ভর্তা

ভর্তা নিয়ে কি ভাবছো?

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 মুখরোচক ইলিশ মাছের ভর্তা বানাতে কী কী লাগবে ও কীভাবে বানাতে হবে? রেসিপি চাই।

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

.
*ইলিশমাছেরভর্তা* *মাছেরভর্তা* *ভর্তারেসিপি* *ভর্তা* *ইলিশমাছ*

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 টাকি মাছের ভর্তার রেসিপি চাই l

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

*টাকিমাছ* *মাছভর্তা* *ভর্তা* *রেসিপি*
খবর

ফাহিম মাশরুর: একটি খবর জানাচ্ছে

নানান রকম ভর্তা
http://newbd.info/738
হরেক রকম ভর্তা - রেসিপি ...বিস্তারিত
*ভর্তা*
১৫৯ বার দেখা হয়েছে

শাওন: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 চিংড়ি শুটকির ভর্তা কি করে বানাতে হয়?

উত্তর দাও (৫ টি উত্তর আছে )

*শুটকিরেসিপি* *ভর্তা* *ভর্তারেসিপি*

♦ মমিতা ♦: [বাঘমামা-আরপারিনা]শুটকির ভর্তা খেতে মন চাই(খুশী২)

*ভর্তা*

জান্নাতুল মাওয়া রাইসা: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 পটলের চোকলার সাথে চিংড়ি শুটকি দিয়ে ভর্তা করতে হলে কি কি উপকরণ লাগবে? এবং কিভাবে তা বানাতে হবে?

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

.
*পটল* *চিংড়ি* *ভর্তা* *রেসিপি* *রান্নাবান্না*

গাজী আজিজ: একটি বেশব্লগ লিখেছে


উপকরণঃ
  • কাঁচামরিচ - ১২-১৫ টা
  • পেঁয়াজকুচি- ২ টেবিলচামচ
  • লবন - ১/২ চা চামচ বা স্বাদমত
  • সরিষার তেল- ১/২ চা চামচ
পদ্ধতিঃ
  • একটি প্যানে কাঁচামরিচ নিয়ে টেলে নিন। কাঁচামরিচ নরম ও হাল্কা পোড়া পোড়া হয়ে আসলে চুলা বন্ধ করে ঠান্ডা হতে রাখুন।
  • বাটিতে কাঁচামরিচ, পেয়াজকুচি, লবন ও সরিষার তেল নিয়ে একটি চামচ বা হাত দিয়ে ভাল করে মাখিয়ে নিন। আপনি চাইলে চপারে দিয়েও মরিচ ভর্তা করে নিতে পারেন।
  • মরিচ ভর্তা গরম ভাত বা খিচুড়ির সাথে পরিবেশন করুন।
*রেসিপি* *রন্ধনটিপস* *ভর্তা* *ভর্তারেসিপি*

Dipti: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আমার খুব পছন্দের একটি ভর্তার রেসিপি দিচ্ছি - 

উপকরণ: 
বেগুন- ১ কাপ (ছোট টুকরা )
শিম- ১ কাপ (ছোট টুকরা ) 
অথবা শীম না পেলে পটল (খোসা ছাড়ানোর দরকার নাই, আচড়ে নিলেই হবে) 
কালোজিরা- ১ চা চামচ 
রসুন এর কোয়া- একটি বড় সাইজের রসুন খোসা ছাড়িয়ে নিন 
আদা কুচি - ১/২ চা চামচ 
পিয়াজ কুচি- ১/৪ কাপ
কাচা মরিচ- ২/৩ টি 
শুকনো মরিচ ২/৩ টি 
লবণ -স্বাদ মত 
সয়াবিন তেল ১ টেবিল চামচ 
সরিষার তেল ৩ টেবিল চামচ 

প্রণালী : 
-সয়াবিন তেলে শুকনো মরিচ দিন, মরিচ ফুলে শক্ত হয়ে আসলে তুলে রাখুন 
-এবার রসুন কুচি, কালোজিরা, কাচা মরিচ ক্রমানুসারে দিন, হালকা করে ভেজে নিন (এর প্রত্যেকটি খুব দ্রুত পুরে যায়, খেয়াল রাখুন)
-শিম/পটল, বেগুন দিয়ে দিন 
-আদা কুচি যোগ করুন 
-স্বাদমত লবণ দিন 
-ঢেকে দিয়ে সেদ্ধ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুণ
-প্রয়োজনে অল্প পানি দিন (এমনিতেই পানি উঠে আর নরম হয়ে যায় )

-হয়ে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে blender machine এ মাত্র ১০ সেকেন্ড এর জন্য দিন (খুব বেসি মিহি করার দরকার নেই ) *হাতেও চটকে নিতে পারেন I 
-আলাদা পাত্রে পিয়াজ কুচি ও ভেজে রাখা শুকনো মরিচ খুব সামান্য লবন দিয়ে ভালো করে চটকে মেখে নিন (মূল উপকরণে লবন দেওয়া আছে, মনে রাখবেন)
-এবার ব্লেন্ড করা মিশ্রণ টি পিয়াজ-মরিচ মাখার সাথে সরিষার তেল টুকু দিয়ে মেখে নিন 
-finally লবন টেস্ট করে হালকা গরম থাকতেই পরিবেশন করুন 

কাচা পিয়াজ, শুকনা মরিচ, ভাজা রসুন, কালোজিরা আর কাচা সরিষার তেলের স্বাদ আলাদা আলাদা করে উপভোগ করতে পারবেন এই ভর্তায় (পেটুক)

*ভর্তা* *রান্নাবান্না*

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 কাঁচা কাঁঠালের ভর্তার রেসিপি জানতে চাই l

উত্তর দাও (২ টি উত্তর আছে )

*কাঁঠালেররেসিপি* *ভর্তা* *রেসিপি*

ঝিঁঝিপোকা: একটি বেশব্লগ লিখেছে

বাঙালির অত্যন্ত প্রিয় একটি খাবার হলো ভর্তা । ভর্তার কথা শুনলে জীবে জল আসেনা এরকম মানুষ খুব কম পাওয়া যাবে। তাদের জন্যই এখানে রইলো কয়েকটি ভর্তার রেসিপি।

লাউশাক ভর্তা 
উপকরণ: লাউয়ের পাতা ৬-৭টা, নারকেল কুড়ানো ৪ চা চামচ, সরিষা ২ চা চামচ, সেদ্ধ কাঁচামরিচ ২টা, প্রয়োজনমতো লবণ।
প্রণালী: লাউশাক ভালো করে ধুয়ে সেদ্ধ করুন। শাকের সাথে কাঁচামরিচও সেদ্ধ করুন। শাক সেদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে নিন। এবার নারকেল কুড়ানো, সরিষা, লবণ, সেদ্ধ করা শাক ও কাঁচামরিচসহ পাটায় পানি ছাড়া বেটে ভর্তা তৈরি করুন।

মিষ্টি কুমড়ার ভর্তা
উপকরণ: মিষ্টি কুমড়া ২ কাপ, লবণ পরিমাণমতো, পানি ১ কাপ, ধনেপাতা কুঁচি, ২ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ কুঁচি ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুঁচি ৪/১ কাপ।
প্রণালী: মিষ্টি কুমড়া খোসা ছাড়িয়ে কেটে ধুয়ে পানি দিয়ে সেদ্ধ করে নিন। এবার সিদ্ধ করা মিষ্টি কুমড়ার সঙ্গে সব উপকরণ খুব ভালো করে মেখে নিন। হয়ে গেল মজাদার মিষ্টি কুমড়ার ভর্তা।

টমেটো ভর্তা
উপকরণ: ছোট টমেটো ২৫০ গ্রাম, পেঁয়াজ মিহি কুঁচি ১ টেবিল চামচ, শুকনা মরিচ ২টা, ধনেপাতা কুঁচি ২ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো, চিনি ১ চা চামচ, সরষের তেল ১ টেবিল চামচ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ।
প্রণালী: শুকনা মরিচ তাওয়ায় টেলে বিচিসহ গুঁড়ো করে নিতে হবে। টমেটোর গায়ে তেল লাগিয়ে তাওয়ার ওপর ঢাকনা দিয়ে ঢেকে মাঝারি আঁচে চুলায় তুলে সব দিক সমানভাবে পুড়িয়ে নিতে হবে। ঠাণ্ডা হলে খোসা ছাড়িয়ে চটকে পেঁয়াজ, মরিচ, লবণ, তেল, চিনি, লেবুর রস, ধনেপাতা দিয়ে মেখে ভর্তা করতে হবে।

আলু ডিম ভর্তা
উপকরণ: ডিম ২টি, আলু ১টি (মাঝারি সাইজের), কাঁচামরিচ কুঁচি ১ চা চামচ, পেঁয়াজ কুঁচি ১ টেবিল চামচ, ধনেপাতা কুঁচি ১ চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো।
প্রণালী:
 আলু এবং ডিম সেদ্ধ করে নিন। খোসা ছাড়িয়ে আলু এবং ডিম আলাদাভাবে চটকে নিন। এবার পেঁয়াজ কুচি, লবণ এবং আধা চা চামচ সরিষার তেল দিয়ে ডিম ও আলু ভালোভাবে মেখে ভর্তা তৈরি করুন।

কাচকি মাছ ভর্তা
উপকরণ: কাচকি মাছ এক কাপ, পেঁয়াজ কুঁচি ১ টেবিল চামচ, রসুন কুচি ২ চা চামচ, কাঁচামরিচ ৪টি, ধনেপাতা কুঁচি ১ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো।
প্রণালী:
 কাচকি মাছ ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন। কাচকি মাছ, পেঁয়াজ কুঁচি, রসুন কুঁচি, কাঁচামরিচ অল্প তেলে কড়াইতে হালকাভাবে ভাজুন। ভাজা হলে লবণ ও ধনেপাতা দিয়ে পাটায় বেটে ভর্তা তৈরি করুন।

কালিজিরা ভর্তা
উপকরণ: কালিজিরার আধা কাপ, রসুনের কোয়া ২ টেবিল-চামচ, কাঁচামরিচ ৮টি, পেঁয়াজ কুঁচি ৪ টেবিল-চামচ, লবণ পরিমাণমতো,   সরিষার তেল ২ টেবিল-চামচ।
প্রণালী: রসুন
, পেঁয়াজ, কাঁচামরিচ কাঠখোলায় টেলে নিতে হবে। তেল বাদে সব উপকরণ পাটায় বেটে তেল দিয়ে মেখে ভর্তা করুন।

বেগুন ভর্তা
উপকরণ: বড় গোলবেগুন ১টি, সরিষা বাটা ১ চা চামচ, নারকেল মিহি বাটা ২ চা চামচ, টমেটো কুঁচি১ কাপ, পেঁয়াজ কুঁচি আধা কাপ, মেথি আধা কাপ, রাধুনী সরিষার তেল ২ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ কুঁচি ২ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো।
প্রণালী: বেগুনের গায়ে তেল মাখিয়ে পুড়িয়ে নিন। এবার পানিতে রেখে খোসা ছাড়িয়ে মেখে নিন। কড়াইয়ে তেল দিয়ে মেথি ফোড়ন দিয়ে পেঁয়াজ কুঁচি দিন। পেঁয়াজ একটু নরম হলে টমেটো সরিষা, নারকেল, কাঁচামরিচ ও লবণ দিয়ে কিছুক্ষণ নেড়ে বেগুন দিন।  কড়াইয়ের তলা ছেড়ে এলে এবং একটু আঠালো হলে নামিয়ে নিতে হবে।

করল্লার ভর্তা
প্রণালী: করল্লা ধুয়ে খুব মিহি করে কুঁচি করে নিন। এবার করল্লা কুচি চটকে নিয়ে পেঁয়াজ, কাচা মরিচ, লবন এবং তেল দিয়ে ভর্তা তৈরি করুন।

আলু ভর্তা
প্রণালী: আলু আধা কেজি সিদ্ধ করে চটকে নিন। এবার পাত্রে ২ টেবিল চামচ তেল দিয়ে শুকনা মরিচ ভেজে পেঁয়াজ কুঁচি দিন। পেঁয়াজ বাদামী রং হলে পেঁয়াজ মরিচ লবণ দিয়ে চটকে আলু দিন এবার ধনেপাতা কুঁচি দিয়ে মেখে ভর্তা বানিয়ে নিন।

ছুরি শুঁটকি ভর্তা
উপকরণ: ছুরি শুঁটকি ছোট করে কাটা আধা কাপ, পেঁয়াজ কুঁচি ২ কাপ, শুকনা মরিচের গুঁড়া ২ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো, চিনি আধা চা চামচ, লেবুর রস ১ চা চামচ, তেল আধা কাপ, আদা বাটা আধা চা চামচ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, ধনে গুঁড়া ১ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ, তেজপাতা ১টি, কাঁচামরিচ চার টুকরা করে কাটা ৬টি।
প্রণালী:
 শুঁটকি ভালো করে ধুয়ে সিদ্ধ করে বেটে নিতে হবে।  তেল গরম করে আদা-রসুন দিয়ে ভালো করে ভুনে শুঁটকি দিয়ে ভুনতে হবে। হলুদ, ধনে, মরিচের গুঁড়া, তেজপাতা, লবণ দিয়ে মাঝারি আঁচে ৮-১০ মিনিট ভুনে পেঁয়াজ দিয়ে ভুনতে হবে।  পেঁয়াজ নরম হয়ে এলে চিনি, লেবুর রস, কাঁচামরিচ দিয়ে কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে নামাতে হবে।

ধনেপাতার চাটনি
উপকরণ: টাটকা ধনেপাতা বড় ২ আঁটি, রসুন ২ কোয়া, তেঁতুল ১ টেবিল চামচ। কাঁচামরিচ ১টি, চিনি, লবণ স্বাদমতো।
প্রণালী:
 ধনেপাতার কচি ডগা ও পাতা বেছে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন। ধনেপাতা, রসুন, কাঁচামরিচ, তেঁতুল, লবণ ও চিনি সব একসঙ্গে মিশিয়ে মিহি করে কেটে নিন। সামান্য ঝাল, মিষ্টি ও টকটক স্বাদ হবে।

মসুর ডালের ভর্তা
উপকরণ: মসুর ডাল ১ কাপ, পানি ৩ থেকে সাড়ে ৩ কাপ, রসুন কুঁচি আধা চামচ, পেঁয়াজ কুচি ১ চা চামচ, লবণ আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ ফালি ২টি, তেল ১ চা চামচ।
প্রণালী:
 সব উপকরণ দিয়ে ডাল সিদ্ধ করতে হবে। ঘন থকথকে হলে নামাতে হবে।
এবার আরও কিছু উপকরণ যেমনঃ পেঁয়াজ গোল করে কাটা ২ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ ও লবণ পরিমাণমতো, সরিষার তেল অথবা ঘি ২ টেবিল চামচ নিয়ে সেদ্ধ করা ডালের সাথে সব উপকরণ একসঙ্গে মিলিয়ে ভর্তা করতে হবে।

সরিষা ভর্তা
উপরকণ: লাল সরিষা ৪ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ ১টি, লবণ পরিমাণমতো।
প্রণালী:
 সরিষা ভালো করে বেছে ধুয়ে কাঁচামরিচ এবং লবণ দিয়ে শিলপাটায় বেটে নিন।

__ সূত্রঃ ইন্টারনেট

 


*ভর্তাররেসিপি* *ভর্তা* *খাওয়াদাওয়া* *রেসিপি* *রান্না*

গাজী আজিজ: একটি বেশব্লগ লিখেছে

উপকরনঃ
  • লাউ এর খোসা- আনুমানিক ১ ও ১/২ পাউন্ড লাউ থেকে ছিলে নিন 
  • কাঁচামরিচ - ৩ টা
  • পেঁয়াজকুচি - ২ টেবিল চামচ
  • হলুদ গুঁড়া- ১ চিমটি
  • জিরা গুঁড়া - ১/২ চা চামচ
  • লবন - ১/২ চা চামচ বা স্বাদমত
  • ডিম- ১ টা (আপনি চাইলে ডিম ব্যবহার নাও করতে পারেন)
  • ধনেপাতা কুচি- ১ টেবিল চামচ
  • তেল- ১/২ টেবিল চামচ
পদ্ধতিঃ
  • একটি প্যানে অল্প পানি নিয়ে তাতে লাউ এর খোসা, কাঁচামরিচ ও লবন দিয়ে সিদ্ধ করে নিন। খোসা নরম হয়ে আসলে চুলা বন্ধ করে ঠান্ডা হতে রাখুন।
  • ঠান্ডা হলে সিদ্ধ খোসা ও কাঁচামরিচ শিল-পাটায় নিয়ে পিষে নিন। আপনি চাইলে চপারে দিয়েও খোসা পেস্ট করে নিতে পারেন।
  • এবার প্যানে তেল গরম করে তাতে পেঁয়াজকুচি দিন এবং হাল্কা নরম হয়ে আসা পর্যন্ত ভাজুন। তারপর বেটে রাখা খোসা তাতে দিয়ে, সামান্য হলুদ গুঁড়া, জিরা গুঁড়া ও লবন দিন এবং ভালভাবে নেড়ে দিন।
  • মিশ্রণটি ২ মিনিটমত ভেজে ডিম দিন এবং ক্রমাগত নাড়তে থাকুন যেন ডিম ভালভাবে মিশ্রণটির সাথে মিশে যায়।
  • মিশ্রনটি থেকে পানি শুকিয়ে আসা পর্যন্ত ভাজুন। তারপর ধনেপাতাকুচি উপরে ছড়িয়ে দিয়ে চুলা বন্ধ করে দিন।
  • লাউ এর খোসা ভর্তা গরম ভাতে সাথে পরিবেশন করুন। 
*ভর্তা*

Reaz: ভারত ভর্তা রেসিপি:: প্রথমে সামি, যাদব আর মোহিত শর্মার উপর হালকা তামিম ইকবাল মিশিয়ে নিন। তার উপর খানিকটা সৌম্য সরকার ছিটিয়ে দিয়ে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ মেখে নিন। এরপর জাদেজা ও অশ্বিনের সাথে একটি মুশফিকুর রহিম ভেঙে দিন। খেয়াল রাখবেন মুশফিকের পরিমান যেন বেশি না হয়। তাহলে ঝালের মাত্রা অতিরিক্ত হয়ে যাবে। এবার একটু মাখা মাখা করে ভালোভাবে সাকিব আল হাসান মিশিয়

*ভর্তারেসিপি* *ভর্তা*
৪/৫

রুবেল: কাঁচা আমের ভর্তা। কার কার পছন্দ?

*ভর্তা* *আমেররেসিপি*

হাফিজ উল্লাহ: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

৪/৫
প্রেমিকা আর আলুর মাঝে তফাত্ কি?
রাগ উঠলে আলুকে ইচ্ছামত সাইজ করতে পারবেন (যেমন ভর্তা) কিন্তু প্রেমিকার উপর রাগ ঝাড়তে গেলে উল্টা ভর্তা হতে পারেন!
*রাগ* *আলু* *ভর্তা* *রসিকতা*

কেয়া _নাহিদা: একটি বেশব্লগ লিখেছে

একমাত্র মৃত্যু ছাড়া সকল রোগের ঔষুধ কালোজিরা – "আল হাদিস"
কালজিরার গুণাগুণ সবাই মোটামুটি জানে কিন্তু সবাই কালোজিরা ভর্তা একই রকমভাবে করে না . আমার মা যেভাবে কালোজিরা ভর্তা করতেন -----উপকরণ -১.৪ চা চামচ কালোজিরা
                                                                      ২.২ চা চামচ সরিষার তেল
                                                                      ৩. রসুন ৪ কোআ
                                                                      ৪.পিয়াজ কুচি ১ টেবিল চামচ
                                                                      ৫. কাচা মরিচ ৪/৫ টা চিরে
                                                                      ৬. লবন পরিমান মত
      প্রথমে কালোজিরা ভালোভাবে বেছে পরিষ্কার করে নিয়ে একটা কড়াইতে টেলে নিতে হবে , তারপর এটাকে মিহি করে বেটে নিন . ফ্রাইপেন এ তেল গরম করে রসুন আর পেয়াজ কুচি, কাচা মরিচ চেরা , লবন  দিয়ে কিছু সময় ভাজুন লাল রং আসার আগেই কালোজিরা দিয়ে দিন . বেশি সময় রাখবেন না এবার লবন + ঝাল ঠিক মত হয়েছে কিনা দেখে নামান .
কালোজিরা এর এই ভর্তা টা টেস্ট করে জানাবেন কেমন লাগলো .
*পুষ্টি* *ভর্তা* *রেসিপি* *কালজিরা*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★