শিশুর জুতা

শিশুরজুতা নিয়ে কি ভাবছো?

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

শীতে আসছে, আসছে নতুন বছর, হয়তো আপনার ঘরে আসছে নবজাতক শিশু আর তার জন্যই চাই নতুন জুতা! এ যেন এক অন্যরকম অনুভূতি। তুলতুলে নবজাতক শিশুকে নতুন জুতা দিতে পারার আনন্দটাই আলাদা। তাই নবজাতক শিশুর জন্য মানানসই জুতা কেনা চাই ই চাই। কিন্তু এখন তো শীতকাল! এই সময়ে যে কোনো বয়সী শিশুদের জুতা নির্বাচনে একটু সর্তক হওয়া জরুরী। বিশেষ করে নবজাতক শিশুদের জন্য খুব সর্তকতার সাথে জুতা কিনতে হবে। কোন ভাবেই যেন তাদের পায়ে শীত হানা দিতে না পারে সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। নবজাতক শিশুদের জন্য কেমন জুতা কিনবেন সেটা নিয়ে আপনার চিন্তা কমানোর জন্য কনটেন্টটিতে বেশ কয়েকটি ছবি ও লিংক দেওয়া হয়েছে। ছবি গুলোতে ক্লিক করেও নবজাতকের জুতা সহ যে কোনো বয়সের শিশুদেড় জুতা কিনতে পারবেন।

ধুলো-বালি, ময়লা এবং রোগ-জীবাণু থেকে সার্বক্ষণিক রক্ষা করে জুতা। পায়ের হাড় গঠন থেকে শুরু করে, সঠিক গড়ন এবং নানা রকম প্রদাহসহ বিভিন্ন রোগব্যাধির হাত থেকে রক্ষা করে জুতা বা স্যান্ডেল। তবে সে জন্য প্রয়োজন সঠিক সময়ে সঠিক জুতা নির্বাচন। বাচ্চাদের জন্য মূলত তিন ধরণের জুতা হয়ে থাকে, যেমন: স্যান্ডেল, কেডস এবং শু। ঋতুভেদে এসব জুতায় পরিবর্তন আনা প্রয়োজন। 

সোনামনির তুলতুলে সুন্দর দুটি পায়ের জন্য জুতা কিনতে যাচ্ছেন? একটু খেয়াল রাখবেন-
শিশুর জুতা যেন কাপড়ের অথবা চামড়ার হয়। কিছুতেই প্লাস্টিক সোলের জুতা না কেনায় ভাল। জুতা যেন হালকা হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। বেশি টাইট জুতা কিনবেন না। একটু লুজ জুতা কিনুন। যেন শিশুর পায়ে চাপ না লাগে। শিশুরা কিন্তু রঙ্গিন জিনিস খুব পছন্দ করে, তাদের জন্য রঙ্গিন জুতা কিনুন। সবকিছুর আগে লক্ষ্য রাখুন জুতাটি আপনার সোনামনির জন্য আরামদায়ক হবে কি না। আরেকটি কথা, শিশুরা খুব তাড়াতাড়ি বেড়ে ওঠে। তাদের জন্য অনেক দাম দিয়ে জুতা কিনলেও খুব বেশি সময় পরতে পারবে না। অনেক দামি জুতা না কিনে, অল্প দামের মধ্যে শিশুর জন্য আরাম দায়ক, সুন্দর জুতা কিনুন।

কোথায় পাবেন : আপনি যদি শিশুর জন্য ব্র্যান্ডের কোনো জুতা কিনতে চান, তবে আপনাকে যেতে হবে সেই সব ব্র্যান্ডের দোকানগুলোয়। যেমন আছে বাটা, অ্যাপেক্স, জেনিস, লোটো, হাসপাপিজ এসব দোকানের দেখা মিলবে বসুন্ধরা সিটি শপিংমলে। তাছাড়া পাবেন ধানমন্ডি, বনানী, এলিফ্যান্ট রোড, গুলশানের আউটলেটগুলোয়। এলিফ্যান্ট রোডে ব্র্যান্ডের দোকানগুলোর পাশাপাশি যথেষ্ট নন-ব্র্যান্ড জুতার দোকানও রয়েছে। ক্রেতাদের পছন্দের জোগান দেওয়া তাদের প্রধান কাজ। পাশাপাশি নিউমার্কেট, গুলিস্তান, গাউছিয়া, এলিফ্যান্ট রোড, ফার্মগেটে সাধারণ দোকানগুলোতেও নন-ব্র্যান্ডের জুতা বাচ্চাদের জন্য পাবেন। তবে বর্তমান সময়ে অনলাইন শপিং এ মানুষের আগ্রহ বেড়ে যাওয়ায় দেশের নামি দামি অনলাইন শপিং মল গুলো তাদের ওয়েবসাইটে নবজাতক শিশুর জুতার অসংখ্য কালেকশন রেখেছে। আপনি চাইলে ঘরে বসেই আপনার পছন্দের প্রোডাক্টটি অর্ডার করতে পারেন। নিচে একটি অনলাইন শপের লিংক দিলাম এই লিংক থেকে নবজাতকের জুতা কিনতে পারবেন। 

দরদাম : লেদার ও সিনথেটিক কাপড়ের জুতার দাম পড়বে ২৫০-১ হাজার ২০০ টাকার মধ্যে। ছোটদের পছন্দের স্পাইডারম্যান, ডোরেমনের স্টিকারযুক্ত স্যান্ডেলগুলো পাবেন ৪০০-১ হাজার ১৯০ টাকার মধ্যে। জেনিস নিয়ে এসেছে চেন্নাই শু, যা পাবেন ৪৯০ টাকায়। উইনব্রেনার নর্থস্টারসহ দুই ফিতার কিছু স্যান্ডেল পাওয়া যাবে, দাম পড়বে ৪০০-২ হাজার টাকা। ব্র্যান্ডের জুতার দাম পড়বে ৫০০ থেকে ৩ হাজার টাকার মধ্যে। নন-ব্র্যান্ডের ভালো জুতাও বাজারে আছে। সেক্ষেত্রে খুব ভালোভাবে বাছাই করে নিতে হবে। বাচ্চাদের নন-ব্র্যান্ডের জুতার দাম পড়বে ২৫০ থেকে ১ হাজার ৫০০ টাকার মধ্যে।

পরামর্শ :বাচ্চার জুতা কেনার সময় মাথায় রাখতে হবে জুতাটি যেন অবশ্যই শিশুর পায়ে ঠিকমতো হয়, প্রয়োজনে পরিয়ে ট্রায়াল দিয়ে নিন। এতে পরে সাইজ না মেলার ঝামেলায় পড়তে হবে না। ট্রায়ালের সময় খেয়াল করুন, জুতা পায়ে দিয়ে শিশুটি ঠিকমতো হাঁটতে পারছে কিনা। অর্থাৎ জুতাটি তার জন্য আরামদায়ক হচ্ছে কিনা। শেষ পর্যন্ত জুতা-স্যান্ডেল যা-ই কেনা হোক না কেন, তা বেল্টযুক্ত হলে ভালো। এতে শিশুরা অন্য ডিজাইনের জুতার চেয়ে বেশি আরামবোধ করবে। শিশুদের জন্য হিলজাতীয় জুতা পরিহার করাই শ্রেয়। হিল পরে হাঁটতে বাচ্চাদের সমস্যা হতে পারে। 

পা ঘামানো এবং দুর্গন্ধের জন্য জুতা একমাত্র কারণ না হলেও অন্যতম প্রধান কারণ। তাই এমন জুতা নির্বাচন করা প্রয়োজন, যেখানে পায়ে যথেষ্ট বাতাস পৌঁছানোর সুযোগ থাকে। অবশ্যই খেয়াল রাখা প্রয়োজন জুতার তলা, পায়ের সংস্পর্শে থাকে যে পাশ, যেন অবশ্যই প্রাকৃতিক চামড়ার হয়। শিশুদের পায়ের গঠনে জুতা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। ছোটবেলায় মাপমতো জুতা না পরলে শিশুদের পা বেশি চওড়া হয়ে যায়। আবার বেশি সময়ের জন্য জুতা পরানো হলে পা ছোট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কাও থাকে। যাঁদের পায়ে জন্মগত সমস্যা থাকে, তাঁদের জন্মের পর থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে বিশেষ ধরনের জুতা পরানো দরকার। এতে পায়ের সমস্যা অনেকাংশেই কাটিয়ে ওঠা যায়।

সব বয়সী শিশুদের সবধরনের জুতা দেখতে ক্লিক করুন।

*জুতা* *শিশুরজুতা* *শপিং* *অনলাইনশপিং* *শু* *স্যান্ডেল* *নবজাতকেরজুতা*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

নতুন বছর, নবজাতক শিশু আর নতুন জুতা! এ যেন এক অন্যরকম অনুভূতি। তুলতুলে নবজাতক শিশুকে নতুন জুতা দিতে পারার আনন্দটাই আলাদা। তাই নবজাতক শিশুর জন্য মানানসই জুতা কেনা চাই ই চাই। কিন্তু এখন তো শীতকাল! এই সময়ে শিশুদের জুতা নির্বাচনে একটু সর্তক হওয়া জরুরী। বিশেষ করে নবজাতক শিশুদের জন্য খুব সর্তকতার সাথে জুতা কিনতে হবে। কোন ভাবেই যেন তাদের পায়ে শীত হানা দিতে না পারে সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। নবজাতক শিশুদের জন্য কেমন জুতা কিনবেন সেটা নিয়ে আপনার চিন্তা কমানোর জন্য কনটেন্টটিতে বেশ কয়েকটি ছবি ও লিংক দেওয়া হয়েছে। ছবি গুলোতে ক্লিক করেও নবজাতকের জুতা কিনতে পারবেন।

নিউ বর্ন বেবি শু গুলো কেমন?
সোনামনির তুলতুলে সুন্দর দুটি পায়ের জন্য জুতা কিনতে যাচ্ছেন? একটু খেয়াল রাখবেন-
শিশুর জুতা যেন কাপড়ের অথবা চামড়ার হয়। কিছুতেই প্লাস্টিক সোলের জুতা না কেনায় ভাল। জুতা যেন হালকা হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। বেশি টাইট জুতা কিনবেন না। একটু লুজ জুতা কিনুন। যেন শিশুর পায়ে চাপ না লাগে। 

শিশুরা কিন্তু রঙ্গিন জিনিস খুব পছন্দ করে, তাদের জন্য রঙ্গিন জুতা কিনুন। সবকিছুর আগে লক্ষ্য রাখুন জুতাটি আপনার সোনামনির জন্য আরামদায়ক হবে কি না। আরেকটি কথা, শিশুরা খুব তাড়াতাড়ি বেড়ে ওঠে। তাদের জন্য অনেক দাম দিয়ে জুতা কিনলেও খুব বেশি সময় পরতে পারবে না। অনেক দামি জুতা না কিনে, অল্প দামের মধ্যে শিশুর জন্য আরাম দায়ক, সুন্দর জুতা কিনুন।


কোথায় পাবেন?
বাটা, গ্যালারি এপেক্স, ডিজেল, বাটারফ্লাই, লিভাইস, নাইক, স্প্যারো, ক্যাটস আই, বেলেরিনা, হাস পাপিস সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে আপনার নবজাতক শিশুর জন্য সু কিনে নিতে পারবেন। তাছাড়া রাজধানীর গুলিস্তান, নিউমার্কেট, গাউসিয়া. মৌচাক ও আনারকলি মার্কেট তো আছেই।

তবে বর্তমান সময়ে অনলাইন শপিং এ মানুষের আগ্রহ বেড়ে যাওয়ায় দেশের নামি দামি অনলাইন শপিং মল গুলো তাদের ওয়েবসাইটে নবজাতক শিশুর জুতার অসংখ্য কালেকশন রেখেছে। আপনি চাইলে ঘরে বসেই আপনার পছন্দের প্রোডাক্টটি অর্ডার করতে পারেন। নিচে একটি অনলাইন শপের লিংক দিলাম এই লিংক থেকে নবজাতকের জুতা কিনতে পারবেন।
*জুতা* *শিশুরজুতা* *শপিং* *অনলাইনশপিং* *সু*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★