সকাল

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 সুস্থ্য থাকার জন্য সকালে হাঁটার অভ্যাস করা কতটা গুরুত্বপূর্ণ?

উত্তর দাও (২ টি উত্তর আছে )

.
*সকাল* *হাঁটা* *স্বাস্থ্যতথ্য* *হেলথটিপস*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: তুই কি হবি সাঁঝ সকালের ধুমায়িত চায়ের কাপ? দিন সূচনায় থাকে যেন তোরই ভালোবাসার ছাপ।

*ভালোবাসা* *চা* *সকাল*

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 সকালে জিমে যাওয়ার আগে কি কি করা উচিত?

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

.
*সকাল* *জিম* *লাইফস্টাইলটিপস*

দীপ্তি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

বহুকাল আগে থেকে রসুন ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। বিশ্বের প্রায় প্রতিটি জাতিই রসুনকে বিভিন্ন অসুখ থেকে নিরাময়ের জন্য ব্যবহার করে আসছে।  মধুকে সংক্রমণ প্রতিরোধী উপাদান হিসেবে ধরা হয়। এই দুটো চমৎকার জিনিস যখন একসঙ্গে হয়, তখন এর গুণ বেড়ে যায় আরো বেশি।

রসুন ও মধুর মিশ্রণ বিভিন্ন ধরনের  সংক্রমণ, ঠান্ডা, জ্বর, কফ ইত্যাদি সারাতে বেশ ভালো কাজ করে। এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। কেবল সাতদিন রসুন ও মধুর মিশ্রণ খেলে বিভিন্ন সংক্রমণ থেকে শরীরকে অনেকটাই রক্ষা করা যায়।

যেভাবে বানাতে পারেন : 

উপকরণ: 

একটি মাঝারি আকৃতির বয়াম, মধু, তিন থেকে চারটি রসুন। (খোসা ছাড়িয়ে কোয়াগুলো বের করুন।)

প্রণালি

প্রথমে বয়ামের মধ্যে রসুনের কোয়াগুলো নিন। এরপর এর মধ্যে মধু ঢালুন। বয়ামের মুখ বন্ধ করে মিশ্রণটি ফ্রিজের মধ্যে সংরক্ষণ করুন।

প্রতিদিন খালি পেটে মিশ্রণটি আধা চা চামচ করে খান। ঠান্ডাজনিত সংক্রমণ প্রতিরোধের জন্য দিনে ছয়বার আধা চা চামচ করে এটি খেতে পারেন। এটি সংক্রমণ দূর করতে কাজ করবে।

*রসুনমধু* *সকাল* *স্বাস্থ্যতথ্য* *হেলদিফুড* *লাইফস্টাইলটিপস*

প্যাঁচা : "গুরুর নাম সুধাসিন্ধু পান কর তাহাতে বিন্দু...সখা হবে দীন বন্ধু, তৃষ্ণা ক্ষুধা রবে না রে...যারে ভাবলে পাপীর পাপ হরে...দিবানিশি ডাকো মন তারে..." শুভ সকাল... ...হাহাহাহা...সকাল সকাল মাথা খারাপ করে দেয় এই ঘুম থেকে ওঠা;অথচ না উঠলে সকালটাও দেখা যায় না।তাই সহজ উপায়, নো ঘুম...হাহাহাহাহাহাহাহা...

*ঘুম* *সকাল* *ভোর* *ক্লিকক্লিক-প্যাঁচা*

দীপ্তি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

সকালে ঘুম সব থেকে মিষ্টি ঘুম হয়ে থাকে। কিন্তু সকালের ঘুমের থেকে সকালের স্নিগ্ধতা আমাদের শরীর এবং মনের জন্য ভালো। সকালে উঠে মিষ্টি বাতাসে হাঁটাহাঁটি করলে সারা দিনের ক্লান্তি দূর হয়ে যায়, এটা প্রকৃতির সাথে মানুষের অটো কানেকশন। তাই যতই ঘুমোতে মন চায় কেন, ঘুমকে পাত্তা না দিয়ে  সকালে ওঠার অভ্যাস গড়ে তুলুন। সাথে আরো কিছু ভালো অভ্যাস  রয়েছে যা আপনার সকালকে করে তুলবে সুন্দর ও আনন্দময় এবং দিনটি কাটবে ক্লান্তিহীন ও সুস্থ্যতায়।আপনি আপনার নিজেকে নিজেই ছোটখাটো উপহার দিতে পারেন, সকালে পরিবারের সকলে মিলে একসাথে প্রার্থনা সেরে নিতে পারেন, এতে মনে প্রশান্তি পাবেন। এটি আপনার জন্য আলাদা কিছু হবে। নাস্তার পর পরিবারের সকলে মিলে ডাইনিং এ বসে সকাল সকাল কফি কিংবা চা খেতে গল্প করে বের হয়ে যেতে পারেন। পরিবারের মেলবন্ধন ও আশপাশের সকালের স্নিগ্ধতা আপনার মনের মানসিক অবস্থা ভালো রাখবে।

যোগ ব্যায়াম বা ইয়োগা: 
ঘুম ভাঙ্গার পর ১৫ মিনিট খালি হাতে ব্যায়াম কিংবা ইয়োগা করা উচিত। এটি প্রাকৃতিকভাবে আপনার শরীরকে সারা দিনের জন্য চাঙ্গা করে দেয়। এটি আপনাকে চাঙ্গা রাখে সারাদিন জুড়ে। 

মোবাইল ফোন ঘুম থেকে উঠেই নয়: 
আপনি যখনই ঘুম থেকে উঠে আপনার মোবাইল ফোনের কল লিস্ট কিংবা মেইল চেক করেন ঠিক তখনই আপনি আপনাকে কাজের আর চিন্তার দুনিয়াতে প্রবেশ করিয়ে ফেলেন। চেষ্টা করুন এসব ছাড়াই সকালটি শুরু করতে কোনো বই পড়ে কিংবা কোনো ভালো কিছু, নয়তো সৃষ্টিশীল চিন্তার মাধ্যমে। তাই মোবাইল নয়, চিরাচরিত নিয়ম অনুযায়ী ঘড়িতে অ্যাল্যার্ম  দিন। 

রাতেই করুন নতুন দিনের পরিকল্পনা:
আপনি সারা দিন কি কি  কাজ করবেন বা করতে চাচ্ছেন তার একটি ছোট্ট লিস্ট তৈরি করে ফেলুন রাতেই। আর তা সকালে উঠে দেখে নিন যে সারা দিনের পরিকল্পনার সঙ্গে যাচ্ছে কি না।

হালকা মেজাজের গান শুনুন এবং পত্রিকা পড়ুন:
আপনি আপনার দিন শুরু করতে পারেন যে কোনো পজিটিভ এবং হালকা মেজাজের গান শুনে, প্রয়োজনে ইন্সট্রুমেন্টালও শুনতে পারেন। তাছাড়া পত্রিকা পড়তে পারেন তবে শুরুতেই ভেতরের দিককার পাতা পড়ুন, যাতে ভালো কিছু লেখা আছে এবং তারপর প্রথম পাতা পড়ুন।

সকালের নাশতা অতীব জরুরি: 
সকালের নাশতা শরীরের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যখন সকালের নাশতা করে বের হবেন আপনি নিজেকে প্রাণবন্ত অনুভব করবেন, সময় না থাকলেও অন্তত একটি বিস্কুট খেয়ে এক গ্লাস পানি পান করেই তবে বের হোন এবং অফিসে বা গন্তব্যস্থলে পৌঁছেই নাস্তা করবেন । অনেকেই তাড়াহুড়ায় সকালের নাশতা না করে খালি পেটে বের হয়ে যায়, যা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।

সকালে পানি পান অত্যাবশ্যক: 
আপনি যখন ৮ ঘণ্টা ঘুমানোর পর ঘুম থেকে ওঠেন তখন আপনার শরীরে পানি শূন্যতার সৃষ্টি হয়। তাই সকালে ঘুম থেকে উঠে এক গ্লাস পানি পান করুন সবার আগে। এটি আপনাকে চাঙ্গা করতে সাহায্য করবে। তার সাথে লেবু ও মধু যোগ করতে পারেন। এটি আপনার ঘুমের ভাব দূর করবে।

শুরুতে এসব অনেক ঝামেলার কাজ মনে হতে পারে, এটাই স্বাভাবিক। সকলেরই হয়, মনে হবে এটি কিছু না করে বরং আরো খানিক্ষন ঘুমিয়ে নেই। তবে মানুষ তো অভ্যাসের দাস, চেষ্টা করে দেখুন। একবার চেষ্টা করে অভস্ত্য হয়ে দেখলে দেখবেন সকালটা কত রোমান্টিক ও রোমাঞ্চকর হয়ে উঠবে আপনার জন্য আর আপনি প্রতিদিন নতুন উদ্যমে দিন শুরু করতে পারবেন। বিশ্বাস করুন, এই নিয়মে আমি চলি আর প্রতিদিন ভালো থাকি শারীরিক ও মানসিক ভাবে। আর তাই হাজারো কাজের ভিড়ে আমি থাকি সজীব ও সতেজ।

*সকাল* *শুভসকাল* *অভ্যাস* *লাইফস্টাইলটিপস*

পরশ পাথর: [রমজান-নিষিদ্ধ] কেমন আছ আমার বেশতো বন্ধুরা? *শুভ-সকাল* সবাইকে ........................

*বেশতোবাসী* *বেশতো* *বন্ধু* *বেশতোর-সাথে-পথ-চলা* *ভোর* *বেশতো* *আমারকথা* *লেখালেখি* *ফলোয়ার* *সকাল* *রমজানমাস* *রমজান* *রোজা* *পুরানঢাকা* *চকবাজার* *ঢাকা* *ইফতারি* *শুভ-সকাল*

পরশ পাথর: এই রমজান মাসে আমার সকল বেশতো বন্ধুরা সুস্থতা কামনা করছি? *শুভ-সকাল* সবাইকে ........................

*বেশতোবাসী* *বেশতো* *বন্ধু* *বেশতোর-সাথে-পথ-চলা* *ভোর* *বেশতো* *আমারকথা* *লেখালেখি* *ফলোয়ার* *সকাল* *রমজানমাস* *রমজান* *রোজা* *পুরানঢাকা* *চকবাজার* *ঢাকা* *শুভ-সকাল*

পরশ পাথর: এই রমজান মাসে আমার সকল বেশতো বন্ধুরা সুস্থতা কামনা করছি? *শুভ-সকাল* সবাইকে ........................

*বেশতোবাসী* *বেশতো* *বন্ধু* *বেশতোর-সাথে-পথ-চলা* *ভোর* *বেশতো* *আমারকথা* *লেখালেখি* *ফলোয়ার* *সকাল* *রমজানমাস* *রমজান* *রোজা* *পুরানঢাকা* *চকবাজার* *ঢাকা* *শুভ-সকাল*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★