ভ্যালেন্টাইন ডে

ভ্যালেন্টাইনডে নিয়ে কি ভাবছো?

দীপ্তি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

ভালোবাসা দিবসে নিজে তৈরি করুন রেড ভেলভেট কেক। আর চমকে দিন প্রিয় মানুষটিকে। প্রিয়জনের সাথে সময়টাকে উপভোগের পাশাপাশি উপহার হিসেবেও আপনার নিজের হাতে বানানো একটি সুন্দর কেকের মতো ভালো উপহার আর কি হতে পারে।  তাই প্রিয়জনকে নিয়ে একটি আনন্দঘন মুহূর্ত কাটানোর জন্য নিজেই বানিয়ে ফেলুন রেড ভেলভেট চিজ কেক। চলুন শিখে নেই রেসিপি, আমি এই রেসিপি শিখেছি প্রথম আলোর নকশা থেকে। 

উপকরণ:
ময়দা আড়াই কাপ, বেকিং সোডা ১ চা-চামচ, কোকো পাউডার ১ চা-চামচ, চিনি দেড় কাপ, ডিম ২টি, ক্যানোলা তেল দেড় কাপ, ভিনেগার ১ চা-চামচ, খাবার রং ২৮ মিলিলিটার, ভ্যানিলা ১ চা-চামচ, বাটার মিল্ক ১ কাপ।

ক্রিম চিজ ফ্রসটিংয়ের জন্য: মারজারিন আধা কাপ, ক্রিম চিজ ১ কাপ, চিনি ১ কাপ, ভ্যানিলা আধা চা-চামচ, বাদাম ভাজা (গুঁড়া) ১ কাপ।


প্রণালি: প্রথমেই মাইক্রোয়েভ ওভেন ৩৫০ ডিগ্রিতে গরম করে নিতে হবে। এরপর ময়দা, বেকিং সোডা, কোকো পাউডার মেশাতে হবে একটার পর একটা। একটি বড় বোলে চিনি আর ডিম একসঙ্গে বিট করতে হবে। এবার অন্য একটি বাটিতে তেল, ভিনেগার, খাবার রং, ভ্যানিলা মিশিয়ে নিন। চিনি ও ডিমের সঙ্গে সব মিলিয়ে আরও একবার বিট করতে হবে। যাতে ভালো করে মিশে যায়। ময়দা ও বাটার মিল্কের মিশ্রণের সঙ্গে ধীরে ধীরে মেশাতে হবে। শুরু ও শেষ ময়দা দিয়েই করতে হবে।


একটি প্যানে বাটার ব্রাশ করে তাতে মিশ্রণটি ঢেলে ২৫ মিনিট বেক করতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে যেন বেশি বেক না হয়। ঠান্ডা হয়ে গেলে ক্রিম চিজ ফ্রসটিং দিয়ে সুন্দর করে পরিবেশন করুন।

ক্রিম চিজ ফ্রসটিং তৈরির প্রণালি: মারজারিন ও ক্রিম চিজকে ঘরের তাপমাত্রায় নরম করে নিতে হবে। তারপর এতে চিনি মিশিয়ে বিট করুন এবং ভ্যানিলা ও বাদাম দিন। খেয়াল রাখতে হবে যেন বেশি বিট না হয়, তাহলে ক্রিম হবে না।

কৃতজ্ঞতা : নকশা ( প্রথমআলো) 

*ভ্যালেন্টাইনডে* *চিজকেক* *রেডভেলভেটচিজকেক* *ভালোবাসাদিবস* *কেক* *কেকরেসিপি* *ভালোবাসাদিবসেরকেক* *উপহার*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

বাঙালির ফ্যাশনে সবসময়ই আলাদা করে জায়গা দখল করে রেখেছে পাঞ্জাবি। তাই শীতের পর বসন্তে ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবসকে সামনে রেখে আজকের ডিল নিয়ে এসেছে নতুন নতুন ডিজাইনের আকর্ষণীয় সব পাঞ্জাবি, তাও আবার সাশ্রয়ী মূল্যে। এবারের ফ্যাশনে  স্লিমফিট ও একছাঁট কাটিংয়ে পাঞ্জাবি বেশ চলছে। এই ফাল্গুনের ভালোবাসা দিবসে আপনিও সেজে উঠতে পারেন আকর্ষণীয় পাঞ্জাবিতে। এবারে ফাল্গুনে দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপ আজকের ডিলে পাবেন লো প্রাইসে লেটেস্ট পাঞ্জাবি। চলুন এই ফাল্গুনের লেটেস্ট কয়েকটি পাঞ্জাবি দেখে নেই।আমাদের কাছে ভালোবাসা দিবস কিন্তু শুধু একটা দিবস নয় বরং তা আমাদের বসন্ত দিনের যাত্রা শুরুর দ্বিতীয় ক্ষণ।

বলুন তো, ভালোবাসার রঙ কি? কল্পনার ভালোবাসার রঙ যেন লাল। ভালোবাসার সূক্ষ্ম সূক্ষ্ম অনুভূতি প্রকাশ করার একমাত্র রঙ হচ্ছে লাল। এ জন্য লাল রঙকেই ভালোবাসার রঙ হিসেবে মনে করা হয়। আর তাই তো সব পোশাকেই লাল রঙের একটা কম্বিনেশন রয়েছে। ভালোবাসার দিন বলে কথা। যদিও একদিনের ভালোবাসায় বোধকরি অনেকেই বিশ্বাসী নয়। তারপরও একটি বিশেষ দিনে ভালোবাসার আলাদা একটা গুরুত্ব তো অবশ্যই থাকে। কেননা একটি দিন ভালোবাসার স্পেশাল দিন মানে প্রিয় মানুষটিকে চমকে দেয়ার বিষয় তো থাকেই।

আর তাই তো নিজের প্রেজেন্টেশন কিংবা উপহার দিয়ে মুহূর্তেই প্রিয় মানুষকে সারপ্রাইজ দিতে পারেন। তবে সবকিছুর আগে ভালোবাসা দিবসে নিজেকে পোশাক-আশাক থেকে শুরু করে সবকিছুতেই একটু ভিন্নভাবে উপস্থাপনের চেষ্টা করুন। তবে ভালোবাসা দিবস বলে শুধু লালেই আটকে থাকবেন না। যেকোনো উজ্জ্বল রঙই এই সময়ের জন্য এবং প্রেমের জন্য ভালো। পছন্দমতো হালকা গোলাপি, উজ্জ্বল হলুদ, পার্পল, সুন্দর নীল যেকোনো রঙের পোশাকই আপনি পরতে পারেন। 

বসন্তে হলুদ ও ভালোবাসা দিবসে লাল রংকে ফোকাস করে পহেলা ফাল্গুন ও ভালোবাসা দিবসে উপলক্ষে দেশের শীর্ষ ফ্যাশন হাউজগুলো আয়োজন করেছে বসন্তের নানা সম্ভার। আপনি যদি চান হাজার হাজার পোশাকের মধ্য থেকে আপনি আপনার পছন্দেরটি বেছে নিবেন তাহলে ঘুরে আসুন আজকেরডিলের ওয়েবসাইট থেকে। যদি ভেবে থাকেন নতুন পাঞ্জাবি কেনা মানে হাজার হাজার টাকার খরচা, তাহলে ভুল করবেন। এক হাজার টাকার নিচেই পাওয়া যাচ্ছে চমৎকার পাঞ্জাবি। দাম কম হলেও মান কিন্তু খারাপ না। এক ক্লিকে ঘরে বসে পাঞ্জাবি কিনতে এখানে ক্লিক করুন। 

 

*পাঞ্জাবি* *ভালোবাসাদিবসেরফ্যাশন* *উপহার* *স্মার্টশপিং* *ভ্যালেন্টাইনডে*

মুস্তাফা: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 valentine's day -এর পেছনে ইতিহাস কি ছিল?

উত্তর দাও (২ টি উত্তর আছে )

*ভালোবাসাদিবস* *ভ্যালেন্টাইনডে*
৫/৫

পাগলী: ভালোবাসা-দিবস এলো আবার চলেও গেল। সবাই দেখি এখানে চুপচাপ। কেউ কিছু শেয়ার করছেনা। কার কেমন কাটলো এই দিন টা? খুব জানতে ইচ্ছে করছে। কাউকে ট্যাগ করলাম না, সবার জন্য উন্মুক্ত রেখেছি। দেখি কে কে আমাকে জানায়।

*ভালোবাসা-দিবস* *ভ্যালেন্টাইনডে*

মেহেদি হাসান: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আয ১৪ফেব্রুয়ারী বিশ্ব বেহায়া দিবস। কিছু ধর্ষিত হবে। কিছু মেয়ে লাঞ্চিত হবে। কিছু মেয়ে তালাক প্রাপ্ত হবে। কিছু মেয়ে ইজ্জত হারাবে। কিছু মেয়ে সতিত্ত্ব হারাবে। কিছু মেয়ে বেশ্যা হবে। কিছু মেয়ে অবৈধ গর্ভপাত করবে। কিছু মেয়ে মা বাবার স্বপ্ন ভেঙ্গে দুই মিনিটের সুখের জন্য কারো লালসার শিকার হবে। এক কথায় মুসলিম যুবসমাজকে ধ্বংস করার অতীব ষড়যন্ত্রের বর্তমান রূপ হচ্ছে এই বিশ্ব ভালোবাসা বা বিশ্ব বেহায়া দিবস। আজ সংস্কৃতির নামে অপসংস্কৃতি, সভ্যতার নামে অসভ্যতা, বেহায়াপনা দ্বারা পুরো মুসলিম যুবসমাজকে বিপথগামী ও চরিত্রহীন করার জন্য মরণপন চেষ্টা চলছে। আর বর্তমানে ভালোবাসা মানেই তো হলো নির্লজ্জতা ও বেহায়াপনা যা ইসলাম কোনোভাবেই সমর্থন করে না। কালের বিবর্তনে দিনদিন আমাদের মধ্যে সাংস্কৃতিক বিপর্যয় নেমে এসেছে। মুসলমানেরা আজ নিজস্ব সংস্কৃতি ছেড়ে অপসংস্কৃতির অনুসরন করছে। অথচ মুসলিম সমাজে এক সময় নীতি -নৈতিকতার মূল্য ছিলো সীমাহীন। লজ্জাশীলতা ও বিশুদ্ধতা ছিলো সেই সমাজের অলংকার। সেই অবস্থা থেকে আজ আমরা কোন দিকে যাচ্ছি? বিজাতীয়দের মতো ভ্যালেন্টাইন ঐতিহ্যকে অনুসরণ করে মুসলমানেরাও যদি একইভাবে এই দিবসটি পালন করে তাহলে তাদের সাথে আমাদের পার্থক্য থাকে কোথায়? আল্লাহ পাক আমাদেরকে এই নগ্ন সংস্কৃতি বর্জনের তৌফিক দান করুন আমিন.
*ভ্যালেন্টাইনডে* *ভ্যালেনটাইন*

শ্রীলা উমা: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আজকে তো ভালবাসা দিবস... স্পেশাল দিন মানতেই হবে l কিন্তু কতিপয় মানুষের বদ্ধমূল ধারণা ভ্যালেন্টাইন ডে মানেই চড়কির মত কারো সাথে বন বন করে ঘোরা l তাদের মনে এই ধারনাটা এত পাকাপোক্ত আবাস গড়ল কি করে আমি ঠিক জানি না !!! হ্যা তাই বলে কি মানুষ বিশেষ কারো সাথে ঘুরবে না ? অবশ্যই ঘুরবে আলবত ঘুরবে.... কিন্তু তাই বলে সবাই ঘুরবে এটা ভাবা তো ঠিক নয় তাই না ? যেমন আমি ঘুরি নাই এমন অনেকেই আছে যারা আজ বিশেষ কারো সাথে ঘুরতে বের হয় নি l তবে কি আমরা মানুষ নই !!!

আচ্ছা বাদ দেই ওসব কথা,আজকের একটা ঘটনা বলি যা বলতে চাইছিলাম আপনাদের..... সকালবেলা এক ফ্রেন্ড ফোন দিসে ক্লাসে থাকার দরুন প্রথমবার রিসিভ করতে পারি নাই,এই রিসিভ না করাতে কোনো রহস্যের গন্ধ পেয়ে বোধ করি সে দ্বিগুন উত্সাহে বারংবার ফোন দেয়া শুরু করলো ! অগত্যা কি আর করার রিসিভ করলাম ফোন... 
সাথে সাথে তার ঝলমলে কন্ঠ, "দোস্ত ফোন ধরিস না ব্যস্ত নাকি রে !" 
আমিও উত্তর দিলাম, "হ্যা রে খুব ব্যস্ত"
সে বোধ হয় আরো রহস্যের গন্ধ পাইল... তো জিজ্ঞাস করছে, "আছিস কই"
উত্তর দিলাম, "ক্লাসে"
বেচারা চুপসে যাওয়া কন্ঠে জানতে চাইল.... "মানেটা কি !!!"
এইবার আমি ঝলমলে কন্ঠে উত্তর দিলাম... "আমি ক্লাসে প্যাচাল পারতাসি,স্টুডেন্টরা চিত্কার চেঁচামেচি করতেছে তুই ব্যাটা ফোন রাখ এখন"

এখন কথা হইলো ভালবাসা দিবস বলে তো আর সব কাজ ফেলে চড়কি হতে পারি না.... চড়কির একটা অবলম্বন লাগে সবার আবার সেই অবলম্বন থাকে না....(খরগোশ)
*ভ্যালেন্টাইনডে*

জিসান: [ভুত-প্লীজ]দোআ করো আজ যেন আমাদের কোনো ভাই বোনের সর্বনাশ না হয় ...আজ ভ্যালেনটাইন ডে উপলক্ষে যেন কোনো gf /bf শারীরিক মিলন না করে ...আল্লাহ যেন আমাদের সব ভাই বোনদের পৃথিবীর এই শ্রেষ্ঠ পাপ থেকে রক্ষা করে .....

*ভ্যালেন্টাইনডে*

Taz Uddin: [পিরিতি-তোমারজন্য] ভাগ্নে ভাগ্নিকে নিয়ে মিনি বাংলাদেশে ভালবাসা দিবস কাটাচ্ছি,,ভালোই লাগছে(খুবকিউটলাগছে)

*ভ্যালেন্টাইনডে*
ছবি

আমানুল্লাহ সরকার: ফটো পোস্ট করেছে

shahnaz chaudhury: একটি বেশব্লগ লিখেছে

ভালোবাসার এইদিনে শুধু প্রেমিক-প্রেমিকা একে অপরের কাছে ভালোবাসা প্রকাশ করবে এমনটি নয়। মা-বাবা সন্তানের প্রতি, সন্তান মা-বাবার প্রতি, স্বামী-স্ত্রী, ভাইবোন, বন্ধু ইত্যাদি সবার কাছে ভালোবাসা প্রকাশের দিন যেমন এটি তেমনি মানুষে মানুষে ভালোবাসাবাসির দিনও এটি।
কবি নির্মলেন্দ গুণ সুন্দর ভাবে বলেছেন, ভালোবাসা একটি বিশেষ দিনের জন্য নয়। সারাবছর, সারাদিনের জন্য। তবে আজকের এ দিনটি ভালোবাসা দিবস হিসেবে বেছে নিয়েছে মানুষ।
তবে যে যাই বলুক, সবসময় ভালোবাসার জয় হয় হোক। বিশ্বের সবার মধ্যে ভালোবাসা প্রতিষ্ঠিত হোক। হাতে অস্ত্র, পেট্রোল বোমা বা ককটেল নয়, থাকুক সুরভিত ফুল।
*ভালোবাসাদিবস* *ভ্যালেন্টাইনডে*

মেঘবালক: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

৪/৫
চকোলেট ডে এর দিন... বালিকাঃ "অ্যাই, আজকে চকোলেট ডে ... আমাকে চকোলেট দাও !!" বালকঃ "অকা ... এই নাও এক বক্স চকোলেট !!" . টেডি ডে এর দিন... বালিকাঃ "অ্যাই, আজকে টেডি ডে ... আমাকে টেডি দাও !!" বালকঃ "অকা ... এই নাও বিশাল একটা টেডি বিয়ার !!"
কিস ডে এর দিন... বালকঃ "দোস্ত, কোথাও বালিকাকে দেখছিস ?? তারে আজকে সকাল থেকে হারিকেন দিয়ে খুঁজতেছি ... কোথাও পাচ্ছি না ... তারে আমার খুউউউব দরকার !!" ↓ ↓ ↓ ↓ ↓ দোস্তঃ "না রে ... ERROR 404: বালিকা NOT FOUND !!"
*ভালোবাসাদিবস* *ভ্যালেন্টাইনডে*
৫/৫

বাংলার বেদুঈন: [পিরিতি-কাছেআসো](শয়তানিহাসি)(শয়তানিহাসি)(শয়তানিহাসি)(শয়তানিহাসি) ভাত সালুন রান্ধুম না ব্যাডা কি পাইছে ? আইজ কি একবারও হে ভালবাসি কইছে ? সারাদিন কাম করি, কাপড় চোপর ধুই, একটুও কি ভালবাসা পাই না মুই ? আমি ফেলানির মা একটুও দাম নাই ? বেশি কিছু চাই না ভালবাসাই শুধু চাই.

*ভ্যালেন্টাইনডে*
ছবি

হাফিজ উল্লাহ: ফটো পোস্ট করেছে

৫/৫

(এদিকেআসো)

"'|___|'"| | ___ appy |__| |__| valentines day ((-_-))

*ভ্যালেন্টাইনডে*

পাগলী: https://www.youtube.com/watch?v=NbA59wU8GKQ ভালবাসার দিনে ভালবাসার কিছু গান শুনো...।

*ভালবাসারদিন* *ভ্যালেন্টাইনডে*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

বিশেষ দিবস নিয়ে লিখাঃ

অনেকেই হয়তো এই ভালোবাসা দিবসটির মর্মার্থ জানেন, আবার অনেকেই না।
আজ আর ইতিহাসের দিকে বাড়াচ্ছি না। আজ শর্টকাট নিজের মনের কিছু কথা বলবো।
অনেকেই হয়তো জেনে থাকবেন, এই দিবসগুলো ইংরেজ দের সংস্কৃতি থেকে এসেছে।
ইংরেজদের ভালোবাসা সবসময় ই পরিবর্তনশীল। আজ একজন কে পাশে টানছে তো কাল আরেকজনকে টানছে। মোটর এর মত করে ঘুরতে থাকে, আর চরিত্রে দাগ কাটে।
হয়তো জেনে থাকবেন, ব্রেক আপ এর সংস্কৃতি টা ও তাদের সংস্কৃতি থেকেই এসেছে।

ইংরেজরা বাবা দিবস পালন করে, কারণ তারা শুধু ঐ দিনেই বাবাকে কাছে টানে।
ইংরেজরা মা দিবস পালন করে, কারণ তারা শুধু ঐ দিনেই মাকে কাছে টানে।

তাদের সারা বছর সময় হয় না, বাবা/মাকে কাছে টানার। তাই শুধু ঐ দিনেই তারা
বাবা/মাকে কাছে টেনে একসাথে খাওয়া দাওয়া করে তা উদযাপন করে থাকে।
আর তাই দিন দিন তাদের দেশে বৃদ্ধাশ্রম এর সংখ্যা বেড়ে যাচ্ছে।
আর ভালোবাসা দিবস টা ও ঠিক অনেকটাই অইরকম, একই সংস্কৃতি বলতে পারেন।
আর তাদের দেখা দেখি আমারাও কিছু না বুঝে তাদের কে অনুসরন করি।

বিশ্বাস করুন ভাই, আমরা বাংলাদেশী রা অনেক ভালো। অন্তত বাবা/মাকে আমরা অনেক ভালোবাসি। তাই আমরা কখনোই আমাদের দেশে বৃদ্ধাশ্রম কে সাপোর্ট করি না।
ভালোবাসা দিবস কিছুটা সাপোর্ট করলেও আমরা ভালোবাসার মূল্য দিতে জানি।
আসল কথা হচ্ছে, দিবস/টিবস এগুলো হচ্ছে ভুয়া। করতে হবে তাই করি।
ভালোলাগা টা চিরন্তন, আর সেই সাথে ভালোবাসা টা ও মহাচিরন্তন।

তাই আশা করছি, এই দিনটিকে অনেক স্পেশাল মনে করে কেউ নিজেকে কলঙ্কিত করবেন না।
ইংরেজরা হাজার খারাপ হোক, কিন্তু আমাদের সংস্কৃতি টা ই আমাদের শিখর।
এটাই আমাদের পূর্বপুরুষদের এক মহান অর্জন। আমরা এত সহজেই এর বলী দিতে চাই না।
আমরা চাই ভালোবাসার জয় হোক, কিন্তু কখনোই নিজের চরিত্র কে বলী দিয়ে নয়,
বরং নিজের ভালোবাসার আদর্শের মাধ্যমে ভালোবাসা হয়ে উঠবে মহীয়ান ইনশাল্লাহ।

জয় হোক সত্যের/জয় হোক মানবতার/ আর জয় হোক মহান ভালোবাসার।
*বাবা* *মা* *ভ্যালেন্টাইনডে*
*মা* *ভ্যালেন্টাইনডে*

পরশ পাথর: একটি বেশব্লগ লিখেছে

১৪ ফেব্রুয়ারি, বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। এই দিনটি নিয়ে জুটিদের কল্পনা জল্পনার শেষ নেই। অনেক আগে থেকেই প্ল্যান তৈরি করে ফেলেন দিনটি কীভাবে কাটাবেন তা নিয়ে। অনেকে আবার আশা করেও বসে থাকেন ভালোবাসার মানুষটি তার জন্য প্ল্যান তৈরি করে রাখবেন। কিন্তু এখনো যারা পছন্দের মানুষটির জন্য প্ল্যান তৈরি করতে পারেন নি তাদের কাজ কিছুটা সহজ করে দিতেই আমাদের আজকের ফিচার। ভালোবাসা দিবসে সারপ্রাইজ দিন নিজের পছন্দের মানুষটিকে। অবাক করে দিন নিজের ভালোবাসা প্রকাশের মাধ্যম দিয়ে।  

১) পুরো দিনের প্ল্যান করে ফেলুন

এবারের ভালোবাসা দিবস শনিবার। অনেকের ছুটির দিন, যাদের ছুটির দিন নয় তারাও চাইলে পছন্দের মানুষটির জন্য ১ টি দিন ছুটি নিয়ে নিন। প্ল্যান করুন পুরো দিনের জন্য। একটু ঘুরতে চলে যান ভালোবাসার মানুষটিকে নিয়ে। অনেকে হয়তো দেশের অবস্থা নিয়ে ভাবছেন, তাই একটু নিরাপদ জায়গা খুঁজে নিন ঘুরতে যাওয়ার জন্য। আপনার ১ টি দিনের সময় ভালোবাসার মানুষটিকে দেবে অনাবিল আনন্দ।

২) গিফট দিন তার পছন্দের কিছু

ভালোবাসা দিবসে গিফট দিন অনেক বুঝে শুনে। বিশেষ করে সঙ্গীর পছন্দ অনুযায়ী। আজকাল ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে ছাড় চলে অনেক ডায়মন্ডের শোরুমে। সারপ্রাইজ দিন ভালোবাসার মানুষটিকে খুব কাঙ্ক্ষিত একটি উপহার দিয়ে। এছাড়াও তার পছন্দের খুব আনকমন ধরনের জিনিস দিয়েও তাকে সারপ্রাইজ করতে পারেন।

৩) ক্যান্ডেল নাইট ডিনার

ভালোবাসা দিবসে সবচাইতে রোমান্টিক ডেট হলো ক্যান্ডেল লাইট ডিনার। প্রিয় মানুষটির জন্য বছরের ১ টি দিনই নাহয় একটু বেশী খরচ করে বুকিং দিয়ে দিন কোনো রেস্টুরেন্টের ক্যান্ডেল লাইট ডিনারের। খুব খুশী হয়ে যাবেন আপনার ভালোবাসা প্রকাশের এই মাধ্যমটিতে।

৪) ঘরেই তৈরি করুন রোমান্টিক পরিবেশ

যদি বাইরে যাওয়া একেবারেই নিরাপদ মনে না করেন তাহলে ঘরে মুখ ভার করে বসে থাকবেন না। ঘরের পরিবেশকেও করে তুলতে পারেন দারুণ রোমান্টিক। কিছু হালকা পাতলা চাইনিজ বা সঙ্গীর পছন্দের খাবার তৈরি করে ঘরেই করতে পারেন ক্যান্ডেল লাইট ডিনারের ব্যবস্থা। এতে করেও কিন্তু সারপ্রাইজ হয়ে যাবেন ভালোবাসার মানুষটি।

৫) নিজেদের একটি ভিডিও তৈরি করুন

অনেকেই নিজেদের পছন্দের মুহূর্তগুলো ছবি বা ভিডিওর মাধ্যমে ধরে রাখতে পছন্দ করেন। সেসকল ছবি ও ভিডিও নিয়ে তৈরি করে ফেলুন একটি ভালোবাসার ফ্ল্যাশব্যাক আর সারপ্রাইজ দিন সঙ্গীকে। জানিয়ে দিন আপনাদের ভালোবাসার গভীরতা একে অপরকে।

*বিশ্বভালোবাসাদিবস* *ভালবাসা* *ভ্যালেন্টাইনডে*
ছবি

অনি: ফটো পোস্ট করেছে

৫/৫

বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে অগ্রিম শুভেচ্ছা!

*ভ্যালেন্টাইনডে*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★