রিসোর্ট

রিসোর্ট নিয়ে কি ভাবছো?

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 রাঙামাটির লেকভিউ আইল্যান্ড নামের রিসোর্ট ভ্রমণের বিস্তারিত তথ্য কেউ দিতে পারেন কি?

উত্তর দাও (০ টি উত্তর আছে )

*রাঙামাটি* *লেকভিউ* *আইল্যান্ড* *লেকভিউআইল্যান্ড* *রিসোর্ট* *ভ্রমণটিপস*

আরাফাত রহমান: *রিসোর্ট* ছুটি নাই তাই কোথাও যাব না ।

ছবি

তোফায়েল আহমদ: ফটো পোস্ট করেছে

৪/৫

পান্না রিসোর্ট ও লাবিবা বিলাস >> *সেন্টমার্টিন*

নিরিবিলি পরিবেশে সময় কাটানোর জন্য ভালো জায়গা খুজতেছেন? কোন সমস্যা নেই। এইখানে চলে যান। আশা করি সময়টা ভালই এনজয় করবেন (জোস)

*তোফায়েল-ফটোগ্রাফ* *রিসোর্ট* *সেন্টমার্টিন*

লিজা : একটি বেশব্লগ লিখেছে


অদৃশ্য শিকলে বাঁধা করপোরেট লাইফ, প্রিয় সন্তানের স্কুলের বিরক্তিকর রুটিন, সপ্তাহান্তে প্রয়োজনীয় কেনাকাটা- এই একঘেয়ে জীবন থেকে হারিয়ে যেতে চায় মন দূরে কোথাও।   সময়টা এখন বনভোজনের। নিয়মমাফিক জীবনচক্র থেকে সবাই মিলে ঢাকার আশপাশে এক দিনের জন্য বেড়িয়ে এলে মন্দ হয় না। কোথায় যাবেন ভাবছেন? ঢাকার অদূরে গাজীপুরে সুকুন্দি গ্রামে চলে যান। কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘ছুটি’ কবিতার নাম অনুসারে নির্ভেজাল ছুটির আমেজ দেওয়ার জন্য এখানে তৈরি করা হয়েছে একটি ইকো রিসোর্ট ছুটি। পরিপূর্ণ  ইকো লাইফস্টাইল। দেড় থেকে দুঘণ্টা পথ পাড়ি দিতে হবে আপনাকে।

৫০ বিঘা আয়তনের ছুটি রিসোর্টের তিন পাশে রয়েছে সুন্দর লেক। ভাওয়াল বনের সবুজ দ্বীপ। আছে নৌভ্রমণের সুব্যবস্থা, গাড়ি রাখার সুব্যবস্থা, বিরল প্রজাতির সংরক্ষিত বৃক্ষের বনে রয়েছে টানানো তাঁবু। ছনের ঘর, রেগুলার কটেজ, বার্ড হাউস, মাছ ধরার সুব্যবস্থা, হার্বাল গার্ডেন, বিষমুক্ত ফসল, দেশীয় ফল, সবজি, ফুলের বাগান, বিশাল দুটি খেলার মাঠ, আধুনিক রেস্টুরেন্ট, দুটি পিকনিক স্পট, গ্রামীণ পিঠা ঘর, ছোট বাচ্চাদের জন্য কিডস জোনসহ সারা দিন পাখির কলরব, সন্ধ্যায় শিয়ালের হাঁক, বিরল প্রজাতির বাদুড়, জোনাকি পোকার মিছিল ও আতশবাজি, ঝিঁঝি পোকার হৈচৈ। আর ভরা পূর্ণিমা হলে তো কথাই নেই।


রিসোর্টের নিয়ম অনুসারে চাঁদনী রাতে বিদ্যুতের আলো জ্বালানো হয় না। কথিত আছে, ভরা পূর্ণিমা এবং রিমঝিম বর্ষা উপভোগ করার জন্য এই ছুটিই হচ্ছে অন্যতম রিসোর্ট। এত কিছুর মাঝে হয়তো আপনি খাবার-দাবারের কথা ভুলে গেছেন! অতিথিদের জন্য এখানে সকালে পরিবেশন করা হয় চালের নরম রুটি অথবা চিতই পিঠা, সঙ্গে দেশী মুরগির তরকারি, সবজি ও ডাল ভুনা। গরম গরম চা অথবা কফি। কখনো কি জাল অথবা বড়শি দিয়ে মাছ ধরার আনন্দ উপভোগ করেছেন? আপনি চাইলে পরিবারের সবাইকে নিয়ে মাছ ধরতে পারেন অথবা স্থানীয় জেলেদের পাশে নৌকায় বসে মাছ ধরা দেখতে পারেন। কোন টাটকা মাছটি ধরে খাবেন, সেটা ঠিক করতে হবে আপনাকেই।
 তবে এখানে পাখি, প্রজাপতি ও কীটপতঙ্গ মারা সম্পূর্ণ নিষেধ। লেক থেকে ধরা তাজা মাছ অতিথিদের সামনেই মাটির চুলায় রান্না বা ফ্রাই করে পরিবেশন করা হয়।  রিসোর্টে চাষ করা সবজির দুলমা, ভাজি-ভর্তাসহ হরেক রকমের আয়োজন। সন্ধ্যার আলো-আঁধারিতে পুকুরপাড়ে লোকজ গানের আসর। বাশের বাঁশিতে ভাওয়াইয়ার সুর। লোকজ গল্পের আসর। লাল চালের মুড়ি। সবজির পাকুড়া। সঙ্গে গরম গরম চা অথবা কফি। যত কাপ চাই।
 আর এত সব মজার পর যদি চলে আসতে না চান তাহলে থাকার সুব্যবস্থা আছে। থাকতে পারেন কোনো এক কটেজে। এখানে দুই ধরনের থাকার ব্যবস্থা আছে। পরিপূর্ণ গ্রামীণ আমেজের প্রাণময় লোকজ বসবাস অথবা ইট কাঠ বালুর কটেজ। আর আপনাকে নগরের বন্দী জীবন থেকে একটু নির্মল আনন্দ দিতে সাদর অভ্যর্থনা জানানোর জন্য প্রস্তুত ‘ছুটি রিসোর্ট’। মন চাইলে আপনার প্রিয়জনকে নিয়ে কালই ঘুরে আসতে পারেন। তবে এ জন্য আপনাকে অগ্রিম বুকিং করতে হবে। ডে লং ছুটি উপভোগ করার জন্য প্রতিজনের জন্য ২ হাজার টাকা। (সংগ্রহীত)
*ভ্রমণ* *টিপস* *রিসোর্ট* *গাজীপুর*
ছবি

দীপ্তি: ফটো পোস্ট করেছে

৪/৫

নীলছায়া ইকো রিসোর্ট

বান্দরবান

*বান্দরবানভ্রমন* *ট্যুরপ্যাকেজ* *অল্পতেভ্রমন* *ছুটিতেভ্রমন* *রিসোর্ট*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★