ভার্চুয়াল প্রেম

ভার্চুয়ালপ্রেম নিয়ে কি ভাবছো?

মারুফ মোহাম্মদ বদরুল: *ভার্চুয়ালপ্রেম* জিনিস টা এমন যে ধরেন আপনার সামনে এক বাটি সুস্বাদু পায়েস রাখা কিন্তু আপনি খেতে পারছেন না ডায়বেটিকস এর জন্য !!

rupanzil: *ভার্চুয়ালপ্রেম* যে ভয়ংকর সত্য কে আমরা কখনো মুখ ফুটে বলতে পারি না

হিমু: *ভার্চুয়ালপ্রেম* আছেন কেউ আমাকে ভালবাসার?(ভালবাসি)

অনি: *ভার্চুয়ালপ্রেম* খুঁজতাছি!!! (মিশনেআছি) কিন্তু পাইতাছি (না) (ভেঙ্গানো২)

রুশদী: *ভার্চুয়ালপ্রেম* শব্দ টা শুনেই মনে হচ্ছে এটা আবার কি ধরনের অপদার্থের কাজ!!...আই বিলিভ, বাই দি ডেফিনিশন অফ প্রেম, ইট ইস অ্যান্ড উইল নেভার এ ভার্চুয়াল থিং...ইফ ইউ থিংক ইওর প্রেম ইস ভার্চুয়াল, দেন বি শিওর, দ্যাট ইস সামথিং এলস ইন দি নেম অফ প্রেম :/

যাদুকর জেমিনি: *ভার্চুয়ালপ্রেম* এখনো কাউ কে পাইনি কেউ এগিয়ে আসলে খুশি হমু (ভালবাসি)

মোহাম্মদ এমদাদুল হক (রাসেল খান): *ভার্চুয়ালপ্রেম* অবশ্যই এখানে সত্যিকারের প্রেম জন্মে

Kaushik: *ভার্চুয়ালপ্রেম* কাউকে পাওয়া উচিত.... এ জগতে..

শামীমা নাসরীন দিবা: *ভার্চুয়ালপ্রেম* আমার পুরাতন এক বন্ধুর বলা কথা হঠাৎ মনে পড়ে গেলো। " ভার্চুয়ালি প্রেম করা আর পলিথিনে মুড়িয়ে রসগোল্লা চিবানো এক কথা"। (শয়তানিহাসি)(খিকখিক)(খিকখিক)

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: *ভার্চুয়ালপ্রেম* খুব কম মানুষ আছেন যাদের কপালে খাটি ভালোবাসা জুটে ।। আমি বিশ্বাস করি যে ভার্চুয়ালপ্রেম এ খাটি প্রেম বলতে কিছুই থাকে না , থাকে শুধু মোহ ।। শেষ হয়ে গেলেই সব কিছু শেষ ।।

রানা মাসুদ: *ভার্চুয়ালপ্রেম* নতুন একটি টপিকস।(জোস) ভার্চুয়াল পরিচিতি ভাল তবে(না)(না)(না)(না) ভুলেও *ভার্চুয়ালপ্রেম* করা উচিৎ না(শয়তানিহাসি) *ভার্চুয়ালপ্রেম* করার অনেক পর হয়তো জানতে পারবেন ৬ মাস ধরে যার সাথে *ভার্চুয়ালপ্রেম* করছেন তিনি হয়তো আপনার ফাজিল কোন বন্ধু(খিকখিক)(খিকখিক)(খিকখিক)

সাদাত সাদ: *ভার্চুয়ালপ্রেম* যতক্ষণ নেট আছে ঠিক ততক্ষণ সেই প্রেম ও আছে নেটওয়ার্ক নেই প্রেম ও নেই। ভার্চুয়াল প্রেমের কাহিনী অনেক পড়েছি এবং দেখেছি। সব গুলোতেই ধোঁকাবাজির খেলা

*ধোঁকাবাজি*

দীপ্তি: পুরো পৃথিবীই চলছেই ভালোবাসার টানে;আকাশ, নক্ষত্র, চাঁদের জোছনা, সূর্যের আলোতে ভালোবাসা প্রকাশিত হচ্ছে দিন-রাত্রি। ভালোবাসা এখন কি এসে আশ্রয় নিল মুঠোফোনে, বুড়ো আঙুলে লিখে চলা এসএমএসে কিংবা স্ট্যাটাসে, ল্যাপটপে, ডেস্কটপের কিবোর্ডে ! ভালোবাসার স্ট্যাটাস কি এখন পরিণত হয়েছে ফেসবুকের স্ট্যাটাসে? ফেসবুক বন্ধ হবার পর কিছু মানুষ নাকি ভালোবাসাও নিয়ে উদ্বিগ্ন (ব্যাপকটেনশনেআসি)

*ভার্চুয়ালপ্রেম* *ভালোবাসা*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

একটা পেইজে রোমান্টিক গল্প পড়ছিলাম। গল্প টা ভালই লাগলো, মিউজিক ভিডিও করার মত গল্প। গল্প টা পড়ে কমেন্ট করতে গেলাম কমেন্ট বক্সে, কিন্তু উপরের একটা কমেন্টে চোখ আটকে গেলো।

কমেন্টটা ছিল একটা মেয়ের, কমেন্টটা এরকম ছিল - "আবির নাম টা এত সুন্দর লাগে কেনো?"। (গল্পের নায়কের নাম আবির ছিল) যাই হোক কৌতুহল বশত আইডিটাতে ঢুকলাম, দেখতে ভালই মেয়েটা। প্রেম ভালবাসা মুলক ছোট ছোট স্ট্যাটাস শোভা পাচ্ছে তার টাইমলাইনে।

মাথায় একটা দুষ্ট বুদ্ধি চাপলো। আনইউজ একটা আইডি ছিল, সেই আইডির নাম চ্যাঞ্জ করে "আবির হাসান" রাখলাম এবং ম্যাডামফুলিকে রিকুয়েস্ট পাঠাইলাম। আমি একটু অবাকই হলাম, কেননা রিকুয়েস্ট পাঠাতে দেরি এক্সেপ্ট করতে এক সেকেন্ডও দেরি হয়নি। সে আবার সাথে সাথেই আমার ফটো দেখছিলো আর টাইমলাইনের পুরানো স্ট্যাটাস গুলো পড়ছিলো। আমিও তার টাইমলাইনে গিয়ে স্ট্যাটাস এ প্রেম রসাত্নক কমেন্ট করতে দেরি করলাম না, মানসম্মত কমেন্ট যে সেদিন মাথায় কিভাবে আসছিলো তা বুঝতেই পারছিলাম না।

অতঃপর ম্যাডামফুলি নক করলেন- "আপনার নামটা অনেক সুন্দর আর আমার পছন্দের এবং আপনার কমেন্টগুলো অনেক রোমান্টির আর মজার। এই কথা সেই কথায় সম্পর্ক থ্রিজি গতিতে এগিয়ে চলছে। একদিনেই সব কম্পলিট শুধু প্রপজ করা বাকি,দুজন দুজনের অপেক্ষায় ছিলাম।

যাই হোক পরদিন নক করলাম। ম্যাডামফুলি - কুত্তা, বিলাই, শিয়াল, আদা,রসুন, পিয়াজ ইত্যাদি বাংলা গালি দিয়া কহিলো, সালা কয়টা প্রেম লাগে তোর? রিলেশন শিপ স্ট্যাটাস দিয়া রাখছস কোন মাইয়ার লগে? যা ভাগ.. ইত্যাদি ইত্যাদি। অতঃপর নামটা কালো হইয়া গেলো ম্যাডাম ফুলির।

ধুর সালা, রিলেশনশিপ টা এডিট করার মনেই ছিলনা। অনেকদিন আগে এক বান্ধবি তার বয়ফ্রেন্ড কে জেলাস করার জন্য আমার এ আইডির সাথে রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস দিয়েছিলো। ধ্যাৎ....

নিজের ভুলেই একখানা নিষ্পাপ ভালবাসার মৃত্যু হইলো....
*ভালোবাসা* *গল্প*
*গল্প* *ফেসবুকপ্রেম* *ভার্চুয়ালপ্রেম*

তৌফিক পিয়াস: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আজকাল প্রেম, ভালোবাসা, দাম্পত্য ইত্যাদির সাথে ফেসবুক ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে গেছে। আর জড়াবেই তো। যেখানে আমাদের নিত্য দিনের প্রতিটি মুহূর্ত জড়িয়ে গেছে ফেসবুকের সাথে, সেখানে খুব স্বাভাবিকভাবেই প্রেম ও দাম্পত্যের মত বিষয়গুলো উঠে আসবেই। মজার ব্যাপার হচ্ছে, নিজে বিবাহিত হোক বা অবিবাহিত, নিজের মনের মানুষ থাকুক বা থাকুক, ফেসবুকে অন্যদের প্রেম-ভালোবাসা দেখে বেশিরভাগ মানুষের মনেই আসে কিছু বিচিত্র ভাবনা! যেগুলো কেউ মুখে উচ্চারণ না করলেও মনে মনে ঠিকই ভাবেন। চলুন, জেনে নিই মজার ভাবনাগুলোঃ

১) বেশি বেশি ভাব দেখাচ্ছে!
নিজে হয়তো সারাক্ষণই নিজের সম্পর্কটি নিয়ে স্ট্যাটাস বা ছবি ফেসবুকে দেন। কিন্তু অন্য কারোটা দেখলে সবার আগে এই ভাবনাটাই মনে আসে অধিকাংশ মানুষের।

২) সবার একটা সম্পর্ক আছে, আমার কেন নেই?
এই ভাবনাটা যারা সিঙ্গেল, তাঁদের মনে আসে সেটা বলাই বাহুল্য।

৩) ওরা কি আসলেই এতটা সুখী?
ফেসবুকে অন্যের সম্পর্কের প্রদর্শন দেখে বেশিরভাগ মানুষই এটা ভাবেন। অবশ্য ভাবনাটা অনেক ক্ষেত্রে সত্যও বটে। শো অফ করার খাতিরে অনেকেই বাড়াবাড়ি করেন।

৪) সবাই সুখী, কেবল আমি নই!
নিজের প্রেম বা বিয়ে নিয়ে যারা সুখী নন, তাঁদেরই মনে হয় এটা।

৫) বেশি অশ্লীলতা করছে
নিজেরটা মনে না হলেও, অন্য মানুষের সাধারণ ছবিও অনেকের কাছে অশ্লীল মনে হয়। তাঁরা ভুলে যান যে ফেসবুক আইডি নিজের ব্যক্তিগত সম্পত্তি। যার যেটা ইচ্ছা করতেই পারেন। ভালো না লাগলে আন ফ্রেন্ড করার অপশন খোলা।

৬) ভালোবাসা না কচু, টাকা পয়সা দেখাচ্ছে
হয়তো প্রিয় মানুষকে নিয়ে কোথাও খেতে গিয়েছেন বা বেড়াতে গিয়েছেন, এইসব বিষয় দেখে অনেকেরই মনে হয় যে ভালোবাসার মোড়কে আসলে অর্থ বিত্ত দেখাতে চাইছেন আপনি।

৭) তাঁর মনের মানুষটি আমার জনের চাইতে বেশি সুন্দর!
নারী-পুরুষ উভয়েই কিন্তু মনে মনে এই আফসোস করেন।

৮) ইস, এই মানুষটি যদি আমার হতো!
যারা নিজের সঙ্গী বা সঙ্গিনীকে নিয়ে খুশি নন, তাঁরা আরেকজনের সঙ্গী বা সঙ্গিনীকে মনে মনে কামনা করতেও ছাড়েন না।

৯)আমিও এমন একটি সম্পর্ক চাই
একটু সুখী জুটিকে দেখলে অনেকেই এটা ভাবেন। ভুলে যান যে প্রতিটি সম্পর্কই নিজের মত করে বিশেষ।

১০) এইসব প্রেম-ভালবাসা ফালতু, দুদিন পর কিছুই থাকবে না!
যারা ভালোবেসে কষ্ট পেয়েছেন, এটা মূলত তাঁদের ভাবনা।

সূত্র- সাইকোলজিটুডে এবং প্রিয়ডটকম
*ভালবাসা* *প্রেম* *ফেসবুক* *ভার্চুয়ালপ্রেম* *ফেসবুকপ্রেম*

A1-Mamu9 রাসেল বেশটুনটি শেয়ার করেছে

কিছু অনুভুতি ..কিছু সম্পর্ক ..কিছুটা অভিমান .স্পর্শের বাইরে | শুধুই ভার্চুয়াল ...||
হয়তো এমন কাউকে পেয়েছ কিন্তু আরো ভালো কাউকে পাবার আশায় যদি খুজতেই থাকো, এমন একদিন আসবে যেদিন তুমি উপলব্ধি করবে - তোমার জন্য সবচেয়ে ভালো মানুষটিকে তুমি পেছনে হারিয়ে ফেলেছ | তখন আর তাকে ফিরে পাওয়ার কোনো উপায় থাকবে না .... কোনো এক মনীষী
*সম্পর্ক* *ভার্চুয়ালপ্রেম*

মো:আ:মোতালিব: একটি বেশব্লগ লিখেছে

জীবনের সঙ্গী-সঙ্গিনী খুঁজে পেতে বর্তমানে অনলাইন ডেটিং সাইট বা বিয়ের পাত্র-পাত্রী সন্ধানের সাইটগুলোকে বিশাল ক্ষেত্র হিসাবে দেখছেন আধুনিক নারী-পুরুষরা। প্রিয় মানুষটিকে খুঁজে নিতে পথের দূরত্ব আর কোনো সমস্যা নয়। তবে এ ক্ষেত্রেও নানা সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। তারপরও এসব সাইটের গুরুত্ব বাড়ছে। এ ধরনের সাইট থেকে আপনার জীবনসঙ্গী বা সঙ্গিনীকে খুঁজে পেতে নিন ৭টি পরামর্শ।
১. প্রচ্ছদ দেখে বই পছন্দ নয় : এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কোনো নারী বা পুরুষের ছবি দেখে তার প্রেমে পড়ে যাবেন না। বহু মানুষ এখানে রয়েছেন যারা সমস্যা সৃষ্টি করছেন। তাদের এড়িয়ে যেতে হলে ছবি দেখে পছন্দ করলেও চোখে না দেখা পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্তে যাবেন না।
২. গবেষণা চালান : একবার কাউকে পছন্দ করলে তার প্রোফাইল নিয়ে গবেষণা চালাতে থাকুন। গুগল প্লাস, ফেসবুক বা লিঙ্কএডিন এর মতো অন্যান্য সোশাল সাইটে তার প্রোফাইল দেখুন। মানুষটির দেওয়া তথ্যে অসঙ্গতি রয়েছে কিনা তাও দেখে নিতে হবে। তার বিষয়ে কোথাও কখনো কোনো তথ্য ও খবর চাপা পড়ে রয়েছে কিনা তা নিয়ে গবেষণা চালান।
৩. প্রথম পদক্ষেপ গ্রহণে ভয় নয় : ডেটিং সাইটে পছন্দের মানুষটির সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য নিয়ে যদি দেখেন কোনো ঝামেলা নেই, তবে তাকে নিয়ে চিন্তার রাস্তা খুলে দিতে পারেন। এবার প্রয়োজন যোগাযোগের। আর এ জন্য কোনো অস্বস্তি ছাড়া আপনিই প্রথম পদক্ষেপ নিতে পারেন। সাধারণত এর পরের ধাপে চ্যাটিং দিয়ে শুরু করতে পারেন। এর মাধ্যমে বহু তথ্য নিতে পারবেন এবং আগ্রহ বাড়লে দেখা করার বিষয়টি আসতে পারে।
৪. চ্যাটে সাবধান হোন : যোগাযোগের শুরুতে দুই ধরনের মানুষ পাওয়া যায়। এক দল চ্যাট থেকে খুব দ্রুত ফোনে কথা বলাতে যেতে চান। অন্য দলটি চ্যাটিংয়েই আগ্রহী থাকেন। অপরজন কী বলছে তা বিষয় নয়। আপনার কাছে যা ভালো লাগবে তাই করতে চাইবেন।
৫. আবেগ নিয়ন্ত্রণে রাখুন : চ্যাটিং বা ফোনে আলোচনার ক্ষেত্রে আবেগকে নিয়ন্ত্রণে রাখবেন। দেখা করে দুজন দুজনকে বোঝার আগে চ্যাটিং বা কথার আবেগে জড়িয়ে পড়বেন না।
৬. গোপনীয়তা অবমুক্ত নয় : চেনা-জানার অর্থ নিজের সব গোপনীয়তা খোলাসা করা নয়। অন্তত চ্যাটিং বা ফোনে কথা বলার স্তরে তা করবেন না। বিশেষ করে নিজের উপার্জন, পরিবারের সমস্যা ইত্যাদি বিষয়ে এত আগেই কিছু বলবেন না।
৭. সময় দিন : জীবনের জন্য যাকে খুঁজছেন, তাকে খুঁজে পেতে সময় ব্যয় করুন। এমনও হতে পারে আপনার ভুয়া আইডি কোনো মানুষের সঙ্গে বেশ কিছু সময় নষ্ট করতে হবে। কিন্তু খুঁজতে থাকুন, মনের মতো মানুষটির দেখা পেয়ে যাবেন।
*ভার্চুয়ালপ্রেম*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★