লেডিজব্যাগ

লেডিজব্যাগ নিয়ে কি ভাবছো?

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

হাল ফ্যাশনে প্রতিনিয়তই চলছে পরিবর্তন। বিশেষ করে মেয়েদের ফ্যাশনে পোশাকের সাথে ম্যাচিং করে মানানসই বাহারি রংয়ের বিচিত্র নকশার ছোট বড় ব্যাগ অন্যতম অনুষঙ্গ হিসেবে পরিণত হয়েছে। স্টাইলিশ ব্যাগ সাথে না থকলে ফ্যাশনটাই যেন মাটি হয়ে যায়।  তাইতো ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী অনলাইন শপিংমল গুলো বাহারি ডিজাইনের সব ব্যাগের কালেকশনের রেখেছে। বিভিন্ন নকশা এবং রংয়ের আধিক্য দেখলেই বোঝা যায় বর্তমান ফ্যাশনে ব্যাগের বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে। আজকের আয়োজন লেডিজ ব্যাগ নিয়ে। বর্তমান ফ্যাশনে কোন ব্যাগ গুলো চলছে চলুন জেনে নেই।


স্টাইলিশ লেডিজ ব্যাগ



আর্টিফিশিয়াল লেদার এ তৈরী স্টাইলিশ ও ট্রেন্ডি ব্যাগ গুলো বর্তমানে বেশি চলছে। এই ব্যাগ গুলো খুব একটা লম্বা না। এটি আধুনিকতার সাথে মানানসই। পোশাকের রংয়ের সঙ্গে মানানোর পাশাপাশি এখন কন্ট্রাস্ট স্টাইলেও ব্যাগ নিতে পছন্দ করেন অনেকে। সেক্ষেত্রে জুতো, ঘড়ি বা অন্যকোনো অনুষঙ্গের সঙ্গে মানিয়ে ব্যাগ বাছাই করা যেতে পারে। লেডিস এই ব্যাগ গুলোর অনেক গুলো কালেকশন রয়েছে রয়ের নানান রংয়ের কম্বিনেশন।



শর্ট সাইজের ট্রেন্ডি লেডিজ ব্যাগ গুলো এখন বেশি চলছে। আর্টিফিশিয়াল লেদার এ তৈরী এই ব্যাগগুলো ফ্যাশনের অন্যতম অনুসঙ্গী। শাড়ি আর বিভিন্ন পার্টিওয়্যারের সঙ্গে এই ধরনের লেডিজ ব্যাগ বেশ মানানসই।। নিজের পছন্দের ড্রেসের সঙ্গে ম্যাচিং করে নেওয়া যেতে পারে ব্যাগটি। আরামদায়ক স্ট্র্যাপ রয়েছে ব্যাগটিতে। তাছাড়াও চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন উইডথ এর ব্যাগ শপিংমল গুলোতে পেয়ে যাবেন। 



বাইরে বের হতে মেয়েদের সঙ্গে থাকতে হয় অতি প্রয়োজনীয় কিছু জিনিস যার মধ্যে ভ্যানিটি ব্যাগ কিংবা পার্স অন্যতম। মেয়েদের ফ্যাশনে বেশ বড়সড় জায়গায়ই দখল করে নিয়েছে নানা রকম পার্স  ও ভ্যানিটি ব্যাগ। রেপ্লিক, কাপুড় এবং চামড়ার বিভিন্ন ধরনের লেডিজ ভ্যঅনিটি ব্যাগ পাওয়া যায়। তবে ফ্যাশনে চামড়াটাকেই সবাই পাধান্য দেয়।


সবসময়ই চামড়ার তৈরি জিনিসের কদর কিছুটা বেশি। ব্যাগের ক্ষেত্রেও তাই। এক রঙা হালকা নকশার চামড়ার ব্যাগের দাম তুলনামূলক বেশি। তবে ভালো চামড়ার ব্যাগ অনেকদিন টেকসই থাকে। তাছাড়া চামড়ার ব্যাগ ভিন্ন ধরনের ব্যক্তিত্ব ও রুচিশীলতা প্রকাশ করে। পার্টি, অফিস বা বিশ্ববিদ্যালয়ে সব জায়গায় চামড়ার ব্যাগ দারুণ মানিয়ে যায়।

দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিংমল আজকেরডিলে পাওয়া যাচ্ছে লেটেস্ট মডেলের বাহির সব লেডিজ ব্যাগ। ফ্যাশনে নতুনত্ব আনতে আজই সংগ্রহে রাখতে পারেন এসব নতুন ব্যাগ। ঘরে বসেই দেশের যেকোন প্রান্ত থেকে চমকপ্রদ  এই ব্যাগগুলো কিনতে এখানে ক্লিক করুন। 

*লেডিজব্যাগ* *নিউকালেকশন* *স্পন্সরডকনটেন্ট* *আজকেরডিল*

দীপ্তি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

ব্যাগ শুধু ফ্যাশনের অনুষঙ্গ হিসেবেই কাজ করে না, দৈনন্দিন জীবনে এর যথেষ্ট প্রয়োজনও রয়েছে। ঘর থেকে যেসব জিনিস নিয়ে বের হতে হয় তার মধ্যে অন্যতম ব্যাগ। কারণ ব্যাগের মধ্যেই যে অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বহন করতে হয়। ব্যাগ ব্যবহারে এখন এসেছে পরিবর্তন। বদলে গেছে ব্যাগের নকশা ও ধরন।জুতার সঙ্গে কিংবা পোশাকের কোনো একটা রঙের সঙ্গে মিলিয়ে ব্যাগের ব্যবহার এখন তেমন একটা দেখা যায় না। কন্ট্রাস্ট রঙের ব্যাগের ব্যবহারই এখন ফ্যাশন। 
 
তবে আজকাল, ব্যাগ বাছাইয়ের বাঁধাধরা কোনো নিয়ম তো আর মানা হচ্ছে না। ইচ্ছেমতো রং বা আকারের ব্যাগ ব্যবহারের চল এখন। পোশাকটা সাদামাটা হলেও নজর কাড়বে হয়তো ব্যাগটাই। রঙের বাহার যেমন আছে, তেমনি নানা রকম প্রিন্ট বা নকশারও কমতি নেই। 
বাজারে চামড়া ছাড়াও কাপড়, পাট ও বিভিন্ন উপাদানের ছোট, বড় ও মাঝারি আকারের ব্যাগ পাওয়া যাচ্ছে। পাশাপাশি পার্টি ব্যাগ ও বটুয়ার জনপ্রিয়তাও কম নয়। সবসময়ই চামড়ার তৈরি জিনিসের কদর কিছুটা বেশি। ব্যাগের ক্ষেত্রেও ব্যতিক্রম নয়। উপাদান, কাপড় এবং কৃত্রিম বা আসল চামড়ার তৈরি মাঝারি ও বড় আকারের ব্যাগের প্রতিই ক্রেতাদের আগ্রহ বেশি। এসব ব্যাগের দাম তুলনামূলক কম। কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, অফিসে যাওয়ার জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে চামড়ার ব্যাগ। এসব ব্যাগ অন্যান্য যেকোনো ব্যাগের তুলনায় টেকসই বেশি। আগে ব্যাগের হাতলের সঙ্গে ব্যবহারের জন্য আলাদা করে কিনতে হতো পুতুল কিংবা কার্টুন। কিন্তু এখন ব্যাগের সঙ্গে এগুলো থাকে।
চলছে বড় ব্যাগ বা ছোট ক্লাচই ট্রেন্ডি এ সময়ে—এমন কথা বলা যাবে না। বড়, ছোট বা মাঝারি সব ধরনের ব্যাগের চাহিদা রয়েছে ক্রেতাদের কাছে। শপিং মলগুলো ঘুরলেই দেখা যায়, ধরনটা যেমনই হোক না কেন ব্যাগের নকশায় বা আকারে থাকছে নানা বৈচিত্র্য। কোনো ব্যাগ হচ্ছে ত্রিভুজ আকারের বা গোলাকার। কোনোটিতে আছে চৌকোনার নানা ধরন। টোটি, ন্যাপস্যাক, মেসেঞ্জার নামে পরিচিত এই ব্যাগগুলোতে থাকছে উজ্জ্বল রঙের ব্যবহার। ছোট ক্লাচ ব্যাগগুলোতেও পাথর আর পুঁতির ব্যবহারে আনা হচ্ছে আভিজাত্যের ছোঁয়া। পুরো ব্যাগে না হলেও অ্যানিম্যাল প্রিন্টের ব্যবহারও চোখে পড়ছে। খ্যাতনামা আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড যেমন: কোচ, মাইকেল করস, শ্যানেল ইত্যাদির রেপ্লিকা ব্যাগগুলোও বেশ জনপ্রিয় এখন।
বড় ও মাঝারি আকৃতির টোটি ব্যাগগুলোই এখনকার ট্রেন্ড, এমনটাই জানালেন বাটার ডাইভারসিটি ইনচার্জ সুহানা সাদ্দাত। এই ধরনের ব্যাগের আকার ও নকশার বৈচিত্র্যের কারণে শুধু কাজের জায়গায় নয়, বিভিন্ন উৎসব আমন্ত্রণে এমন ব্যাগ বেছে নিচ্ছেন অনেকেই। ব্যাগের হাতল ছোট, বড় নানা আকারের হচ্ছে। এ ছাড়া ম্যাজেন্টা, হলুদ, গোলাপি, নীল, কালো, সবুজ, কমলা সব রংই চলছে বেশ।
অনুষ্ঠানে শাড়ি পরলে সঙ্গে মানিয়ে ছোট আকারের ব্যাগ, ক্লাচ বা বাটুয়া নিলে দেখতে ফ্যাশনেইবল দেখায়। আর এখন তো বাজারে বিভিন্ন রংয়ের ব্যাগ পাওয়া যায়। তাই পছন্দসই আকারের বিভিন্ন রংয়ের ব্যাগ নিজের কালেকশনে রাখতে ভালোই লাগে।
নিমন্ত্রণে বা বন্ধুদের সঙ্গে ঘোরাঘুরি, উপলক্ষটা যা-ই হোক না কেন স্ট্রাকচারড ব্যাগগুলো মানিয়ে যাবে সব পরিবেশে। শাড়ির সঙ্গে যেমন মানাবে, তেমনি পশ্চিমা পোশাকেও ভালো লাগবে এই ব্যাগগুলো। এদিকে অফিস শেষে হয়তো ছুটতে হবে কোনো পার্টিতে, সে ক্ষেত্রে বেছে নিতে পারেন এনভেলপ আকারের ক্লাচ ব্যাগগুলো। এ ধরনের ব্যাগের সুবিধা হলো এর লম্বা বেল্টটা কাঁধে ঝুলিয়ে নিয়ে যেমন অফিসে দৌড়ানো যায়, তেমনি অফিস শেষে বেল্টটা ভেতরে ঢুকিয়ে দিলেই পার্সের মতো ব্যবহার করা যায় ব্যাগগুলো।
 
 
দরদাম
ব্যাগের দাম পড়বে দেশি-বিদেশি অনুপাতে। শাড়ি, স্কার্ট বা লেহেঙ্গার সঙ্গে সহজেই মানিয়ে যায় বটুয়া। কাপড়ের উপর লেইস বসানো বা ভেলভেটের বটুয়া পাওয়া যাবে ৫শ’ থেকে ১ হাজার ৩শ’ টাকার মধ্যে। আরবান ট্রুথে স্ট্রাকচারড ব্যাগের দাম পড়বে ১৪০০ টাকা, এনভেলপ ক্লাচ ব্যাগগুলো পাবেন ১৩৯০ টাকায় আর ১২০০ থেকে ২০০০ টাকার মধ্যেই মিলবে অন্যান্য নকশার ব্যাগগুলো। এদিকে ব্যাগ পাবেন ১৫৯০ থেকে ২০০০ টাকায়। এ ছাড়া নিউমার্কেট, বসুন্ধরা শপিং মল, যমুনা ফিউচার পার্ক, পিংক সিটি শপিং মল ইত্যাদি জায়গা থেকেও কিনতে পারেন ব্যাগ। অনলাইনেও একটু খুঁজে ফরমায়েশ দিতে পারেন ব্যাগের। আজকের ডিল তো আছেই। আজকের ডিলের প্রায় ১০০০ মত ব্যাগের কালেকশন l 
 
মনে রাখবেন
পোশাকে জমকালো ভাব বেশি হলে ব্যাগ বেছে নিন অপেক্ষাকৃত কম কারুকাজের। পোশাকের রঙের সঙ্গে হুবহু ব্যাগের রং মেলানোর থেকে পোশাকের যেকোনো একটি রংকে গুরুত্ব দিন। আনারকলি ও লম্বা কামিজের সঙ্গে দেশি মোটিফের বটুয়া ভালো মানাবে। শাড়ির সঙ্গে হাতলসহ ক্লাচ কিংবা বটুয়া দুটোই নিতে পারেন। যেকোনো পার্টি ব্যাগ হাতে নেওয়ার আগে আপনার হাতের সৌন্দর্যের দিকেও খেয়াল রাখতে ভুলবেন না।
 
আপনার পছন্দের ব্যাগটি কিনতে এখানে ক্লিক করুন
 
*লেডিজব্যাগ* *হালফ্যাশনেরব্যাগ*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★