শ্রীলংকা

শ্রীলংকা নিয়ে কি ভাবছো?

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কা এখন পর্যন্ত কতবার বিজয়ী হয়েছে?

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

*এশিয়াকাপ* *শ্রীলংকা* *ক্রিকেট*

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 এশিয়া কাপে এর আগে শ্রীলঙ্কা কতবার অংশ নিয়েছে?

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

*এশিয়াকাপ* *শ্রীলংকা* *ক্রিকেট*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: আপনি জানেন তো? আগামীককাল সারা দেশ জুড়ে ২১০ লক্ষ শিশুকে ভিটামিন 'এ' ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে... অপুষ্টিজনিত অন্ধত্য, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি, ডায়রিয়ার ব্যাপ্তি ও জটিলতা কমাতে এবং শিশু মৃত্যুর ঝুঁকি কমাতে - ৬ মাস থেকে ৫ বছর বয়সী সকল শিশুকে ভিটামিন 'এ' ক্যাপসুল খাওয়াবে সরকার.. আপনার সোনামনি বাদ যাবেনা ত?? ভাল কথা, ;) সংখ্যার দিক থেকে এটা শ্রীলংকা, মালি,জিম্বাবুয়ে, কিউবা,বলিভিয়া, নরওয়ে, ফিনল্যান্ড এর মত দেশের মোট জনসংখ্যা থেকেও বেশি ;) ভাবুন ত একবার..

*ভিটামিন* *ক্যাপসুল* *এ* *শ্রীলংকা* *শিশু*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

আর যেন তর সইছে না,কেমন জানি অস্থির অস্থির ঠেকছে।বাংলাদেশের খেলা থাকলে হাইহুতাস যেন ক্ষিপ্রবেগে চেপে বসে।কখন ঘড়িতে ৭টা বাজবে।সব কাজ পেছনে ফেলে এক্কেরে টিভি সেটের সামনে।লাইভে যেন লাইফ ফিরে পাই।
প্রথম ওয়ান ডে শ্রীলংকাকে এরকম নাকানিচুবানি দেয়া,রানের চাপায় পিষে ফেলার পর প্রত্যাশাটা আরও বেগবান হচ্ছিল। দ্বিতীয়টিতে তাসকিনের হ্যাট্রিক উল্লাসিত করলেও...উল্লাসটা দীর্ঘস্থায়ী না হয়ে বৃষ্টির কারণে ক্ষণস্থায়ী হয়ে গিয়েছিল এবং সর্বশেষ তৃতীয় ওয়ানডেতে প্রত্যাশার শিকড় আর দীর্ঘ হলো না বড্ড তাড়াহুড়ার ফলস্রুতুতে ।
কি এমন রান ছিল যে এতো তাড়াহুড়া।সত্যিই বাঙালী জাতির ধৈর্য বড়ই কম।মারো ঠেলা হেইও-ওও টাইপের।তামিমের তড়িঘড়ি আউট হওয়ার পর সাব্বিরের বাইরে থেকে বিপদ ঘরে টেনে আনা... মুশফিক পড়ে এলবিডাব্লিউ এর ফাঁদে।১১ রানে নেই ৩ উইকেট।তাড়াহুড়ার তড়িৎ গতিতে উইকেটের পতন।অন্যসব ম্যাচে থেকে সৌম্যকে দেখেছিলাম একটু ভিন্ন ধাঁচে আর সাকিব তো সাকিবই...!!!দুজনের ৭৭ রানের পার্টনার শিপ জয়ের আশা জাগিয়ে রেখেছিল ঠিকই।আশায় ঘুরে-বালি... তাড়াহুড়ার বেড়াজাল থেকে বেরুতে পারলো না সৌম্য,সাকিবও।ইহা তো টি২০ নারে...পাগলা ওডিআই ম্যাচ।ওডিআই মেজাজেই খেলতে হয়।আশা ভরসার পরিসীমা আর কতই বা থাকে... শেষে মাহমুদউল্লাহ উচ্ছন্নে যাওয়ার পর,উচ্ছন্নে গেলো পুরো ম্যাচটা।তরুণ মিরাজে,তলোয়ারের ধার দেখলেও,শেষে আর কতই বা টেনে নেয়া যায়। মাশরাফি আর তাসকিনের হালকা মেজাজ...তারপর মেজাজ বিঘ্রে গেলো...হাতছাড়া হলো সিরিজ জয়...যে বাঙালীরা ভাগ দিতে নারাজ সেখানে ভাগ বসালো শ্রীলংকা।
কিছুটা তো বিঘ্রে আছেও সেই ফলস্রুত দেখতে চাই আজ টি২০ ম্যাচে!!!!! বড্ড তাড়াহুড়ো ম্যাচ।ব্যাটিং,বোলিং,ফিল্ডিং তিন ফরমেটেই তড়িৎ গতিতে তীর্যকদৃষ্টিউপস্থিত বুদ্ধি প্রয়োগ করা টি২০ র ধর্ম।বড্ড তাড়াহুড়ার ম্যাচ তাড়াহুড়া ভাবে জ্বলে উঠতে হয়।"যে খানে যা লাগে...তাই দেয়ার মতো"।দেখাতে হয় তাড়াহুড়া ভাবে উইকেট বাঁচিয়ে তাড়াহুড়া ব্যাটিংয়ে তড়িঘড়ি রান তুলা।বিপক্ষে টিমকে তাড়াহুড়ার তাড়নায় ফেলে তড়িঘড়ি করে উইকেট উপরে ফেলা অথবা তড়িঘড়ি করে উইকেট ফেলে রানের খরায় ফেলা।
তাড়াহুড়া করে বলতে চাই...উরাদূরা খেলে তাড়াহুড়া ভাবে জিতে... হাইহুতাসের বাতাস তাড়িয়ে... তড়িৎ গতিতে আমরাই জিতবো।

*বাংলাদেশ* *ক্রিকেট* *ক্রিকেটরঙ্গ* *টি২০* *শ্রীলংকা*
ছবি

সাদাত সাদ: ফটো পোস্ট করেছে

নামঃ সিরিমাভো বন্দরনায়েকে

জন্ম: ১৭ এপ্রিল, ১৯১৬ - মৃত্যু: ১০ অক্টোবর, ২০০০, শ্রীলঙ্কার বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও ৬ষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। এছাড়াও তিনি আধুনিক বিশ্বের প্রথম মহিলা সরকার প্রধান ছিলেন। সিরিমাভো বন্দরনায়েকে তিনবার সিলন ও শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। শ্রীলঙ্কা ফ্রিডম পার্টিকে দীর্ঘদিন নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। প্রায় চল্লিশ বছর রাজনৈতিক জীবনের সাথে সম্পৃক্ত সিরিমাভো ১০ আগস্ট, ২০০০ তারিখে রাজনীতি থেকে দূরে সরে যান। এর ঠিক দুই মাস পর ৮৪ বছর বয়সে হৃদযন্ত্রক্রিয়ায় আক্রান্ত হলে দেহাবসান ঘটে তাঁর

*সিরিমাভোবন্দরনায়েকে* *সিলন* *প্রধানমন্ত্রী* *শ্রীলংকা* *রাজনীতিবিদ*

তানিয়া শারমিন: একটি বেশব্লগ লিখেছে

শ্রীলংকার রহস্যময় এক পাহাড়। নাম তার আদম পাহাড়।নানা কারণে এ পাহাড়টি রহস্যে ঘেরা। এর শীর্ষে রয়েছে বিরাট আকারের এক পায়ের ছাপ। রহস্য তা নিয়েই। এ পায়ের ছাপকে সব ধর্মের মানুষই পবিত্র হিসেবে মনে করে।

শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে বিশ্বে নানা রকম পায়ের ছাপ পাওয়া গেছে। তা নিয়ে রয়েছে নানা জল্পনা কল্পনা। এসব পায়ের ছাপ একেকটা একেক রকম। আকৃতি নানা রকম। কিন্তু এসব পায়ের ছাপ সম্পর্কে মানুষের জানার আগ্রহ দীর্ঘদিন ধরে। এমনই এক পায়ের ছাপ আদম পাহাড়ে। শ্রীলংকার মুসলমানরা বিশ্বাস করেন পৃথিবীর আদি মানব হজরত আদম (আ.) প্রথম এই শ্রীলংকায় পদার্পণ করেছিলেন। ওই পাহাড়ে রয়েছে তারই পায়ের ছাপ। তার জন্য এ পাহাড় ও পাহাড়ের ওই পায়ের ছাপ মুসলমানদের কাছে পবিত্র হিসেবে পরিণতি হয়ে আসছে।

শুধু শ্রীলংকার মুসলমানরাই নয়, এর বাইরের অনেক দেশের মুসলমান বিশ্বাস করেন হজরত আদম (আ.)-কে যখন পৃথিবীতে পাঠানো হয় তখন তিনি প্রথম পা রাখেন শ্রীলংকায়। আর আদম পাহাড়ের ওপর ওই পায়ের ছাপ দেখে তারা মনে করেন তা হজরত আদম (আ.)-এর। এজন্য মুসলমানরা এ পাহাড়কে অসীম শ্রদ্ধার চোখে দেখেন। আর এজন্য এর নাম দেয়া হয়েছে আদমস পিক বা আদমের পাহাড়। এ পাহাড়ের প্রতিটি পরতে পরতে রয়েছে রহস্য।
এ পাহাড়ের চূড়ায় যে পদচিহ্ন রয়েছে সেখানে পৌঁছা খুব ঝুঁকিপূর্ণ এডভেঞ্চার। তবে অনেকে ঝুঁকি নিয়ে সেখানে গিয়েছেন। তারা নিজের চোখে ওই পায়ের ছাপ দেখে বিস্মিত হয়েছেন। এই পায়ের ছাপ শুধু মুসলমানদের কাছেই নয়, একই সঙ্গে বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ও হিন্দুদের কাছেও পবিত্র। তারাও মনে করেন তাদের ধর্মের সঙ্গে এর রয়েছে ওতপ্রোত সম্পর্ক। এতে পরিষ্কার হয়ে যায় যে, আদমের পাহাড় সব শ্রেণীর মানুষের কাছেই পবিত্র। তারা শ্রদ্ধার চোখে দেখেন এ পাহাড়কে।
এ্যাডামস পিক পাহাড় আরোহণ করা খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। চূড়ায় পৌঁছতে হলে যে পথ তা চলে গেছে জঙ্গলের ভিতর দিয়ে। সেই জঙ্গল নানারকম ঝুঁকিপূর্ণ। আছে বিষধর কীটপতঙ্গ। তবে চূড়ার কাছাকাছি একটি ধাতব সিঁড়ি আছে। তাতে রয়েছে ৪০০০ ধাপ। এর প্রতিটি ধাপ নিরাপদ নয়। তার ওপর দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে শীর্ষে যেতে হলে কমপক্ষে ১২ থেকে ১৬ ঘণ্টা সময় লাগে। জটিল এক আবহাওয়ার এক অঞ্চলের মধ্যে এর অবস্থান। বছরে মাত্র তিন থেকে চার মাস এ পাহাড়ে আরোহণ করা যায়। বছরের অন্য সময়টাতে এতে আরোহণ অসম্ভব হয়ে ওঠে। কারণ, কাব্যিক অর্থে বলা যায় এ পাহাড় তখন মেঘের ভিতর লুকিয়ে যায়।(সংগ্রহীত)
*জানাঅজানা* *ভ্রমন* *শ্রীলংকা* *অ্যাডামপিক*
ছবি

অনি: ফটো পোস্ট করেছে

৪/৫

মাহেলার ব্যাট ভেঙে দিলেন আফগান শাপুর!

*ক্রিকেটবিশ্বকাপ* *শ্রীলংকা* *বিশ্বকাপক্রিকেট* *বিশ্বকাপ২০১৫*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★