই হারিয়ে যাওয়া অদৃশ্যে। কিছু সম্পর্ক স্বার্থের মায়াজালে *সুযোগসন্ধানী*, কিছু সম্পর্ক স্বপ্নের মাঝে *লুকোচুরি* খেলা...অনুভুতি নিয়ে যেন সাময়িক *তামাশা* করা।

*সম্পর্ক* *সুযোগসন্ধানী* *লুকোচুরি* *তামাশা* *বন্ধন* *জীবন* *সম্পর্ক* *লুকোচুরি* *তামাশা*
ছবি

আশিকুর রাসেল: ফটো পোস্ট করেছে

বন্ধন...!!

*বন্ধন* *বিয়েরছবি*

শ্রীলা উমা: আজকালকার সম্পর্কের স্থায়িত্ব নাই বললেই চলে l ইচ্ছা হলো সম্পর্ক করলাম ইচ্ছা হলো না করলাম না,আবার ইচ্ছা হলো ফিরেও আসলাম l সোজাকথা হলো,"আরে রিলেশন ভেঙ্গে গেছে তো গেছে,ঝালাই করতে যাবেন কেনো ? অর্জিনালটাই টিকলো না ,সেখানে ঝালাই করে কতক্ষণের গ্যারান্টি ?"

*সম্পর্ক* *প্রেম* *বন্ধন* *ইচ্ছা* *স্থায়িত্ব* *সোজাকথা* *কথাসত্য*

md opu: আমার কাছে সবচেয়ে বড় *বন্ধন* হলো আমার নিজের সাথে! আমি আছি, তাই আমার আসে পাশে সবাই আছে, সবই আছে. আমি যদি না থাকি, তাহলে তো কিছুই থাকবে না. কেউ থাকবে না!

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★