ব্লাড প্রেসার

ব্লাডপ্রেসার নিয়ে কি ভাবছো?

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 হঠাৎ ব্লাড প্রেসার কমে গেলে কী করণীয়?

উত্তর দাও (৪ টি উত্তর আছে )

.
*ব্লাডপ্রেসার* *স্বাস্থ্যতথ্য* *হেলথটিপস*

দীপ্তি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

হৃৎপিণ্ডের অবিরাম সংকোচন-প্রসারণজনিত রক্তের প্রবাহ রক্তনালীর দেয়ালে যে চাপ প্রয়োগ করে তাই হল রক্তচাপ। শরীরের অবস্থাভেদে রক্তচাপের তারতম্য হতে পারে। যেমন দৌড়ালে, ভয় পেলে কিংবা মানসিক আঘাত পেলে রক্তচাপ বেড়ে যায়। অপরদিকে অতিরিক্ত ঘুম ও লবণের ঘাটতি রক্তচাপ কমিয়ে দিতে পারে। উচ্চ রক্তচাপের কারণে মস্তিষ্কের রক্তনালী ছিঁড়ে গেলে তাকে হেমোরেজিক স্ট্রোক বলা হয়। এর ফলে প্যারালাইসিস বা পক্ষাঘাতগ্রস্ততা দেখা দিতে পারে। এমন রোগীদের জন্য চিকিৎসা হিসেবে ফিজিওথেরাপি, অকুপেশনাল থেরাপি, স্পিচ থেরাপি, ল্যাঙ্গুয়েজ থেরাপি ইত্যাদি দেওয়া হয়।

রক্তচাপের ধরন ও পরিমাপ:
দেশের প্রাপ্তবয়স্ক জনগনের ২০ শতাংশই উচ্চ রক্তচাপে ভোগেন। রক্তচাপ পরিমাপের মাত্রা দুটি, সিস্টোলিক রক্তচাপ ও ডায়াস্টোলিক রক্তচাপ।

১৯৯৯ সালে প্রকাশিত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশিকা অনুযায়ি মানুষের রক্তচাপের ধরন নিম্নরূপ-

  • কাঙ্খিত রক্তচাপ: যথাক্রমে সিস্টোলিক <১২০; ডায়াস্টোলিক <৮০
  • স্বাভাবিক রক্তচাপ: যথাক্রমে সিস্টোলিক <১৩০; ডায়াস্টোলিক <৮৫
  • উচ্চমাত্রায় স্বাভাবিক রক্তচাপ: যথাক্রমে সিস্টোলিক <১৩০ থেকে ১৩৯; ডায়াস্টোলিক <৮৫ থেকে ৮৯
  • উচ্চ রক্তচাপ গ্রেড-১: সিস্টোলিক ১৪০ থেকে ১৫৯; ডায়াস্টোলিক ৯০ থেকে ৯৯
  • উচ্চ রক্তচাপ গ্রেড-২: সিস্টোলিক ১৬০ থেকে ১৭৯; ডায়াস্টোলিক ১০০ থেকে ১০৯
  • উচ্চ রক্তচাপ গ্রেড-৩: সিস্টোলিক ১৮০ থেকে ২০০; ডায়াস্টোলিক ১১০ বা তদূর্ধ্ব
*রক্তচাপ* *রক্তচাপেরধরণ* *ব্লাডপ্রেসার* *বিশ্বস্বাস্থ্যসংস্থা* *স্বাস্থ্যতথ্য*

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 লো ব্লাড প্রেসারের রোগীদের লাইফস্টাইল এবং খাওয়া-দাওয়া কেমন হয় উচিত?

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

.
*নিম্নরক্তচাপ* *ব্লাডপ্রেসার* *স্বাস্থ্যতথ্য* *হেলথটিপস*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

কিনতে ক্লিক করুনপ্রতিদিনই হাজারও মানুষ ডায়াবেটিস ও ব্লাড প্রেসারের মত মারাত্নক সমস্যায় আক্রন্ত হচ্ছে। বিশেষ করে যারা এই রোগে আক্রন্ত তাদের সুস্বাস্থ্য ও নিয়ন্ত্রিত জীবন ধারনের জন্য সব সময় সর্তক থাকা জরুরী। ডায়াবেটিসের মাত্রা সবসময় উঠানামা করে অনেকেই হয়তবা এটা ধরতে পারেন না। তাই রক্তে গ্লুকোজের পরিমান বেড়ে গিয়ে বড় দূর্ঘটনা ঘটতে দেখা যায়। তাই ডায়বেটিস থেকে সর্তক থাকতে আক্রন্তদের বাড়িতে অবশ্যই দুটি জিনিস রাখা দরকার। একটি হলো ব্লাড গ্লুকোজ মনিটর ও অপরি ব্লাড প্রেসার মনিটর।

ডায়বেটিস থেকে সর্তক রাখবে ব্লাড গ্লুকোজ মনিটর:

কিনতে ক্লিক করুনকিনতে ক্লিক করুন

ডায়াবেটিস হল এমন একটি জটিল রোগ যে রোগ হলে অন্য যেকোনো সামান্য রোগেই আপনি কাবু হয়ে যাবেন। আর একবার হলেই নিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন ছাড়া কোন উপায় নেই। তাই হওয়ার আগেই সতর্ক হওয়া জরুরী। কিংবা যারা আক্রন্ত তাদের প্রতিনিয়ত ডায়াবেটিস মাপা জরুরী। এজন্য সর্তক থাকতে ব্যবহার করতে পারেন ব্লাড গ্লুকোজ মনিটর। এটি দিয়ে আপনি প্রতিনিয়ত ডায়াবেটিস পরিমাপ করে নিয়ন্ত্রিত জীবন যাপন করতে পারবেন।
এছাড়াও ডায়াবেটিস হওয়া থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য ওজন কমানো জরুরী। যারা বেশি চর্বি যুক্ত খাবার খান তারা এধরনের খাবার পরিহার করুন এবং ফাইবার জাতীয় খাবার বেশি খান। আর প্রতিদিন নিয়মিত শরীরচর্চা করুন।

ব্লাড প্রেসার থেকে সতর্ক থাকতে ব্লাড প্রেসার মনিটর:

কিনতে ক্লিক করুনকিনতে ক্লিক করুন

আজকের বদলে যাওয়া লাইফস্টাইলের সঙ্গে স্ট্রেস ও টেনশনের সঙ্গে হাত ধরাধরি করে যে অসুখটি বেশি করে মাথা চাড়া দিয়ে উঠছে তার নাম ব্লাড প্রেসার। রক্তচাপ বেড়ে গেলে মানুষের ততক্ষণাৎ মৃত্যু হতে পারে। তাই ব্লাড প্রেসার পরিমাপের জন্য ঘরে রাখুন ব্লাড প্রেসার মনিটর। এটি আপনাকে প্রতিদিন ডাক্তারের কাছে যাবার ঝামেলা থেকে মুক্তি দিবে। এই মনিটর থাকলে ব্লাড প্রেসারের পরিমান বুঝতে ডাক্তার লাগবে না আপনি নিজে বুঝে নিতে পারবেন। মূলত ১২০/৮০-কে সাধারণত নর্মাল প্রেশার বলা হয়। কিন্তু সমস্যার ঘনঘটা দেখা দিতে শুরু করে যখন তা ছাড়িয়ে চলে যায় ১৪০/৯০-এর কোঠা !

ডায়বেটিস ও ব্লাড প্রেসার থেকে সর্তক থাকতে আপনি আজই এই দুটো প্রোডাক্ট কিনে নিতে পারেন। ঘরে বসে অনলাইনে অর্ডার দিয়ে পণ্যদুটি কিনতে এখানে ক্লিক করুন

*ডায়াবেটিস* *ব্লাডপ্রেসার* *হেলথটিপস* *স্মার্টশপিং*

হাফিজ উল্লাহ: একটি বেশব্লগ লিখেছে

মতোই নিম্ন রক্তচাপ অর্থাৎ লো ব্লাড প্রেসার শরীরের জন্য ক্ষতিকারক। লো ব্লাড প্রেসারের আরেক নাম হাইপোটেনশন। অতিরিক্ত পরিশ্রম, দুশ্চিন্তা, ভয় ও স্নায়ুর দুর্বলতা থেকে লো ব্লাড প্রেসার হতে পারে।

প্রেসার লো হলে মাথা ঘোরানো, ক্লান্তি, অজ্ঞান হয়ে যাওয়া, বমি বমি ভাব, বুক ধড়ফড় করা, অবসাদ, দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে আসা ও স্বাভাবিক শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে অসুবিধা দেখা দেয়।

একজন সুস্থ স্বাভাবিক মানুষের রক্তচাপ থাকে ১২০/৮০। অন্যদিকে রক্তচাপ যদি ৯০/৬০ বা এর আশেপাশে থাকে তাহলে তা লো ব্লাড প্রেসার হিসেবে ধরা হয়।

প্রেসার যদি অতিরিক্ত নেমে যায় তাহলে মস্তিষ্ক, কিডনি ও হৃদপিন্ডে সঠিকভাবে রক্ত প্রবাহিত হতে পারে না, ফলে ব্যক্তি অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাই প্রেসার লো হলে বাড়িতেই প্রাথমিক কিছু পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি। একবার চোখ বুলিয়ে নিন।

লবণ পানি
লবণে রয়েছে সোডিয়াম যা রক্তচাপ বাড়ায়। তবে পানিতে বেশি লবণ না দেওয়াই ভালো। সবচেয়ে ভালো হয়, এক গ্লাস পানিতে দুই চা চামচ চিনি ও এক-দুই চা চামচ লবণ মিশিয়ে খেলে। তবে যাদের ডায়াবেটিস রয়েছে তাদের ক্ষেত্রে চিনি বর্জন করতে হবে।

কফি
স্ট্রং কফি, হট চকলেট, কোলাসহ যেকোনো ক্যাফেইন সমৃদ্ধ পানীয় দ্রুত ব্লাড প্রেসার বাড়ায়। হঠাৎ করে লো প্রেসার দেখা দিলে এক কাপ কফি খেতে পারেন। যারা অনেকদিন ধরে এ সমস্যায় ভুগছেন তারা সকালে ভারি নাশতার পর এক কাপ স্ট্রং কফি খেতে পারেন। তবে সবসময় লো প্রেসার হলে কোলা না খাওয়াই ভালো। কারণ এর অন্যান্য ক্ষতিকারক দিকও রয়েছে।

কিছমিস
হাইপোটেনশনের ওষুধ হিসেবে অতি প্রাচীনকাল থেকেই ব্যবহৃত হয়ে আসছে কিছমিস। এক-দুই কাপ কিছমিছ সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। সকালে খালিপেটে সেগুলো খান। সঙ্গে কিছমিছ ভেজানো পানিও খেয়ে নিন। এছাড়াও পাঁচটি কাঠবাদাম ও ১৫ থেকে ২০টি চীনাবাদাম খেতে পারেন।

পুদিনা
ভিটামিন সি, ম্যাগনেশিয়াম, পটাশিয়াম ও প্যান্টোথেনিক উপাদান যা দ্রুত ব্লাড প্রেসার বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে মানসিক অবসাদও দূর করে। পুদিনা পাতা বেঁটে তাতে মধু মিশিয়ে পান করুন।

যষ্টিমধু
যষ্টিমধু আদিকাল থেকেই নানা রোগের ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এক কাপ পানিতে এক টেবিল চামচ যষ্টিমধু দিয়ে পান করুন। এছাড়াও দুধে মধু দিয়ে খেলে উপকার পাবেন।

বিটের রস
বিটের রস হাই প্রসার ও লো প্রেসার উভয়ের জন্যই সমান উপকারী। এটি রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখতে ব্যাপক ভূমিকা পালন করে। হাইপোটেনশনের রোগীরা দিনে দুই কাপ বিটের রস খেতে পারেন। এভাবে এক সপ্তাহ খেলে উপকার পাবেন।

>: সানজিদা সামরিন, বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

*লোব্লাডপ্রেসার* *ব্লাডপ্রেসার* *স্বাস্থ্যতথ্য* *হেলথটিপস*

সৌরভ হাসান অভ্র: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 হাইপ্রেসার কি করে নিয়ন্ত্রন করব? (বৃদ্ধ মানুষ)।

উত্তর দাও (২ টি উত্তর আছে )

*হাইপ্রেসার* *প্রেসার* *ব্লাডপ্রেসার*

Opu: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 হাই ব্লাড প্রেসার এ করণীয় কি ?

উত্তর দাও (৩ টি উত্তর আছে )

*ব্লাডপ্রেসার* *লোপ্রেসার*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★