ব্রেসলেট

ব্রেসলেট নিয়ে কি ভাবছো?

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

ফ্যাশনে চুড়ির রিনিঝিনি ছন্দ এখনো শেষ হয়নি। একটি সময় ছিল যখন মেয়েরা দুহাত ভরে চুড়ি পরতেন। কিন্তু বর্তমানে অনেকগুলো চুড়ির বদলে একটি দুটি চুড়ি পরার প্রবণতাই বেশি। সময়ের সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে চুড়ির আদলও অনেকবার ওলটপালট হয়েছে। বর্তমানে মেয়েদের মধ্যে চুড়ি পরার প্রবণতা তেমন একটা দেখা যায় না। আর সে জায়গাটা অনেকটাই দখল করেছে ব্রেসলেট। চলুন বেষ্ট ফ্যাশন কোন কোন ব্রেসলেটে হবে দেখে নেই।

চুড়ির বাহুল্য অনেকটাই কমিয়ে দিয়েছে ব্রেসলেট। কারণ ফরমাল পোশাকের সঙ্গে ব্রেসলেটই এখন আদর্শ। শুধু মেয়েদের সাজের অনুষঙ্গই নয়, বর্তমানে ফ্যাশন সচেতন তরুণদের হাতেও বিচিত্র ধরনের ব্রেসলট দেখতে পাওয়া যায়। ব্রেসলেট পরা যেমন সহজ, তেমনি দেখতেও আকর্ষণীয়। আর একই ব্রেসলট অনেক পোশাকের সঙ্গে মানিয়ে পরা যায়। টিনএজ থেকে শুরু করে প্রায় সব বয়সী মেয়েই এটি পছন্দ করে। অফিস বা কলেজে প্রতিদিন পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে পরা যেতে পারে ব্রেসলেট।

শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, স্যুট-টাই যে কোনো ধরনের পোশাকের সঙ্গে সহজেই মানিয়ে যায়। সোনার ব্রেসলেট সাধারণত বড় কোনো অনুষ্ঠানে বিবাহিতরাই বেশি পরেন। মাটি, কাঠ, মেটাল, পাথরের ব্রেসলেটই তরুণীদের বেশি পছন্দ। মেয়ে এবং ছেলেদের ব্রেসলেটের ধরন বেশ আলাদা। মেয়েদের ব্রেসলেট বালা, কঙ্কন, ঝুমঝুমি ইত্যাদি হতে পারে।

বর্তমানে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন উপাদান ও ডিজাইনের ব্রেসলেট। ব্রেসলেটগুলো মূলত রাবার, কাপড়, তামা, পিতল, মাটি, কাঠ, স্টিলের ওপর রাবার, চামড়া, সুতা, পুঁতি, ইলাস্টিক, আটধাতু, সুতার প্যাঁচ, এমনকি পশুর হাড়েরও হয়ে থাকে। বাজারে নতুন এসেছে ফ্লেক্সিবল ব্রেসলেট। এটা যেমন ইচ্ছা ছোট-বড় করা যায়। পাওয়া যাচ্ছে রাবারের এক ডজন চিকন ব্রেসলেট সেট। এই চিকন ব্রেসলেটগুলো বেশ কালারফুল। আবার দেশীয় উপকরণে হাতে তৈরি ব্রেসলেটও পাবেন। ছেলেরা সাধারণত মেটাল, রাবারসহ বিভিন্ন ধরনের ব্রেসলেট বেশি পরেন।

বাজারঘুরে দেখা যায়, ছেলেদের জন্য চেইন বা স্টিলের ব্রেসলেটগুলো বেশি চলছে। নরমাল ব্রেসলেটগুলো কিনতে পারেন নিউ মার্কেট, ফার্মগেট, এলিফ্যান্ট রোড এবং শাহবাগসহ বিভিন্ন এলাকার ফুটপাতে। আর ব্র্যান্ডের ব্র্রেসলেট পাবেন ডিপার্টমেন্টাল স্টোরসহ বিভিন্ন মল ও প্লাজায়। আর সব ধরনের কম্বিনেশনের ব্রেসলেট কিনতে চাইলে ঘরে বসেই ঢুঁ মারুন দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিংমল আজকের ডিলে।
অনলাইনে চুড়ি ও ব্রেসলেটের সমাহার দেখুন এই লিংকে

*ব্রেসলেট* *ফ্যাশন* *ফ্যাশনেব্রেসলেট* *স্মার্টশপিং*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

স্মার্ট ব্রেসলেট কিনতে ক্লিক করুনপ্রযুক্তি আর ফ্যাশনে নতুন মাত্রা যোগ করেছে স্মার্ট ব্রেসলেট। শুধু ফ্যাশন নয় এই ব্রেসলেট ব্যবহারে যেকোন বিপদ থেকেও রক্ষা পাবেন আপনি। হাতের কবজিতে থাকা ফ্যাশনেবল ব্রেসলেটটি ব্যবহারকারীর হৃত্স্পন্দন, রক্তে অক্সিজেনের মাত্রাসহ শরীরের তাপমাত্রা বিশ্লেষণ করে মনের উদ্বেগ শনাক্ত করতে পারে। শুধু তা-ই নয়, উদ্বেগের মাত্রার তথ্য ব্যবহারকারীদের স্মার্টফোনেও পাঠাতে পারে। চলুন স্মার্ট ব্রেসলেট গিয়ারের ব্যবহার জেনে নেই।

যেভাবে কাজ করবে স্মার্ট ব্রেসলেট:

স্মার্ট ব্রেসলেট কিনতে ক্লিক করুন
ফোন এবং ম্যাসেজ নোটিফিকেশন:
যখন কোনো ফোন বা মেসেজ আসবে তখন সাথে সাথ আপনি ভাইব্রেশনের মাধ্যমে নোটিফিকেশন পেয়ে যাবেন । সুতরাং আপনার গুরুত্বপূর্ণ ফোন এবং মেসেজ হাত-ছাড়া হওয়ার কোন সুযোগই নেই ।

পদক্ষেপ গণক(Pedometer): 
এই মিটারের মাধ্যমে আপনি কতো ধাপ হাঁটলেন বা দৌড়ালেন তা আপনি জানতে পারবেন । এমনকি আপনি কি পরিমান ক্যালরি ক্ষয় , কতো দূরত্ব পার করলেন তাও জানতে পারবেন ।

স্মার্ট ব্রেসলেট কিনতে ক্লিক করুন

স্লিপ মনিটর:
বলার কোন অবকাশ নেই যে আদর্শ ঘুম আমাদের সুসাস্থ্যের জন্য কতটুকু দরকারি । স্লিপ মনিটরের সাহায্যে আপনি কতোটুকু ঘুমালেন , সেই ঘুম আপনার কতোটুকু সাস্থ্যসম্মত তাও জানতে পারবেন ।

অ্যালার্ম নোটিফিকেশন (ভাইব্রেশন):

আমাদের কর্ম ব্যস্তময় জীবনে অফিসে , অনলাইনে কাজ করতে করতে আমরা অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ কাজের কথা ভুলে যাই , বা সারাদিন কাজের শেষে যখন ঘুমাতে যাই , পরে উঠতে যেয়ে দেরি হয়ে যায়। এই গ্যাজেটে আছে অ্যালার্ম কল নোটিফিকেশন যার মাধ্যমে আপনি আপনার গুরত্ত্বপূর্ণ কাজের কথা ভুলবেন না।

স্মার্ট ব্রেসলেট কিনতে ক্লিক করুন

অ্যাপ্লিকেশন নোটিফিকেশন:
এই অপশনের চালু করার মাধ্যমে আপনি ফেসবুক, টুইটার , হোয়াটসআপের সব নোটিফিকেশন সহজে ভাইব্রেশনের মাধ্যমে পেয়ে যাবেন।

দারুন এই স্মার্ট ব্রেসলেট আপনি পেয়ে যাবেন দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিংমল আজকের ডিলে। ঘরে বসে আপনার পছন্দের ব্রেসলেট অনলাইনে কিনতে এখানে ক্লিক করুন

*স্মার্টব্রেসলেট* *ব্রেসলেট* *স্মার্টশপিং*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

কিনতে ক্লিক করুনবর্তমানে তরুণ তরুণীদের ফ্যাশন মানেই অন্যরকম ভাব একটু আলাদা স্টাইল! তাই যুগের সাথে তাল মিলেয়ে তরুণ তরুণীদের ফ্যাশনে যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন সব অনুসঙ্গ। ফ্যাশনের আধুনিক সব আকর্ষণ গুলোর মধ্যে ব্রেসলেট অন্যতম। শুধু তরুণী নয়, এখন তরুণদের হাতেও শোভা পাচ্ছে ব্রেসলেট।

ফ্যাশনে বাহারি ব্রেসলেট

কিনতে ক্লিক করুন
সোনা বা রুপার বাইরে মেটাল, সিটি গোল্ড, কাঠ, পাথর, পুঁথি, মাটি, কাপড়, রুদ্রাক্ষ, চামড়াসহ নানা ধরনের জিনিস দিয়ে তৈরি করা হচ্ছে বিচিত্র রকমের ব্রেসলেট।

কিনতে ক্লিক করুনতরুণ ও তরুণীদের জন্য ব্রেসলেট বানানোর উপকরণ ক্ষেত্রবিশেষে ভিন্ন হতে পারে। যেমন মেয়েদের ব্রেসলেটে রংবেরঙের পুঁথি, পাথর, কাঠ কিংবা সিটি গোল্ড ব্যবহার করা হয়। অন্যদিকে ছেলেদের ব্রেসলেটে তামা, ব্রোঞ্জ, লোহা, আবার চামড়াও ব্যবহার করা হয়। ব্রেসলেট বানানোর উপাদান যেমন আলাদা হয়, তেমনি এগুলোর গড়নও হয় ভিন্ন রকমের।

কিনতে ক্লিক করুনমেটালের ওপরে সোনালি রং করা ব্রেসলেট পশ্চিমা ধাঁচের পোশাকের সঙ্গে দারুণ মানাবে। অনেক মেটালের ওপরে বাসানো হয়েছে মুক্তা। ছোট-বড় নানা ধরনের মুক্তার রং বদলেছে নকশার ক্ষেত্রে। কাঠের তৈরি ছোট ছোট বোতাম ও বল দিয়ে তৈরি রঙিন ব্রেসলেটে রাবার দিয়ে ইচ্ছেমতো পরার সুবিধা আছে।

কিনতে ক্লিক করুনমেটালের পাশ দিয়ে অনেক সময় পেঁচা, হাতি, ঘোড়াসহ নানা ধরনের মোটিফ ব্যবহার করা হচ্ছে। আধুনিক সময়ে ফ্যাশনের এই অনুষঙ্গটি নিজেকে যুগের চাহিদার সঙ্গে তাল মিলিয়ে বদলে নিয়েছে। তাই বর্তমান সময়ের ফ্যাশনসচেতন তরুণীরা হাতের শোভা বাড়াতে পছন্দ করছে নানা ঢঙের ব্রেসলেট।

দরদাম

কিনতে ক্লিক করুন
গহনা তৈরির উপাদান, কোথা থেকে কেনা হচ্ছে এসবের ওপর ব্রেসলেটের দাম নির্ভর করে। যেমন চাঁদনী চক মার্কেটে ১০০ থেকে ৪০০ টাকার মধ্যে মেটাল, পাথর বা পুঁথির ব্রেসলেটগুলো পাওয়া যায়। আবার কে-জেডে ১০৪ থেকে ২০০০ টাকা পর্যন্ত দামের ব্রেসলেট আছে। অন্যদিকে শাহবাগ মোড়ের ছোট দোকান কিংবা দোয়েল চত্বরের হস্তশিল্পের দোকান থেকে কিনলে ২০ থেকে ২০০ টাকার মধ্যেই কেনা যাবে পছন্দসই ব্রেসলেট। আবার ‘বড় জায়গার, বড় ঠাট’-এর মতো সীমান্ত স্কয়ার মার্কেট, বসুন্ধরা সিটি কিংবা যমুনা ফিউচার পার্কের রকমারি গহনার দোকান থেকে ব্রেসলেট কিনলে ৫০০ থেকে ৩০০০ টাকা দামে পাওয়া যাবে।

কিনবেন কোথায় থেকে

কিনতে ক্লিক করুন
ঢাকার নিউ মার্কেটের রকমারি গহনার দোকানে, চাঁদনী চক মার্কেট, ইস্টার্ন মল্লিকা মার্কেট, সীমান্ত স্কয়ার মার্কেট, বসুন্ধরা সিটি, যমুনা ফিউচার পার্ক, শাহবাগের মোড়ে ফুটপথের দোকানগুলো, আজিজ সুপার মার্কেটসহ বিভিন্ন জায়গায় পাওয়া যায় নানা রকমের ব্রেসলেট। এ ছাড়া আড়ং, কে-ক্রাফট, বিশ্বরঙ, রঙ বাংলাদেশ, কে-জেড, ধান শালিক, দেশাল, বিসর্গতেও পাওয়া যায় মেটাল, কাঠ, তামা, পুঁথি, পাথর ও হাড়ের তৈরি ব্রেসলেট। দোয়েল চত্বরে হস্তশিল্পের দোকানগুলোতে মাটি, কাঠ, মেটালের ব্রেসলেট পাওয়া যায়। অনলাইনেও বিভিন্ন দোকানের ব্রেসলেট কিনতে পাওয়া যায়। যারা ঘরে বসে অনলাইনে পছন্দের ব্রেসলেট কিনতে চান তারা এখানে ক্লিক করুন

*ব্রেসলেট* *স্মার্টফ্যাশন* *স্মার্টশপিং*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

হাতে হাতে ব্রেসলেট বর্তমান প্রজন্মের কাছে ফ্যাশনের অন্যতম একটি অনুসঙ্গ। ফ্যাশনে ব্রেসলেটের ধারণা বেশ পুরনো হলেও নতুন করে পুরানো ফ্যাশনকে জাগিয়ে তুলেছে তরুন প্রজন্ম। একটা সময় ছিল যখন ছেলেদের চেয়ে মেয়েরাই এটি বেশি  ব্যবহার করত। কিন্তু বর্তমানে ছেলেমেয়ে উভয়েই সমভাবে ব্যবহার করছে ব্রেসলেট। উপকরণ ডিজাইনেও এসেছে ব্যাপক পরিবর্তন। এখন  সোনা, কাঠের টুকরো, লেদার, পস্নাস্টিক কিংবা তামা দিয়ে তৈরি হচ্ছে সুন্দর সুন্দর ব্রেসলেট। আজকের আয়োজন ছেলেদের ব্রেসলেট নিয়ে। 

মেনজ গোল্ড প্লেটেড ব্রেসলেট
হ্যাল ফ্যাশনে বৈচিত্র আনতে বর্তমান প্রজন্মের ছেলেরা মেনজ গোল্ড প্লেটেড ব্রেসলেট ব্যবহার করছে। এটি বেশ ফ্যাশনেবল ও আকর্ষণীয় ডিজাইনের। বন্ধু-বান্ধবদের আড্ডায় কিংবা ক্যাম্পাসের যে কোন অনুষ্ঠানে সহজেই এধরনের ব্রেসলেট মানিয়ে যাবে। টিশার্ট-জিন্সপ্যান্ট স্যুট-টাই যে কোনো ধরনের পোশাকের সঙ্গে সহজেই মানিয়ে যায়। সোনার ব্রেসলেট সাধারণত বড় কোনো অনুষ্ঠানে বিবাহিতরাই বেশি পরেন। 

বেস্ট ফ্রেন্ড ব্রেসলেট
বেস্ট ফ্রেন্ড লেখা ব্রেসলেট গুলো বর্তমানে বেশ চলছে। এগুলো স্টাইলিশ ও এক্সক্লুসিভ ব্রেসলেট যা রোপ ও লেদারের সমন্বয়ে তৈরী। যে কোন উৎসবে এটি পরতে পারবেন। ইচ্ছে করে সবসময় হাতের পরে থাকা যায় । বন্ধুর জন্মদিন কিংবা বন্ধুত্বের শুরুতে বন্ধুকে এই ধরনের ব্রেসলেট উপহার দিতে পারেন। এ ব্রেসলেট বন্ধুত্বের বন্ধনকে আরও দৃঢ় ও শক্তিশালী করবে।

ইউনিসেক্স ব্রেসলেট
আকর্ষণীয় ডিজাইন ও স্টাইলিশ  ইউনিসেক্স ব্রেসলেট এখন বেশ চলছে। বর্তমান ফ্যাশনে প্রায সব ধরনের ছেলে মেয়েদের হাতেই এ ধরেনের ব্রেসলেট শোভা পায়।  এক্সক্লুসিভ এই ব্রেসলেট যা অ্যালয় ও লেদারের সমন্বয়ে তৈরী। যে কোন উৎসবে এটি পরতে পারবেন। ইচ্ছে করে সবসময় হাতের পরে থাকা যায় । এই ব্রেসলেটের দামও খুব একটা বেশি না মাত্র ১০০ থেকে ২০০ টাকা খরচা করলেই ফ্যাশনের এই অনুসঙ্গটি কিনতে পারবেন। 

জেন্টস ফ্যান্সি ব্রেসলেট
জেন্টস ফ্যান্সি ব্রেসলেট দেখতে আকর্ষণীয় আর ডিজাইনটাও বেশ চমৎকার। হাল ফ্যাশনে যারা নিজেকে ভিন্ন ভাবে উপস্থাপন করতে চান তাদের জন্য এই ব্রেসলেটটি বেশ ফ্যাশনেবল হবে। বন্ধু-বান্ধবদের আড্ডায় কিংবা ক্যাম্পাসের যে কোন অনুষ্ঠানে সহজেই এধরনের ব্রেসলেট মানিয়ে যাবে। টিশার্ট-জিন্সপ্যান্ট স্যুট-টাই যে কোনো ধরনের পোশাকের সঙ্গে এটি পরতে পারবেন। এটি লেদার ও জিংক অ্যালয়ের সমন্বয়ে তৈরী। এটি দীর্ঘস্থায়ী ও টেকসই হবে। 

স্পোর্টস ব্রেসলেট
মূলত ক্রিকেট খেলার সময় এধরনের ব্রেসলেট ক্রিকেটার রা ব্যবহার করে থাকেন। অনেক বলারদের হাতে বল করার সময় এধরনের ব্রেসলেট দেখতে পাওয়া যায়। বিশেষ করে অষ্ট্রেলিয়ার ক্রিটাররা এটি বেশি পরে। বাধা নিষেধ না থাকলে যে  কোন খেলার সময় আপনি এধরনের ব্রেসলেট হাতে পরতে পারবেন। এই ব্রেসলেট গুলো  বেশ স্টাইলিশ ও এক্সক্লুসিভ। ডিজাইনও চমৎকার। 

যারা সবধরনের ব্রেসলেট কিংবা রিস্টব্যান্ড কিনতে ইচ্ছুক তারা নিচের লিংক থেকে ঘুরে আসতে পারেন। 

এক্সক্লুসিভ সব ব্রেসলেট রিস্টব্যান্ড কিনতে ক্লিক করুন
*ব্রেসলেট* *ফ্যাশন* *ছেলেদেরফ্যাশন* *শপিং* *স্মার্টশপিং*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★