বিবেক

বিবেক নিয়ে কি ভাবছো?

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

এই একটি ছবিই জাগিয়ে তুলতে পারে বিশ্ব বিবেক। ছবিটিতে দেখা যাচ্ছে সিরিয়ায় এক ধ্বংসাত্মক রাসায়নিক গ্যাস হামলায় আহত ছোট বোনকে কোলে নিয়ে অক্সিজেন মাস্ক পড়িয়ে ধীরে ধীরে নিজেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লো বড় বোন

অক্সিজেন মাস্ক ছিল ১টি আর প্রান ছিল ২টি । বোনের চেয়ে সে নিজেই আহত ছিল বেশী ।

আর এটাই হল বর্তমান সিরিয়া, যে জায়গাটা এখন মুসলমানদের লাশের স্তূপ । প্রতিদিন মানুষ মারা যাচ্ছে। মানবতা আজ কোথায়?

কিছু বিকৃত মস্তিষ্কের মুসলমানদের জন্য আজকে এই অবস্থা । আমাদের সবার ধার্মিকের চেয়ে মানবিক হওয়ার প্রয়োজন বেশি বলে মনে হয় আমার।

*বিশ্ব* *বিবেক* *জাগ্রত* *আবেগ* *বোন* *ভালোবাসা* *মাস্ক* *মৃত্যু*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: [বেশবচন-ছন্দাহয়েগেলাম]আল্লাহ মানুষকে বানাইছে মাটি দিয়া , মাটি বানাইছে কি দিয়া ????

*মাটি* *মানুষ* *বাস্তবতা* *প্রশ্ন* *বিবেক*

মারুফ: শিক্ষিত মানুষের অভাব নাই কিন্তু, শিক্ষিত বিবেকের খুবই অভাব............!

*বিবেক*

হাফিজ উল্লাহ: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

আমাদের অবস্থা- টাকার জন্য আমরা বন্ধুত্ব নষ্ট করি, আবেগের জন্য বিবেক কে ত্যাগ করি আর স্বার্থের জন্য পশুতে পরিণত হই l
*স্বার্থ* *আবেগ* *বিবেক*

সাদাত সাদ: একটি বেশব্লগ লিখেছে

একের পর এক শিশু নির্যাতিত হচ্ছে, শিশুদের দিয়ে করানো হচ্ছে ভয়ঙ্কর কিছু কাজ। কিন্তু কেনো?  শিশুদের আবাসস্থল হবার কথা ছিল পাঠশালা কিন্তু সেই শিশুরা হচ্ছে অবহেলিত। এছাড়া শিশু নির্যাতনের দিক থেকে সবার আগে চলে আসে দুটি নাম। নীরব এবং রাজন।
""""
 শিশু রাজন কি অপরাধ করেছিল? কেন তাকে এইভাবে নির্যাতন করে মারা হলো।  আরেক শিশু নীরব কেও মারা হলো  নির্যাতন করে। কিন্তু কেন এভাবে নীরবে চলে যাচ্ছে নীরবদের প্রাণ?  

এর জবাব আমার যেমন জানা নেই, জানা নেই কারোরই।  তবে এর একটা সমাধান হওয়া উচিৎ। সেই সমাধান করতে পারে আমাদের বিবেক। 
*বিবেক* *শিশুনির্যাতন* *মুখোশ* *অপরাধদমন* *আমাদেরবিবেক*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

>>আধুনিকতা মানে কি কোমরের নিচে প্যান্ট পরা?
>>আধুনিকতা মানে কি ছেলেদের বুকের লোম বের করে সবাইকে দেখানো?
>> আধুনিকতা মানে কি মেয়েদের বুকের ওড়না গলায় ঝুলানো?
>>আধুনিকতা মানে কি মেয়েদের সর্ট জামা কাপড় পরিধান করা?
>>আধুনিকতা মানে কি মেয়েদের জিন্স আর আটো- সাটো ড্রেস পরিধান করা?
>> আধুনিকতা মানে কি এমন ড্রেস পরা যেটা দিয়ে আপনার শরীরের গোপন অঙ্গগুলো দেখা যায়?

*আধুনিকতা* *বিবেক* *মেয়ে* *ড্রেস* *ছেলে*
*বিবেক* *মেয়ে* *ড্রেস* *ছেলে*
ছবি

★ছায়াবতী★: ফটো পোস্ট করেছে

.

*বাবা-মা* *ছায়াবতী* *সেরামবচন* *বিবেক* *ব্যবহার*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: অসাধারণ একটা ভিডিও না দেখলে চরম মিস করবেন ।। ভালোবাসা, মানবতা নিয়ে বানানো একতা ভিডিও ।। আপনি কাউকে ভালোবাসবেন সেই ভালোবাসা কোন একসময় আপনি যথাযথ মর্যাদায় ফেরত পাবে ।। ও হ্যা চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে ভূলবেন না প্লীজ ।। https://www.youtube.com/watch?v=pEuX1PW3bJI *ভালোবাসা* *মানবতা* *বিবেক* *ইউটিউব*

*মানবতা* *বিবেক* *ইউটিউব*
ছবি

★ছায়াবতী★: ফটো পোস্ট করেছে

আমরা একটু চাইতে চাই, আমাদের চাওয়া মিলে চেষ্টা করলে মাতৃভূমির দরিদ্র মানুষ গুলো শীতের প্রকোপ থেকে কিছুটা পরিত্রাণ পাবে

(প্লিইইজ)ওদের হক আদায় করুন আর আপনার দ্বায়িত্ব পালন করুন(খুকখুকহাসি) পারস্পারিক সহযোগীতার মাধ্যমে কিছু মানুষ উষ্ণতা পেতে পারে (খুকখুকহাসি) (এদিকেআসো) শামিল হই উষ্ণতা দিতে, শীতবস্ত্র বিতরণ কর্মসূচী আপনার আমার সহায়তা ছাড়া সম্ভব (না) তাই আবারো বলছি প্লিজ এগিয়ে আসুন, কন্ট্রিবিউট করুন(মিশনেআছি)

*শীতার্তদের-জন্য* *এগিয়েআসুন* *শীতবস্ত্র* *বিবেক* *সচেতনতা*
ছবি

★ছায়াবতী★: ফটো পোস্ট করেছে

সময়ত দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে....

শীত কড়া নেড়ে ফেলেছে আপনি কন্ট্রিবিউট করেছেনত?(প্লিইইজ)

*শীতার্তদের-জন্য* *এগিয়েআসুন* *শীতবস্ত্র* *বিবেক* *সচেতনতা*

★ছায়াবতী★: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

স্বার্থ ভুলে অন্যের কষ্ট কে নিজের কষ্ট ভেবে নিপীড়িত মানুষ এর পাশে গিয়ে তাদেরকে সাহায্য করতে পারার নাম ও মানবতা
মানুষ কে মানবতার দৃষ্টি দিয়ে দেখতে পারা, ভালবাসতে , সম্মান করতে , সুখে দুঃখে সাহায্য করতে, সততার সাথে নিরপেক্ষ ভাবে ন্যায় ও কে প্রতিহতকরা- মানবতা কে জাগিয়ে তুলে।মানবতাবোধ,এর আরেক টা রুপ ই হলো স্বেচ্ছাসেবক হওয়া।সেই মানবতার প্রেক্ষিতেই এবার আমরা একটু চাইতে চাই, আমাদের চাওয়া মিলে চেষ্টা করলে মাতৃভূমির দরিদ্র মানুষ গুলো শীতের প্রকোপ থেকে কিছুটা
পরিত্রাণ পাবে, আমাদের সাহায্য পাঠানোর বিস্তারিত --বিকাশ নম্বর: ০১৯১২৫৬২০৭২ (পার্সোনাল) বিকাশ নম্বর: ০১৮২০৫৮২৬৩৬ (পার্সোনাল) ডাচ বাংলা মোবাইল একাউন্ট ০১৬৭৪৫৬৫৮৯৮০ ব্যাংক এ্যাকাউন্ট- Name of the Account: MD. YASEEN KHAN Account No: 105 -101 -70249 Dutch-Bangla Bank Ltd Foreign Exchange Br. Motijheel, Dhaka. হটলাইন নম্বর-০১৯১২৫৬২০৭২
*শীতার্তদের-জন্য* *এগিয়েআসুন* *শীতবস্ত্র* *বিবেক* *সচেতনতা*

★ছায়াবতী★: একটি বেশব্লগ লিখেছে

 সাহায্য নয় দায়িত্ব পালুন করুন
একটি পথশিশু, শুয়ে আছে ফুটপাথে।
ছেলেটি রাস্তার পাশে হাজারো কোলাহলের
মাঝেই দিব্যি ঘুম দিচ্ছে। মাথার নিচে বালিশের কাজ করছে নিজের ছোট্ট হাতটি। আমি তো টানা ৫ মিনিট  হাতের ওপর মাথা রেখে শুতে গেলেই হাত
ব্যাথা করে,ঝিরঝির করে। ও কিভাবে পারে?

এইসব না খেয়ে না পড়ে থাকা পথশিশুগুলি দিনে-রাতে আমাদের সামনে এসে যখন হাত পেতে দাঁড়ায়, কিংবা জামা-কাপড় ধরে টানাটানি করে,ওদেরও নিশ্চয়ই ভালো লাগে না। ভালো লাগে না ওদের ফিরিয়ে দিতেও। কিন্তু, বাস্তবতা হল, এরাই একদিন
খিদের জ্বালা সইতে না পেরে একসময় সমাজের বোঝা থেকে শত্রু হয়ে দাঁড়ায়। এদের এই পরিণতির জন্য আমরা নিজেরাও দায়ী।

কেননা...
আমরা ওদের মানুষ করতে পারিনি।
শীতের আগমনী বার্তা চলে এসেছে, কিন্তু আমরা কি কিছু করেছি তাদের জন্য? আমাদের কি কোনই দায়বদ্ধতা নেই? ওরা ত আমরাই আজকে ওর জায়গায় আমি নিজেও থাকতে পারতাম। শীতের কনকনে কষ্টে যখন রুম হিটারে বসে থাকেন তখন তারা এক টুকরা কাপড়ের অভাবে শীতের সাথে যুদ্ধে রত থাকে। আসুননা এবার একটা চাদর/জ্যাকেট/বাহারি কোরট না কম কিনে ওদের কে গিফট করি। বেশতো তে কত্ত ইউজার সবাই যদি একটু করেও সাহায্য করেন তাহলে অনেক শিশুর একটি শীত একটু ভাল কাটবে।

 আপনাদের নিজেরদের দায়িত্ব ওদের দিকে হাত বাড়িয়ে দেবার। আর বেশি সময় নেই নিজের বিবেক টাকে একটু জাগ্রত করুন। যে যেভাবেই পারবেন কাপড় বা আর্থিকভভাবে সহায়তা করুন। মানুষ কে খুশি করার মত এহেন করম / তৃপ্তি ইহজগতে নেই। আসুন আমরা বেশতো পরিবার এক প্ল্যাটফর্ম থেকে সুবিধা বঞ্চিতদের একটু সুবিধা দেই। মনে রাখবেন ওরাই আমরা। 

মনে রাখবেন একদিন বার্গার না খেলে একদিন মোবাইল রিচার্জ না করলে একদিন বিলাসিতা কম করলে একদম মানুষ সানন্দ্যে থাকতে পারবে।  আমাদের দেশ,আমাদের শিশু আগামির ভবিষ্যৎ,  এদের দেখভাল করার দায়িত্ব আপনার উপরেও বর্তায়। আপনারা  উপরের নিয়মে সাহায্য করতে পারেন। 
সাহায্য নয় দায়িত্ব পালুন করুন
*শীতার্তদের-জন্য* *এগিয়েআসুন* *শীতবস্ত্র* *বিবেক* *সচেতনতা*

বিম্ববতী: নিজেকে এখন মানুষ ভাবতেই ভয় হয়,ভাবতে চাইও না।কীভাবে ভাবব, মানুষ হওয়ার প্রধান ও অন্যতম উপাদান বিবেকই তো নেই আমার মাঝে।আমি শুধু তিনবেলা পেট পুরে খেয়ে বেঁচে আছি।হাত-পা ঠিক আছে, হেঁটেচলে কাজ করে বেড়াই।আশপাশের কোনো কিছু দেখি না, শুনি না। ওগুলো আমাকে কখনো ছুঁয়েও যায় না।ছোঁয়ার প্রশ্নই আসে না http://www.ntvbd.com/opinion/17193/চলুন-বরং-কথা-বলি-কিরণমালা-নিয়ে

*অ-প্রতিবাদ* *মানুষ* *বিবেক* *অপ-প্রতিবাদ*
ছবি

★ছায়াবতী★: ফটো পোস্ট করেছে

মিকু: বিবেক তো "সেহেরী পার্টি" করতে গেসে। নইলে ১৩ বছরের বাচ্চাকে কেউ এইভাবে মারে?! (মনখারাপ)

*বিবেক* *হতাশা* *রাজন*
ছবি

★ছায়াবতী★: ফটো পোস্ট করেছে

আমাদের একটুখানি সহানুভূতিই পারে এই সমস্ত শিশুদের মুখে একটু হাসি ফুটাতে...

আসুন আমরা সবাই মিলে এই পবিত্র ঈদে এই সমস্ত অসহায় শিশুদের পাশে দাঁড়াই.....(প্লিইইজ)(প্লিইইজ)

*মানবিকতা* *বিবেক* *সাহায্য*

★ছায়াবতী★: একটি বেশব্লগ লিখেছে


আরাফাত শাওন, অন্য দশটা ছেলের মত সেও এবার এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছিল । কিন্তু সে এ+ পাইনি । এইবার কমার্স থেকে পরীক্ষা দিয়ে 4.83 পেয়েছিল। কিন্তু বাবা-মায়ের বকা সহ্য না করতে পেরে আত্মহত্যা করেছে।

আত্মহত্যার আগে এই সমাজের মানুষগুলোকে ও দেশের বেবোধ আবাল রাজনীতিবিদদের রাজনীতি সম্পর্কে বিষোদগার করে গিয়েছে। এমনকি ছোট্ট ছেলেটা শিক্ষাব্যবস্থা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে। সবশেষে তার কাছে কারা কারা টাকা পায় তারও একটি হিসাব দিয়ে গেছে।

আমাদের এই দেশে সবকিছুর জন্য ট্রেনিং সেন্টার আছে শুধুমাত্র বাবা-মা হওয়ার কোন ট্রেনিং সেন্টার নেই। ট্রেনিং ছাড়া হাজার হাজার অপদার্থের দল বছর বছর বাবা-মা হয়ে যাচ্ছে। তাদের এতই মান ইজ্জত, এতই সমাজভীতি যে A+ এর জায়গায় 4.83 পেলে সন্মান চলে যায়; পেটের সন্তানের ভালো রেজাল্টের উপরে তাদের সন্মান অর্জন বিসর্জন নির্ভর করে!!

সেইসব আত্মীয় স্বজনদেরও গলায় দড়ি দিয়ে মরা উচিৎ, যারা নিজের পশ্চাতে গু লেগে থাকলেও পরের পশ্চাৎ শুঁকে দুর্গন্ধ নিতেই ভালবাসে.. আশ্চর্যজনক হলেও সত্যি, এইশ্রেণীর পাঁঠাগুলোরও নিজের থেকে পরের সন্তানের রেজাল্টের ভালো খারাপের টেনশন লেগে থাকে..

রাজনীতিগত যেই ব্যাপারটা ছেলেটা তুলে ধরেছে, তার কোন জবাব কি কোন রাজনীতিবিদ দিতে পারবে? সরকারের রাজনৈতিক সুবিধামত পাশের হার বাড়ানো কমানোর ব্যাপারটা কি তারা অস্বীকার করতে পারবে?

আমি আরো জানতে চাই আজকে সেই বাবা মা কি করছে, কি দিয়ে নাশতা করে, কি দিয়ে ভাত খায়; যাদের ঠুনকো সন্মান A+ এর উপর নির্ভর করে?? যাদের চাপে সন্তানকে আত্মহনন করতে হয়, তাদের এখন সন্মানে লাগে না? আত্মীয়স্বজনের লজ্জায় এখনও তারা গলায় দড়ি দেয় নাই কেন?

তারপরও তারা আশার মাত্রা বাড়িয়েই যাবে, তারপরও তারা কাগজে কলমে শিক্ষার মিথ্যা হার দেখিয়ে দেশের উন্নতি দেখিয়েই যাবে। তারপরও তারা পেছনে লেগেই থাকবে খোঁচা মারার জন্য, তারপরও তারা বাসে আগুন দিয়ে হরতাল করবে, তারপরও তারা প্রতি বছরেই আত্মহত্যা করবে। তারপরও তারা.. ..


যা লেখা আছে এই নোটে --------

আমি জানি না আজ আমি ঠিক কি ভুল কাজ করছি তবে এখন এটা ছাড়া আমার আর কোন উপায় ছিল না। আসলে ছেলে হয়ে এ পরিবারে জন্ম গ্রহণ করাটাই আমার দূরভাগ্য। তা না হলে ছোট থেকে এ পর্যন্ত মেয়ের মতো সব সময় পরিবারের কাজ করতেই হয়েছে। আর কখনো পরিবার থেকে আমাকে খেলাধুলার সময় বা খেলতে দেওয়া হয়নি। আর আমিও মেয়ের মতো সব সময় মায়ের আঁচলের নিচেই ছিলাম।

আর আমি আদো জানি না যে আমি কি? এই পরিবারের বা আমার মা-বাবার সন্তান, তা না হলে সব সময় এ রকম শাসন আর কড়া শাসনের উপর আমাকে রাখা হয়েছে। কোন বাবা-মা তার সন্তানকে পড়া লিখার খরচে খোটা দেয় না। কিন্তু আমার মা বাবা সব সময় আমাকে বলে তোর জন্য মাসে মাসে হাজার হাজার টাকা খরচ করছি। এভাবেই প্রতি নয়ত বকাঝযকা করা হয়। সব সময় বাবার থেকে শুধু খারাপ ভাষার গালি আর গালি শুনতে হয়। যা আমার একটু বালো লাগতো না। কিন্তু আমি এতো দিন সহ্য করে ছিলাম। কারণ কোন কিছু করার কথা ভাবলে মনে হতো এ দুনিয়ায় তো বাবা-মায়ের আদর ভালোবাসা পেলাম না। পেলাম না শুখ শান্তি। আসলে মানুষ বলে যে ঠিক টাকা পয়সা ও ধন সম্পদ মানুষকে সুখী করতে পারে না। আর যদি আমি নিজের হাতে আত্মহত্যা করি তা হলে মরর পরও শান্তি পাবো না। আর মরার পর আমাকে জাহান্নামের আগুনে জ্বলতে হতো। তাই এখন আমার আর এসব কিছু সহ্য হচ্ছে না। …

আমাদের ছাত্রদের কি দোষ বলুন আমরা তো আমাদের মতো শ্রেষ্টা (চেষ্টা) করে যাই। তবে আমাদের দেশের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড গুলো কারণে আমাদের দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার এমন হাল। এর আগের বছর সরকার তার নিজের স্বার্থের জন্য শিক্ষার হার বাড়িয়ে দিয়েছে। আর এবার হরতাল-অবরোধ দেয়ার ফলে বর্তমান সরকার বিরোধী দলিয় সরকারকে গালি দেওয়ার জন্য পাশের হার কমিয়ে দিয়েছে, যাতে দেশে ফেল এর হার বেড়েছে। বলুন আমরা আর কি ভাবে ভালো রেজাল্ট করতে পারি!!!???

আমাদের মা-বাবা চায় আমরা ভালো রেজাল্ট করি। কিন্তু দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার দিকে ও তো দেখতে হবে। আমার বাবা ও আমার আত্ত্বীয়-স্বজন আমার এ রেজাল্ট (৪.৮৩) এর উপর খুশিনা। সবাই আমাকে বকাবকি করছে। কিন্তু আমার স্কুলের মধ্যে ২য় স্থান পাওয়ার পরও কিন্তু তারা অন্যদের রেজাল্ট এর কথা দেখে না, ভাবে না। তাদের কথা আমাকে A+ পেতেই হবে। A+ কি গাছে ধরে যে আমি পেড়ে আনবো। আরো অনেক কথা যা মনের ভিতর জমা করে রেখেছি। কিন্তু বললে শেষ হবে না। থাক। যদিও আমি মারা যাই … তা হলে সবাই আমাকে ক্ষমা করে দিবেন। আর যদিও বেঁচে যাই….!!!

আমার কিছু ঋণ রয়েছে
DJ Flower Tuch= সূর্য ৯০০
আমার বন্ধু শুভ= ১০০ (টাকা)
ইসমাইল= ২০০/পূবালী ইলেকট্রনিক শহীদ মার্কেট

[লেখকের নিজ হাতে লেখা বানান অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে]

- See more at: http://www.dailynayadiganta.com/detail/news/27499#sthash.UFcPw6Ej.dpuf
*সচেতনতা* *বিবেক*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★