সৌন্দর্যচর্চা

সৌন্দর্যচর্চা নিয়ে কি ভাবছো?

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 পার্লারের না গিয়ে বাসায় কিভাবে গোল্ড ফেসিয়াল করা যেতে পারে?

উত্তর দাও (১ টি উত্তর আছে )

.
*গোল্ডফেসিয়াল* *ত্বকেরযত্ন* *সৌন্দর্যচর্চা*

মেঘ: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 রোদ থেকে ত্বককে বাঁচানোর উপায় কি?

উত্তর দাও (৫ টি উত্তর আছে )

*ত্বকেরযত্ন* *সৌন্দর্যচর্চা*
খবর

Online Khobor: একটি খবর জানাচ্ছে

ত্বক করে তুলুন নিখুঁত দীপ্তিময় মাত্র ৪টি কাজে - Online Khobor
http://onlinekhobor.com/beauty-tips/news/29130
অনলাইন খবর ডটকমঃ   স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন করলে আপনার ত্বকও ...বিস্তারিত
*ত্বক* *বিউটিটিপস* *সৌন্দর্যচর্চা* *সৌন্দর্য* *রুপচর্চা* *রুপ* *লাইফস্টাইল* *সাজগোজ*
১৯২ বার দেখা হয়েছে

লিজা : একটি বেশব্লগ লিখেছে

প্রতিদিনের ধূলাবালি আর ময়লা থেকে নিজেকে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে আমরা ফেসওয়াস দিয়ে মুখ ধুয়ে থাকি। কিন্তু না জেনেই এ সময়ে আমরা কিছু ভুল করে থাকি। আসুন জেনে নিই ভুলগুলো কী কী।

১. আমরা প্রথমত যে ভুলটি করে থাকি তা ফেসওয়াস ব্যবহারের ক্ষেত্রে নয় ভুল প্রোডাক্ট ক্রয় করে। আপনার ত্বকের ধরণ অনুযায়ী ফেসওয়াসের প্রোডাক্টটি অবশ্যই কেনা উচিত। শুষ্ক ত্বকের জন্য তৈলাক্ত ত্বকে মাখার উপযোগী ফেসওয়াস কিনে লাভ নেই। এতে বরং ত্বকের ক্ষতিই হবে।

২. দ্বিতীয় যে ভুলটি করি তা হল বারবার ব্যবহার করে। আপনার ত্বকে ময়লা জমেছে ভালো কথা। তাই বলে ময়লা ওঠানোর জন্য একই সময়ে বারবার ফেসওয়াস ব্যবহার ত্বকের ময়লা ওঠায় ঠিকই কিন্তু তার চেয়ে বেশি ত্বকের ক্ষতিই করে। কেননা কেমিকেলের তৈরি এই প্রোডাক্টগুলো একই সময়ে একবারের বেশি মাখা একেবারেই উচত না।

৩. ফেসওয়াস মুখে ব্যবহারের পরে সাধারণত হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলা ভালো। এতে মুখের ময়লা দ্রুত পরিস্কার হয়। কিন্তু আমরা তা না করে ঠান্ডা পানি দিয়েই ধুয়ে ফেলি যা একেবারেই উচিত না।

৪. ফেসওয়াস ব্যবহার করার সময়ে যতবেশি ফেনা তোলা যাবে তত যে ভালো তা ঠিক না। বরং বেশি ফেনা তোলা ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। কেননা এর ফলে ত্বকে বিভিন্ন র‌্যাশ ওঠার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

৫. অনেক ফেসওয়াস আছে যেগুলো ত্বকে ঠান্ডাভাব বা জ্বালাপোড়ার ভাব তৈরি করে। এগুলো ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। এই ধরনের ফেসওয়াশ ব্যবহার না করাই ভালো।

৬. আমরা প্রায়ই মুখ ধুয়ে অমসৃণ একটি তোয়ালে দিয়ে মুখ মুছে থাকি যা ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। এই কাজটি একেবারেই করা উচিত না। মুখ মোছার জন্য হালকা পাতলা কোনো কাপড় ব্যবহার করা উচিত।

৭. মুখ ধোয়ার পরপরই শুষ্ক ক্রিম জাতীয় প্রসাধনী আমরা প্রায়ই মেখে থাকি। এতে ত্বকের ক্ষতি হয়। মুখ ধোয়ার পর লোশন জাতীয় কিছু মাখাটা ত্বকের জন্য উপকারী। এতে ত্বকের মসৃণতা নষ্ট হবেনা, ত্বক থাকবে উজ্জ্বল আর প্রাণবন্ত।(সংগ্রহীত)
*টিপস* *সৌন্দর্যচর্চা* *ফেসওয়াস* *বিউটিটিপস*

Risingbd.com: বার্ধক্য থেকে নিজেকে বাঁচাবেন যেভাবে কিছু বদ অভ্যাস আপনাকে বয়সের আগেই বুড়ো করে দিতে পারে। জেনে নিন তেমনই কিছু বদ অভ্যাস। তাড়াতাড়ি বুড়িয়ে যেতে না চাইলে..... বিস্তারিত পড়ুন - http://www.risingbd.com/detailsnews.php?nssl=96000

*হেলথটিপস* *সৌন্দর্যচর্চা* *রূপচর্চা*

বিডি আইডল: একটি বেশব্লগ লিখেছে

বিয়ের পরে স্বামী স্ত্রী দুজনেরই হঠাৎ করে ওজনটা বেড়ে যায় । কিন্তু কেন জানি স্বামীর ক্ষেত্রে বেশি নজরে না পড়লেও, স্ত্রীর ক্ষেত্রে বেড়ে যাওয়া ওজনটা বেশ ভাল মতোই নজরে কাড়ে । আর এই ধরণের শিকার হয়েছেন অনেকেই ৷ কিন্তু হঠাৎ করে কেন আপনার ওজন এত বেড়ে যায় সেটা কি ভেবে দেখেছেন?

বিয়ের পর মেয়েরা যে শুধু নিজের বাড়িটা পেছনে ফেলে আসে তা নয় । সেই সঙ্গে ফেলে আসে এত দিনের পুরানো খাদ্যাভ্যাস, খাবার সময়সীমা ও পরিমাণ । একটি নতুন পরিবেশে নিজেকে মানিয়ে নেয়া, নতুন পরিবারের সবাইকে খুশি করে চলা, নতুন অভ্যাসে নিজেকে মানিয়ে নেয়া, সব মিলিয়ে একরকমের অনিয়মের কারণে কখন যে অজান্তে ওজন বেড়ে যায় তা টের পাওয়া খুব মুশকিল । আর এই জন্য কেমন যেন অদ্ভুত দেখতে লাগে আপনাকে ৷

জেনে নিন কিছু সহজ উপায় যাতে বিয়ের পর ওজন নিয়ন্ত্রণে রেখে দেহকে একটি শেপে রাখতে পারেন ৷ বিয়ের পরে প্রয়োজন একটি সঠিক ডায়েট টিপস । তবে কেবল মেয়েদের জন্য নয়, নারী-পুরুষ দুইয়েরই জন্য এই টিপস মেনে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন আপনার ওজন:

১। নিজের খাবারের সময়ের খুব বেশি বদলে দেবেন না । দুই বেলার খাবারের খাওয়ার মধ্যে যেন খুব বেশি তফাত না হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন । মনে রাখবেন অনিয়মেই ওজন বাড়ে ।

২। হানিমুনে গেলে খুব বেশি ফাস্টফুড না খেয়ে পুষ্টিকর খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন । যেমন পোলাও, বিরিয়ানি না খেয়ে গ্রিল করা চিকেন বা মাছ খেতে পারেন । আর খাবারের তালিকায় স্যালাড যেন অবশ্যই থাকে ৷ আর মিষ্টি জাতীয় খাবার যেমন কেক, পেস্ট্রি খাওয়া একেবারে এড়িয়ে চলুন ৷ ফ্রুট স্যালাড আর ফলের রস খেতে পারেন ।

৩। ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে রোজ নিয়ম করে ভিটামিন বি জাতীয় ওষুধ খেতে পারেন । নতুন পরিবেশে, নতুন লোকজন, নতুন দায়িত্ব নেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় এনার্জি জোগাবে এই ভিটামিন বি ৷

৪৷ শরীরে ক্যালসিয়ামের অভাবে মোটা হয়ে যাওয়ার প্রবনতা দেখা দেয় । তাই চা, কফি ও কোল্ড ড্রিঙ্কস খাওয়া কম করুন । আর রাতে শুতে যাবার আগে এক গ্লাস দুধ খাবার খাবেন, কারণ দুধ হল ক্যালসিয়ামের সব চাইতে বড় উৎস । অনেকের আবার দুধ পছন্দ নাও হচে পারে কিন্তু তবুও কষ্ট হলেও এই রুটিনটা মেনে চলুন ।

৫৷ নতুন পরিবারে গেলেও নিজের ব্যায়ামের রুটিনটা বদলাবেন না । যতই ব্যস্ত থাকুন না কেন দিনে অন্তত আধ ঘণ্টা শরীর চর্চা করুন । খুব অসুবিধা হলে নিজের ঘরের দরজা বন্ধ করে কিছু ফ্রি হ্যান্ড ব্যায়াম করতে পারেন ।

৬৷ জন্ম নিয়ন্ত্রণের জন্য মহিলারা পিলের ওপর ভরসা করবেন না ৷ বেছে নিন অন্য কোন পদ্ধতি । পিল আপনার শরীরে যেসব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখায় তার মধ্যে প্রধান হল অকারণে ওজন বৃদ্ধি ।
*ওজনসমস্যা* *স্লিমিংটিপস* *বিয়ে* *স্বাস্থ্যতথ্য* *সৌন্দর্যচর্চা* *বিয়েরপরে*

দীপ্তি: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 বড় কোনো উৎসবের আগে নিজেকে ফ্রেশ রাখার উপায় জানতে চাই l

উত্তর দাও (২ টি উত্তর আছে )

*সাজগোজ* *সৌন্দর্যচর্চা* *বিউটিটিপস*

বিডি আইডল: একটি বেশব্লগ লিখেছে

১. ঠোটেঁ কালো ছোপ পড়লে কাঁচা দুধে তুলো ভিজিয়ে ঠোটেঁ মুছবেন। এটি নিয়মিত করলে ঠোটেঁর কালো দাগ উঠে যাবে।

২. টমেটোর রস ও দুধ একসঙ্গ মিশিয়ে মুখে লাগালে রোদে জ্বলা ভাব কমে যাবে।

৩. হাড়িঁ-বাসন ধোয়ার পরে হাত খুব রুক্ষ হয়ে যায়। এজন্য বাসন মাজার পরে দুধে কয়েক ফোঁটা লেবু মিশিয়ে হাতে লাগান। এতে আপনার হাত মোলায়েম হবে।

৪. কনুইতে কালো ছোপ দূর করতে লেবুর খোসায় টিনি দিয়ে ভালো করে ঘষে নিন। এতে দাগ চলে গিয়ে কনুই নরম হবে।

৫. মুখের ব্রণ আপনার সুন্দর্য নষ্ট করে। এক্ষেত্রে রসুনের কোয়া ঘষে নিন ব্রণের উপর। ব্রণ তাড়াতাড়ি মিলিয়ে যাবে।

৬. লিগমেন্টেশন বা কালো দাগ থেকে মু্ক্তি পেতে আলু, লেবু ও শসার রস এক সঙ্গে মিশিয়ে তাতে আধ চা চামচ গ্লিসারিন মিশিয়ে যেখানে দাগ পড়েছে সেখানকার ত্বকে লাগান।

৭. চুল পড়া বন্ধ করতে মাথায় আমলা, শিকাকাই যুক্ত তেল লাগান।

৮. তৈলাক্ত ত্বকে ঘাম জমে মুখ কালো দেখায়। এক্ষেত্রে ওটমিল ও লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখবেন আধা ঘন্টা। আধা ঘন্টা পর ঠান্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে নিন।

৯. যাদের হাত খুব ঘামে তারা এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে লাউয়ের খোসা হাতে লাগিয়ে রাখুন কিছুক্ষণ।

১০. পায়ের গোড়ালি ফাটলে পেঁয়াজ বেটে প্রলেপ দিন এ জায়গায়।

১১. ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির জন্য প্রতিদিন ১৫ গ্রাম করে মেৌরি চিবিয়ে খান। খুব কম সময়ে রক্ত শুদ্ধ হয়ে ত্বক উজ্জ্বল হয়ে উঠবে।

১২. মুখে কোন র্যাশ বের হলে অড়হর ডাল বাটা পেষ্ট লাগান র্যাশের উপর। কিছুক্ষণ রেখে ধুয়ে ফেলুন। দাগ থাকবেনা।

১৩. পিঠের কালো ছোপ তুলতে ময়দা ও দুধ এক সঙ্গে মিশিয়ে পিঠে দশ মিনিট ধরে ঘষবেন। এটা নিয়মিত করলে পিঠের ছোপ উঠে যায়।

১৪. মুখের তাৎক্ষনিক লাবণ্য আনতে একটা ভেষজ রুপটান আছে। আধা চা চামুচ লেবুর রস, এক চা চামচ মধুর সঙ্গে মিশিয়ে মুখে ও গলায় লাগান। পনের মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটা আপনার মুখকে আদ্র রাখবে।

১৫. হাত পায়ের সৌন্দর্য্য অক্ষুন্ন রাখতে হাতে ও পায়ে আপেলের খোসা ঘষে নিন। এতে হাত ও পা অনেক বেশী ফর্সা দেখাবে।

১৬. মুখের বাদামী দাগ উঠাতে পাকা পেঁপে চটকে মুখে লাগান, পরে ধুয়ে ফেলুন।

১৭. নিঃশ্বাসের দুগন্ধ থেকে মুক্তি পেতে নিয়মিত দুই কোয়া করে কমলালেবু খান। দুই মাস পর এ সমস্য থাকবেনা।

১৮. সমপরিমান তুলসী পাতার রস ও লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে দুই বেলা নিয়মিত মুখে লাগান যেকোন দাগ মিলিয়ে যাবে।

১৯. অতিরক্ত শুষ্কতা থেকে মুক্তি পেতে মধু, দুধ ও বেসনের পেষ্ট মুখে লাগান নিয়মিত। এতে ত্বকের বলিরেখা ও দূর হয়ে যাবে।


 আপনাদের সুস্থ জীবনই আমাদের কাম্য।

-সংকলিত পোস্ট

*টিপস* *সৌন্দর্যচর্চা* *হেলথটিপস* *ত্বকেরযত্ন*
ছবি

আমানুল্লাহ সরকার: ফটো পোস্ট করেছে

ছবি

আমানুল্লাহ সরকার: ফটো পোস্ট করেছে

পিঠের ত্বকের যত্ন

শরীরের অন্যান্য অংশের মত পিঠও খুব গুরুত্বপূর্ণ। তাই পিঠের যত্ন নেওয়ার ক্ষেত্রে সচেতন হন।

*পিঠেরযত্ন* *রূপচর্চা* *সৌন্দর্যচর্চা* *ত্বকেরযত্ন* *সৌন্দর্য্যচর্চা*

মো:আ:মোতালিব: একটি বেশব্লগ লিখেছে

দৈনন্দিন ব্যস্ততায় পার্লারে যাওয়ার সময় কোথায়? তাই অনেক কর্মব্যস্ত নারীদেরই প্রশ্ন থাকে, কীভাবে অল্প সময়ে ঘরে বসেই ত্বকের পরিচর্যা করা যায়? তাছাড়া আজকাল পার্লারে ত্বকের পরিচর্যা করতে গেলেও খরচ হয় প্রচুর টাকা। তাই আপনাদের জন্য আছে সহজ কিছু সমাধান যা প্রতিদিনের অভ্যাসে পরিণত করতে পারলে উপকৃত হবেন।

১। গাজর গ্রেট করে তার সাথে দুধ মিলিয়ে নিন। তারপর মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন ত্বক অনেক নরম হবে।

২। ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে চাইলে বাইরের জিনিস বাদ দিন। ঘরে বসেই নিজে নিজের ফেসপ্যাক তৈরি করুন। কমলার খোসা ও লেবুর খোসা শুকিয়ে নিন, তারপর গুঁড়ো করে অল্প দুধ মিলিয়ে ত্বকে লাগান। ২০ মিনিট পরে ধুয়ে ফেলুন।

৩। ত্বক মসৃণ করার জন্য মুলতানি মাটি ও আমন্ড ওয়েল মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট পরে হালকা কুসুম গরম পানি দিবে ধুয়ে ফেলুন।

৪। দাগহীন নরম ত্বক পেতে মুলতানি মাটি, গোলাপ জল, চন্দন গুঁড়ো ও এক চিমটি হলুদ গুঁড়ো নিয়ে সব মিলিয়ে একটি ফেসপ্যাক তৈরি করুন। মুখে দিয়ে ফেসপ্যাকটি না শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন তারপর পানি দিয়ে ধোয়ার সময় ধীরে ধীরে কিছুক্ষণ ম্যাসেজ করে ভালমত মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৫। মাঝে মাঝে মধু ও লেবুর রস মিশিয়ে ত্বকে লাগান ২৫-৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন দেখবেন ত্বক উজ্জ্বল হবে।
*ত্বকেরযত্ন* *রূপচর্চা* *সৌন্দর্যচর্চা* *বিউটিটিপস* *সৌন্দর্য্যচর্চা*

সৌ র ভী: একটি টিপস পোস্ট করেছে

লিপস্টিক
http://www.prothom-alo.com/life-style/article/349279/%E0%A6%B2%E0%A6%BF%E0%A6%AA%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%9F%E0%A6%BF%E0%A6%95-%E0%A6%B8%E0%A6%BE%E0%A6%A6%E0%A6%BE%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%9F%E0%A6%BE%E0%A6%87-%E0%A6%9F%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A7%87%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A1%E0%A6%BF
গত বছর থেকে মোটামুটি এ বছরের মাঝামাঝি পর্যন্ত লিপস্টিকের চল ছিল লাল কমলা আর গোলাপির মতো উজ্জ্বল রংগুলো। আর এখন দেখা যায় বেরি শেডের লিপস্টিক। অর্থাৎ বেরি-জাতীয় ফলগুলোর রং যেমন বেগুনি গাঢ় লাল ইত্যাদি রঙের নানা শেড। কিন্তু সবকিছু ছাপিয়ে হঠাৎ করেই পশ্চিমা মডেল কাইলি জেনার ও কেনডেল... ...বিস্তারিত
*ফ্যাশনট্রেন্ড* *হালেরফ্যাশন* *রূপচর্চা* *সৌন্দর্যচর্চা* *ঠোটেরযত্ন* *সৌন্দর্য্যচর্চা*
৬২২ বার দেখা হয়েছে

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে


শীত এলেই  প্রকৃতিতে ঠান্ডা হাওয়া বিরাজ করে। যার প্রভাবে আপনার ত্বক রুক্ষ ও শুষ্ক হয়ে যায়। তাই এই শীতে চাই ত্বকের বাড়তি যত্ন। শীতে ত্বকের বাড়তি যত্ন নিতে কিছু টিপস আপনাকে সহায়তা করবে। আপনাদের সুবিধার্থে কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস নিচে তুলে ধরা হল।




শীতে ত্বকের বাড়তি যত্নঃ
ত্বকের যত্নে এক চা-চামচ জলপাই তেলের সঙ্গে একটা দেশি মুরগির ডিমের কুসুম ভালো করে ফেটিয়ে মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট পর হালকা গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন। এটা প্রাকৃতিকভাবে ত্বকের বাইরের আবরণকে সতেজ রাখবে। এটি ত্বকের জন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিনগুলোর জোগান দেবে। মিশ্রণটি ব্যবহারে আরও ভালো ফল পেতে চাইলে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস ও গোলাপজল মিশিয়ে নিতে পারেন। শুষ্ক ত্বকের জন্য এই প্যাক বেশি উপযুক্ত।

 একটি পাকা কলা আর এক কাপ দই মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এবার প্যাকটি মুখে লাগিয়ে আধা ঘণ্টা রেখে কুসুম গরম পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বকের আর্দ্রতা বজায় থাকবে। একটি লেবুর অর্ধেক অংশের রসের সঙ্গে এক চা-চামচ চিনি দিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে নিন। নিয়মিত এটি মুখে মাখিয়ে ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এতে দূর হবে মুখের খসখসে ভাব। ত্বকের কোষগুলোর বৃদ্ধিও স্বাভাবিক থাকবে এর ফলে।
*শীতেত্বকেরযত্ন* *ত্বকেরযত্ন* *টিপস* *বিউটিটিপস* *সৌন্দর্যচর্চা* *সৌন্দর্য্যচর্চা*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

খাবারে সালাদ হিসেবে শশা আমাদের কাছে খুবই জনপ্রিয়। তবে রূপচর্চায় শশার যে ব্যাপক ভূমিকা রয়েঠছ তা হয়তবা আমাদের অনেকেরই অজানা। যুগে যুগে রূপচর্চায় ব্যবহৃত শশা। শশার রয়েছে রূপচর্চায় দারুণ দক্ষতা। সঙ্গে আছে নানা পুষ্টিগুণ। সব ধরণের ত্বকেই এটি উপকারী ভূমিকা রাখতে সক্ষম।

আসুন জেনে নেয়া যাক রূপচর্চায় শশার ব্যবহারঃ

১.  তৈলাক্ত ত্বক নিয়ে নানা সমস্যায় ভোগেন অনেকে। তারা ফেসওয়াস দিয়ে মুখ ধোয়ার পর শশার রস, আপেল সাইডার ভিনেগার, টমেটোর রস এবং এলভেরা জেল একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগাতে পারেন। এতে সমস্যা দূর হবে।

২. একটি শশা ব্লেন্ডারে ভালো মতো ব্লেন্ড করে পেস্ট তৈরী করে ২ চামচ লেবুর রস এবং ১ চা চামচ মধু মিশিয়ে মুখে এবং ঘাড়ে লাগান। ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বকের রুক্ষভাব দূর করে চেহারা উজ্জ্বল করে।

৩. চোখের ডার্ক সার্কেল কমাতে শশা বেশ কার্যকর। শশা স্লাইস করে কেটে অথবা তুলার মধ্যে শশার রস লাগিয়ে তুলা চোখের উপর ২০ মিনিট রাখুন। নিয়মিত ব্যবহারে ডার্ক সার্কেল কমবে।

৪. ত্বকের রোদে পোড়া ভাব দূর করতে বাইরে থেকে এসে মুখ ধুয়ে শুধু শশার রস লাগান। এটি সান বার্ন দূর করবে।

৫.  বয়সের ছাপ লুকাতে ২ টেবিল চামচ টক দই, আধা চামচ মধু এবং লেবুর রসের সাথে ২ চামচ শশা বাটা এবং ২ টি ভিটামিন ই ক্যাপসুল ভালো মতো মেশান। এবার এটি মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বকের মরা কোষ, কালো ভাব দূর করে টানটান এবং সুন্দর রাখে।

৬. ব্রণের সমস্যা দূর করতে ২ চা চামচ শশার রসের সঙ্গে গোলাপ জল এবং মুলতানি মাটি মিশিয়ে প্যাক তৈরী করুন। এটি মুখে ভালো মতো লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে ব্রণ কমে যাবে।

তাহলে আজ থেকেই শুরু করে দিন শশার ব্যবহার আর নিজেকে করে তুলন দীপ্তিময় সুন্দর।
*রূপচর্চা* *সৌন্দর্যচর্চা* *ত্বকেরযত্ন* *সৌন্দর্য্যচর্চা*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★