স্যামসাং

স্যামসাং নিয়ে কি ভাবছো?

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

প্রযক্তি বাজারে এখন সবচেয়ে বেশি ভীড় স্মার্টফোনের শো রুমে। যুগের সাথে তালমিলেয়ে সবাই যে যার মত পছন্দের ব্র্যান্ডের সেরা স্মার্টফোনটি খুঁজে নিচ্ছে। প্রযুক্তির এই যুগে স্মার্টনেস ধরে রাখতে চাই নতুন নতুন সব স্মার্ট ফোন। অনেকই হয়তবা ঈদ উপলেক্ষ্যে কোন স্মার্টফোন কিনবেন সেটা ভাবছেন? আর যারা কিনবেন না তারা না কিনলেও, জেনে রাখতে দোষ কি?

স্মার্টফোনের চাহিদা আর ব্যবহার দিন দিন বেড়ে যাওয়ার করণেই দেশের সবেচেয়ে বড় অনলাইন শপিংমল আজকেরডিল নিয়ে এসেছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের বেস্ট স্মার্টফোনের এর সেরা সব কালেকশন। আইফোন, স্যামসাং, হুওয়াই, এইচটিসি, শাওমি, ওয়ালটন, অপ্পো, এলজিসহ সব ধরনের স্মার্টফোনের আপডেটেড কালেকশন রয়েছে আজকেরডিলে।

বন্ধুরা, আপনারা ০% সুদে আজকেরডিল থেকে কিস্তিতেও মোবাইল ফোন কিনে নিতে পারবেন। টাকা পরিশোধ করতে পারবেন ৩ অথবা ৬ মাসের কিস্তিতে। 

স্টাইলিশ ও আপডেটেড স্মার্টফোনের কালেকশনগুলো দেখতে আজেরডিলের স্মার্টফোনের এই পেজটিতে ক্লিক করুন।


চলুন বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় কিছু স্মার্টফোন ব্র্যান্ড সম্পর্কে জেনে নেই।

শাওমিঃ

 

প্রতিযোগিতার এই যুগে আকর্ষণীয় সব স্মার্টফোন ও মোবাইল এক্সেসরিজ তৈরী করে গ্রাহকদের মনযোগ ধরে রেখেছে শাওমি। বলে রাখা ভাল, শাওমি হচ্ছে একটি প্রাইভেট চীনা ইলেকট্রনিক্স কোম্পানি। এটি বিশ্বের ৪র্থ বৃহত্তম স্মার্টফোন নির্মাতা। শাওমি স্মার্টফোন, মোবাইল অ্যাপস এর পাশাপাশি ভালো মানের বিভিন্ন ধরনের মোবাইল এক্সেসরিজ তৈরী করে থাকে। বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিংমল আজকেরডিল ব্যাপক আকারে বিশ্বখ্যাত এই ব্রান্ডের স্মার্টফোন গুলি অনলাইনে বিক্রি করছে। কিনতে ক্লিক করুন

আইফোনঃ


আইফোন অ্যাপল ইনকর্পোরেটেড দ্বারা নির্মিত একটি আধুনিক ইন্টারনেট ও মাল্টিমিডিয়া সংযুক্ত স্মার্টফোন। অ্যাপলের সাবেক সিইও স্টিভ জবস এর প্রতিষ্ঠান এটি। বর্তমান বিশ্বে টেকসই স্মার্টফোন তৈরী করে গ্রাহকদের আস্থা তৈরী করেছে আইফোন। গত ২০০৭ সালে যাত্রা শরু করার পর ৯-১০ বছরের মধ্যেই পুরো বিশ্বের স্মার্টফোন প্রেমীদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে আইফোন। ক্রেতাপ্রিয় টেকসই আইফোন আপনারা ঘরে বসেই কিনতে পারবেন আজকেরডিল এর মাধ্যমে। কিনতে ক্লিক করুন

 

এইচটিসিঃ

 

বাংলাদেশের বাজারে তাইওয়ানভিত্তিক প্রযুক্তিপণ্য প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান এইচটিসি দারুন দারুন সব স্মার্ট ফোন নিয়ে এসেছে। শুরুতে এইচটিসির ছয়টি মডেলের স্মার্টফোন বাজারে ছাড়া হয়েছে। স্মার্টফোনগুলো হচ্ছে ওয়ান এম৮ আই, ডিজায়ার ৮২০এস, ডিজায়ার ৬২৬জি প্লাস, ডিজায়ার ৬২০ জি, ডিজায়ার ৫২৬জি প্লাস এবং ডিজায়ার ৩২৬জি। এদের ফোন গুলো বেশ ভাল এবং দামও তুলনামূলক ভাবে সাধ্যের মধ্যেই রয়েছে। আপনার বাজারে তাদের শোরুম এবং অনলাইন থেকেও এইচটিসি ফোন কিনতে পারবেন। অনলাইনে কিনতে এখানে ক্লিক করুন

অপপো:

স্মার্টফোনেরবাজার ক্রমাগত ওজনে হালকা ও পাতলা ফোন তৈরির প্রতিযোগিতা নতুন কিছু নয়। আরএক্ষেত্রে সবসময়ই এগিয়ে আছে চীনের মোবাইলফোন নির্মাতা কোম্পানিগুলো। আর সবচেয়ে পাতলা স্মার্টফোন তৈরি করে রীতিমতো তাক লাগিয়ে দিয়েছে আরেকচীনা কোম্পানি অপপো। অপপোর ফোনগুলি দেখতে যেমন স্মার্ট কাজেও সেরকম স্মার্ট। অপপোর ক্যামেরা খুবই ভাল। বর্তমানে অপপো ক্যামেরা ফোন হিসেবে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। বাংলাদেশের বাজারে তাদের বিভিন্ন শোরুম গুলোতে ফোন কিনতে পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়া অনলাইনেও এটি কিনতে পারবেন? 

হুয়াইঃ

টানা ৩ বছর ধরে বিশ্বের তৃতীয় বৃহৎ স্মার্টফোন প্রস্তুতকারী হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়া জনপ্রিয় মোবাইল ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াই ( Huawei Mobile ) বাংলাদেশের বাজারে বেশে কিছু নতুন মডেলের একটি স্মার্টফোন নিয়ে এসেছে। দীর্ঘ সময় চলার ক্ষমতাসম্পন্ন ব্যাটারিও রয়েছে সেটগুলোতে। মোবাইল সেট গুলোর পারফরমেন্স ও বেশ ভাল।

সিম্ফনিঃ

বাংলাদেশের বাজারে সর্বাধিক বিক্রিত মোবাইল ফোন সিম্ফনি ( symphony-mobile )। কমদামের সব দারুন দারুন স্মার্টফোন এনে ক্রেতা ও ব্যবহারকারীদের নজর কেড়েছে সিম্ফনি। বাজারে সাশ্রয়ী বাজেটের দেশীয় ব্র্যান্ডের এন্ড্রয়েডগুলোর মধ্যে সিম্ফনিই সবথেকে বেশি অপশন দিচ্ছে। এবং গত কয়েক মাসে সিম্ফনি এন্ড্রয়েডগুলোর দামে তেমন কোন পরিবর্তিত হয়নি। সারাদেশের স্যামসাং এর শোরুম গুলো থেকে স্টাইলিশ ও নজরকাড়া সব ফোন কিনতে পারবেন।

উপরের স্মার্টফোনগুলো ছাড়াও বর্তমানে দেশের বাজারে বেশি বিক্রি হচ্ছে আমাদের দেশীয়পন্য ওয়ালটন সহ আসুস, এলজি ও লাভারফোন। বিশ্বস্থতার সাথে সবধরনের স্মার্টফোন ঘরে বসে অনলাইনে কিনতে এখানে ক্লিক করুন

*স্মার্টফোন* *এইটিসি* *শাওমি* *স্যামসাং* *অপ্পো* *সিম্ফনি* *অ্যাপল* *স্মার্টশপিং*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

স্যামসাং এর আকর্ষণীয় ট্যাবইন্টারনেট ব্রাউজিং গেমিং এবং কমদামের কারনে ট্যাবের জনপ্রিয়তা তুঙ্গে। কম্পিউটারের বেশিরভাগ প্রয়োজনীয় কাজই আপনি ট্যাবের মাধ্যমে সেরে ফেলতে পারবেন। তাছাড়ও বহন সুবিধার পাশাপাশি নতুন এ মোবাইল ডিভাইসে প্রায় সব কাজ করা যায় বলে প্রযুক্তিপ্রেমীদের আকর্ষণ বাড়ছে। বর্তমানে টেক জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানগুলো ছাড়াও স্মার্টফোন প্রস্তুতকারক ও ছোটবড় প্রায় সব কোম্পানিই ট্যাব বানাচ্ছে। নিত্য নতুন ট্যাব আসছে বাজারে। আজকের আয়োজন সাশ্রয়ী দামের স্যামসাংয়ের জনপ্রিয় কিছু ট্যাব নিয়ে।

০১. SAMSUNG ট্যাব 6 (৭" কপি)

স্যামসাং ট্যাব রেপ্লিকা ট্যাব ৫ পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ৩৯৯০ টাকায়। OS জেলিবিন অপারেটিং সিস্টেমে চালিত এই অ্যান্ড্রয়েডটিতে রয়েছে CPU: 2 প্রসেসর। ট্যাবটি মেড ইন কোরিয়া। এতে রয়েছে ৭" ফুল HD ডিসপ্লে। এছাড়াও 1 জিবি র‌্যাম ইন্টার্নাল মেমোরি: ১৬ জিবি, 5 মেগা পিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা, 2 মেগা পিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা রয়েছে ট্যাবটিতে।

কিনতে ক্লিক করুন

০২. SAMSUNG TAB (১০" কপি) উইথ ফ্রি কীবোর্ড

বড় স্ক্রিনের এ ট্যাবটি স্যামসাং ১০ এর রেপ্লিকা। ডিসপ্লের দিকটিই এটির সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিক। স্লিমনেস এবং ওজনের দিক দিক থেকে এটি আইপ্যাড এয়ারকেও হারিয়ে দিয়েছে। পুরুত্ব মাত্র ৬.৬ মিলিমিটার ও ওজন ৪৬৫ গ্রাম, যা আইপ্যাড এয়ারের চেয়ে কম। তাই প্রথম দেখাতে একে চমৎকার প্রিমিয়াম ডিজাইনের ডিভাইস মনে হবে। এর ডিসপ্লের চারপাশের বেজেল খুবই সরু, তাই অসাবধানে মাঝে মাঝে না চাইতে ডিসপ্লে স্পর্শ হতে পারে। স্ক্রিনের আকার ১০ ইঞ্চি। টেক্সট, ইমেজসহ ভিডিও ঝকঝকে পরিস্কার আসবে ডিসপ্লেতে। দাম ৭০০০ টাকা মাত্র।

কিনতে ক্লিক করুন

০৩. SAMSUNG - কপি TAB ৭" (কীবোর্ড ফ্রি)

টেকজায়ান্ট স্যামসাং এর স্বল্পমূল্যে রয়েছে একটি দারুন ট্যাব যার নাম সামসাং গ্যালাক্সি ট্যাব ৭ । আজকের ডিলের এই ট্যাবের মূল্য নির্ধারন করা হয়েছে ৫৫৫০ টাকা। ৭ ইঞ্চি পর্দা বিশিষ্ট এই ট্যাবলেটটিতে আছে ২.৭ গিগাহার্য এর কোয়াডকোর প্রোসেসর, ১ জিবি র‍্যাম ১৬ জিবি ইন্টারনাল মেমরী, পিছনে ও সামনে উভয়পাশে থাকছে ৪ ও ২(ফ্রন্ট) মেগাপিক্সেল ক্যমেরা।

কিনতে ক্লিক করুন

০৪. SAMSUNG কপি ট্যাব 7" সাথে কভার ফ্রি

রেপ্লিকা প্রোডাক্ট OS অপারেটিং সিস্টেম Android 4.2.2 । এটিতে রয়েছে ৭" পর্দা। ক্যামেরাঃ 5 মেগাপিক্সেল (ব্যাক); 2 মেগাপিক্সেল (ফ্রন্ট)। রয়েছে RAM: 2 জিবি। ইন্টারনাল মেমোরি16 জিবি। দাম মাত্র ৫০০০ টাকা। 

কিনতে ক্লিক করুন

০৫. SAMSUNG (কপি) 10.5" TAB (ফ্রি কাভার)

ট্যাবতো নয় যেন ছোট খাট একটি টিভি। ১০.৫ ইঞ্চি পর্দার স্লিম একটি ডিভাইস এটি। অ্যান্ড্রয়েড কিটক্যাট অপারেটিং সিস্টেমে চালিত এই ট্যাবটিতে  5 মেগা পিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা, 2 মেগা পিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা রয়েছে। র‌্যাম রয়েছে ২ জিবি আর ইন্টারনাল মেমোরি ১৬ জিবি। দাম মাত্র ৬৬৯৯ টাকা। 

কিনতে ক্লিক করুন

কম দামে আকর্ষণীয় কিছু ট্যাব কিনতে ও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

*ট্যাব* *জনপ্রিয়ট্যাব* *স্যামসাং* *স্মার্টশপিং*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

স্যামসাংয়ের রেপ্লিকা ফোনস্যামসাং বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় মোবাইল ব্র্যান্ড। দামে এবং মানে এর তুলনা নেই। তবে যারা স্যামসাং ব্যবহার করতে চাচ্ছেন কিন্তু বাজেটের সাথে পেরে উঠছেন না তাদের জন্য বাজারে রয়েছে স্যামসাং এর বিভিন্ন মডেলের রেপ্লিকা ফোন। এগুলো ব্যবহারেও আপনি অরিজিন্যাল স্যামসাংয়ের স্বাদ পাবেন পাশাপাশি দামও লাগবে মাত্র অর্ধেক। বাজারে প্রচলিত অন্যান্য স্মার্টফোন গুলোর চাইতে এগুলো কোন অংশেই আপনাকে খারাপ এক্সপেরিয়েন্স দেবে না। চলুন ছবিতে কয়েকটি রেপ্লিকা ফোন দেখে নেই।

SAMSUNG (কপি ৫.৭") NOTE 5

SAMSUNG (কপি ৫.৭") NOTE 5 ফোনটি রেপ্লিকা। অপারেটিং সিষ্টেম অ্যান্ড্রয়েড ললিপপ। ডিসপ্লেঃ ৫.৭"। ক্যামেরাঃ 16 মেগাপিক্সেল (ব্যাক); 5 মেগাপিক্সেল (ফ্রন্ট) RAM: ৩ GB ইন্টারনাল মেমোরি (ROM): ৩২ GB। সাথে ১ বছরের সার্ভিস ওয়ারেন্টি থাকছে। দাম মাত্র-৬,১৫০ টাকা। 

 
SAMSUNG GALAXY S7 (কপি)
ফোনটি রেপ্লিকা। অপারেটিং সিষ্টেম অ্যান্ড্রয়েড মার্শম্যালো। ডিসপ্লেঃ ৫.১"। ক্যামেরাঃ 12 মেগাপিক্সেল (ব্যাক); 5 মেগাপিক্সেল (ফ্রন্ট) RAM: ৪ GB ইন্টারনাল মেমোরি (ROM): ৬৪ GB। সাথে ১ বছরের সার্ভিস ওয়ারেন্টি থাকছে। দাম মাত্র-৫,৭৫০ টাকা। 
 
SAMSUNG J7 (কপি)
ফোনটি রেপ্লিকা। অপারেটিং সিষ্টেম অ্যান্ড্রয়েড ললিপপ। ডিসপ্লেঃ ৫.৫"। ক্যামেরাঃ 13 মেগাপিক্সেল (ব্যাক); 5 মেগাপিক্সেল (ফ্রন্ট) RAM: 1.5 GB ইন্টারনাল মেমোরি (ROM): ৮ GB। সাথে ১ বছরের সার্ভিস ওয়ারেন্টি থাকছে। দাম মাত্র-৫,৯৯৯ টাকা। 
 
SAMSUNG S6 (কপি)
ফোনটি রেপ্লিকা। অপারেটিং সিষ্টেম অ্যান্ড্রয়েড ললিপপ। ডিসপ্লেঃ ৫.১"। ক্যামেরাঃ 12 মেগাপিক্সেল (ব্যাক); 5 মেগাপিক্সেল (ফ্রন্ট) RAM: 2 GB। সাথে ১ বছরের সার্ভিস ওয়ারেন্টি থাকছে। দাম মাত্র-৫,৬৫০ টাকা। 
 
SAMSUNG (কপি) GALAXY A9
ফোনটি রেপ্লিকা। অপারেটিং সিষ্টেম অ্যান্ড্রয়েড ওএস। ডিসপ্লেঃ ৬"। ক্যামেরাঃ 13 মেগাপিক্সেল (ব্যাক); 5 মেগাপিক্সেল (ফ্রন্ট) RAM: 2 GB। ইন্টারনাল মেমোরি (ROM): 32 GB।সাথে ১ বছরের সার্ভিস ওয়ারেন্টি থাকছে। দাম মাত্র-৯,৫৯৯ টাকা। 

বন্ধুরা, এই সবগুলো ফোনই আপনারা পেয়ে যাবেন দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিংমল আজকের ডিলের ওয়েবসাইটে। ঘরে বসেই এক ক্লিকে স্মার্টফোন কিনতে এখানে ক্লিক করুন

*স্যামসাং* *রেপ্লিকাফোন* *স্মার্টফোন* *স্মার্টশপিং*

শপাহলিক: একটি বেশব্লগ লিখেছে

সহজে বহনযোগ্য আর আকারে ছোট বলে অনেকের পছন্দের পণ্য এখন ট্যাবলেট কম্পিউটার। তবে জরুরি হল দেখেশুনে, চিনে কিনতে হবে ট্যাব। সারা বিশ্বে ডেস্কটপ, ল্যাপটপের চেয়ে বাড়তি সুবিধা আর স্মার্টফোনের চেয়ে ভালো পারফরমেন্স ট্যাবলেট ব্যবহারে তরুণদের আগ্রহী করে তুলছে। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ হচ্ছে, কাজের ধরন, প্রয়োজনীয়তা কথা মাথায় রেখেই ট্যাব কেনা উচিত। ট্যাব কেনার আগে কিছু হিসাব নিকাশ করে নিলে সহজেই আপনার পছন্দসই ট্যাব কিনতে পারবেন। 
 
দেশের বাজারে ট্যাবলেট কম্পিউটারের দাম
 
স্যামসাং : গ্যালাক্সি ট্যাব ৭.০ ১৬জিবি-৩৫,৫০০ টাকা, গ্যালাক্সি নোট ১০.১-৪৭,০০০ টাকা, গ্যালাক্সি ট্যাব টু ১০.১ ১৬জিবি-৩৭,০০০ টাকা, ট্যাব২৭.০-১৬জিবি ২৯,০০০ টাকা, ট্যাব ২৭.০ ৮জিবি-২৭,০০০ টাকা,ট্যাব ১০১ ওয়াইফাই ৩২,০০০ টাকা, গ্যালাক্সি ট্যাব টু জিটি-পি৩১০০-৩১,০০০ টাকা, গ্যালাক্সি ট্যাব টু জিটি৫১০০-৪২,০০০ টাকা।
 
অ্যাপল: আইপ্যাড মিনি ১৬জিবি-৪১,০০০ টাকা, ৩২জিবি-৫০,০০০ টাকা, ৬৪জিবি-৫৪,০০০ টাকা। আইপ্যাড-৪- ৮জিবি ৩৯,০০০ টাকা । আসুস: নেস্যার৭-২৩,৯০০ টাকা, ওয়াইফাই ৩জি-৩২,৯০০।
 
সনি: এসজিপিটি৩-৩৯,০০০ টাকা, এসজিপি২-৪৯,০০০ টাকা, ট্যাবলেট পি-এসজিপিটি২ ৪৫,০০০ টাকা। লেনোভো: এ২-১০৭এ-২৪,০০০ টাকা। ফুজিত্সু: ট্যাব এম৫৩২-৬০,৫০০ টাকা। তোশিবা: এটি-১০০-৪১,৫০০ টাকা।
 
ট্যাবলেট বাজারে এখনও আইপ্যাডকেই অনেকেই সেরা ট্যাব বলে মনে করেন। আর পরেই যার নামটি আসে সেটি হলো স্যামসাং l  বাজারে এখন উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমনির্ভর ট্যাবলেটও রয়েছে। এখনকার ট্যাব কেনার আগে বিবেচনা করবেন জেনে নিন l 
 
 
ট্যাব কেনার আগে
বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ হচ্ছে ট্যাব কেনার আগে এর অপারেটিং সিস্টেম, হার্ডওয়্যার সম্পর্কিত তথ্য ও ট্যাবলেটের সহজে ব্যবহার করার সুবিধার বিষয়টি খেয়াল রাখবেন। দামের বিষয়টি দেখেশুনে প্রয়োজনের সঙ্গে জুতসই হলে তবে ট্যাব কেনাই ভালো। ইন্টারনেট-সুবিধার এ যুগে ইন্টারনেট থেকে কাঙিক্ষত ট্যাবের তথ্য জেনে নিয়ে তবেই বাজার থেকে তা কিনতে পারেন। পুরোনো ট্যাব কেনার আগে সতর্ক হতে হবে সবচেয়ে বেশি।
 
ট্যাব কেনার আগে সবার আগে খোঁজ নিন এর প্রসেসর সম্পর্কে। দ্রুতগতির প্রসেসরযুক্ত ট্যাব পছন্দ করুন, যাতে আপনার পছন্দের অ্যাপ্লিকেশনগুলো স্বচ্ছন্দে চালাতে পারেন। প্রসেসরের পাশাপাশি বেশি ক্ষমতার র্যাম আছে কি না, তা খেয়াল করে দেখতে পারেন। দেখে নিন তথ্য ধারণের জন্য ট্যাবে কতটা জায়গা রয়েছে বা অতিরিক্ত কতটা মেমোরি সমর্থন করবে। খেয়াল করুন ডিসপ্লে, রেজুলেশন। এ ছাড়াও ক্যামেরা, সেন্সর, ব্লু-টুথ, ইউএসবি, জিপিইউ ক্ষমতা দেখে নিন। কেনার সময় চার্জ থাকে কতটা এবং সাউন্ড কেমন সেটা যাচাই করুন। ট্যাব কেনার সময় সার্ভিস ও ওয়ারেন্টির বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে নিন।
 
ট্যাব কেনার আগে বিবেচনা করুন আপনার ট্যাব মূলত কোন কাজে ব্যবহার করবেন তা। ট্যাব যদিও জনপ্রিয় হচ্ছে কিন্তু এখনও ল্যাপটপ বা স্মার্টফোনের যুত্সই বিকল্প নয়। আপনার কাজের উপযোগী হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড ও উইন্ডোজ ট্যাব বেছে নিতে পারেন। প্রযুক্তি বিশ্লেষকেদের মতে, সারা বিশ্বে ডেস্কটপ, ল্যাপটপের চেয়ে বাড়তি সুবিধা আর স্মার্টফোনের চেয়ে ভালো পারফরমেন্স ট্যাবলেট ব্যবহারে তরুণদের আগ্রহী করে তুলছে। বাজারে অ্যাপল, স্যামসাং, সনি, আসুস, ফুজিত্সুসহ নানা চাইনিজ ব্র্যান্ডের ট্যাবলেট কিনতে পারবেন। তবে স্যামসাংয়ের চাহিদাই শীর্ষে সর্বদা l 
 
ট্যাবলেট কেনার আগে পরামর্শ চেয়ে সচরাচর যে প্রশ্নটি করা হয় তা হলো, ‘কোন ট্যাব কিনব?’ বাজারে নানা সুবিধা নিয়ে থাকা ট্যাবলেট কেনার ক্ষেত্রে এ প্রশ্নটি ওঠাই স্বাভাবিক। ট্যাব কেনার প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট সিনেটের বিশ্লেষকেদের পরামর্শ হচ্ছে, কাজের ধরন, প্রয়োজনীয়তার কথা মাথায় রেখেই ট্যাব কেনা উচিত।
 
অপারেটিং সিস্টেম
ট্যাবলেট কেনার আগে ঠিক করুন আপনি কোন অপারেটিং সিস্টেমের সঙ্গে বেশি পরিচিত এবং কাজের জন্য বেশি স্বচ্ছন্দ্যবোধ করেন।
 
ওয়াই-ফাই
ট্যাব কেনার আগে ডাটা কানেকশন কেমন হবে তা বিবেচনা করে তবে কিনবেন। শুধু ওয়াই-ফাই হলে ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের বাইরে তা আপনি ব্যবহার করতে পারবেন না। আপনার ট্যাব সেলুলার নেটওয়ার্ক সমর্থন করে কিনা তা দেখে নিন। ওয়াই-ফাই ও সেলুলার দুটি নেটওয়ার্ক সুবিধা থাকলে ভালো।
 
প্রসেসর ও র‌্যাম
ট্যাব কেনার আগে দেখে নিন ট্যাবে কোন প্রসেসর রয়েছে। প্রসেসর কোর যতো বেশি হবে, ট্যাবলেট তত দ্রুত কাজ করতে সক্ষম। ট্যাবে সাধারণত ডুয়াল কোরের প্রসেসর হলে তা ভালো হবে। ট্যাবলেট কেনার সময় বেশি র্যাম আছে এমন ট্যাব কিনুন। র্যাম যতো বেশি হবে, ট্যাবলেট বা মোবাইল বা কম্পিউটারে অ্যাপস তত দ্রুত চলবে।
 
ক্যামেরা
ট্যাব কেনার সময় এর ক্যামেরা বিষয়ে খেয়াল করুন। যদি ভিডিও চ্যাট করার প্রয়োজন থাকে তবে সামনে ও পেছনে ক্যামেরা সুবিধা দেখে নিন। ক্যামেরায় মেগাপিক্সেল বেশি হলে ছবির মান ভালো হবে।
 
ব্যাটারির আয়ু
ট্যাব কেনার আগে ব্যাটারিতে কতোক্ষণ চার্জ থাকে সে বিষয়টি জেনে নিন। আপনার ট্যাবের ব্যাটারির আয়ু বেশি হলে তা আপনার কাজে সুবিধা দেবে।
 
তথ্য ধারণক্ষমতা
ট্যাবে ইন্টারনাল মেমোরি বেশি থাকলে তাতে আপনি বেশি তথ্য রাখতে পারবেন। গান, ভিডিও, ছবি বা অ্যাপস ডাউনলোড করে রাখতে চাইলে যে ট্যাবে বেশি ইন্টারনাল মেমোরি আছে তা কেনা উচিত্ হবে। 
 
স্ক্রিন বা পর্দা
ট্যাব কেনার আগে এর স্ক্রিনের রেজুলেশন দেখ দিন। ঝকঝকে ছবি দেখতে চাইলে এইচডি পর্দার ট্যাব ভালো হবে। এ ছাড়া টাচ করার পর রেন্সপন্স হতে দেরি হচ্ছে কিনা তা যাচাই করে ট্যাব কিনুন।
 
সেরা ট্যাবলেট
বাজার বিশ্লেষকেদের চোখে বর্তমানে বাজারে সেরা ট্যাবলেটের মধ্যে রয়েছে আইপ্যাড, স্যামসাং গ্যালাক্সি সিরিজের ট্যাব,  আসুস. ফুজিত্সু, লেনোভো ও তোশিবার ট্যাব।
 
ট্যাবলেট কেনার পাঁচ পরামর্শ
 
১. পুরোনো বা ব্যবহূত ট্যাব কেনার আগে যাচাই করে নিন
২. নকশা ও ডিসপ্লে প্রয়োজন অনুসারে কিনুন
৩. উন্নত প্রসেসর ও সর্বশেষ সংস্করণের অপারেটিং সিস্টেমনির্ভর ট্যাব কিনুন
৪. ডিসপ্লে রেজুলেশন ও ক্যামেরার মান যাচাই করে নিন
৫. ব্যবহার-বান্ধব কিনা ও ট্যাবের যাবতীয় তথ্য ইন্টারনেট থেকে যাচাই করে নিন।
 
কোথায় পাবেন: দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মল আজকের ডিলে রয়েছে ট্যাবের বিশাল কালেকশন l দেখতে এবং কিনতে একবার ঢু মেরে আসতে পারেন এই লিঙ্কে l
*ট্যাব* *স্যামসাং*

খুশি: একটি বেশব্লগ লিখেছে

স্মার্টফোন ও ট্যাবলেটের জন্য ২৫৬ জিবি মেমরি চিপ তৈরি করছে স্যামসং। আগের ইউনিভার্সাল ফ্ল্যাশ স্টোরেজ (ইউএফএস) থেকে এগুলি দ্বিগুণ গতির বলে জানিয়েছে সংস্থা। যেহেতু ইতিমধ্যেই স্যামসং গ্যালাক্সি এস৭ ও এস৭ এজ বাজারে এসেছে, তাই ধারণা করা হচ্ছে আগামী সেপ্টেম্বরে গ্যালাক্সি নোট ৬ ফ্যাবলেট প্রকাশ্যে আসবে। আর সেই সময়ে ২৫৬ জিবির এই মেমরি চিপটিও প্রকাশ্যে আসবে। 

যদিও স্যামসং গ্যালাক্সি নোট ৬ ২৫৬ জিবি বিল্ট-ইন মেমরির প্রথম স্মার্টফোন নয়, আসুস জেনফোন ২ ডিলাক্স ইতিমধ্যে একই সাইজের মেমরি নিয়ে বাজারে এসেছে। স্যামসং জানিয়েছে, ইউএফএস ২.০ স্ট্যান্ডার্ডের এই মেমরি চিপ ৮৫০/২৫০এমবিপিএস গতিতে ডেটা পড়তে ও লিখতে পারবে। এছাড়া ইউএসবি ৩.০ সংযোগের মাধ্যমে পিসিতে যুক্ত করা হলে এটি উচ্চগতির ডেটা টান্সফার করবে। একই সঙ্গে আল্ট্রা এইচডি ভিডিও চালাতে সক্ষম হবে।
*মেমোরি* *মেমোরিচিপ* *স্যামংসাং* *টেকনিউজ*

আলোহীন ল্যাম্পপোস্ট: একটি বেশব্লগ লিখেছে

স্যামসাংয়ের স্মার্ট জুতা........

যুগ বদলে যাচ্ছে খুব দ্রুত। সবকিছুতেই স্মার্টনেসের গুরুত্ব বাড়ছে। টেবিলের পিসি স্মার্ট হয়ে চলে এসে হাতের তালুতে। বার বা ফিচার ফোন ছেড়ে স্মার্টফোনে জমেছে নতুন প্রজন্ম। হাতের ঘড়িও হয়েছে স্মার্ট। চোখের চশমাতেও স্মার্টগ্লাস। পরিধেয় বস্তু যদি স্মার্ট হতে পারে পায়ের জুতোটা কেনো স্মার্ট হবে না? দক্ষিণ কোরিয়ার স্বনামধন্য প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্যামসাংয়ের ল্যাবে সল্টেড ভেঞ্চার নামের একটি নতুন উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান নতুন একটি জুতো বানিয়েছে। নতুন এই জুতোর নাম দিয়েছে ‘লফিট’।

এই জুতো আপনার পা কে শুধু ধুলোবালি থেকে রক্ষা আর হাঁটা চলা অথবা দৌড়াতেই সাহায্য করবে না। এই জুতার আছে বহুবিধ ব্যবহার। এতে রয়েছে সেন্সর যা আপনার বডি ব্যালেন্স এবং অঙ্গ বিন্যাস শনাক্ত করতে পারবে। শনাক্ত করার পর আপনার ফিটনেস বাড়ানোর জন্য আপনাকে উপদেশও দিবে।

দুইটি মডেলে স্মার্ট জুতা তৈরি করা হয়েছে। একটি দেখতে রানিং সুজ এর মত। এই জুতা মূলত হাঁটাচলা করার জন্য উপযোগী।

অন্যটি হল অক্সফোর্ড সুজ যা গলফ খেলার জন্য উপযোগী। তবে উভয় জুতা নির্দিষ্ট কাজ ছাড়া অন্য সময় ব্যবহার করা যাবে না এমনটা নয়। দুটি মডেলেই সেন্সর রয়েছে। একটি অ্যানড্রয়েড অ্যাপসের সাহায্যে জুতার তথ্য গুলো মোবাইল ফোনে জানা যাবে। এটি আপনাকে তথ্য দেবে তখন যখন আপনার জুতার কেন্দ্রের ভর অন্যান্য যেকোনো অঞ্চলের চেয়ে বেশি হবে। যখন আপনি জুতার উপর ভর দেবেন তখন জুতার সেন্সর কার্যকর হবে।

লফিট অ্যাপটি আপনাকে জানিয়ে দেবে কিভাবে দাঁড়ানো উচিত আর কিভাবে হাঁটা চলা করা উচিত।

নতুন এই স্মার্ট জুতার রানিং মডেলের মূল্য ১৯৯ ডলার এবং অক্সফোর্ড সুজের দাম ২৬০ ডলার। ভ্যাট ও ট্যাক্স ছাড়া বাংলাদেশি টাকায় যথাক্রমে ১৫ হাজার ৯০০ টাকা এবং ২০ হাজার ৮০০ টাকা।


*বেশটেক* *স্যামসাং* *টেক* *জুতা* *স্মার্ট* *বেশম্ভব*

*স্যামসাং* *টেক* *জুতা* *স্মার্ট* *বেশম্ভব*

ঈমাদ: একটি নতুন প্রশ্ন করেছে

 Samsung Galaxy Ace এ airtel sim দিয়ে নেট চালু করতে কি করতে পারি ?

উত্তর দাও (২ টি উত্তর আছে )

*ইন্টারনেট* *স্যামসাং* *মোবাইল*
ছবি

টেক টনিক: ফটো পোস্ট করেছে

বিশ্বের সবচেয়ে পাতলা ট্যাব নিয়ে আসছে স্যামসাং (খুশীতেআউলা)(ইয়েয়ে)(কিমজা)

স্যামসাং কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে আগস্টেই বাজারে আসবে পাঁচ দশমিক ছয় মিলিমিটার পুরু কয়েকটি মডেলের S2 ট্যাব। প্রতিষ্ঠানটির দাবি এ ট্যাবগুলোই হবে বিশ্বের সবচেয়ে পাতলা ট্যাব। ফ্ল্যাগশিপ ট্যাবলেট হিসেবে সম্প্রতি গ্যালাক্সি ট্যাব এস টুর ঘোষণা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি (আতশবাজি)(আতশবাজি)(আতশবাজি) বর্তমানে বাজারের সবচেয়ে পাতলা ট্যাবলেট অ্যাপলের আইপ্যাড এয়ার টু, সনির এক্সপেরিয়া জেড ফোর ও ডেলের ভেনু এইট ৭০০০। এই তিনটি ট্যাবের পুরু ছয় দশমিক এক মিলিমিটার। তবে এখনো দাম ঠিক হয়নি স্যামসাংয়ের এসটু ট্যাবের। (খুশী২)

*ট্যাব* *স্যামসাং* *পাতলাট্যাব* *চটখবর* *নতুনপণ্য* *প্রযুক্তিপণ্য* *গ্যাজেট*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

স্যামসাং এর অভিনব দুটি হ্যান্ডসেটে আকর্ষণীয় মূল্য ছাড়ের ঘোষণা দিয়েছে স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ।  হ্যান্ডসেট দুটি হলো গ্যালাক্সি জে১ এবং গ্যালাক্সি কোর প্রাইম।

নতুন মূল্যের আওতায় গ্রাহকরা এখন স্যামসাং গ্যালাক্সি জে১ কিনতে পারবেন মাত্র ১০,৯৯০ টাকায় (পূর্বমূল্য ১১,৯০০ টাকা) এবং গ্যালাক্সি কোর প্রাইম কিনতে পারবেন মাত্র ১২,৯৯০ টাকায় (পূর্বমূল্য ১৩,৯০০ টাকা)।

আকর্ষণীয় ডিজাইন, শক্তিশালী ফিচার এবং দীর্ঘমেয়াদী ব্যাটারির গ্যালাক্সি জে১ এবং গ্যালাক্সি কোর প্রাইম এর সাহায্যে গ্রাহকরা শুধুমাত্র প্রিয়জনদের সাথে সর্বক্ষণ যোগাযোগই রাখতে পারবেন না, ইন্টারেনেটের জগতেও থাকবে তাদের অবাধ বিচরণ।

ফোন দুটির নতুন মূল্য সম্পর্কে স্যামসাং বাংলাদেশ এর হেড অব মোবাইল হাসান মেহদী বলেন, আমাদের চারপাশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রতিনিয়ত বেড়ে চলেছে, তাদের জন্য আমরা স্মার্টফোনের ব্যবহার আরো উপভোগ্য করে তুলতে চাই। আমরা ক্রেতাদের মাঝে আরো সাশ্রয়ী মূল্যে এই দুটো স্মার্টফোন আনতে পেরে অত্যন্ত আনন্দিত।

থ্রিজি ব্যবহারযোগ্য শক্তিশালী স্মার্টফোন দুটি ইতিমধ্যেই স্মার্টফোন প্রিয়দের মধ্যে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। দুটো স্মার্টফোনেই রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশসহ ৫ মেগা পিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা এবং ২ মেগা-পিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। ক্যামেরায় ছবি তোলার জন্য রয়েছে সেলফি সহ আরো নানা রকম আকর্ষনীয় মোড। (সংকলিত)
*মোবাইল* *মূল্যছাড়* *স্যামসাং*

আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে

বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ নিয়ে এসেছে ‘টুইন উইন’ অফার। এর আওতায় কয়েকটি নির্দিষ্ট মডেলের হ্যান্ডসেট কিনলেই বিনামূল্যে আরেকটি হ্যান্ডসেট জিতে নেওয়ার সুযোগ পাবেন ক্রেতারা।

এক বিজ্ঞপ্তিতে স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ জানিয়েছে, টুইন উইন অফারের আওতায় থাকছে গ্যালাক্সি এস ডুয়োস ৩, গ্যালাক্সি জে১, গ্যালাক্সি কোর ২, গ্যালাক্সি কোর প্রাইম এবং গ্যালাক্সি গ্র্যান্ড প্রাইম এই পাঁচটি হ্যান্ডসেট।

এই অফার সম্পর্কে স্যামসাং বাংলাদেশ এর হেড অফ মোবাইল হাসান মেহদী বলেন, “গ্রাহকদের আমরা বাংলা নববর্ষ উদযাপনের আরো একটি সুযোগ করে দিচ্ছি- তারা একটি হ্যান্ডসেট কিনে দুটো হ্যান্ডসেট নিয়ে বাসায় ফেরার সুযোগ পাচ্ছেন।”

এছাড়াও প্রতিটি হ্যান্ডসেট কিনলে পাচ্ছেন সর্বচ্চ ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত ক্যাশব্যাক জেতার সুযোগ। পুরো এপ্রিল মাস জুড়ে চালু থাকবে অফারটি।
তথ্যসূত্রঃ ইন্টারনেট
*স্যামসাং* *মোবাইল* *স্মার্টফোন* *অফার* *নববর্ষ*

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত

QA

★ ঘুরে আসুন প্রশ্নোত্তরের দুনিয়ায় ★