মেদ ভুড়ি

মেদভুড়ি নিয়ে কি ভাবছো?

shoptom kumar: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 পেটের মেদ কমাতে করনীয় কি

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

.
*মেদভুঁড়ি* *বেলিফ্যাট* *ভুঁড়ি* *ভুঁড়িসমস্যা* *পেটেরমেদ*

skhan daved: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 মেদ ভূড়ি কমতে পারে এমন খাবারের রান্না বলুন ।

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

.
*মেদভুঁড়ি* *পেটেরমেদ* *স্লিমিংটিপস*

দীপ্তি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

পেটের চর্বি কমানোর সবচেয়ে ভাল এক্সারসাইজ হলো প্লাঙ্ক। শুধু তাই নয়, এই বিশেষ ব্যায়ামের রয়েছে অন্য অনেক সুবিধেও। আর তাই আজকাল সেলেব্রেটি থেকে আমজনতা সবারই পছন্দের এই ব্যায়াম হচ্ছে প্লাঙ্ক। 

বাসায় যেভাবে এই এক্সারসাইজ করতে পারেন :

প্রথম দিকে টানা ১০-২০ সেকেন্ড করার চেষ্টা করুন। পরে ধীরে ধীরে বাড়াবেন। টানা এক মিনিট করতে পারলে বুঝবেন, আপনার ফিটনেস লেভেল বাড়ছে। প্লাঙ্কের রকমফের রয়েছে। বেসিক প্লাঙ্ক এবং এলবো প্লাঙ্ক দিয়ে শুরুটা করতে পারেন। তারপর লেগ রেজ, ওয়ান সাইডেড প্লাঙ্কও চেষ্টা করে দেখুন।

এই এক্সারসাইজ করার সময় পেটের মাসল টেনে রাখবেন। কিন্তু নিঃশ্বাস-প্রশ্বাস যেন স্বাভাবিক থাকে। নিজে থেকে একেবারেই এটা করতে যাবেন না। ইউটিউব দেখেও করতে পারেন, তবে সাবধানে। কোমরে ব্যথা হলে বুঝবেন, ঠিক মতো হচ্ছে না এক্সারসাইজটা। 

বাসায় করতে না চাইলে জিমে গিয়ে পেশাদারের সাহায্য নিয়ে করুন।

প্লাঙ্কের উপকারিতা অনেক, কিছু তুলে ধরছি :

  • পেটের চর্বি কমাতে সবচেয়ে ভাল এক্সারসাইজ।
  •  আপার-লোয়ার অ্যাবডোমেনের চর্বি স্রেফ প্লাঙ্কেই কমে যাবে।
  •  কোমরে যাঁদের ব্যথা, তাঁদের জন্য এটা উপকারী।
  • মেরুদণ্ড মজবুত করতে প্লাঙ্কের জুড়ি নেই।
  • অ্যাসিডিটির সমস্যা কমাবে।
  • বেশ কিছুদিন প্লাঙ্ক করলে দেখবেন, আপনার মেটাবলিজম রেট বাড়ছে। -
  • দেহের গঠন সুন্দর করবে। কারণ, শুধু পেটই নয়, কোমরের শেপ ঠিক করার জন্যও এই এক্সারসাইজ জরুরি।
  • নিয়মিত এটা করতে থাকলে দেখবেন, ফ্লেক্সিবিলিটি বেড়ে গিয়েছে। 
*ব্যায়াম* *ফিটনেস* *শরীরচর্চা* *পেটেরচর্বি* *স্লিমিংটিপস* *মেদভুঁড়ি* *লাইফস্টাইলটিপস*

★ছায়াবতী★: একটি টিপস পোস্ট করেছে

কোমরের মেদ দ্রুত কমাতে মাত্র ১ টি সহজ ব্যায়াম শিখে নিন
http://bangla.rupcare.com/%e0%a6%95%e0%a7%8b%e0%a6%ae%e0%a6%b0%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%ae%e0%a7%87%e0%a6%a6-%e0%a6%a6%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a7%81%e0%a6%a4-%e0%a6%95%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%a4%e0%a7%87-%e0%a6%ae%e0%a6%be/
দেহের অন্যান্য স্থানের মেদের তুলনায় অনেক বেশি বিরক্তিকর মেদ হচ্ছে কোমরের মেদ, ইংরেজিতে যাকে বলা হয় লাভ হ্যান্ডেলস। পেটের মেদ, হাত-পায়ের মেদ এমনকি মুখের মেদও বেশ সহজেই ঝড়িয়ে ফেলা সম্ভব হয়। কিন্তু কোমরের দুপাশে উঁচু হয়ে ফুলে থাকা এই বিরক্তিকর মেদ দূর করা বেশ কঠিন। তবে আপনার নিয়মিত মাত্র ১ টি ব্যায়ামে এই বিরক্তিকর কোমরের মেদও ঝড়িয়ে ফেলা সম্ভব বেশ সহজেই এবং দ্রুত। খুবই গুরুত্বপূর্ণ ও কার্যকরী মাত্র ১ টি ব্যায়াম শিখে নিন ...বিস্তারিত
*ব্যায়াম* *হেলথটিপস* *মেদভুড়ি*
৫২৮ বার দেখা হয়েছে

★ছায়াবতী★: একটি টিপস পোস্ট করেছে

পেটের চর্বি ঝরাতে হলে পুরো শরীরের চর্বি ঝরাতে হবে।
http://www.beautyandfitness24.com/%e0%a6%aa%e0%a7%87%e0%a6%9f%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%9a%e0%a6%b0%e0%a7%8d%e0%a6%ac%e0%a6%bf-%e0%a6%9d%e0%a6%b0%e0%a6%be%e0%a6%a4%e0%a7%87-%e0%a6%b9%e0%a6%b2%e0%a7%87-%e0%a6%aa%e0%a7%81%e0%a6%b0/
চর্বি কমার তিনটি ধাপ আছে। আর তা হল: চর্বি অবশ্যই ঝরতে হবে চর্বির কোষ থেকে। আর চর্বি ঝরার একটি কারণ থাকতে হবে, তাই শারীরিক পরিশ্রম বাড়াতে হবে। যে চর্বি ঝরে গেল তা রক্তের মাধ্যমে প্রবাহিত হয়ে সক্রিয় কোষ খুঁজবে, যেখানে তা জ্বালানি হিসেবে ব্যবহৃত হওয়ার সুযোগ পাবে। এরকম কোনো সক্রিয় কোষ খুঁজে পেলে সেখানে তা জ্বালানি হিসেবে ব্যবহৃত হবে। আমাদের শরীরে করটিসোল, ইনসুলিন, দুই ধরনের অ্যাড্রেনালেন, পুরুষের ক্ষেত্রে টেস্টোস্টেরন, নারীদের ক্ষেত্রে ইস্ট্রোজেন এবং প্রজেস্টেরন ইত্যাদি কয়েক ধরনের হরমোন আছে যা উপরের প্রক্রিয়াগুলো ঘটতে সাহায্য করে অথবা বাধা দেয়। এ কারণে যে কোনো ধরনের ব্যায়াম শুরু করার আগে ডাক্তরের পরামর্শ নেওয়া দরকার। তিনিই জানাবেন হরমোনগুলো ওই প্রক্রিয়াগুলোর উপর কী ধরনের প্রভাব ফেলবে। চর্বি খরচ হওয়ার পদ্ধতি জানা থাকলেও কেনো আপনার চর্বি ঝরছে না সে প্রশ্নের উত্তর পেতে চাইলে মিলিয়ে দেখতে পারেন নিচের তিনটি কারণ। # ভুল ব্যায়াম # নিয়মিত ক্রান্চ, প্ল্যাঙ্ক বা সিট-আপ ধরণের ব্যায়াম করার পরও পেটের চর্বি কমছে না অনেকেরই। কারণ এই ব্যায়ামের মাধ্যমে আপনি চর্বি কমাচ্ছেন না, চর্বির নিচের মাংসপেশি শক্তিশালী করছেন। এ ভুল শোধরাতে ‘কার্ডিও’ বা ‘ওয়েট ট্রেইনিং’ করা জরুরি। শুধু কার্ডিও ব্যায়াম করা চর্বি ঝরানোর জন্য যথেষ্ট না হলেও সারা শরীরের মাংসপেশির ব্যায়াম বিপাকীয় প্রক্রিয়া দ্রুত করে। ফলে প্রতিদিন ব্যায়াম না করলেও শরীরে বেশি ক্যালরি খরচ হয়। ফলে দ্রুত চর্বি কমানো সম্ভব হয়। # দুশ্চিন্তা # চর্বি না কমার একটি অন্যতম কারণ দুশ্চিন্তা। অনেকের আবার দুশ্চিন্তাই হল বাড়তি চর্বি নিয়ে। মানসিক চাপে থাকলে শরীরে নির্গত হয় ‘করটিসোল’ নামক হরমোন যা অপরিণত চর্বি কোষকে পরিণত করে তোলে। চর্বি বাড়ায় এমন খাবারের প্রতি আসক্তি হওয়ার কারণও এই হরমোন। সমাধান: নিজেকে সময় দেওয়া। তারমানে এই নয় ব্যায়াম করা বা পরিবার কিংবা বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটানো। বরং একটি নির্জন স্থানে আয়েশ করে বসে থেকে শরীরকে প্রকৃত অর্থে বিশ্রাম দিতে পারলেও দুশ্চিন্তা মুক্ত হওয়া সম্ভব। # অপর্যাপ্ত ঘুম # পেটের চর্বি না কমার আরেকটি বড় কারণ অপর্যাপ্ত ঘুম। ঘুম শরীরকে বিশ্রাম দেয়। পাশাপাশি না খাওয়া এবং ব্যায়াম না করলেও চর্বি ঝরানোর সুযোগ করে দেয়। প্রতি রাতে ৭ বা সাড়ে ৭ ঘণ্টা ঘুম না হলে আমাদের শরীর সেই সুযোগ পায় না। ফলে দিনের বেলা অবসাদগ্রস্ত করে ক্লান্তি বাড়ায়। বেশির ভাগ মানুষেরই পেটের চর্বি না কমার জন্য কমবেশি এই তিনটি কারণই দায়ী হয়ে থাকে। তবে এর বাইরেও বিভিন্ন সমস্যা থাকতে পারে, যার জন্য স্বাস্থ্যবিশেষজ্ঞ এবং ফিটনেস বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়া উচিত ...বিস্তারিত
*মেদভুড়ি*
৬৭৪ বার দেখা হয়েছে
৪/৫

রোমেল বড়ুয়া: [বাঘমামা-আম্মু] ইদানীং XL সাইজের শার্ট/টিশার্টও আমার ভুঁড়িটাকে লুকাতে পারেনা। (কান্না২) (মানিনা) বল রে সুবল বল দাদা কি করি আমি, কি করি আমি কি করি আমি, কি করি আমি।। (ব্যাপকটেনশনেআসি৩)

*ভুঁড়ি* *মেদভুড়ি*

★ছায়াবতী★: একটি বেশটুন পোস্ট করেছে

৩/৫
বহুদিন পরে এক বন্ধুর সাথে কথা হল জিজ্ঞেস করলাম কি করিস? ও বলল
ভূড়ি কমানোর উদ্দেশ্যে রাতে চারটা রুটি খেলুম - - - - - - - - -[বাঘমামা-ভাগো] ভাত খাওয়ার আগে!
*রসিকতা* *মেদ-ভুড়ি* *মেদভুড়ি*

ফাহিম মাশরুর বেশব্লগটি শেয়ার করেছে
"*স্লিমিংটিপস* *মেদভুড়ি* *ওজনসমস্যা*"

শরীরের ওজন ঠিক রাখা সুস্বাস্থ্যের জন্য অতি প্রয়োজনীয়। আপনার ওজন যদি হয় বেশি, তাহলে তা কমিয়ে ফেলার বিকল্প নেই। তাড়াহুড়া করে ওজন কমাতে গিয়ে অনেকেই বিপদের মুখোমুখি হন। তাই এ লেখায় দেওয়া ২০টি উপায় অনুসরণ করে ঝরিয়ে ফেলুন আপনার দেহের বাড়তি ওজন।

১. নিজের খাবার নিজেই বানান...

আপনার রান্নার হাত ভালো নয়? তার পরেও নিজের হাতে স্বাস্থ্যকর খাবার রান্নার কয়েকটি রেসিপি শিখে নিন।

২. অনুশীলনের ডিভিডি সংগ্রহ করুন
শারীরিক অনুশীলনের নানা উপায় এখন ডিভিডিতেই পাওয়া যায়। এ ধরনের ডিভিডি সংগ্রহ করে তা দেখে দেখে অনুশীলন করলে যথেষ্ট উপকার পাবেন।

৩. সার্ভিস সাইজ শিখে নিন
খাবার গ্রহণ মানেই থালা ভর্তি করে খেতে হবে, এমন ধারণা বাদ দিন। ছোট পাত্রে করে সামান্য খাবার গ্রহণ করুন।

৪. আগের ও পরের ছবি তুলুন
আপনার ওজন বিষয়ে সচেতন হওয়ার আগের ও পরের ছবি তুলুন। উভয় ছবির তুলনা করুন।

৫. নাচ
নাচ ভালো একটি শারীরিক অনুশীলন। এর মাধ্যমে ওজন কমানো সম্ভব।

৬. খাবারের ভালোমন্দ শিখে নিন
কোন খাবারটি আপনার শরীরের জন্য ভালো এবং কোন খাবারটি খারাপ তা শিখে নিন। এরপর সে অনুযায়ী স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ করুন।

৭. অনুশীলনে বৈচিত্রতা আনুন
আপনার শারীরিক অনুশীলন যদি একঘেয়ে হয়ে যায় তাহলে তা কোনো কাজ করবে না। এ কারণে শারীরিক অনুশীলনে বৈচিত্রতা আনতে হবে।

৮. কল্পনা করুন
আপনার শারীরকে যেমন বানাতে চান, সে অবস্থার কথা কল্পনা করুন। এতে আপনার আগ্রহ তৈরি হবে।

৯. আঁশজাতীয় খাবার খান
আঁশজাতীয় খাবার পরিপাকতন্ত্র সুস্থ রাখাসহ নানা উপকার করে। শরীরের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় এ ধরনের খাবার বেশি করে খেলে তা ওজন কমাতেও সাহায্য করবে।

১০. হাঁটুন বা সাইকেল চালান
যান্ত্রিক শক্তিচালিত যানবাহনের বদলে হাঁটা বা সাইকেল চালানো অভ্যাস করুন।

১১. বাস্তববাদী হোন
ওজন কমানোর বিষয়ে বাস্তববাদী হতে হবে। মাত্র কয়েকদিন অনুশীলন করেই আপনি শরীর অর্ধেক কমিয়ে ফেলতে পারবেন না। এক্ষেত্রে মাসে প্রায় ১০ পাউন্ড ওজন কমানো সম্ভব।

১২. প্রোটিন বাদ দেবেন না
ডিম, মাংস, মাছ ইত্যাদি প্রোটিনের অন্যতম উৎস। ওজন কমানোর সময়েও এসব খাবার শরীরের প্রয়োজন। তবে আপনি যদি নিরামিশাষী হন তাহলে পুষ্টিবিদের সাহায্য নিয়ে অনুরূপ পুষ্টিকর খাবার বাছাই করতে পারেন।

১৩. অনুশীলনের সময় শ্বাস নিতে ভুলবেন না
শারীরিক অনুশীলন করার সময় শ্বাস প্রশ্বাস কমাবেন না। বেশি করে অক্সিজেন গ্রহণ করুন।

১৪. পাউরুটি বাদ
আপনার খাদ্যতালিকা থেকে পাউরুটি বাদ দিন।

১৫. নিয়মিত মাপ নিন
অনুশীলনের ফলে আপনার শরীরের যে পরিবর্তন হচ্ছে, সে বিষয়ে নিয়মিত দৃষ্টি রাখুন। এজন্য হাতের কাছে এটি টেপ রাখুন।

১৬. কাজের পর বিশ্রাম নিন
কাজের পর আপনার মাংসপেশিগুলোর বিশ্রাম প্রয়োজন। তাই বিশ্রামের জন্য প্রয়োজনীয় সময় বরাদ্দ করুন।

১৭. সালাদ ড্রেসিং বাদ দিন
সালাদ খুবই স্বাস্থ্যকর খাবার। কিন্তু এতে ড্রেসিং ব্যবহার স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।

১৮. প্রক্রিয়াজাতকৃত খাবার নয়
শিল্পকারখানায় প্রক্রিয়াজাতকৃত খাবার বাদ দিন। তার বদলে স্বাস্থ্যকর তাজা ফলমূল ও খাবার খাওয়ার অভ্যাস করুন।

১৯. ক্র্যাশ ডায়েট নয়
ওজন কমানোর জন্য তাড়াহুড়া করে ক্র্যাশ ডায়েট বাদ দিন। এতে আপনার শরীরের মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে।

২০. আবেগগত খাবার বাদ দিন
শারীরিক প্রয়োজনে ক্ষুধা নিবৃত্ত করতে খাবার খান। তার বদলে মানসিক সন্তুষ্টির জন্য, লোভের বশে কিংবা খাবারের সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়ে বাড়তি খাওয়ার অভ্যাস ত্যাগ করুন।

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★