শীতার্তদের জন্য

শীতার্তদের-জন্য নিয়ে কি ভাবছো?

kafi: *শীতার্তদের-জন্য*

নিপু: একটি বেশব্লগ লিখেছে



গত বারের মত এই বারও আমরা আমাদের চেষ্টা চালিয়েছি কিছু মানুষকে   এই শীতে একটু উষ্ণতা দিতে - বলতেই হচ্ছে আমাদের, আপনাদের সকালের চেষ্টায় আমরা পেরেছি কিছু মানুষের হাতে গরম কাপড় তুলে দিতে !
আমাদের এই বারের গন্তব্য ছিলো কুড়িগ্রামের এক প্রত্যন্ত চরে - কুড়িগ্রাম সদর থেকে প্রথমে কম্বল সহ পিকাপে যাত্রা তার পর নৌকা পার হয়ে বালির ওপর দিয়ে হেটে চলা - স্থানীয় স্কুল মাঠে বৃদ্ধ, বাচ্চা কে ছিলো না ! কম্বলের পাশাপাশি মাফলার আর কানটুপি তুলে দেয়া হয় অপেক্ষারত মানুষগুলোর মাঝে, বাচ্চাগুলোর মুখের হাসি এখনো চোখে লেগে আছে ! অনেক কষ্টের পর তৃপ্তি পেয়েছি - চরে হাটতে গিয়ে ছবির শোলার বেড়ায় দেখলাম জীর্ণ কথা আর জোড়া তালি দেয়া আর একটি তোষক, অবাক হয়ে ভাবলাম এই কাথা দিয়ে কি শীত দূর হয় !!! ভেবে ভালো লাগলো আজ রাতে এই ঘরের মানুষ গুলো নতুন কম্বলের নিচে শান্তির ঘুম দিবে - এই মানুষ গুলোর দোয়া আমাদের সবার ওপর ঝরে পরুক এবং আগামী বার যদি আমরা আবার এই এলাকায় যাই তবে এই শোলার বেড়ায় যেন আমাদের কম্বল রোদে দেয়া থাকে (খুকখুকহাসি)

আরো একটি প্রাপ্তি আছে আমি আমার শৈশব দেখতে পেয়েছি এক পিচ্চির চাহনি আর চেহারায় - মনে হয়েছে
ছোট্ট আমি স্কুলএর বেঞ্চএ বসে আছি !
সব শেষে আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টাই করেছি ভালো কিছু করার - আপনাদের আমদের সবার প্রচেষ্টায়ই আমরা আরো ভালো কাজ করতে পারি - যা আমাদের দিতে পারে তৃপ্তি আর কিছু সুবিধা বঞ্চিত মানুষকে দিতে পারে একটু আরাম আর সচ্ছলতা ! এগিয়ে আসুন আপনার চারপাশের মানুষগুলোর অভাব, না পাওয়া আর কষ্ট গুলো দূর করার জন্যে-  আপনার আমার আইডিয়া আর শ্রম দিয়েই আমরা পারবো ভালো কিছু করতে   !
 

*শীতার্তদের-জন্য*

রনি রহমান: শীতার্তদের জন্য আমরা ২০১৫ (খুকখুকহাসি) . সবার সহযোগিতায় এবারের সফল হওয়া কার্যক্রমের একটি ভিডিও https://www.youtube.com/watch?v=mSddeVBfvrg

*শীতার্তদের-জন্য*

মারগুব বেশব্লগটি শেয়ার করেছে
"অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলাম এই খবরের জন্য! আল্লাহর অসীম রহমতে সুন্দর করে এবারেও *শীতার্তদের-জন্য* কম্বল বিতরণ করে এলেন ভাইয়েরা (খুকখুকহাসি)"

৬ ডিসেম্বর ২০১৫, রবিবার |

কুড়িগ্রামের যাত্রাপুর ইউনিয়ন, ব্রহ্মপুত্র নদের উপনদ দুধকুমার পার হয়ে ৩০ মিনিট পায়ে হেঁটে পৌছালাম চরের মধ্যে অবস্থিত একটি স্কুলের মাঠে |



ওখানকার স্বেচ্ছা সেবকদের সাহায্যে সুশৃংখল ভাবে হয়ে গেল আমাদের এবারের শীতবস্ত্র বিতরণ |
প্রাপ্ত বয়স্কদের দেয়া হলো ৩৫০ টি কম্বল, ২০০ কান টুপি আর ২০০ মাফলার |



ক্লাস ভর্তি প্রথম আর দ্বিতীয় শ্রেনীর কিচিরমিচির করা বাচ্চা গুলোকে দেয়া হলো ১০০ রঙিন কান টুপি |



ফিরে এসে সেদিন রাতে আমরা সবাই অনেক ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়েছি | ঘুম ভেঙ্গে মনে হলো, ৩৫০ টা কম্বলের নিচে অনেক গুলো মানুষ ঘুমিয়েছে শান্তিতে , উষ্ণতায় ! যে যেখান থেকে, যে অবস্থায়, যতটুকু সম্পৃক্ত ছিলেন সবাইকে সেই উষ্ণতা ছুয়ে যাক!

©The Arafat™: একটি বেশব্লগ লিখেছে

৬ ডিসেম্বর ২০১৫, রবিবার |

কুড়িগ্রামের যাত্রাপুর ইউনিয়ন, ব্রহ্মপুত্র নদের উপনদ দুধকুমার পার হয়ে ৩০ মিনিট পায়ে হেঁটে পৌছালাম চরের মধ্যে অবস্থিত একটি স্কুলের মাঠে |



ওখানকার স্বেচ্ছা সেবকদের সাহায্যে সুশৃংখল ভাবে হয়ে গেল আমাদের এবারের শীতবস্ত্র বিতরণ |
প্রাপ্ত বয়স্কদের দেয়া হলো ৩৫০ টি কম্বল, ২০০ কান টুপি আর ২০০ মাফলার |



ক্লাস ভর্তি প্রথম আর দ্বিতীয় শ্রেনীর কিচিরমিচির করা বাচ্চা গুলোকে দেয়া হলো ১০০ রঙিন কান টুপি |



ফিরে এসে সেদিন রাতে আমরা সবাই অনেক ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়েছি | ঘুম ভেঙ্গে মনে হলো, ৩৫০ টা কম্বলের নিচে অনেক গুলো মানুষ ঘুমিয়েছে শান্তিতে , উষ্ণতায় ! যে যেখান থেকে, যে অবস্থায়, যতটুকু সম্পৃক্ত ছিলেন সবাইকে সেই উষ্ণতা ছুয়ে যাক!

*শীতার্তদেরজন্য* *শীতার্তদের-জন্য* *শীতার্তদেরজন্যআমরা* *শীতবস্ত্র-বিতরণ*
ছবি

অসামাজিক কবি: ফটো পোস্ট করেছে

বেশতো থেকে দেওয়া এবারের *শীতার্তদের-জন্য* বেনার

*শীতার্তদের-জন্য*

রনি রহমান: " শীতার্তদের পাশে আমরা- ২০১৫ " বেশতো পরিবার, বেশতো কর্তৃপক্ষ ও পরিবারের সদস্যদের এফ.এন.এফ দের প্রত্যেকের সহযোগিতায় এবারের শীতবস্ত্র কার্ক্রমের অর্ধেক্কাংশ সফল ভাবে সম্পন্ন হয়েছে। আজকে শীতার্ত মানুষদের পাশে থাকার জন্য ৩৫০ পিস কম্বল, ৩৩৬ পিস কানটুপি, ২০৬ পিস মাফলার কেনা হয়েছে এবং কুরিয়ার এর জন্য পাঠানো হয়েছে। আগামী ৫ তারিখ সকালে কুড়িগ্রামের

*শীতার্তদের-জন্য*

অসামাজিক কবি: আমাদের বেশতো পরিবারের শীতবস্র নিয়ে কাজ আজ শেষ হল।আজ কেনাকাটার কাজ শেষ করলাম।আমরা 350 পিস কম্বল।336 পিস কান টুপি।206 পিস মাফলার।কেনাকাটার পর্ব শেষ এখন দেওয়ার পালা।আমরা আগামি 5 তারিখ সকালে কুড়িগ্রামের উদ্দেশে যাত্রা করবো।সবাই আমাদের জন্য দোয়া করলাম আমরা যেন উক্ত কাজ সফল ভাবে শেষ করতে পারি।[বিজয়-জিতছি]

*শীতার্তদের-জন্য*

আড়াল থেকেই বলছি: *শীতার্তদের-জন্য* সেদিন ছিল একটি শীতের সকাল,ছোট বেলার কথা.তবে আমার এখনো স্পষ্ট মনে আছে,মা পাঠিয়েছিল তুন্দুলের রুটি আনার জন্য,তখন একজন মা-তাঁর সন্তানকে মারতেছে,জিজ্ঞাসা করলাম কেনো? বললেন,শীতের জ্যাকেট এর জন্য,আমি আমার গায়ের জ্যাকেটটি দিয়ে দিয়েছিলাম,তখনকার বাচ্চাটির হাসি আমার এখনো চোখে ভাসে...

*শীতার্তদের-জন্য*

আড়াল থেকেই বলছি: ডিসেম্বর এ দেশে আসবো,সেই সাথে শীতার্তদের-জন্য খুব সুন্দর একটা প্লান আছে,১১ জনের একটা দল গঠন করবো,তার মধ্যে থাকবে ৫ জন বাংলাদেশের ভালো অবস্থার চাকরিজীবি(২জন নারী আর ৩ জন পুরুষ) আর বাকি ৬ জন (আমিসহ) প্রবাসী( যার মধ্যে ২ জন নারী),আমাদের বাজেট ১০ লক্ষ এর মধ্যে,যার ৪৫% আমি সহায়তা আমি বিদেশী সরকার থেকে পেতে যাচ্ছি,সবাই দোয়া করবেন যেনো সফলকাম হতে পারি(প্লিইইজ)(প্লিইইজ)(প্লিইইজ)

*শীতার্তদের-জন্য*

রয়েল: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আসসালামু আলাইকুম, কেমন আছেন সবাই? "শীতার্তদের জন্য আমরা-২০১৫"  উদ্যোগে আপনাদের সবার স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে আমরা সবাই অভিভূত। আসলে সবাই মিলে কোন একটা কাজ করলে তা ভালো ভাবে শেষ না হয়ে পারে না।আমাদের আজকের মিটিং এর সারমর্ম  সকল বেশতো ইউজার এর অবগতির জন্য জানাচ্ছি, আমাদের ফান্ড কালেকশন কার্যক্রম আজকে শেষ হয়েছে। এখন পর্যন্ত আমাদের সর্বমোট ফান্ড ১,১৫,০০০ টাকা। ইনশা-আল্লাহ, আমরা আগামী ৬ই ডিসেম্বর,২০১৫ তারিখে কুড়িগ্রাম জেলার, যাত্রাপুর ইউনিয়নের একটি চর এ আমাদের সংগ্রহকৃত অর্থ দিয়ে কেনা কম্বল, মাফলার, সোয়েটার এবং অনেকের দেয়া পুরনো শীতের কাপড় গুলো বিতরন করবো। এই উদ্দেশ্যে ৮ সদস্যের একটি স্বেচ্ছাসেবক দল নির্বাচন করা হয়েছে। যারা সবাই শীতবস্ত্র ক্রয়, পরিবহন এবং বিতরন কার্যক্রম এ অংশগ্রহণ করবেন। আশাকরছি আমরা ৫ই ডিসেম্বর রাতে ঢাকা থেকে ট্রেনে কুড়িগ্রাম এর উদ্দেশ্যে  রওনা হবো এবং ৭ই ডিসেম্বর কুড়িগ্রাম থেকে ঢাকা ফিরবো। এই স্বেচ্ছাসেবক দল সহ সকল বেশতো বন্ধুদের এবং তাদের FnF (যারা আমাদের কে আর্থিক ও মানসিক ভাবে সহযোগিতা করেছেন) কে জানাচ্ছি আন্তরিক অভিনন্দন ও ধন্যবাদ।

বিঃদ্রঃ আজকের মিটিং এ অনুপস্থিত ছিলেন,কিন্তু স্বেচ্ছাসেবক দলে অন্তর্ভুক্ত হতে এবং আমাদের সঙ্গে ক্রয় ও বিতরন কার্যক্রমে অংশগ্রহন করতে আগ্রহী তাদের অতিসত্বর (২৮শে নভেম্বর এর মধ্যে) রনি ভাই, অপু ভাই, নিপু ভাই এবং পলাশ ভাই এর সঙ্গে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করছি।   

ধন্যবাদ।   
*শীতার্তদের-জন্য-আমরা* *শীতার্তদের-জন্য* *শীতার্তদের-জন্য-আমরা-২০১৫*

Mehedi hasan Himo: *শীতার্তদের-জন্য* আমি গরিব ও দুখীদের জন কিছু করব, তবে আমার চার পাসে যারা আছে তাদের জন আমার উদ্দেক.

সাদাত সাদ: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আমরা যখন ভাল কোন কাজ কিংবা উদ্যোগ নেয় তখন সেটাতে হাজার বাঁধা আসে। নানান মানুষের নানান কটুক্তি, নানান সমালোচনার মাঝে এগিয়ে যাওয়া টাই কষ্টকর হয়ে উঠে। আসলে আমাদের মাঝে বিশ্বাস জিনিস টা খুবই কম। আমরা বিশ্বাস কাউকে বিশ্বাস করিনা, কারো উপর ভরসা ও রাখি না। কেউ কোন ভাল কাজ করতে তাতে সহযোগিতা ও করিনা। মূল কথা আমরা কারো ভাল চাইনা। কিন্তু কেন আমার প্রশ্ন সেটা।

গতবারের কথা
 আমার তিন বন্ধু রাফসান, তন্ময়,  দিগন্ত। এই তিন জন মিলে শীতবস্ত্র বিতরণে সতস্ফুর্ত ভাবে অংশগ্রহণ করেছি, নিজের সামর্থ্য থেকেই। যেহেতু আমরা তিন জনই নিজের উপর ভর করে চলে সেহেতু এই কার্যক্রম কে সফল করতে আমাদের অনেক কষ্ট করতে হয়েছে, অর্থের দিক থেকে শুরু করে  পরিশ্রম। সর্বোপরি এমন কঠিন একটা কাজ আমরা তিন কিশোর বয়সী ছেলের জন্য বড় বোজা বলা যায়। তবুও শত কষ্টে আমরা সফল হয়েছি।

আমাদের এই ছোট্ট কার্যক্রম কে ঘিরে অনেক সমালোচনা ও শুনেছি যেমন, অনেকে বলেছেন, এইগুলা লোক দেখানো/ নাম কামাইতেছে / পরোপকারী / ইত্যাদি ইত্যাদি। এত আলোচনা সমালোচনার পরও আমরা ভেঙ্গে পড়িনি, আমরা দৃঢ় প্রত্যয়ে এগিয়ে গেছি সামনের দিকে।
গতবারের মতো এবারও ইন শা আল্লাহ আমাদের শীতবস্ত্র কার্যক্রম চলবে। এবারও গতবারের ন্যায় অনেক সমালোচনা হবে, মনেহয়। কারণ কিছু কিছু মানুষের জন্মই হয়েছে অন্যের সমালোচনা করার জন্যে। 


সবার উদ্দেশ্যে কিছু কথা, আপনারা যারা অর্থশালী আছেন তাঁরা অন্তত নিজের গ্রামের কিছু মানুষকে শীতবস্ত্র বিতরণ করুন। আপনাকে দেখে অন্যরা ও আশা করি এগিয়ে আসবে সাহায্যের হাত বারিয়ে দিতে। আমাদের একটু সদিচ্ছা পারে হাজার মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে।

ধন্যবাদ সবাইকে
২৬.১১.২০১৫
সাদাত সাদ
*শীতার্তদের-জন্য*

আল ইমরান: কে কে আছেন? আসেন আড্ডা দেই................

*আড্ডা* *শীতার্তদের-জন্য*

নিপু: শীতার্তদের জন্য আমরা ২০১৫ এখন পর্যন্ত আমাদের মোট সংগ্রহ ৭২,৫১২ টাকা! আমরা হয়তো কোন কারণ ছাড়াই টাকা খরচ করি - আপনার কোন এক আড্ডার কিম্বা কোন এক ট্রিট এর টাকা এক জন মানুষকে দিতে পারে শীতের কষ্ট থেকে মুক্তি " একটু ভেবে দেখবেন কি " ? এই উদ্যোগ এর বিস্তারিত নিয়ে আলোচনা হবে ২৭শে নভেম্বর ৪ ঘটিকায় খিলগাঁও ( আপন কফি শপ) এর সামনে- আপনাকে স্বাগতম !

*শীতার্তদের-জন্য* *শীতার্তদের-জন্য-আমরা*

রনি রহমান: # আগামী ২৭শে নভেম্বর রোজ শুক্রবার বিকেল ৪ ঘটিকায় আমরা সবাই খিলগাঁও ( আপন কফি শপ) এর সামনে মিলিত হব আড্ডা দেবার পাশাপাশি *শীতার্তদের-জন্য* ফান্ড সংগ্রহের জন্য। # এছাড়া সেদিন শীতের পোশাক ক্রয়, বিতরণের স্থান সবনিয়ে আলোচনা করব আমরা। আশাকরছি সবাই একটু সময় বের করে আসার চেষ্টা করব, আড্ডার পাশাপাশি একটি ভালো কাজের সঙ্গী হতে পারলাম। ( সবার পক্ষ থেকে

*শীতার্তদের-জন্য*

kafi: *শীতার্তদের-জন্য* শীতার্তদের-জন্য-আমরা....

Azizul Hoque: *শীতার্তদের-জন্য* আমি গরিব ও দুখীদের জন কিছু করব, তবে আমার চার পাসে যারা আছে তাদের জন আমার উদ্দেক.

নিপু: শীতার্তদের জন্য আমরা ২০১৫ এখন পর্যন্ত আমাদের মোট সংগ্রহ ৭০,২১২ টাকা! ০১৯৮৯২৪৭৪৩ এই ( bkash no) থেকে কিছুক্ষণ আগে আমি একটি বিকাশ রিসিভ করেছি উনি যে ঠিকানা বা নাম বলছিলেন তা আমি বুঝতে পারিনি - প্লিজ, আপনার নাম জানিয়ে সাহায্য করুন (খুকখুকহাসি)- অনেক ধন্যবাদ আপনাকে ! আমাদের হাতে খুব বেশি সময় নেই- আপনাদের সাহায্য প্রার্থনা করছি এই উদ্যোগ সফল করতে l

*শীতার্তদের-জন্য-আমরা* *শীতার্তদের-জন্য*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★