রসমালাই

রসমালাই নিয়ে কি ভাবছো?

বাবুই: একটি বেশব্লগ লিখেছে

ঝটপট পাউরুটি দিয়েই বানিয়ে ফেলুন মনভোলানো রসমালাই:
পাউরুটি দিয়ে রসমালাই তৈরির প্রণালি!
উপকরণ
পাউরুটি ৫/৬ পিস
দুধ ১ কাপ
বেকিং পাউডার ১/২ চা চামচ
চিনি ৩/৪ কাপ
দুধ ৬ কাপ
এলাচ ১ টি
পেস্তা কুচি সাজানোর জন্য
তেল ভাজার জন্য
প্রনালি
-পাউরুটি চারপাশের শক্ত অংশ কেটে ফেলুন। একটা বাটিতে দুধ+বেকিং পাউডার গুলে নিয়ে পাউরুটি গুলো তাতে ভিজিয়ে হাতের তালুর সাহায্যে বাড়তি দুধ চিপে ফেলে দিন।
-তারপর ভালো করে ছেনে নিয়ে ছোট ছোট লম্বা/ গোল শেপ দিয়ে অল্প আঁচে সময় নিয়ে গাঢ় বাদামি করে ভেজে তুলুন। তাড়াহুড়া করবেন না।
-এবার দুধ চিনি ও এলাচ একসাথে জ্বাল দিন তারপর ভেজে রাখা মিষ্টি গুলো ফুটন্ত দুধে ছেড়ে ২-৩ মিনিটের জন্য ঢেকে দিন। এতে করে রস মিষ্টির ভেতরে ঢুকবে এবং আকারে প্রায় দিগুন হবে।
-তারপর মিষ্টি গুলো তুলে বাটিতে রেখে দিন। আর দুধ জালিয়ে একদম ঘন করে ফেলুন। এবার বাটিতে রাখা মিষ্টির উপর দুধ ঢেলে দিন।
-এবার ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করে উপরে পেস্তা কুচি ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।

*রসমালাই* *ডেজার্ট* *মিষ্টি* *রেসিপি*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

পৃথিবীর যে প্রান্তে বাঙালি আছে সেখানেই মিষ্টির প্রতি প্রেমও চিরন্তন হয়ে আছে। তাই যতই বাঙালির খাদ্য তালিকায় যোগ হোক বিদেশী খাবার তবুও বাঙালির মিষ্টির প্রতি ভালবাসা প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম পেরিয়ে অবিচল,অবিকল রয়েছে। মিষ্টির মিষ্টতা আচ করতে গেলে রসমালাইয়ের পাল্লা অবশ্যই ভারি হয়ে উঠবে। মিষ্টি কুলের মধ্যে রসমালাই খুবই সুস্বাদু ও মজাদার। বাংলাদেশের কুমিল্লার রসমালই বিখ্যাত। প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ শুধুমাত্র কুমিল্লার রসমালাই খাওয়ার জন্য কুমিল্লাতে ঢুঁ মারেন। 
 
রসমালাইয়ের ইতিহাস
শোনা যায় পশ্চিমবঙ্গে রসমালাইয়ের প্রথম প্রচলন হয়। বাঙালি ময়রা কৃষ্ণ চন্দ্র দাস এর আবিষ্কারক। ঘন করে জ্বাল দেয়া দুধের সিরায় ডোবানো ছোটো মিষ্টির টুকরা ভিজিয়ে তৈরি হয় রসমালাই। রসমালাই দক্ষিণ এশিয়ার, বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, নেপাল এর একটি জনপ্রিয় মিষ্টি খাদ্য। ছোট ছোট আকারের রসগোল্লাকে চিনির সিরায় ভিজিয়ে তার উপর জ্বাল-দেওয়া ঘন মিষ্টি দুধ ঢেলে রসমালাই বানানো হয়।বাংলাদেশের কুমিল্লা বিশ্ব বিখ্যাত।  রসমালাই দুটি আলাদা মিষ্টান্নের সমন্বয়ে তৈরি করা হয়। রসগোল্লা ও মালাইয়ের মিশ্রণ ঘটিয়ে রসমালাই পরিপূর্ণতা পায়।
 
ঐতিহ্যবাহী কুমিল্লার রসমালাই
রসমালাইয়ের নাম বলতেই সবার আগে মনে হয় কুমিল্লার নাম। কারণ দেশের বিভিন্ন স্থানে তৈরি হলেও কুমিল্লার রসমালাইয়ের স্বাদের তুলনা হয় না। কুমিল্লা কান্দিরপাড় মনোহরপুরে অবস্থিত মাতৃভান্ডার, ভগবতী, কান্দিরপাড়ের জলযোগ, জেনিস, পোড়াবাড়ি, পুলিশ লাইনের পিয়াসা, ঝাউতলার অমৃত সুইটস, পিয়াসার মিষ্টির দোকানগুলোতে পাবেন রসমালাই। তবে সবচেয়ে ভালো রসমালাই পাবেন মাতৃভান্ডার ও ভগবতী দোকান। কুমিল্লার মনোহরপুরের আনাচে কানাচে আছে রসমালাইয়ের দোকান। এসব দোকানো নেই কোন চাকচিক্য। বেশির ভাগ দোকানে বসার ব্যবস্থাও নেই।
 
কোথায় থেকে কিনবেন?
রসমালাই বাংলাদেশের সব জায়গায় পাওয়া যায়। কিন্তু কুমিল্লার বিখ্যাত রসমালাইতো আর চাইলেই সব জায়গায় পাবেন না।  এজন্য আপনাকে হয় কুমিল্লা  যেতে হবে নতুবা যার বিশ্বস্থতার সাথে বিভিন্ন জেলার ঐহিত্যবাহী রসমালাই সরবারহ করে তাদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে। এজন্য আপনারা যারা বাড়তি কষ্ট না করে বাড়িতে বসে রসমালাইয়ের স্বাদ নিতে চান তারা দেশের জনপ্রিয় অনলাইন শপ আজকের ডিলের ওয়েবসাইটে নক করতে পারেন। আমার জানা তারা কুমিল্লা সহ বিভিন্ন জেলার বিখ্যাত রসমালাই সরাসরি ক্রেতাদের সরবারহ করে।
 
যারা রসমালাই কিনতে চান তারা কনটেন্টটির ছবিগুলোতে অথবা এখানে ক্লিক করুন
*রসমালাই* *মিষ্টি* *স্মার্টশপিং* *মিষ্টিরইতিহাস*

দীপ্তি: এক বাটি নয় (না) পুরো দু বাটি রসমালাই খেয়ে নিলাম চেটেপুটে (পেটুক) (ভেঙ্গানো২) (খুশী২)

*রসমালাই* *প্রিয়খাবার*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

মিষ্টি খেতে পছন্দ করেন না এমন মানুষ পাওয়াই বুঝি দুষ্কর । তাও যদি হয় বাংলাদেশের  বিভিন্ন জেলার প্রসিদ্ধ সব মিষ্টি তাহলে তো কথাই নেই (পেটুক)(ঈদেরসেমাই)। মিষ্টিপ্রেমীদের সব ধরনের মিষ্টির স্বাদ হাতের নাগালে নিয়ে এসেছে দেশের সবথেকে বড় ই-কমার্স সাইট আজকের ডিল।  এখন দেশের সব প্রসিদ্ধ মিষ্টান্ন কিনতে পারবেন আজকের ডিল থেকে। চলুন আজকের ডিলে সহজলভ্য কিছু মিষ্টির ব্যাপারে জেনে নিই। 
















*মিষ্টি* *আজকেরডিল* *অনলাইনেমিষ্টি* *রসমালাই* *পেড়াসন্দেশ* *সাদেকগোল্লা* *কাচাগোল্লা*

ইমরান নাজির লিপু: একটি বেশব্লগ লিখেছে

দেশীয় প্রোডাক্টগুলো ব্র্যান্ডিং এর মডার্ন থিওরীগুলোকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে টিকে আছে
টিকেই থাকবে বছরের পর বছর।
টিকে থাকবে ততদিন... যতদিন না আমরা নিজেরা মুখে মুখে এদের প্রসার থামিয়ে না দেই
... ছোটবেলা থেকে নাম শুনে আসা... আর নেট ঘেঁটে পাওয়া এভাবেই বিখ্যাত হয়ে উঠা বিভিন্ন অঞ্চলের কিছু প্রোডাক্টের নাম দিলাম;

  • নাটোরের...কাঁচাগোল্লা
  • চট্রগ্রামের...মেজবান, শুটকি
  • টাঙ্গাইলের...পোড়াবাড়ির-চমচম, তাতের-শাড়ি
  • দিনাজপুরের...লিচু, কাটারিভোগ চাল, চিড়া, পাপড়
  • বগুড়ার...দই
  • ঢাকার...বেনারসী-শাড়ি, বাকরখানি
  • কুমিল্লার...রসমালাই, খদ্দর
  • খাগড়াছড়ির...হলুদ
  • বরিশালের...আমড়া
  • খুলনার...মধু, সন্দেশ, নারিকেল, গলদা-চিংড়ি
  • সিলেটের...কমলালেবু, চা, সাতকড়া
  • নোয়াখালীর...নারকেল, নাড়ু, ম্যাড়া-পিঠা
  • গাইবান্ধার...রসমঞ্জরী
  • চাঁপাইনবাবগঞ্জের...আম, শিবগঞ্জের-চমচম, কলাইয়ের-রুটি
  • পাবনার...ঘি
  • সিরাজগঞ্জের...পানতোয়া, ধানসিড়িঁর-দই
  • ময়মনসিংহের...মুক্তাগাছার-মন্ডা, খিরমোহন-মিষ্টি
  • জামালপুরের...ছানার-পোলাও
  • নেত্রকোনার...বালিশ মিষ্টি
  • ফরিদপুরের...খেজুরের গুড়
  • রাজবাড়ীর...চমচম
  • সাতক্ষীরার...সন্দেশ
  • বাগেরহাটের...চিংড়ি, সুপারি
  • যশোরের...খই, জামতলার-মিষ্টি
  • কুষ্টিয়ার...তিলের খাজা
  • মেহেরপুরের...রসকদম্ব
  • ভোলার...নারিকেল, মহিষের দুধের দই
  • কুড়িগ্রামের...খিরমোহন
  • নরসিংদীর...সাগর কলা
  • নারায়নগঞ্জের...শামিম ওসমান (দুষ্টামি করলাম আর কি, মনোযোগ দিয়ে পড়ছেন নাকি দেখলাম)
  • নওগাঁর...চাল
  • রাঙ্গামাটির...আনারস, কাঠাল
  • ফেনীর...মহিশের দুধের ঘি, সেগুনকাঠ, খন্ডলের-মিষ্টি
  • লক্ষীপুরের...সুপারি
  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ার...তালের-বড়া, ছানামুখী

সুত্র: অারিফ আর হোসাইনের ওয়াল থেকে নেয়া। 
*মিষ্টি* *প্রসিদ্ধখাবার* *বিখ্যাতখাবার* *মজারখাবার* *দই* *রসমালাই*

মোঃ জাহিদুল ইসলাম: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 আমার প্রিয় খাবার টাঙ্গাইলের চমচম ও রসমালাই। আপনার প্রিয় খাবার কোনটা?

উত্তর দাও (৮ টি উত্তর আছে )

.
*প্রিয়খাবার* *প্রিয়মিষ্টি* *টাঙ্গাইলেরচমচম* *রসমালাই*

অর্ঘ্য কাব্যিক শূন্য: একটি বেশব্লগ লিখেছে

লন্ডন মানে বিগ বেন, প্যারিস মানে আইফেল টাওয়ার। ভোজনরসিক কাউকে যদি জিজ্ঞাসা 
করা হয় কুমিল্লা মানে কি? তাহলে তার জবাব দিতে একটুও সময় লাগবে না। নির্দ্বিধায় বলে 
দেবে কুমিল্লা মানে রসমালাই !

কুমিল্লার রসমালাই কেবল বাংলাদেশে নয় পুরো উপমহাদেশেই ভোজনরসিকদের কাছে একটি 
পরিচিত খাবার। দুধের রসগোল্লা বা রসমালাই অনেক জায়গাতেই তৈরি হয়। কিন্ত কোনটাই ঠিক 
কুমিল্লার রসমালাইয়ের মত নয়। বাংলাদেশ সরকারও বিভিন্ন সময়ে রাষ্ট্রীয় অতিথিদের আপ্যায়ন 
করেছে কুমিল্লার রসমালাই দিয়ে। আর পূজাসহ বিভিন্ন উৎসবে নিয়মিতভাবে ভারতে 
যাচ্ছে এসব রসমালাই।

উনিশ শতকে ত্রিপুরার ঘোষ সম্প্রদায়ের হাত ধরে রস মালাইএর প্রচলন হয়। সে সময় বিভিন্ন 
সামাজিক অনুষ্ঠানে মিষ্টি সরবরাহের কাজটা মূলত তাদের হাতেই হত। মালাইকারির প্রলেপ দেয়া 
রসগোল্লা তৈরি হত সে সময়। পরে দুধ জ্বাল দিয়ে তৈরি ক্ষীরের মধ্যে ডোবানো রসগোল্লার 
প্রচলন হয়। ধীরে ধীরে সেই ক্ষীর রসগোল্লা ছোট হয়ে আজকের রসমালাই-এ পরিণত হয়েছে।

যেখানে পাবেনঃ 

আসল কুমিল্লার রসমালাই খেতে হলে আপনাকে কুমিল্লাতেই যেতে হবে। ঢাকার বিভিন্ন মিষ্টির 
দোকানে রসমালাই পাওয়া যায়। আবার কুমিল্লার রসমালাই হিসেবেও রসমালাই বিক্রি করে 
অনেকে। কিন্তু স্বাদ ও মান আসল কুমিল্লার রসমালাই-এর মত হওয়ার সম্ভাবনা কম। সে 
রসমালাই খেয়ে আপনি হয়ত অন্যদের গাল দেবেন, বলবেন, 
" কুমিল্লার রসমালাই কি এমন খাবার ! "
কুমিল্লা বাসস্ট্যান্ড বা রেলস্টেশন থেকেও রসমালাই কেনা ঠিক হবে না। যাচ্ছেতাই ধরনের 
রসমালাই বানিয়ে অনেক রসমালাই বিক্রি হয় সেখানে।
রসমালাইএর জন্য কুমিল্লার মনোহরপুরের দোকানগুলো বিখ্যাত। এসব দোকানে সেরকম 
চাকচিক্য নেই। দোকানীরা তাদের রসমালাই-এর মানকেই বেশি গুরুত্ব দেন। মাতৃভান্ডার এবং 
ভগবতী ছাড়াও অমৃত মিষ্টি ভান্ডার, শীতল ভান্ডার, মিষ্টিমেলা রমমালাইয়ের জন্য বিখ্যাত।

ইদানিং ডায়াবেটিক রোগীদের  কথা মাথায় রেখে চিনি ছাড়া রসমালাইও তৈরি হচ্ছে এসব দোকানে।

রসমালাই তৈরির রেসিপিঃ 

উপকরণ: দুধ, চিনি, কনডেন্সড মিল্ক, কর্ণফ্লাওয়ার, গোলাপজল, এলাচ গুঁড়া, রসগোল্লা বা 
চমচম বা অন্য যেকোন ধরনের মিষ্টি।

চমচম দিয়ে রসমালাই বানানো গেলেও রসগোল্লা দিয়ে বানানো রসমালাই বেশি সুস্বাদু হয়। 

দুই কেজি দুধ জ্বাল দিয়ে অর্ধেক করে নিতে হবে। আধা চা চামচ এলাচ গুঁড়া, আধা কৌটা 
কনডেন্সড মিল্ক এবং দুই কাপ চিনি মিশিয়ে নেড়ে নিতে হবে। এক চা চামচ কর্ণফ্লাওয়ার ভিন্ন 
একটি পাত্রে গুলে নিতে হবে। বড় মিষ্টি কেটে ছোট ছোট টুকরা তৈরি করতে হবে। এবার 
কর্ণফ্লাওয়ার, দুধ ও মিষ্টি মিশিয়ে নাড়তে হবে। এসময় দুই চা চামচ গোলাপজল 
মেশাতে হবে। উপকরণগুলো অবশ্যই দুধ জ্বাল দেবার পর মেশাতে হবে।
*কুমিল্লার-রসমালাই* *প্রসিদ্ধখাবার* *রসমালাই*

shahnaz chaudhury: একটি বেশব্লগ লিখেছে

বাসায় বানান রসমালাই :::

2কেজি
দুধ খুব ভালো মতো জাল দিন। 1/2 কাপ সিরকা আর 1/2 কাপ পানি মিশান।দুধ বলক উঠলে চুলা বন্ধ করে দিন। এখন পানি মিশানো সিরকা দিন।কিছু সময় নাড়ুন।2/3 মিনিট পর কাপড় এ ডালুন।ঠান্ডা পানি তে ধুয়ে নিন।কাপড় টা হাত দিয়ে চিপুন।এখন কাপড় কে ঝুলিয়ে দিন। 2 ঘন্টা ।ছানা দেখবেন খুব সুন্দর হবে।এই ছানা খুব ভালো মতো ডো করুন।রসগোল্লা বা রসমালাই বানান।
মনে রাখবেন ছানা তে পানি যেন পানি না থাকে।সময় নিয়ে... মিষ্টি বানান তাড়াতাড়ি করবেন না।ডো দেখবেন খুব সুন্দর মসৃরিন হবে।ছানা দিয়ে তেল বের হলে বুঝা যাবে ছানা ময়ান হয় ছে।
ছানা ছোট ছোট বল করতে হব।। হালকা চিনি দিয়ে সিরা বানান।বল গুলো সিরাতে সিদ্ধ করুন।কোন পাতিল এ বা পেসার কুকারে দুই টা সিটি দিন।মিষ্টি হয়ে গেল । ঠান্ডা করতে হবে। সিরা বা মালাই তে দিন । আমি ছানা এই ভাবে বানাই।
Note-ছানাতে কোনো পানি থাকবে না .আমি ৪ ঘন্টা ঝুলিয়ে রেখেছি .আর ডো আটার খামিরের মত মসৃন হবে.মাখার সময় হাতে তেল উঠবে .৩ কাপ পানি +১ কাপ চিনি এই অনুপাতে সিরা হবে .আর মালাই দুধ অতিরিক্ত ঘন হবে না .বানানোর পরে ৫/৬ ঘন্টা রেখে দিন.নাড়া চারা করবেন না .

সার্ভ করার ৩০ মিনিট আগে ফ্রিজ থেকে বের করে রাখুন !! আর প্রিয়জনকে চমকে দিন !!!!

*মিষ্টি* *রসমালাই*

মৃন্ময়ী সাবিহা: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আমরা প্রায় সবাই রসমালাই খেতে পছন্দ করি...কিন্তু বানাতে পারি কয় জন ?
আসুন শিখে ফেলা যাক .........

পকরণ:ডিম- ১টি,বেকিং পাউডার - ১ চা চামচ,গুড়ো দুধ- ১ কাপ,ময়দা - ১ চা চামচ,তরল দুধ - ১ লিটার,চিনি - স্বাদমত , গুড়ো করা - ১ টি এলাচ,ভ্যানিলা এসেন্স - ১/২ চা চামচ (গোলাপজলও দিতে পারেন),পেস্তা বাদাম কুচি সাজানোর জন্য। 
প্রণালী: তলা ভারী এমন বড় একটি পাত্রে চিনি আর তরল দুধ মিশিয়ে ফুটাতে দিন, এলাচদানা গু
ড়োও দিয়ে দিন। আঁচ খুব কম রাখুন।এবার আরেকটি পাত্রে গুড়ো দুধ, ময়দা, বেকিং পাউডার মিশিয়ে নিন, ডিমটি ফেটিয়ে এই মিশ্রনে মেশান। ভ্যানিলা অথবা গোলাপজল দিয়ে দিন। সব একসাথে সুন্দর করে মেশান, খুব বেশি মাখবেন না সব মিশে গেলেই হলো। প্রথমে মিশ্রনটি হাতের সাথে আটকে আটকে যাবে আঠালো হয়ে কিনতু ৩/৪ মিনিট রেখে দিলেই দেখবেন সুন্দর টাইট হয়ে গেছে , হাতের সাথে আর আটকাচ্ছে না। এখান থেকে এবার ছোট ছোট বল বানান। বেশি বড় বানাবেন না, মার্বেলের মতো বড় বানালেই দেখবেন দুধে দেবার পর বলগুলো ফুলে দ্বিগুন হয়ে যাচ্ছে তাই ছোট বল বানান।এতোক্ষনে উনানে দুধ ফুটে গিয়েছে, এই বল গুলো সাবধানে ফুটন্ত দুধের মাঝে ছেড়ে দিন। চামচ বা কিছু দিয়ে নাড়বেন না, ফুটতে দিন আরো কয়েক মিনিট। দেখবেন বলগুলো ফুলে উঠেছে। আঁচ আরো কমিয়ে দিন এখন, সর্বনিন্ম আঁচে রাখুন।

দশ মিনিট এভাবে কম আঁচে রান্না করুন, মাঝে মাঝে পাত্রটি সাবধানে ধরে ঝাঁকিয়ে দিন, যাতে তলায় ধরে না যায়।দশ মিনিট পরে একটি মিষ্টি তুলে দেখুন ভিতরে সেদ্ধ হয়েছে কিনা। বেশি কাঁচা থাকলে কম আঁচে আরো কিছুক্ষন রান্না করুন, যদি সামান্য একটু কাঁচাভাব থাকে তাহলে আগুন নিভিয়ে পাত্র ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন, ভেতরের তাপেই আরো ভালোভাবে সেদ্ধ হয়ে যাবে। মালাই আরেকটু ঘন করতে চাইলে আরো কিছুক্ষন কম আঁচে আগুনে রাখতে পারেন, শুধু মাঝে মাঝে পাত্রটি একটু ঝাকিয়ে দিন যাতে তলায় ধরে না যায়। ঠান্ডা করে রসমালাই পরিবেশন করুন, পরিবেশনের আগে পেস্তা বাদাম কুচি ছড়িয়ে দিন মিষ্টির ওপরে।

*রেসিপি* *রসমালাই* *প্রিয়খাবার* *সর্বভুক*
ছবি

পাগলী: ফটো পোস্ট করেছে

রসমালাই

আসো সবাই মিলে রসমালাই খাই। (পেটুক)

*রসমালাই* *মিষ্টি* *সর্বভূক*
ছবি

নাকিব ওসমান : ফটো পোস্ট করেছে

শীতের সবজি দিয়ে ভুনা খিচুড়ি আর রুপচাঁদা ফ্রাই (ভেঙ্গানো২)(লালালা) *সর্বভূক* (খুশী২)

এই মাছ এত নরম কেনে, ফ্রাই করতে অনেক মুসিবত লাগে...(ব্যাপকটেনশনেআসি৩)

*সর্বভূক* *রসমালাই* *ক্যাডবেরি* *সবজি*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★