লিওনেলমেসি

লিওনেলমেসি নিয়ে কি ভাবছো?
ছবি

সাদাত সাদ: ফটো পোস্ট করেছে

সদা হাসোজ্জ্বল লিওনেল মেসির বিদায়

মেসির বিদায় কোটি কোটি ভক্তের অজস্র কান্না, মেসিকে কোন দিন ভুলা যাবেনা

*লিওনেলমেসি* *ফুটবলার*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

যুগে যুগে কালে কালে বহু নান্দনিক ফুটবলারদের জন্ম বিশ্ব ফুটবল ইতিহাসের পাতায় নতুন মাত্রা যোগ করেছে যা ফুটবল ইতিহাসে ভাস্বর হয়ে থাকবে চিরকাল। নতুন প্রজন্মের কাছে তেমনি এক বিষ্ময়কার ফুটবল জাদুর জাদুকরী ফুটবলার লিওনেল মেসি। চলুন জেনে নিই লিওনেল মেসি সম্পর্কে কিছু কথা।

অক্টোবর ১৬, ২০০৪ লিওনেল আন্দ্রেস মেসির বার্সেলোনার হয়ে অফিসিয়াল অভিষেক হয়। বার্সার সাবেক খেলোয়াড় ডেকোর পরিবর্তে ২য় অর্ধে মাঠে নামেন লিও। প্রতিপক্ষ ছিলো এস্পানিওল।
২০০৪ থেকে ২০১৪ বার্সার সাথে ১০ বছরের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ার লিও মেসির। এই সময়ে ফুটবলের অসংখ্য রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন। ফুটবলে জন্ম দিয়েছেন অনেক প্রথমের !! মে ০১, ২০০৫ লিও মেসি আলবাসেতির বিপক্ষে বার্সার হয়ে প্রথম গোল করেন। নভেম্বর ০৫, ২০০৫ চ্যাম্পিয়নস লিগে প্রথম গোল করেন। প্রতিপক্ষ প্যানাথিনাইকোস।
মার্চ ১১, ২০০৭ বার্সার হয়ে ক্যারিয়ারে প্রথম হ্যাট্রিক করেন চির প্রতদ্বন্ধি রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে। সেদিনের ম্যাচটি ছিলো ক্লাসিক লিও প্রদর্শনী যেনো। রিয়াল ১টা গোল করে এগিয়ে যায় লিও সেটা শোধ করে দেন। এভাবে তিন বার এগিয়ে যাওয়া রিয়ালকে তিনবারই গোল করে ম্যাচ ড্র করতে বাধ্য করে লিও মেসি !
 এপ্রিল ১৭, ২০০৭ ফুটবল ইতিহাসের সেইদিন যেদিন থেকে নিজেকে ম্যারাডোনার সমতূল্য করার জন্যে অনন্য এক উদাহরণ সৃষ্টি করেছিলেন। গেটাফের বিপক্ষে মাঝ মাঠের ডান কোণায় বল পেয়ে টানা ৬ জন প্লেয়ারকে কাটিয়ে যে গোলটি করেছিলেন ১৯৮৬ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যারাডোনার শতাব্দী সেরা গোলের অবিকল গোল হিসাবে স্বীকৃতি দেয়া হয় সেটিকে। মার্চ ১৩, ২০০৯ পেপ গার্দিওলা যুগের স্মারক বছরে ৬টি ট্রফি জয়ে যাত্রা শুরু স্পেনিশ কাপে অ্যাতল্যাটিক বিলবাওকে ৪-১ গোলে হারিয়ে। লিও মেসি করেছিলেন ১টি গোল। মে ১৬, ২০০৯ গার্দিওলা যুগের প্রথম লিগ টাইটেল ২০০৮-০৯ জয়ের দিন। মে ২৭, ২০০৯ ম্যান ইউ বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে ঐতিহাসিক দ্বিতীয় গোলটি করেছিলেন। নিজের উচ্চতা সমনা লাফিয়ে ভ্যান ডার সারকে হেডে পরাজিত করেছিলেন লিও। চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেন ২-০ গোলে।
ডিসেম্বর ০১, ২০০৯ জীবনের প্রথম ব্যালান ডি'অর জিতে নেন লিওনেল মেসি ! ডিসেম্বর ১৯, ২০০৯ গার্দিওলা যুগের ৬ষ্ট শিরোপা বিশ্ব ক্লাব কাপ জয়। জানুয়ারি ১৬, ২০১০ ১০০ তম গোলের মাইলস্টোন !! অগাস্ট ২১, ২০১০ সেভিয়ার বিপক্ষে ৪-০ গোলের জয়ে অবিশ্বাস্য সুন্দর ৩টি গোলের হ্যাটিক !! নভেম্বর ২৪, ২০১০ ক্যারিয়ারের ১৫০ তম গোল করেন প্যানাথিনাকোসের বিপক্ষে !! জানুয়ারী ১০, ২০১১ জীবনের ২য় ব্যালান ডি'অর !! এপ্রিল ২৭, ২০১১ এইদিন মাদ্রিদের সান্তিয়াগো বার্ণাব্যু মেসিকে একজন যাদুকর হিসাবেই চিনেছিলো !! চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে রিয়ালকে ২-০ গোলে হারানোর ম্যাচে দুটো গোলই করেছেন লিও মেসি। ২য় গোলটি শিল্পের ছোঁয়ায় আনিন্দ্য সুন্দর একটি গোল। রিয়াল ডিফেন্সকে নিয়ে এক ঝলক নৃত্য দেখিয়ে দিয়েছিলেন ২য় গোলটি করার সময়। মে ২৮, ২০১১ চ্যাম্পিয়নস ফাইনাল । ৩-১ গোল ম্যান ইউ কে হারিয়ে আবারো চ্যাম্পিয়ন বার্সা। অগাস্ট ২৬, ২০১১ ইউরোপিয়ান সুপার কাপ জিতে নেয় বার্সা। লিও মেসিও সেদিন নিজের ম ইউরোপিয়ান সুপার গোল করেন। সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১১ বেট বরিসভের বিপক্ষে গোল করে নিজেকে কুবার সাথে বার্সার ২য় সেরা গোলদাতার স্থানে নিয়ে যান লিও। নভেম্বর ১, ২০১১ ২০০ গোলের মাইলস্টোন। ডিসেম্বর ১৮, ২০১১ নেইমারের সান্তোসের বিপক্ষে বিশ্ব ক্লাব কাপ জয়। লিও মেসি সেদিন ২ গোল করেছিলেন।
জানুয়ারী ১৫, ২০১২ টানা ৩য় ব্যালান ডি'অর জয়। ফেব্রিয়ারী ০৬, ২০১২ টাইম ম্যাগাজিন তাদের ফ্রন্ট কাভার করে লিও মেসিকে নিয়ে। শিরোনাম ছিলো 'কিং মেসি' মার্চ ৭, ২০১২ চ্যাম্পিয়নস লিগের ঐতিহাসিক সেইদিন যেদিন বেয়ার লেভেরকুসেনকে দুমড় মুচড়ে ৭-০ গোলের জয়ে ৫টি গোলই একা লিও মেসি করেছিলেন !! মার্চ ২০, ২০১২ গ্রানাডার বিপক্ষে হ্যাট্রিক করে বার্সার হয়ে সর্বকালের সেরা গোলদাতা হন লিও। ডিসেম্বর ২২, ২০১২ ক্যালেন্ডারের সেদিন যেদিন এক ক্যালেন্ডার ইয়ারে ৯১টি (অবিশ্বাস্য) গোল করেন লিও মেসি !! জানুয়ারী ০৭, ২০১৩ ফুটবল ইতিহাসের অদ্বিতীয় দিন। টানা ৪ বার, ইতিহাসে প্রথম দেখে কেউ টানা ৪ বার ব্যালান ডি'অর জিতে নিয়েছেন !! জানুয়ারী ১৩, ২০১৩ লা লিগা ইতিহাসে ১ম অর্ধে (১৯ ম্যাচ) ২৮ গোল করে রেকর্ড স্থাপন করেন। ফেব্রুয়ারী ১৬, ২০১৩ ৩০০ গোলের মাইলস্টোন।
 মার্চ ১১, ২০১৩ বার্সা লিগে ১ম বারের মত ১০০ পয়েন্ট অর্জন করেন। জানুয়ারী ০৭, ২০১৪ থাই ইনজুরি শেষে মাঠে ফিরে প্রথম গোল পান। মার্চ ১৬, ২০১৪ বার্সার হয়ে সব ধরনের ম্যাচে সেসময়ের সেরা গোলদাতা পৌলিনহু আলকানতারাকে টপকে বার্সার অলটাইম সেরা গোলদাতা হন লিও মেসি !! মার্চ ২৩, ২০১৪ রিয়ালের বিপক্ষে রিয়ালের মাঠে হ্যাট্রিক এবং এল ক্লাসিকোর সেরা গোলদাতা !!
*খেলাধুলা* *খেলাধূলা* *ফুটবল* *লিওনেলমেসি*

মেহেদী হাসান: ফুটবল হচ্ছে টান টান উত্তেজনার খেলা! সেই কারণেই খেলোয়াররা মনে হয় নিজেদের উত্তেজনা ধরে রাখতে পারে না! তারপর এই খেলোয়ারটাকে ঠান্ডা মানুষ মনে হয়. আর তার খেলার কথা বলার কিছু নাই! শুভো জন্মদিন মেসি!

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★