আমানুল্লাহ সরকার: একটি বেশব্লগ লিখেছে


সিভি বা জীবনবৃত্তান্ত তৈরী করতে গিয়ে অনেকেই বিড়ম্বনায় পড়েন। সারাদিন পরিশ্রম করে একটি সিভি তৈরী করেও কাজের কাজটি হয় না। কোনো চাকরির জন্য সিভি তৈরি করতে আপনি যত পরিশ্রমই করুন না কেন, চাকরিদাতা এটি দেখতে কয়েক সেকেন্ড সময় ব্যয় করবে। যে কারণে সিভিতে লেখা প্রত্যেকটি অক্ষর হতে হবে প্রয়োজনীয় ও গুরুত্বপূর্ণ। এ ছাড়া লক্ষ রাখতে হবে এটা যেন ঠিকভাবে আপনাকে উপস্থাপন করে।

নতুন কোনো চাকরির আবেদনের সময় সিভি তৈরীতে যে বিষয়গুলো খুবই জরুরী তা জেনে নিনঃ
 ১. সিভির উপরের দিকে ছোট করে আপনার আবেদনের পদটি লিখে দিন।

২. চাকরির সঙ্গে সম্পর্কিত আপনার যেসব অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা আছে, সেগুলো ভালোভাবে বর্ণনা করুন। অপ্রয়োজনীয় অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা পরিহার করুন।

৩. প্রতিটি অভিজ্ঞতার পাশে আপনার অর্জন, কাজ ও দায়িত্ব, কর্তব্য ইত্যাদি কয়েকটি বুলেট ব্যবহার করে তুলে ধরুন।

৪. একটি মার্জিত ফন্ট ব্যবহার করে সাইজ ও স্টাইলের সাদৃশ্য রেখে মার্জিন, ইনডেন্টেশন ও লাইন স্পেস ঠিক রেখে সম্পূর্ণ সিভিটি তৈরি করুন।

৫. সম্পূর্ণ সিভিতে ১০০ ভাগ বানান সঠিক হওয়া আবশ্যক। আমি, আমার ইত্যাদি শব্দ বাদ দিন।

৬. অ্যাক্রোনিম, নির্দিষ্ট বিষয়ভিত্তিক শব্দ ও অপরিচিত শব্দ ব্যবহার করলে সেগুলোর অর্থ দিয়ে দেবেন এবং তা স্মরণ রাখবেন।
তবে আর দেরী কেন তৈরী করে ফেলুন আপনার সুন্দর ও কার্যকরী একটি সিভি। যা আপনাকে চাররি পেতে সহায়তা করবে।
*জীবনবৃত্তান্ত* *সিভিরাইটিং* *সিভি* *ক্যারিয়ার* *ক্যারিয়ারটিপস*

পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?


অথবা,

এক্ষনি একাউন্ট তৈরী কর

বেশতো সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য বেশতো কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার।

...বিস্তারিত