ভ্যাকুয়াম ক্লিনার

ভ্যাকুয়ামক্লিনার নিয়ে কি ভাবছো?

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

ঘর গেরস্থালির সাফাই তথা পরিচ্ছন্নতা অভিযানে প্রযুক্তির সেরা দানগুলোর একটি হলো ভ্যাকুয়াম ক্লিনার। ঘরের যেকোনো স্থানে যেখানে ঝাড়ু কিংবা কাপড় দিয়ে পরিস্কার করা চলে না সেখানেও অনায়াসে নিজের ক্যারিশমা দেখাতে পারে ভ্যাকুয়াম ক্লিনার।

কিনতে ক্লিক করুন l নানা ধরনের ভ্যাকুয়াম ক্লিনার রয়েছে। আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী বেছে নিন। সিলিন্ড্রিক্যাল ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ছোট ও হালকা। এতে মোটামুটি সব জায়গা পরিষ্কার করা যায়। আপরাইট ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ভারী। এই ক্লিনার বেশি পরিমাণে ধুলা-ময়লা টেনে নিতে পারে। এটি কার্পেটের মতো ভারী জিনিস পরিষ্কার করার জন্য।

(এই যন্ত্রটি দিয়ে আপনি সহজে আপনার গাড়ির ভেতরের অংশ ক্লিন করতে পারবে, পাশা পাশি বাসা বা অফিসের কাজেও ববহার করা যাবে গাড়ি পরিষ্কারের জন্য বিশেষভাবে ব্যাবহারযোগ্যভোল্টেজ: ১২V পাওয়ার কনজাম্পসন: 48W)

কিনতে ক্লিক করুন l

জেনে নিন ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের সঠিক ব্যবহার

  • প্রতিটি ব্র্যান্ডের ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের সঙ্গে একাধিক অ্যাটাচমেন্ট থাকে। কেনার আগে সব অ্যাটাচমেন্ট লাগিয়ে এবং খুলে দেখুন। প্লাস্টিক থেকে মেটাল অ্যাটাচমেন্ট বেশিদিন টেকে। গ্যারান্টি ও সার্ভিসিংয়ের পূর্ণাঙ্গ তথ্য জেনে নিন। অনেক ভ্যাকুয়াম ক্লিনারে ডাস্টব্যাগ থাকে না। ডাস্টব্যাগসহ ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ব্যবহার সুবিধাজনক। সব ধুলা-ময়লা সিল করা ব্যাগে জমা হয়। ব্যাগ ভর্তি হলে পরিষ্কার করে ফেলা যায়।ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের পাওয়ার বা এনার্জির ওপর কর্মক্ষমতা নির্ভর করে। সিলিন্ড্রিক্যাল ক্লিনার ১৪০০ ওয়াট আর আপরাইট সিলিন্ড্রিক্যাল ১৩০০ ওয়াট হলে ভালো হয়।

কিনতে ক্লিক করুন l

  • ম্যানুয়ালের নির্দেশ অনুযায়ী ক্লিনারের অ্যাটাচমেন্ট ব্যবহার করুন। যেমন- ঘরের কর্নারের জন্য সরু মুখ ভ্যাকুয়াম ক্লিনার। আবার কার্পেট পরিষ্কারের জন্য ব্রাশযুক্ত ক্লিনার ভালো। প্রতিবার ব্যবহারের পর ভ্যাকুয়াম ক্লিনার পরিষ্কার করুন। অ্যাটাচমেন্ট পরিষ্কার করার গাইডলাইন ম্যানুয়ালে লেখা থাকে। কিছু জিনিস ব্রাশ দিয়ে পরিষ্কার করতে হয়, কিছু আবার সাবান-পানিতে ধুতে হয়।

কিনতে ক্লিক করুন l

  • ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ভালো রাখতে ডাস্টব্যাগ ভর্তি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পরিষ্কার করুন। পরিষ্কার করার সময় সামনে-পেছনে ধীরে ধীরে ভ্যাকুয়াম ক্লিনার মুভ করুন। সহজেই ময়লা উঠে আসবে। টেবিল-চেয়ারের মতো ছোট ফার্নিচার সরিয়ে ভ্যাকুয়াম ক্লিন করুন। ভালোভাবে পরিষ্কার হবে।

(হাই কোয়ালিটি ভ্যাকিউম ক্লিনার পাওয়ারফুল সাকশন বায়োনিক কার্টুন ডিজাইন লাইটওয়েট, সুবিধাজনক ব্যবহার সম্পুর্ণ এক্সেসরিজ, পছন্দসই ব্যবহার কালারঃ র‍্যান্ডম পাওয়ার সাপ্লাই - 220V, 50/60 Hz, 1000W)

কিনতে ক্লিক করুন l

  • অনেক সময় ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের চাকা মেঝের ক্ষতি করে। দেখে নিন চাকায় ঠিকমতো প্যাডিং দেওয়া রয়েছে কি না। ভ্যাকুয়াম ক্লিনার রাখার জন্য ঘরের কোণে উপযুক্ত জায়গা বেছে নিন এবং অবশ্যই শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন।

(হাই কোয়ালিটি ভ্যাকিউম ক্লিনার পাওয়ারফুল সাকশন বায়োনিক কার্টুন ডিজাইন লাইটওয়েট, সুবিধাজনক ব্যবহার সম্পুর্ণ এক্সেসরিজ, পছন্দসই ব্যবহার কালারঃ র‍্যান্ডম পাওয়ার সাপ্লাই - 220V, 50/60 Hz, 1000W)

কিনতে ক্লিক করুন l 

 

যেখানে পাবেন: ভ্যাকুয়াম ক্লিনার পাওয়া যাবে রাজধানীর নিউমার্কেট, চন্দ্রিমা মার্কেট, এলিফ্যান্ট রোডের বিভিন্ন দোকানে। এ ছাড়া গুলশান ডিসিসি মার্কেটে, পল্টন ও গুলিস্তানের বিভিন্ন মার্কেটে ব্র্যান্ড, নন-ব্র্যান্ড—সবই মিলবে। ইলেকট্রনিকসের বিভিন্ন শোরুমে মিলবে ভ্যাকুয়াম ক্লিনার l এছাড়া দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মল আজকের ডিলেও পেয়ে যাবেন নানা ব্রান্ডের এবং নানা দামের ভ্যাকুয়াম ক্লিনার l 

কিনতে ক্লিক করুন l

দরদাম : বাজারে এখন ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের দাম একটু বাড়তি। ব্র্যান্ডের ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ১ হাজার ২০০ থেকে ৩ হাজার ৫০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাবে। তবে ওয়ারেন্টি পেতে হলে ২ হাজার ৫০০ থেকে ১০ হাজার টাকার মধ্যে কিনতে হবে। যদি নন-ব্র্যান্ড কিনতে চান তবে খরচ পড়বে ১ হাজার ২০০ থেকে ২ হাজার টাকা। 

*গৃহস্থালিসামগ্রী* *ভ্যাকুয়ামক্লিনার*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★