বিশ্বকাপ ২০১৪

বিশ্বকাপ২০১৪ নিয়ে কি ভাবছো?

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

“জ্যোতিষবিদ্যা বলছে জিতবে বাংলাদেশ”
কে জিতবে ম্যাচ? বাংলাদেশ নাকি ভারত। এই আলোচনা এখন ক্রিকেট বিশ্বের সবখানে। চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ।

চিরন্তন সত্য, বিধাতাই ভবিষ্যত নির্ধারণ করেন। একমাত্র তিনিই বলতে পারেন কাল কী হবে। তবে পৃথিবীতে অনেকেই জ্যোতিষে বিশ্বাস করেন; মানেন ভাগ্যরেখা বলে কিছু আছে। তাদের জন্য সুখবর হলো আগামীকালের কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে জয় পাবে বাংলাদেশ।

এরইমধ্যে শোনা গেছে ভারতীয়রা দুই বিখ্যাত ধর্মগুরুর দ্বারস্থ হয়েছেন খেলার আগাম ফল জানতে।

গুরুরা শিষ্যদের শুনিয়ে দিয়েছেন, ‘ভারত ভালো খেলবে। তবে সেমিফাইনালে যাবে বাংলাদেশ।’ এই যখন অবস্থা তখন কথা বলা হয় দেশবরেণ্য জ্যোতিষ ও হস্তরেখাবিদ ড. আনিসুল হকের সাথে। দেশপ্রেমে বলীয়ান এই মানুষটি প্রথমে বাংলাদেশের জয় নিয়ে কোন ভাগ্য পরীক্ষায় যেতে রাজি হননি। তবে পেশাদারীত্বের জায়গা থেকে হিসেব নিকেশ করে জানালেন, জয় এবার টাইগারদের।

আনিসুল হক বলেন, ‘আমি একজন বাংলাদেশি। ভারতের সাথে আমার দল জিতবে এটাই আমার প্রার্থনা। কোনরকম হিসেব নিকেশে আমি যেতে রাজি নই। তারপরও যদি নিরপেক্ষ দৃষ্টিতে জানতে চান তবে জেনে রাখুন জ্যোতিষবিদ্যাও এবার টাইগারদের পক্ষে।

‘বাংলাদেশ’ শব্দটির মান দাঁড়ায় ৫। আর ইন্ডিয়া শব্দটির মান দাঁড়ায় ৩। ৫ কে জ্যোতিষ শাস্ত্রে বলা হয় বুধ সংখ্যা। এটি শিশু সংখ্যা নামেও পরিচিত। এই সংখ্যার নিয়তি ভালো। আরেকটি ব্যাপার হলো খেলা হবে ১৯ তারিখ। ১৯ এর ১ আর ৯ যোগ করলে হয় ১০। ১০ কে সমান ভাগে ভাগ করলে পাওয়া যায় ৫।

BD Funny Pick
কোথাও ৩ এর দেখা নেই আপাতত (হা হা হা)! সবদিক বিবেচনা করে তাই মনে হচ্ছে সেমিফাইনালে বাংলাদেশ। আমি মাশরাফিদের অগ্রীম শুভেচ্ছা জানিয়ে রাখলাম। প্রসঙ্গত, ড. হক এশিয়ান অ্যাস্ট্রোলজার্স কংগ্রেসের চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ সুফি মজলিসের সভাপতি। গত বছরের অক্টোবরে চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত এশিয়ান অ্যাস্ট্রোলজার্স কনফারেন্সের উদ্বোধনীতে ভারতের সেন্টার অব অ্যাস্ট্রলজিক্যাল স্ট্যাডি অ্যান্ড রিসার্স ফর পাবলিক ওয়েলফেয়ার বাংলাদেশের স্বনামখ্যাত জ্যোতিষী ও হস্তরেখাবিদ ড. মুহম্মদ আনিসুল হককে `মহর্ষি` উপাধিতে ভূষিত করে।
*বাংলাদেশ* *বাংলাদেশ-না-ভারত* *বিশ্বকাপ২০১৪* *ক্রিকেটরঙ্গ*
*বাংলাদেশ-না-ভারত* *বিশ্বকাপ২০১৪* *ক্রিকেটরঙ্গ*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

গতকাল শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশ উঠে গেছে ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে। এই জয়ে আনন্দে ভাসছে সারাদেশ। আর বাংলাদেশের এই জয় শিরোনাম হয়েছে আন্তর্জাতিক পত্রপত্রিকায়। আর এইসকল পত্রপত্রিকার শিরোনাম নিয়ে আজকের এই ছবি ব্লগ।

বিবিসি


সিএনএন


দ্যা গার্ডিয়ান - ইউকে


দ্যা এক্সপ্রেস - ইউকে


দ্যা ডেইলি স্টার - ইউকে


দ্যা ইন্ডিপেন্ডেন্ট - ইউকে


দ্যা ডেইলি মেইল - ইউকে


দ্যা ডেইলি মিরর


ডেইলি টেলিগ্রাফ - ইউকে


দ্যা টাইমস - ইউকে


ইএসপিএন ক্রিকইনফো


হেরাল্ড সান - অস্ট্রেলিয়া


দ্যা অস্ট্রেলিয়ান - অস্ট্রেলিয়া


দ্যা নিউ ডেইলি - অস্ট্রেলিয়া


আল জাজিরা


দ্যা রেপোর্ট


নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড - নিউজিল্যান্ড


হিন্দুস্থান টাইমস - ভারত


ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস - ভারত


দ্যা হিন্দু - ভারত


টাইমস অফ ইন্ডিয়া - ভারত


আনন্দবাজার - ভারত


আচ্ছা আমাদের দুষ্ট দোস্ত পাকি নিউজ পেপার কি বলে? জামশেদ, রমিজ এদের আংকেলেরা কি বলেঃ

দ্যা ডন


শেষে সবাই একটা কথাই বলি, "সাবাশ বাংলাদেশ - এগিয়ে যাও বাঘের গর্জন তুলে"
*বাংলাদেশ* *মিডিয়া* *বিশ্বমিডিয়া* *বিশ্বকাপ২০১৪* *ক্রিকেটরঙ্গ*
*মিডিয়া* *বিশ্বমিডিয়া* *বিশ্বকাপ২০১৪* *ক্রিকেটরঙ্গ* *ক্রিকেটবিশ্বকাপ* *বিশ্বকাপ২০১৫* *বিশ্বকাপ-মিশন* *টাইগারস* *কোয়ার্টারফাইনাল* *খবর* *ক্রিকেট*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

৫/৫
প্রতিটা ওয়ার্ল্ড কাপ বা ট্যুরের আগে একটা করে "হ্যাপি টাইপ" কেইস চাই.................. যার বিরুদ্ধে করবে সেই প্লেয়ার "ফাটাইয়া" খেলবে.........!
*রুবেল* *ওয়ার্ল্ডকাপ* *বিশ্বকাপ২০১৪* *ক্রিকেটরঙ্গ* *বাংলাদেশ*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

৪/৫
রুবেলের উপর জতো মামলা আছে হ্যাপীরে নিয়া তার সবগুলো মামলা "" তামিমের "" উপর ফরওয়ার্ড ( Forward ) করা হোক।
*তামিম* *রুবেল* *বিশ্বকাপ২০১৪* *ক্রিকেটরঙ্গ*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

কয়েক বছর আগে যুক্তরাষ্ট্রে এক নদীর পাশের পার্কের রাস্তা ধরে ভোরে দৌড়াচ্ছিলাম। ভোর বলতে সুবেহ সাদিকের সময়ে। হঠাৎ পেছন থেকে ঠকঠক এক অস্বাভাবিক শব্দে পেছনে ফিরে তাকালাম। অবাক বিস্ময়ে দেখলাম এক তরুন, যার একটি পা কাঠের, দৌড়াচ্ছে এবং আমি তাকিয়ে থাকতে থাকতে আমাকে অতিক্রম করে চলে গেলো। সেদিন আমি অত্যন্ত দৃঢ়ভাবে জানলাম মানুষের জন্য কোন কিছুই অসম্ভব নয়।

মাশরাফি- সাত সাতটিবার চিকিৎসকের কাঁচির নীচে যাকে শুতে হয়েছে, এখনো যাকে সকালে হাঁটু ভাঁজ করতে পরিশ্রম করতে হয়, এখনো যে নিজে সিরিন্জ্ঞ দিয়ে নিজের হাঁটুতে জমে থাকা পানি বের করে, সে এখনো লড়াই ছেড়ে দেয়নি। হাসপাতালে শুয়ে থাকা ছোট্ট ছেলেটির মুখ তাকে যুদ্ধক্ষেত্রে বিচলিত করতে পারে নি। খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে দল পরিচালনা করেছে, তবুও বোলিং এ কোন ছাড় দেয়নি।

এই দূর্ধর্ষ যোদ্ধা যদি অসাধারন একটা জয়কে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য উৎসর্গ না করে তাহলে কে করবে?


সৌম্য আর শক্তির এক অসাধারন প্রতীক আমাদের মাশরাফি।
*মাশরাফি* *বিশ্বকাপ* *ক্রিকেটরঙ্গ* *বিশ্বকাপ২০১৪*
*বিশ্বকাপ* *ক্রিকেটরঙ্গ* *বিশ্বকাপ২০১৪* *বাংলাদেশ-না-ইংল্যান্ড*

খেলার খবর: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আফগানদের দেওয়া মাত্র ১৮৭ রানের মামুলি টার্গেটকে দাপটের সাথে মোকাবিলা করে  ৬ উকেটের সহজ জয় তুলে নিল নিউজিল্যান্ড। আজকের এই জয়ের মাধ্যমে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান অনেকটাই নিশ্চিত করে ফেলেছে ব্রেন্ডন ম্যাককালামের দল।

আফগানদের দেওয়া সহজ লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ম্যাককালাম যেভাবে শুরু করেছিলেন, তাতে কিউইদের ৩৫ ওভার লাগবে বলে মনে হচ্ছিল না। তবে দলীয় ৫৩ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ৪২ রান করে ষষ্ঠ ওভারেই আফগান অধিনায়কের স্পিনে ব্যাট প্যাড হয়ে বোল্ড হয়ে ফিরতে হয় কিউই অধিনায়ককে।

এরপর দ্বিতীয় উইকেট জুটিতেই দলের রান একশ পার করে ফেলেন মার্টিন গাফটিল ও কেন উইলিয়ামসন।৩৩ রান করে উইলিয়ামসন ফিরলেও ফিফটি করেই মাঠ ছেড়েছেন গাফটিল।৬৯ বলে অর্ধশতকের কিছুক্ষণ পরই অবশ্য রান আউটে কাটা  পড়েছেন কিউই ওপেনার। তবে এরপর আর জয় তুলতে নূন্যতম চাপ নিতে হয়নি টেলর-অ্যান্ডারসনদের।

এর আগে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নাজিবুল্লাহ’র ৫৬ আর শেনওয়ারির ৫৪ রানের উপর ভর করে ১৮৬ রান সংগ্রহ করে আফগানিস্তান। নিউজিল্যান্ডের হয়ে ভেট্টোরি ৪টি ও বোল্ট নেন ৩টি উইকেট। ম্যান অব দা ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন ড্যানিয়েল ভেট্টোরি।

*ক্রিকেটবিশ্বকাপ* *বিশ্বকাপক্রিকেট* *খেলাধুলা* *ক্রিকেট* *বিশ্বকাপ২০১৪* *বিশ্বকাপ*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: [ক্রিকেটরঙ্গ-হয়আমরাজিতুমনয়তোরাজিতবি]আইজকা রাত জাইগা খেলা দেখুম !!!!!!!!!!!!!!!!! হু হা হা হা !!!!!!!!!!!!!!!! পারলে ঠেকা ...... আজকে একটাই কথা হইবো """ইনশাহ-আল্লাহ "" আমরা জিতুম !!! কি জীতবো না ...। কোপাস না ক্যারে শামসু কোপাস ন্যা ক্যারে !!!!!!!!!!!!!!!!! কুন কথা হবে না !!!! *বাংলাদেশ-না-স্কটল্যান্ড* *বিশ্বকাপ২০১৪* *ক্রিকেটরঙ্গ*

*বিশ্বকাপ২০১৪* *ক্রিকেটরঙ্গ*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে শুরু হওয়া এবারের বিশ্বকাপ ক্রিকেটে নিজেদের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আগামীকাল বৃহস্পতিবার স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে অমাঠে নামছে বাংলাদেশ। অবশ্য বিশ্বকাপ ও স্কটল্যান্ড– শব্দ দুটো পাশাপাশি উচ্চারিত হলেই স্মৃতিকাতর হয়ে পড়ার কথা বাংলাদেশি ক্রিকেট সমর্থকদের। এ স্কটল্যান্ডের বিপক্ষেই ১৯৯৯ সালে নিজেদের বিশ্বকাপ ইতিহাসের ১ম জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। সে সুখস্মৃতি ফিরিয়ে আনতে আগামীকাল বাংলাদেশ সময় ভোর ৪টা থেকে শুরু হওয়া ম্যাচে চলতি বিশ্বকাপে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল মুখোমুখি হবে স্কটল্যান্ডের। নিউজিল্যান্ডের নেলসন শহরে স্যাক্সটন ওভাল মাঠে অনুষ্ঠিত হবে এই ম্যাচ।
এদিকে খেলাটা কাগজে কলমে আগামীকাল বৃহস্পতিবার হলেও বুধবার থেকেই আসলে মানসিক প্রস্তুতি শুরু হয়ে যাওয়ার কথা বাংলাদেশের; কারণ রাত পোহানোর আগেই যে একটা ইনিংস প্রায় শেষ হতে বসবে! দু’দলে ক্রিকেটীয় মানের বিচারে বাংলাদেশ পরিষ্কার এগিয়েই আছে। বাংলাদেশ টেস্ট খেলুড়ে দেশ; আর স্কটল্যান্ড এখনও টেস্ট খেলুড়ে দেশের বিপক্ষে কখনো জিততেই পারেনি। দু’দলের এর আগে ওয়ানডে ক্রিকেটে চার বার দেখা হয়েছে। এর মধ্যে একটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছে এবং বাকি ৩টিই বাংলাদেশ জিতেছে। অবশ্য দলটি বাংলাদেশকে দু দলের একমাত্র টি-টোয়েন্টি লড়াইয়ে হারানোর গৌরব করতে পারে।
বাংলাদেশের জন্য এ ম্যাচটা বিশেষ তাত্পর্যপূর্ণ এ কারণে যে, কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার আরেকটি ধাপ হয়ে উঠতে পারে এ ম্যাচের জয়টি। যদিও হিসাব বলছে, এ ম্যাচে হারলেও বাংলাদেশের খুব ক্ষতি-বৃদ্ধি হবে না। কারণ বাংলাদেশকে কোয়ার্টার ফাইনালে যেতে হলে হয় ইংল্যান্ডকে হারাতে হবে, নতুবা স্কটল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড দু’দলকেই হারাতে হবে। ফলে এখানে পরাজয় এলেও সুযোগ থেকে যাবে বাংলাদেশের। কিন্তু দলের সহঅধিনায়ক ও সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান পরিষ্কার বললেন, তারা এসব সমীকরণ নিয়ে ভাবছেন না। তারা পরিষ্কার ম্যাচ জয় চান। বাকি ৩টি ম্যাচের সম্ভব হলে সব ম্যাচ জিতেই কোয়ার্টার ফাইনালে যেতে চায় বাংলাদেশ।
স্কটল্যান্ডের সামনে এমন কোয়ার্টার ফাইনালের হাতছানি না থাকলেও দলটির অধিনায়ক প্রিস্টন মোমসেন বলছেন, তারাও একটা জয়ের স্বপ্ন দেখছেন। নেলসনের স্যাক্সটন ওভাল নিয়ে যে খবরা খবর জানা যাচ্ছে, তাতে এখানে স্কটল্যান্ডের স্বপ্ন দেখা একটু কঠিন হবে। কারণ বিশ্বকাপের সবচেয়ে ছোট এ ভেন্যুটি তুলনামূলক স্পিন সহায়ক বলে পরিচিত। তবে সমস্যা হলো- এখানে সকালের দিকে বেশ লম্বা সময় পর্যন্ত শিশির থাকে। ফলে আগে ফিল্ডিং করতে হলে বাংলাদেশের স্পিনারদের বল গ্রিপ করতে সমস্যা হওয়ার কথা।
পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে স্পিন সহায়ক উইকেট অনুমান করে দলে একটি পরিবর্তন আসবে বলেই মনে করা হচ্ছে। তাই বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলামের বিশ্বকাপ শুরু হয়ে যেতে পারে আগামীকাল; বাদ পড়তে পারেন রুবেল বা তাসকিন। আরেকটি জোর গুঞ্জন আছে যে, বাদ পড়তে পারেন তামিম ইকবাল বা এনামুল হক বিজয়ের যে কোন একজন। সে ক্ষেত্রে সৌম্য সরকারকে ওপেনিংয়ে পাঠিয়ে নাসির হোসেনকে দলে ঢোকানোর বিষয়ে চিন্তা-ভাবনারও আভাস পাওয়া গেছে।
*বাংলাদেশ* *বিশ্বকাপ২০১৪* *ক্রিকেট*
*বিশ্বকাপ২০১৪*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে



রাজনৈতিক অস্থিরতার মধ্যে বাংলাদেশের মানুষের এই মুহূর্তে একটাই আনন্দের জায়গা আর সেটা হলো ক্রিকেট। আর এই ক্রিকেটে আমরা আজ যাদের জন্য গর্বিত তারা হলেন মুশফিক-সাকিব জুটি। তারা সম্মান এনে দিয়েছে আমাদের জন্য।


আফগানিস্তানের বিপক্ষে দলের জয়ের মূল অনুষঙ্গ হয়েছিলেন তাঁরা। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গতকালকের ম্যাচে এই দুজনই আবারও দৃশ্যপটে আবির্ভূত হয়ে মান বাঁচালেন দলের। বাংলাদেশ দলের সেরা দুই তারকার স্বীকৃতি তাঁরা অনেক আগেই পেয়ে গেছেন। অনেকেই তাঁদের দুজনকে বলছেন বাংলাদেশের ব্যাটিং স্তম্ভ। সাকিব আল হাসান আর মুশফিকুর রহিম কি জানেন, দেশের জার্সি গায়ে ব্যাটিং জুটি গড়ে তাঁরা দুজন ইতিমধ্যেই নিজেদের নিয়ে গেছেন অন্য উচ্চতায়? ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসের সেরা ১০০ ব্যাটিং জুটির তালিকায় আছেন আমাদের সাকিব-মুশফিক। ৪৯টি ম্যাচে জুটি গড়ে এঁদের রেকর্ডটা কিন্তু রীতিমতো ঈর্ষা করার মতোই। 

দুজনেরই ওয়ানডে অভিষেক হয়েছিল একই দিনে। ২০০৬ সালের ৬ আগস্ট। বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজে হারারেতে অনুষ্ঠিত শেষ ওয়ানডে ম্যাচটিতে। এর আগেই সিরিজ হেরে যাওয়ায় তরুণ সাকিব, মুশফিককে একটু পরখ করে নেওয়ার সাধ জাগল বাংলাদেশের তৎকালীন অধিনায়ক হাবিবুল বাশারের। হাবিবুলের ইচ্ছার প্রতিদান সেদিন সাকিব-মুশফিক দিয়েছিলেন বেশ ভালোভাবেই। তাই তো তাঁদের আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। প্রতিভার গুণেই তাঁরা নিজেদের বসিয়েছেন দেশের সেরা ক্রিকেটারদের তালিকায়। 

সাকিব-মুশফিকের খেলা ওয়ানডে ম্যাচের সংখ্যাও প্রায় একই। মাত্র একটি ম্যাচের এদিক-ওদিক দুজনের খেলা ম্যাচের হিসাবে। সাকিব খেলেছেন ১৪৩টি ওয়ানডে, মুশফিক খেলেছেন ১৪২টি। ৪৯টি ম্যাচে এই দুজনের ব্যাটিং যুগলবন্দী ৩৯.৭৫ গড়ে বাংলাদেশকে উপহার দিয়েছে ১৭৮৯ রান। এই দুজনের মধ্যে গড়ে ওঠা শতরানের জুটি আছে চারটি, অর্ধশত বা তদূর্ধ্ব জুটি আছে আটটি। ১৪৮ রানের একটি রেকর্ড জুটিও এঁরা গড়েছেন কেবল গত বছরই। 

ওয়ানডে ক্রিকেটে নিজেদের সবচেয়ে বেশি জুটি গড়েছেন শচীন টেন্ডুলকার ও সৌরভ গাঙ্গুলি। ১৭৬টি ম্যাচে জুটি গড়ে এই দুই ক্রিকেট-কিংবদন্তি ভারতকে উপহার দিয়েছেন ৮২২৭ রান। শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারা ও মাহেলা জয়াবর্ধনে ১৪৮ ইনিংসে করেছেন ৫৮৯৯ রান। সাকিব-মুশফিক আসলেই নিজেদের অন্য উচ্চতাতেই নিয়ে চলেছেন। 

সাকিব-মুশফিকের শেষ সাতটি জুটির গল্পগুলোও তেমন কিছুই নির্দেশ করে। সর্বশেষ সাতটি ইনিংসে আছে দুটি শতরানের জুটি। অর্ধশত রানের জুটি আছে চারটি। একটি জুটি শেষ হয়েছে পঞ্চাশ থেকে মাত্র তিন রান দূরে থেকে। এঁরা দুজন যেকোনো বিচারেই বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের প্রতীক হয়ে উঠছেন—এ দেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য সুখের বিষয় আসলে এটিই। 

সব শেষে বলতে চাই বাংলাদেশে ক্রিকেটকে উপলক্ষ করে রাজনৈতিক শান্তি ফিরে আসুক। আবার দেশের মানুষের মুখে হাসি ফুটুক।
*বাংলাদেশ* *ক্রিকেট* *বিশ্বকাপ২০১৪* *সাকিব-মুশফিক*  
*ক্রিকেট* *বিশ্বকাপ২০১৪* *সাকিব-মুশফিক* *সাকিব* *মুশফিক* *ক্রিকেটরেকর্ড*

সুমি রহমান: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

অপরাজিত আর্জেন্টিনা ফাইনালে: জিততে পারবে তো?
গ্রুপ পর্ব: ১৫ জুন, রিও দে জেনেইরো, আর্জেন্টিনা ২ : ১ বসনিয়া-হার্জেগোভিনা ২১ জুন, বেলো হরিজন্তে, আর্জেন্টিনা ১ : ০ ইরান ২৫ জুন, পোর্তো আলেগ্রে, আর্জেন্টিনা ৩ : ২ নাইজেরিয়া দ্বিতীয় রাউন্ড: ১ জুলাই, সাও পাওলো, আর্জেন্টিনা ১ : ০ সুইজারল্যান্ড
কোয়ার্টার-ফাইনাল: ৫ জুলাই, ব্রাজিলিয়া, আর্জেন্টিনা ১ : ০ বেলজিয়াম সেমি-ফাইনাল: ৯ জুলাই, সাও পাওলো, আর্জেন্টিনা ০ : ০ নেদারল্যান্ডস (টাইব্রেকারে আর্জেন্টিনা ৪-২ গোলে জয়ী)
*বিশ্বকাপ২০১৪*

কালো মনের মানুষ: এইবার ওয়ার্ল্ডকাপ মনে হয় ইতিহাসের সবচাইতে কঠিন আর unpredictable ওয়ার্ল্ডকাপ ! আগেভাগে কিসু কইতে চাইনা তাও আমার বিশ্বাস কলম্বিয়া ,চিলির মত এতটা শক্তিশালী প্রতিপক্ষ হিসেবে দেখা দিবেনা (চিন্তাকরি) তাও রুদ্রিগেজরে নিয়ে একটু টেনশনে আসি (ব্যাপকটেনশনেআসি৩)

*বিশ্বকাপ২০১৪* *ব্রাজিল*

কালো মনের মানুষ: চিলি এমনিতেই শক্তিশালী একটা দল এর মধ্যে রেফারি শুরু করসে তার ভুল সিদ্ধান্ত নেয়া ! অন্যগুলার কথা বাদ দিলাম কেউ কি দেখসেন দানি আলভেজের (হলুদকার্ড) খাওয়াটা টা ? পিছন থেকে ওরে ধাক্কা দিয়ে উল্টে পরসে আর কার্ড খাইসে আরেকজন (ছেড়েদেশয়তান)

*বাজেসিদ্ধান্ত* *বিশ্বকাপ২০১৪*

কালো মনের মানুষ: গতকাল ব্রাজিলের খেলায় কিন্তু ২টা টার্নিং মোমেন্ট ছিল ১মটা হইলো চিলির গোল ,যেইটা পুরোটাই ডিফেন্সের ভুলের কারণে নাহলে এরকম শট কখনো গোল হয়না ২য় হইলো হাল্কের গোল ,বলটা কিন্তু হাত না খেয়াল করলে দেখবেন হাত আর কাধের সন্ধিস্থলে লাগসিলো যাইহোক,অনেক কষ্ট হইলেও ব্রাজিল জিতসে এতেই খুসি (খুশী২)

*বিশ্বকাপ২০১৪* *ব্রাজিল*

কালো মনের মানুষ: এইবারের সব অচেনা দল গুলাই চ্যাম্পিয়নদের হটিয়ে সেকেন্ড রাউন্ডে উঠে গেল যাদের কথা আমরা কল্পনাও করতে পারিনাই | তবে,আমার মনে হয়কি যেহেতু প্রত্যাশা পূরণ হইসে তাই এই রাউন্ডেই সবাই খেলা ছেড়ে দিবে (চিন্তাকরি)এরফলে অবস্য বাদবাকি চ্যাম্পিয়নদের জিততে সুবিধা হইতে পারে (খুশী২)

*বেশতোটিয়া* *ফিফাসেকেন্ডরাউন্ড* *বিশ্বকাপ২০১৪*

মেঘবালক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

‘এফ’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয়ে দ্বিতীয় পর্বে উঠলো আর্জেন্টিনা । বুধবারের ম্যাচে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ৩-২ গোলের ব্যবধানে নিশ্চিত করে আর্জেন্টিনা তাদের জয় । অধিনায়ক লিওনেল মেসি করেন জোড়া গোল । খেলা শুরুর তিন মিনিটের মধ্যে নিজের যাদুতে মেসি করেন প্রথম গোল । এক মিনিটের ব্যবধানে নাইজেরিয়ার মুসা গোল করে সমতা আনে ।

প্রথমার্ধের খেলা শেষ হবার কিছুক্ষণ আগে (৪৫+১’) মিনিটে আরেকটি অসাধারণ ফ্রি কিক করে মেসি দলকে এগিয়ে দেন । দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরু হওয়া মাত্রই মুসা (৪৭’) আরেকটি গোল করে নাইজেরিয়াকে খেলাতে সমতা এনে দেন । ফলে হ্যাটট্রিকের মুখোমুখি হন মেসি ও মুসা দু’জনেই । ৫৮ মিনিটে রোহোর করা ক্রস লক্ষ্য করলে মেসি হয়তো পেতেও পারতেন হ্যাটট্রিক ।

জোড়া গলে দলকে এগিয়ে নেবার চেষ্টা করলেও তখনো জয় নিশ্চিত করতে পারেননি মেসি । শেষ পর্যন্ত আর্জেন্টিনার পক্ষে জয়সূচক তৃতীয় গোলটি করেন রোহো (৫০’) । আর্জেন্টিনা ৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে । এ ম্যাচে পরাজিত হলেও ৪ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় পর্বে উঠেছে নাইজেরিয়া । এ গ্রুপেরই ইরান বনাম বসনিয়ার খেলাতে ৩-১ গোলে জিতেছে বসনিয়া আজকে ।

--টিবিটি স্পোর্টস ডেস্ক
*বিশ্বকাপরেকর্ড* *বিশ্বকাপ২০১৪* *ফিফাবিশ্বকাপ* *মেসি* *আর্জেন্টিনা*
সাক্ষী

The তানভীর স্বপ্ন: একটি ঘটনা জানাচ্ছে

*বিশ্বকাপ২০১৪* এর শত তম গোলটি করার গৌরব অর্জন করলেন প্রথমবারের মত *ফিফাবিশ্বকাপ* খেলতে নামা ব্রাজিলিয়ান তারকা *নেয়মার*।
*বিশ্বকাপরেকর্ড* *বিশ্বকাপ২০১৪* *ফিফাবিশ্বকাপ*

কালো মনের মানুষ: এবারে ব্রাজিল আর্জেন্টিনা দল এমন কম্বিনেশনে পরেছে তাতে ভাগ্য ভালো আর সব কিছু ঠিকঠাকমত থাকলে তারা হয়ত এবার ফাইনাল খেলবে (খুশী২) তখন দেখা যাইবে এবারে কোন দল শ্রেষ্ট (খুশী২) এরপর থেকে আশা করি বাচ্চা-পোলাপানের মত কেউ মারপিট করবেন না (শয়তানিহাসি)

*বিশ্বকাপ২০১৪*
ছবি

এইচ,এম,মাসউদুল আলম ফয়সাল: ফটো পোস্ট করেছে

World Cup 2014 Mascots

*ফিফাবিশ্বকাপ* *বিশ্বকাপ২০১৪*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★